নতুন বছরে কেমন ক্যারিয়ার চান?

নাজমুল হুদা, পেশা বিষয়ক লেখক ও, উপ-পরিচালক, বাংলাদেশ ব্যাংক
নতুন বছরে কেমন ক্যারিয়ার চান?

নতুন বছরে কেমন ক্যারিয়ার চান?

  • Font increase
  • Font Decrease

নতুন বছরে ক্যারিয়ার কেমন হবে? এলোপাতাড়ি ভাবতে ভাবতে অনেকটা সময় চলে যায়। বিশেষ করে পেশাজীবীদের কপালে বাড়তি চিন্তার ভাঁজ পড়ে! সঠিক পরিকল্পনা কিংবা যথার্থ প্রস্তুতির অভাবে অনেকেই হয়তো বিগত বছরে মনের মত কাজে যোগ দিতে পারেননি, কারো আবার একটা চাকরির খোঁজ মিললেও নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি সম্পূর্নরুপে। আর নতুনদের জন্যতো নতুন বছরে নতুন ক্যারিয়ারের মাধ্যমে হতে পারে শুভসূচনা। নিজের বর্তমান পেশায় অপ্রাপ্তি বা অতৃপ্তি থেকেও আসতে পারে নতুন বছরে নতুন কিছু করার পরিকল্পনা। যা হোক, পেশাজীবনে কাঙ্খিত সাফল্যের জন্য চাই যথোপোযুক্ত পরিকল্পনা। মুহূর্তের ভুল সিদ্ধান্ত পেশাগত জীবনে সৃষ্টি করতে পারে চরম ভোগান্তি; বছরজুড়ে অনিশ্চয়তা। নতুন বছরে কেমন ক্যারিয়ার চান সে বিবেচনায় পরিকল্পনার ছকে কাজ শুরু করুন শুরু থেকেই।

এখন; না হলে কখনোই না
এখনই উপযুক্ত সময়। সাত-পাঁচ ভাবলে শুধু পেছনে পড়ে যেতে হয়। তাই সময়ক্ষেপনের সময় কোথায়? ধরেই নিচ্ছি আপনি বর্তমান পেশা পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন। কর্মপরিকল্পনাও করেছেন। এখন প্রয়োজন বাস্তবায়নের সর্বাত্বক চেষ্টা। আবার আপনি যদি নতুন কোনো চাকরি খুঁজেন, হতে পারে কোনো বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান, উন্নয়ন সংস্থা কিংবা সরকারি চাকরি। আপনার লক্ষ্য যেটিই হোক না কেন শুরু থেকেই আপনাকে হতে হবে তৎপর; বাস্তববাদী। বাস্তবতার নিরিখে সময়ের সাথে প্রযোজনে পরিকল্পনা পরিবর্তনও হতে পারে।

ঝোঁক থাকলেই ঝুঁকি নয়
অনেকেই হুট করে চাকরি পাল্টে ফেলে! কখনো একই পেশায় ভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কখনোবা সম্পূর্ণ পেশাবদলের ঝুঁকি! নির্দিষ্ট কোনো পেশার প্রতি বিশেষ দুর্বলতা কিংবা কাজের ফলাফল দুর্বল হলে এ ধরণের চিন্তা মাথায় আসতে পারে। আবার প্রতিকূল কর্মপরিবেশ, বিরুপ মনোভাব সম্পন্ন বস, সহকর্মীর কারণেও অনেকে ক্যারিয়ার পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন। যে কারণেই সেটা যেন আত্মঘাতি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখুন।

যুক্ত হোন মুক্ত দুনিয়ায়
কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ অনেক আগেই বলেছিলেন ‘যুক্ত করো হে সবার সঙ্গে’। অবশ্য এখন আমরা সবাই যোগাযোগযুগে বাস করছি! তাই এই আন্ত:জালে আপনিও আটকে রাখুন নিজেকে, নিজের জন্যই। যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারে পারদর্শী ও মনোযোগী হোন। জব পোর্টাল, ফেসবুক, লিংকডইনসহ নানা মাধ্যমে সম্পৃক্ত হোন। তাছাড়া চাকরির প্রস্তুতি, অনুসন্ধান ও পেশা উন্নয়নের জন্য এখন সামাজিক মাধ্যমে অনেক গ্রুপ রয়েছে। এগুলোতে সক্রিয় থাকতে পারেন। তবে এগুলোতে সময় অপচয় যেন না হয় সেদিকটাতেও সতর্ক থাকুন।

প্রত্যাশিত পেশা প্রাপ্তির হিসাব
কাঙ্খিত কাজ না পেলে, আবেগতাড়িত না হয়ে সুস্থিরভাবে ভেবে ঠিক করুন ক্যারিয়ারের গতিপথ। নিজের আগ্রহ আর অর্ন্তনিহিত সামর্থ্যের সমীকরণ মেলান। চিহ্নিত করুন নিজের সীমাবদ্ধতাগুলোও। পারিবারিক বা পারিপার্শ্বিক প্রত্যাশার চাপতো থাকবেই। নিজের ইচ্ছাকেই প্রাধান্য দিতে হবে। মনের মত পেশা বাছাই না করতে পারলে টিকে থাকায় কঠিন; ভাল করাতো দু:সাধ্য। এপিঠ ওপিঠ ভেবে বছরের শুরুতেই একটি ভাল পরিকল্পনা করতে পারলে আপনি ক্যারিয়ারে অনেকখানি এগিয়ে থাকবেন।

আপনার মতামত লিখুন :