কম খরচে মাছের ভাসমান খাদ্য তৈরির যন্ত্র  উদ্ভাবন শেকৃবি গবেষকের



শেকৃবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
কম খরচে মাছের ভাসমান খাদ্য তৈরির যন্ত্র  উদ্ভাবন শেকৃবি গবেষকের

কম খরচে মাছের ভাসমান খাদ্য তৈরির যন্ত্র  উদ্ভাবন শেকৃবি গবেষকের

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রচলিত বাজারদরের চেয়ে ৩০ শতাংশ কম খরচে মাছের ভাসমান খাদ্য উৎপাদনের যন্ত্র তৈরি করেছেন রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক মো মাসুদ রানা।

প্রাণিজ আমিষের অন্যতম প্রধান উৎস মাছ। প্রায় ৬০ শতাংশ প্রাণিজ আমিষ আসে মৎস্য খাত থেকে। কর্মসংস্থান, বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জন এবং পুষ্টি সরবরাহে মাছের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, লাভজনক মাছ চাষের জন্য  অন্যতম প্রধান শর্ত মানসম্মত খাবার। মাছ চাষে ৭০ শতাংশের বেশি খরচ হয় খাবার সরবরাহে।

খামারি নিজেই কাচামাল সংগ্রহ করে কম খরচে মাছের খাদ্য তৈরি করতে পারবে সম্প্রতি এমন যন্ত্র 'সাউ ফিড মিল-১' উদ্ভাবন করা হয়েছে রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে।

মাছ চাষের খাবারের খরচ কমানোর পাশাপাশি খামারিরা যেন নিজের খামারের প্রয়োজনীয় খাদ্য নিজে উৎপাদন করতে পারে সে লক্ষ্যকে সামনে রেখে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ, একোয়াকালচার এন্ড মেরিন সায়েন্স অনুষদের ফিশিং এন্ড পোস্ট হারভেস্ট টেকনোলজী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও বিভাগীয় চেয়ারম্যান মো. মাসুদ রানা সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তি ব্যবহার করে মাছের খাদ্য তৈরির মেশিন সাউ ফিড মিল-১ উদ্ভাবন করেছেন।

মেশিনটি তৈরি করতে মোট সময় লেগেছে এক বছর ছয় মাস ও মেশিনটি তৈরিতে খরচ হয় বার লক্ষ টাকা। সাউ ফিড মিল-১ এর উদ্ভাবক মাসুদ রানা বলেন, 'মাছ চাষিদের খাবারের সরবরাহ ও খরচ কমাতে মেশিনটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। নিরাপদ মাছ উৎপাদনের জন্য প্রয়োজন নিরাপদ মৎস্য খাদ্য। যেহেতু খামারি মাছের খাদ্যের কাঁচামাল সংগ্রহ করে নিজেই খাদ্য উৎপাদন করবে সেক্ষেত্রে খাদ্য যেমন নিরাপদ হবে তেমনি ঐ খাদ্য প্রয়োগ করে উপাদিত মাছও নিরাপদ হবে।'

উদ্ভাবিত মেশিনটির বিশেষত্ব সম্পর্কে মাসুদ রানা বলেন, 'একই মেশিন দিয়ে খামারি মাছের ভাসমান ও ডুবন্ত উভয় প্রকার খাদ্য তৈরি করতে পারবে। পাশাপাশি মেশিনটি দিয়ে ০.৫ মিলি থেকে ৫ মিলি আকারের সকল প্রজাতির মাছ ও চিংড়ির খাদ্য তৈরি করা যাবে।

মেশিনটিতে এডভান্সড মিলিং টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে ফলে এটি একটানা ১০-১২ ঘন্টা খাদ্য উৎপাদন করতে পারবে। এর মাধ্যমে ঘন্টায় ৭০-৮০ কেজি খাবার উৎপাদন করা সম্ভব ও প্রতি কেজি খাদ্য উৎপাদনে খরচ হবে ৩৮-৪০ টাকা যা বর্তমান বাজারে প্রতি কেজি ফিড মিল ৫৮-৬০ টাকায় ক্রয় করতে হয়। ফলে প্রতিকেজি খাবারে ২০ টাকা খরচ কমবে।'

উদ্ভাবিত মেশিনটি দিয়ে মাছের খাদ্যের পাশাপাশি হাঁস, মুরগী, কবুতরসহ অন্যান্য যেকোনো পাখির খাদ্য তৈরি করা সম্ভব যা মৎস্য সেক্টরের পাশাপাশি পোলট্রি শিল্পে এক অপার সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিবে বলে জানিয়েছেন মেশিনটির উদ্ভাবক।

শেকৃবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়া বলেন, 'এই প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে বিভিন্ন ফিস ইন্ডাস্ট্রির একটি লিংক তৈরি হলো। শিক্ষকদের মেধা দিয়ে গবেষণা করতে হবে। কৃষি বিজ্ঞানকে দেশের অগ্রযাত্রায় সহযাত্রী হিসেবে কাজে লাগাতে হবে।'

অনশনে বসার সিদ্ধান্ত স্থগিত করল ইডেন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতরা



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
অনশনে বসার সিদ্ধান্ত স্থগিত করল ইডেন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতরা

অনশনে বসার সিদ্ধান্ত স্থগিত করল ইডেন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতরা

  • Font increase
  • Font Decrease

আমরণ অনশনে বসতে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে অবস্থান নিলে, এক পর্যায়ে অনশন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সাম্প্রতিক রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত ১২ নেত্রী।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে ইডেন কলেজে সংবাদ সম্মেলন শেষে ইডেন ক্যাম্পাস থেকে হেঁটে নীলক্ষেত মোড় পর্যন্ত যান। পরে সেখান থেকে রিকশাযোগে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কার্যালয়ে পৌঁছান। প্রথমের দিকে তাঁদের কার্যালয়ের ভেতরে প্রবেশ করতে বাধা প্রদান করা হলেও, এক পর্যায়ে কার্যালয়ে প্রবেশের অনুমতি পান।

পার্টি অফিস থেকে বের হয়ে সদ্য-বহিষ্কৃত নেত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস সাংবাদিকদের জানান, “আমাদের কথা হয়েছে, আমরা সার্বিক বিষয়ে তাঁদের জানিয়েছি। তাঁরা আমাদের ফোন নম্বর নিয়েছেন। পরবর্তীতে আমাদের জানাবেন, এমনটা বলেছেন।” এ বিষয়ে কাদেরকে অবগত করেছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, “ভেতরে তেমন কেউই ছিলেন না। শুধু স্টাফরা ছিলেন।”

তিনি আরও বলেন, “আমরা নিজেরা নিজেরা অনশন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারো প্রেসারে পড়ে আমরা এমন সিদ্ধান্ত নেয় নি। আমরা স্বেচ্ছায় এখানে আসছি, স্বেচ্ছায় চলে যাচ্ছি।”

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে সাংগঠনিক শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে ১৬ জনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার ও কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করা হয়।

বহিষ্কারের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের এক সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ইডেন মহিলা কলেজ শাখার সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হলো।

;

ইডেনে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ইডেন কলেজ

ইডেন কলেজ

  • Font increase
  • Font Decrease

ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার সংবাদ সম্মেলন চলাকালে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) চলমান উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে ইডেন কলেজের অডিটোরিয়ামের সামনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা। সংবাদ সম্মেলনের এক পর্যায়ে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া বাঁধে।

এ ঘটনায় ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এছাড়া কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ঋতু আক্তারও (২৭) জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইডেন মহিলা কলেজের শিক্ষিকা মোছা. নার্গিস আক্তার। নার্গিস আক্তার জানান, দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোছা. রিতু আক্তার আহত হলে তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়েছে। সেখানে বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের একটি সূত্র বলছে, অপরদিকে অন্য গ্রুপের কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সুম্মিতা বাড়ৈ আহত হয়েছেন। তাদেরকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে।

এদিকে সহ-সভাপতি সানজিদা পারভীন চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, আমরা রিভা-রাজিয়াকে চাই না। তারা অত্যাচারী, তারা ছাত্রলীগের কলঙ্ক। তারা আমাদের ওপর আগে হামলা চালিয়েছে। আমাদের দুজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এছাড়া আরও ৫-৬ জন আহত হয়েছেন। রিভা ক্যাম্পাস ছেড়েছে, আমরা চাই রাজিয়াও ক্যাম্পাসে ছেড়ে যাক। তাদের আমরা এই ক্যাম্পাসে দেখতে চাই না।

এসময় ছাত্রলীগ কর্মীরা রিভা রাজিয়া, মানি না, মানবো না’, ‘রিভা-রাজিয়ার, বহিষ্কার চাই, করতে হবে’, ‘রিভা রাজিয়ার ঠিকানা, ইডেনে হবে না’, ‘রিভা-রাজিয়া, ইডেন কলেজের লজ্জা’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে ক্যাম্পাস থেকে বের না করা পর্যন্ত অবস্থান চালিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে একটি পক্ষ। আরেকটি পক্ষ শনিবারের ঘটনার ভুক্তভোগী পক্ষের অংশকে ক্যাম্পাস থেকে বহিষ্কারে দাবি জানিয়ে অবস্থান করছেন।

উল্লেখ্য, ইডেন কলেজ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও সিট বাণিজ্য নিয়ে গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়ায় জান্নাতুল ফেরদৌস নামে এক ছাত্রলীগ নেত্রীকে হল থেকে মারধর করে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গেল শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ইডেন কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময় সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাদের পদত্যাগেরও দাবি জানায়।

;

কমিটি পূর্ণাঙ্গ করতে জীবন বৃত্তান্ত নিল ঢাবির সূর্য সেন হল ছাত্রলীগ



আরিফ জাওয়াদ, ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
কমিটি পূর্ণাঙ্গ করতে জীবন বৃত্তান্ত নিল ঢাবির সূর্য সেন হল ছাত্রলীগ

কমিটি পূর্ণাঙ্গ করতে জীবন বৃত্তান্ত নিল ঢাবির সূর্য সেন হল ছাত্রলীগ

  • Font increase
  • Font Decrease

নানা হিসেবে-নিকেশের মধ্যে দীর্ঘ ৫ বছরের অধিক সময় পর চলতি বছরের ২রা ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছেলে-মেয়েদের ১৮টি হলে ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। ইতোমধ্যে হলগুলো কমিটি পূর্ণাঙ্গ করতে পদপ্রত্যাশীদের কাছ থেকে জীবনবৃত্তান্ত আহ্বান করেছে। কোন কোন হল, জীবন বৃত্তান্ত নেয়া শেষও করে ফেলেছে।

গেল শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়টির মাস্টার দা’ সূর্য সেন হল পদপ্রত্যাশীদের কাছ থেকে জীবনবৃত্তান্ত নেয়া শুরু করেছে। এর মধ্যে যাঁরা সঙ্গত কারণে জীবনবৃত্তান্ত জমা দিতে ব্যর্থ হয়েছে, তাঁদের জন্য ই-মেইলেও জীবন বৃত্তান্ত পাঠানোর সুযোগ রেখেছে হল শাখা ছাত্রলীগ। হলটির হল সংসদে গতকাল রাত সাড়ে ১০ টা থেকে সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত জীবনবৃত্তান্ত সংগ্রহ কার্যক্রমে পদপ্রত্যাশীরা হল ছাত্রলীগের সভাপতি মারিয়াম জামান সোহান ও সাধারণ সম্পাদক সিয়াম রহমানের কাছে তাদের জীবনবৃত্তান্ত জমা দেন। ওই দিনে ৪০০-র অধিক পদপ্রত্যাশী তাদের জীবনবৃত্তান্ত জমা দিয়েছেন।

মাস্টার দা’ সূর্য সেন হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিয়াম রহমান বলেন, “যাঁরা দীর্ঘ সময় রাজপথে অগ্রভাগে থেকে লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রশ্নে সর্বদা আপোসহীন থেকে দেশ ও মানুষের জন্য কাজ করে গেছে, সামনেও নিরলসভাবে কাজ করে যাবে সেসব মেধাবী ও যোগ্য নেতৃত্বকে সামনে আনার চেষ্টা করা হবে।”

তিনি আরও বলেন, “সাম্প্রদায়িকতা মুক্ত বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে একজন কর্মীর যতগুলো গুণ ও যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন; মাস্টার দা’ সূর্য সেন হল ছাত্রলীগের প্রত্যেকটি কর্মীর সেই গুণাবলি তৈরি হয়েছে। মাস্টার দা’ সূর্য সেন হলের প্রত্যেকটি কর্মীই সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে সর্বদা অগ্রভাগে থেকে নেতৃত্ব দিবে বলে আশা করি।”

হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মারিয়াম জামান সোহান বলেন, “সবাইকে মূল্যায়ন করে স্থান দেওয়ার সুযোগ হবে না। যাঁরা ৫ বছর বিনা পরিশ্রমে নিজেদের শ্রম-ঘাম-পরিশ্রমে যেভাবে সূর্য সেন হল ছাত্রলীগের কমিটি সুশৃঙ্খল ও মজবুত করতে রাজনীতি করেছেন।। তাঁরা আসলেই প্রশংসার দাবি রাখেন।”

তিনি আরও বলেন, “মেধাবী ও দীর্ঘদিন ছাত্রলীগের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত মুজিব আদর্শের সৈনিক এবং পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ডে আওয়ামী লীগের সংশ্লিষ্টতা আছে, সেই সকল মুখগুলো মূল্যায়ন করা হবে। এছাড়াও যারা বিভাগে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে, তাঁদের কেউ বিবেচনা আনা হবে। সূর্য হলের পূর্নাঙ্গ কমিটিতে যাঁরা আসবে, তাঁরা কখনোই জাতির পিতার প্রশ্নের আপোস করবে না বলে প্রত্যাশা রাখি।”

কি ভাবছেন কর্মীরা: জীবনবৃত্তান্ত জমা দানে ছাত্রলীগ কর্মীদের মাঝে এক উৎসবমুখর আমেজ। বেশ কয়েকজন কর্মীর সাথে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। তাঁরা জানান, পরিশ্রমী, মেধাবী ও যোগ্য কর্মীরাই এ কমিটিতে স্থান পাবেন। আশা করি হল শাখা ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতারা দেশনেত্রী শেখ হাসিনার মিশন ও ভিশন বাস্তবায়ন সামনের দিনগুলোতে নিরলসভাবে কাজ করে যাবে, এমন নেতৃত্বকেই সামনে আনবেন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১৩ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন তৎকালীন ছাত্রলীগ নেতৃত্ব। পরের বছরের ১৭ নভেম্বর হল কমিটিগুলো পূর্ণাঙ্গ করা হয়। ২০১৮ সালের ২৯ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলন হলে এই কমিটিগুলো ভেঙে যায়।

নানা চলতি বছরের ৩০ জানুয়ারি জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ১৮টি হল সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে ২ ফেব্রুয়ারি নতুন কমিটি পায় হলগুলো।

;

ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত, ব্যবস্থা না নিলে গণপদত্যাগ



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত, ব্যবস্থা না নিলে গণপদত্যাগ

ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত, ব্যবস্থা না নিলে গণপদত্যাগ

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের কোন্দলের ঘটনায় দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ছাত্রলীগ। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সুপারিশসহ তদন্ত প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় দপ্তর সেলে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশও প্রদান করা হয়েছে। এদিকে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা এবং সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে তাঁদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা না নিলে গণপদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের ২৫ জন নেত্রী।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কলেজের শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন তারা। সংবাদ সম্মেলন থেকে এই তদন্ত কমিটির উপর অনাস্থা প্রকাশ করেন তাঁরা।

সংবাদ সম্মেলনে নির্যাতনের শিকার ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, ‘আমাকে খুব খারাপভাবে মারধর করা হয়েছে রিভা-রাজিয়ার কথায়। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রিভা-রাজিয়ার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা না নেওয়া হলে আমি আত্মহত্যা করবো।’

এই ঘটনায় তিনি লালবাগ থানায় মামলা করতে গেলে তার মামলা গ্রহণ করা হয়নি বলেও অভিযোগ করেন জান্নাতুল ফেরদৌস।

এর আগে রোববার সকালে (২৫ সেপ্টেম্বর) ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তিলোত্তমা শিকদার ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বেনজীর হোসেন নিশিকে নিয়ে দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। উক্ত তদন্ত কমিটিকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সুপারিশসহ তদন্ত প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় দপ্তর সেলে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইডেন কলেজ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও সিট বাণিজ্য নিয়ে গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়ায় জান্নাতুল ফেরদৌস নামে এক ছাত্রলীগ নেত্রীকে হল থেকে মারধর করে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গেল শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ইডেন কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময় সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাঁদের পদত্যাগেরও দাবি জানায়।

;