জবিতে কনসার্ট ফর সিলেট  বৃহস্পতিবার 



জবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease
সিলেটের বিভাগীয় জেলাগুলোতে ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের সহযোগিতায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে 'কনসার্ট ফর সিলেট' করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। 

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের আয়োজনে আগামী বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্ত চত্বরে কনসার্ট অনুষ্ঠিত হবে। এতে পরিবেশনায় থাকবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহ। 

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক সাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, সিলেট বিভাগীয় জেলাগুলোতে বন্যায় মানবিক বিপর্যয় নেমে এসেছে। আমরা মানবিক সহযোগিতার অংশ হিসাবে এই কনসার্টের মাধ্যমে সংগ্রহকৃত অর্থ বন্যার্ত মানুষের জন্য পাঠাতে চাই। সেই ভাবনা থেকেই আমাদের এই আয়োজন। 

প্রসঙ্গত, সিলেট ও সুনামগঞ্জের বর্ষণ-পাহাড়ি ঢলে বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বেড়ে ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। বিভাগের প্রধান নদী সুরমা, কুশিয়ারা বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সিলেটের ৬টি ও সুনামগঞ্জের ৬টি মোট ১২টি উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। যার ফলে সাধারণ মানুষ চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
 

নতুন সিংহ-বিনোদ বিহারীর নামে নতুন দুই বৃত্তি ইডিইউতে



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
নতুন সিংহ-বিনোদ বিহারীর নামে নতুন দুই বৃত্তি ইডিইউতে

নতুন সিংহ-বিনোদ বিহারীর নামে নতুন দুই বৃত্তি ইডিইউতে

  • Font increase
  • Font Decrease

মুক্তিযুদ্ধে শহিদ নূতন চন্দ্র সিংহ ও বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম বিপ্লবী বিনোদ বিহারী চৌধুরীকে শ্রদ্ধা জানিয়ে নতুন দুটো বৃত্তি চালু করেছে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ)। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো শুরু হওয়া ডেটা এনালিটিক্স এন্ড ডিজাইন থিংকিং ফর বিজনেস এবং আধুনিকতম কারিকুলামে সাজানো এমএ ইন ইংলিশে ভর্তি হলেই শিক্ষার্থীরা এ দুই বৃত্তির অধীনে টিউশন ফি’তে ৭০ শতাংশ ছাড়। বাংলাদেশের অন্যতম দুই কৃতি ব্যক্তিত্বকে সম্মান জানিয়ে গৃহিত এ উদ্যোগের জন্য ইডিইউকে স্বাগত জানিয়েছেন দেশের বিশিষ্টজনরা।

বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এড. রাণা দাশগুপ্ত তার অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, নিখাদ দেশপ্রেম ও মানবপ্রেমের সংকটের এ ক্রান্তিকালে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ ঐতিহাসিক চট্টগ্রাম যুব বিদ্রোহের মহানায়ক মাস্টারদা সূর্য সেনের সহযোদ্ধা বিনোদ বিহারী চৌধুরী এবং নিঃস্বার্থ দেশপ্রেমিক সমাজসেবী শহিদ নূতন চন্দ্র সিংহের অমর স্মৃতিকে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে চিরজাগরুক রাখার জন্য যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে তা শুধু প্রশংসনীয় নয়, অনন্যও বটে। কর্তৃপক্ষের এ উদ্যোগের সার্বিক সফলতা আন্তরিকতার সাথে কামনা করছি।

ইডিইউর এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দ বলেন, বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে আসছে ইডিইউ। সম্প্রতি দেশের কৃতি ব্যক্তিত্বদের শ্রদ্ধা জানিয়ে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেওয়ার যে উদ্যোগ তারা নিয়েছে, তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা আমাদের পূর্বসুরীদের অবদান সম্পর্কে জানতে পারবে এবং ভালো কাজের অনুপ্রেরণা পাবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, বাংলার সুদীর্ঘ ইতিহাসের নানা সময়ে সমাজ ও দেশের প্রয়োজনে এগিয়ে এসেছেন, নেতৃত্বের ভার তুলে নিয়েছেন বিভিন্ন গুণী ব্যক্তিত্বরা। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে তাদের অনেকেরই কৃতিত্বের কথা যথার্থভাবে তুলে ধরা প্রয়োজন। দেশ-জাতির প্রতি দায়িত্ববোধ থেকে ইডিইউ এমন কৃতি ব্যক্তিত্বদের নামে বিশেষ বৃত্তি এনেছে। কেননা, আমরা মনে করি, প্রকৃত গুণীকে তার প্রাপ্য সম্মান না জানালে পরবর্তী প্রজন্মে এমন ব্যক্তিত্ব গড়ে ওঠার ধারাবাহিতা ও অনুপ্রেরণা তৈরি হয় না।

ডেটা অ্যানালিটিক্স এন্ড ডিজাইন থিংকিং ফর বিজনেস শীর্ষক বাংলাদেশের একমাত্র মাস্টার্স প্রোগ্রামে ভর্তি হলেই শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে ‘নূতন চন্দ্র সিংহ স্কলারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ এর অধীনে টিউশন ফি’তে ৭০ শতাংশ ছাড়। মুক্তিযুদ্ধে শহিদ নূতন চন্দ্র সিংহ চট্টগ্রামের রাউজানে সাধারণের সাহায্যার্থে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন দাতব্য চিকিৎসালয়, স্কুল-কলেজ, যার সুবিধা এখনো পাচ্ছে জনসাধারণ। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে রেখেছিলেন অতুলনীয় ও সাহসী ভূমিকা। তার এ অবদান বর্তমান প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে এবং শ্রদ্ধা জ্ঞাপনে এ বৃত্তির উদ্যোগ নিয়েছে ইডিইউ কর্তৃপক্ষ।

বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা মাস্টারদা সূর্য সেনের বিপ্লবী বাহিনীর সদস্য হিসেবে কাজ করেছেন বিনোদ বিহারী চৌধুরী। চট্টগ্রামের জালালাবাদ যুদ্ধে বৃটিশ সৈনিকদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অংশ নিয়েছিলেন বিনোদ বিহারী। এছাড়াও আজীবন, এমনকি বৃদ্ধ বয়সেও নানান রাজনৈতিক সংকটে, আন্দোলনে অংশ নিয়ে তরুণদের অনুপ্রাণিত করেছেন তিনি। তার সম্মানার্থে চালু হওয়া ‘বিপ্লবী বিনোদ বিহারী চৌধুরী স্কলারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ এর অধীনে এমএ ইন ইংলিশে ভর্তি হওয়া নতুন শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে টিউশন ফি’তে ৭০ শতাংশ ছাড়।

এ মহতি উদ্যোাগের জন্য সাঈদ আল নোমান ও ইডিইউ পরিবারের প্রতি ধন্যবাদ জানিয়েছেন শহিদ নূতন চন্দ্র সিংহের দৌহিত্র রাজীব সিংহ। তিনি বলেন, ‘পারিবারিকভাবে আমরা নূতন চন্দ্র সিংহের স্মৃতি রক্ষার্থে নানা উদ্যোগ নিলেও, কোন প্রতিষ্ঠান এবারই প্রথম এমন উদ্যোগ। জাতির কৃতি ব্যক্তিদের আদর্শকে পরবর্তী প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার এ অনন্য প্রচেষ্টার সার্থকতা কামনা করি। সাঈদ আল নোমানের সুনেতৃত্বে পরিচালিত ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি অন্যদের জন্য এক অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ সিকান্দার খান বলেন, মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের সমন্বয়ে গঠিত ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়কে পরিচালনা করছেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায়। তারা দেশপ্রেম ও স্বদেশের মঙ্গল কামনায় নানা রকম সুযোগ-সুবিধায় সমৃদ্ধ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়কে। ইডিইউ কর্তৃপক্ষের বাংলার ইতিহাসের কৃতি ব্যক্তিত্বদের সম্মানিত করার উদ্যোগ এবারই প্রথম নয়। এর আগে বাংলাদেশে প্রথমবারের শুরু হওয়া মাস্টার অব পাবলিক পলিসি অ্যান্ড লিডারশিপ প্রোগ্রামের শিক্ষার্থীদের জন্য ‘শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হক স্কলারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ দিয়েছে ইডিইউ।

;

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটে বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্যে প্রথম যারা



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের অধীনে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। যেখানে ভর্তির যোগ্য বিবেচিত হয়েছেন ৮ দশমিক ৫৮ শতাংশ পরীক্ষার্থী এবং অকৃতকার্য হয়েছে ৯১ দশমিক ৪২ শতাংশ। ভর্তির যোগ্য বিবেচিত ৬ হাজার ১১১ জনের মধ্যে শেষ পর্যন্ত এক হাজার ৩৩৬ জন মেধাক্রম অনুযায়ী সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের বিভিন্ন বিভাগে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন।

প্রকাশিত ফলে ঢাবির 'ঘ' ইউনিটের বিজ্ঞান শাখায় প্রথম হয়েছেন অনন্য গাঙ্গুলী। তিনি সরকারি কে এম এইচ কলেজের শিক্ষার্থী। লিখিত ও এম.সি.কিউতে তিনি সর্বমোট ৮৩.৯৫ নম্বর পেয়েছেন। এর মধ্যে এম.সি.কিউতে পেয়েছেন ৫০.২৫ এবং লিখিততে পেয়েছেন ৩৩.৭০। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নাম্বার ১০৩.৯৫। ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকার ইডেন সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন তিনি।

মানবিক বিভাগে প্রথম হয়েছেন তানজিদ হাসান আকাশ। তিনি নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী। লিখিত ও এম.সি.কিউতে তিনি সর্বমোট ৮৪ নম্বর পেয়েছেন। এর মধ্যে এম.সি.কিউতে পেয়েছেন ৫০.৫০ এবং লিখিততে পেয়েছেন ৩৩.৫০। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নাম্বার ১০৩.৪৪। ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন তিনি।

বাণিজ্য শাখায় ১ম হয়েছেন আয়েশা জাহান সামিয়া। তিনিও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন। তিনি রাজধানীর মাইলস্টোন কলেজের শিক্ষার্থী। লিখিত ও এম.সি.কিউতে তিনি সর্বমোট ৭৩.১ নম্বর পেয়েছেন। এর মধ্যে এম.সি.কিউতে পেয়েছেন ৩৭.৫০ এবং লিখিততে পেয়েছেন ৩৫.৬০। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নাম্বার ৯৩.১।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনস্থ অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ফলাফল প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, ‘ঘ’ ইউনিটে এক হাজার ৩৩৬ আসনের বিপরীতে আবেদন করেছিল ৭৮ হাজার ২৯ জন। সেই হিসাবে প্রতি আসনের জন্য লড়ছিল ৫৮ জন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের অধীন সামাজিক বিজ্ঞান, কলা, বিজ্ঞান, ব্যবসা শিক্ষা, আইন, আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস এবং জীববিজ্ঞান অনুষদ। সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনিস্টিটিউট, স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউট, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট, ইনস্টিটিউট অব ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ভালনারেবিলিটি স্টাডিজ এবং আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের অধীনে ৫৫টি বিভাগ রয়েছে।

;

ঢাবিতে পড়ার স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল বেলায়েত শেখের



আরিফ জাওয়াদ, ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বেলায়েত শেখ

বেলায়েত শেখ

  • Font increase
  • Font Decrease

সন্তানদের ব্যর্থতা নিজের কাঁধে তুলে নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছিলেন ৫৫ বছর বয়সী বেলায়েত শেখ। জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে চাওয়া ও স্বপ্নের পানে ছুটতে চাওয়া বেলায়েত শেখের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) পড়ার স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনস্থ অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করেন।

এতে দেখা যায়, ৫৫ বছর বয়সী বেলায়েত শেখ অনুত্তীর্ণ হয়েছেন। তার রোল নম্বর ৫১২১২২৩। প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায় বেলায়েত শেখ বাংলাতে পেয়েছেন ২.০০, ইংরেজিতে ২.৭৫ ও সাধারণ জ্ঞানে ৩.২৫। পরীক্ষায় সর্বমোট পেয়েছেন ৮। এ দিকে উচ্চ মাধ্যমিকে ও মাধ্যমিকে প্রাপ্ত নম্বর যথাক্রমে ৯.১৬ ও ৮.৮৬। সব মিলিয়ে তার প্রাপ্ত নম্বর ২৬.০২।

তার পরবর্তী পরিকল্পনার ব্যাপারে জানতে চাইলে বেলায়েত শেখ বার্তা২৪.কম-কে জানান, তার চেষ্টা অব্যহৃত থাকবে। সামনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। তিনি আশাবাদী, দেশের যেকোনো একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া সুযোগ পাবেন।

জানা যায়, গাজীপুর জেলার শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পশ্চিমখণ্ড এলাকার মৃত হাসেন আলী শেখ ও জয়গন বিবির চার সন্তানের মধ্যে দ্বিতীয় সন্তান বেলায়েত সন্তানদের নিয়ে স্বপ্ন দেখতেন দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়বেন, ক্যাম্পাসে আসবেন অভিভাবক হয়ে। নানান প্রতিবন্ধকতা এবং সন্তানদের সদিচ্ছার অভাবে সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি তার।

তিন সন্তানের জনক বেলায়েত শেখের সকল অপ্রাপ্তি, অপূর্ণতা সন্তানদের কাঁধ থেকে নামিয়ে নিজের কাঁধেই তুলে দেন। শুরু করেন পড়াশোনা; শেষমেশ গত ১১ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত ভবনের ৮০২ নম্বর কক্ষে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় বসেন তিনি।

;

ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, ভর্তির যোগ্য ৮.৫৮%



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের অধীনে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনস্থ অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ফলাফল প্রকাশ করেন।

এ বছর ‘ঘ’ ইউনিটে আবেদন করেছিলেন ৭৮ হাজার ২৯ জন। যেখানে ভর্তির যোগ্য বিবেচিত হয়েছেন ৮ দশমিক ৫৮ শতাংশ পরীক্ষার্থী এবং অকৃতকার্য হয়েছে ৯১ দশমিক ৪২ শতাংশ। ভর্তির যোগ্য বিবেচিত ৬ হাজার ১১১ জনের মধ্যে শেষ পর্যন্ত এক হাজার ৩৩৬ জন মেধাক্রম অনুযায়ী সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের বিভিন্ন বিভাগে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন।

ফল জানা যাবে যেভাবে- ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা https://admission.eis.du.ac.bd ওয়েবসাইট থেকে পরীক্ষার ফলাফল জানতে পারবে। এছাড়া রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক অথবা টেলিটক নম্বর থেকে DU GHA <roll no> টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে এসএমএস পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফলাফল জানা যাবে।

উল্লেখ্য, ‘ঘ’ ইউনিটে এক হাজার ৩৩৬ আসনের বিপরীতে আবেদন করেছিল ৭৮ হাজার ২৯ জন। সেই হিসাবে প্রতি আসনের জন্য লড়ছিল ৫৮ জন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের অধীন সামাজিক বিজ্ঞান, কলা, বিজ্ঞান, ব্যবসা শিক্ষা, আইন, আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস এবং জীববিজ্ঞান অনুষদ। সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনিস্টিটিউট, স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউট, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট, ইনস্টিটিউট অব ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ভালনারেবিলিটি স্টাডিজ এবং আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের অধীনে ৫৫টি বিভাগ রয়েছে।

;