চেইন সুপারশপ ‘স্বপ্ন’-এর সিস্টেম হ্যাক করায় ০৩ হ্যাকার গ্রেফতার



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: স্বপ্ন

ছবি: স্বপ্ন

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের অন্যতম চেইন সুপারশপ ‘স্বপ্ন’-এর ডিজিটাল সিস্টেম হ্যাক করে প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা মূল্যের ডিজিটাল ভাউচার তৈরি ও জালিয়াতি করেছে কিছু হ্যাকার। আর এই চক্রের তিন সদস্যকে ০৭ আগস্ট রাতে গ্রেফতার করেছে ডিএমপি’র সিটিটিসি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ।

রোববার (৮ আগস্ট) সকাল ১১ টা ৪৫ মিনিটে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এ বিষয়ে এক প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন সিটিটিসি প্রধান ও অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ আসাদুজ্জামান, বিপিএম-বার, যুগ্ম পুলিশ কমিশনার মোঃ ইলিয়াস শরীফ বিপিএম-বার, পিপিএম, উপ পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহফুজুল ইসলাম পিপিএম-বার, সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার আ, ফ, ম, আল কিবরিয়া, পিপিএম-সেবা, ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পিআর বিভাগের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার ইফতেখায়রুল ইসলাম এবং স্বপ্ন’র নির্বাহী পরিচালক সাব্বির হাসান নাসির।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিটিটিসির সাইবার অপরাধ তদন্ত বিভাগের এডিসি নাজমুল ইসলাম, সিটিটিসির সহকারী পুলিশ কমিশনার চাতক চাকমা, ‘স্বপ্ন’ এর রিটেইল এক্সপ্যানশন বিভাগের পরিচালক সামসুদ্দোহা শিমুল।

সিটিটিসি প্রধান ও ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ আসাদুজ্জামান প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, দেশের চেইন সুপারশপ ‘স্বপ্ন’ তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সারাদেশের ১৮২টি আউটলেটের সেলস মনিটরিং, ইনভেন্টরি ম্যানেজমেন্টসহ সকল ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে।

‘স্বপ্ন’ সুপারশপের শক্তিশালী সাইবার নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ব্রিচ করে গত ২৬ শে জুন ২০২১ থেকে ৯ই জুলাই তারিখের মধ্যে বিপুল অংকের অস্বাভাবিক ও সন্দেহজনক ডিজিটাল ভাউচার জেনারেট করে বিক্রি করে। এর আগে হ্যাকার গ্রপের সদস্যরা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট যেমন ফ্রিল্যান্সার ডট কম, এক্সরসওয়ার্ক ডট কম এবং বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি ই-কমার্স সাইটসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সিস্টেম সিকিউরিটি ব্রিচ করে ‘বাউন্টি’ দাবি করে।

সুনির্দিষ্ট তথ্যের প্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করে গত শনিবার (৭ আগস্ট) ২০২১ তারিখ রাতে ১. মো : নাসিমুল ইসলাম (২৩)-কে নওগাঁ, ২. রেহানুর হাসান রাশেদ (২২)-কে গাইবান্ধা এবং ৩. রাইসুল ইসলাম (২৫)-কে ঢাকার মিরপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এ প্রসঙ্গে সিটিটিসির সাইবার অপরাধ তদন্ত বিভাগের এডিসি নাজমুল ইসলাম বলেন, স্বপ্ন’র সিকিউরিটি সিস্টেমকে ব্রিচ করে যারা এই অপকর্ম করেছে তাদেরকে আমরা আইনের আওতায় নিয়ে এসেছি। যারা এর পেছনে কাজ করছে তাদেরকেও খুব শিগগিরই আইনের আওতায় আনা হবে।

সিটিটিসির সহকারী পুলিশ কমিশনার চাতক চাকমা বলেন, এই হ্যাকাররা অত্যন্ত দক্ষ। তারা বিভিন্ন পেনিটেরেশন টেস্টিংয়ের টুলস ব্যবহারের মাধ্যমে অনেক নামীদামী প্রতিষ্ঠানের “বাগ” বা ত্রুটি বের করে হ্যাকিং করত। এই বিষয়ে আমরা বিস্তারিত তদন্ত করছি।

স্বপ্ন’র নির্বাহী পরিচালক সাব্বির হাসান নাসির বলেন, একটি অপরাধীচক্র স্বপ্ন’র সুনাম নষ্ট করার প্রচেষ্টায় এই কাজকরছে। ডিজিটাল ভাউচার জালিয়াতি করে বিক্রি করাসহ গত মাসে ‘স্বপ্ন’-এর নাম করে ভুয়া অফার দিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ’স্বপ্ন’ এসব বিষয় নিয়ে থানায় অভিযোগ ও মামলা দায়ের করে। ‘স্বপ্ন’ কর্তৃপক্ষ সাইবার ক্রাইম টিমের সহযোগিতা চাইলে সাইবার ক্রাইম

ইউনিট সেটা আমলে নিয়ে অপরাধীদের ধরেন। এজন্য ডিসি আ ফ ম আল কিবরিয়া, এডিসি নাজমুল ইসলাম ও এসিস্ট্যান্ট কমিশনার (এসি) চাতক চাকমাসহ তাঁদের পুরো টিমকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এছাড়া ধন্যবাদ জানাচ্ছি বাংলাদেশ পুলিশ, ধন্যবাদ সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশিন,
সিটিটিসি ডিএমপিকে।

উল্লেখ্য, গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা, ডিএমপি, ঢাকা-এর মামলা নং-০৭, তারিখ :০৩/০৮/২০২১ ইং , ধারা-ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এর ১৮/২৩/৩৪/৩৫ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। তাদের দশদিনের রিমান্ড আবেদনসহ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের অপরাপর
সহযোগীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।