পদত্যাগে রাজি শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান

  • Font increase
  • Font Decrease

আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে পদত্যাগে রাজি আছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট মো. শাহিনুর ইসলাম।

মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) দুপুর আড়াইটায় ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়টির ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান এ কথা জানান।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি অনুযায়ী শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট পদত্যাগ করতে রাজি হয়েছেন। তিনি কথা দিয়েছেন তিনি পদত্যাগ করবেন। তিনি পদত্যাগ না করলে প্রয়োজনে আমি পদত্যাগ করব।

মিজানুর রহমান বলেন, আমি উপাচার্যের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছি। এখনও তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। উপাচার্যের সঙ্গে যোগাযোগ হলে শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো তুলে ধরব।

এসময় শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘স্যার, যে ঘটনা ঘটলো ক্যাম্পাসে। তাতে আপনি ছাত্ররাজনীতি বন্ধের ঘোষণা দেবেন কিনা।’

এর উত্তরে তিনি বলেন, আমি শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে একমত। তারা যদি এ বিষয়ে কোন আবেদন করে আমি সবার প্রথমে সেখানে স্বাক্ষর করব। তাতে আমার কোন আপত্তি নেই।

এরআগে শিক্ষার্থীদের আট দফা দাবির মধ্যে ছয় নম্বর দাবি হচ্ছে- রাজনৈতিক ক্ষমতা ব্যবহার করে আবাসিক হল থেকে ছাত্র উৎখাতের ব্যাপারে অজ্ঞ থাকা এবং ছাত্রদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হওয়ায় শেরে বাংলা হলের প্রভোস্টকে ১১ নভেম্বর বিকাল ৫ টার মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে।

এর আগে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা করতে এসে তোপের মুখে পড়েন এই অধ্যাপক। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক মিজানুর রহমান ক্যাম্পাসে আসলে আন্দোলনকারীরা তাকে ঘিরে ধরেন। এসময় শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতি বন্ধের জন্য তার কাছে দাবি জানান।