ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের লামাবাজার শাখার শুভ উদ্বোধন



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের লামাবাজার শাখার শুভ উদ্বোধন

ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের লামাবাজার শাখার শুভ উদ্বোধন

  • Font increase
  • Font Decrease

সিলেটের লামাবাজারে (রাজা ম্যানশন- ২য় ও ৩য় তলা, হোল্ডিং নং-ছায়ানীড়-৩৫, জিন্দাবাজার রোড, সিলেট) ০৬ অক্টোবরে ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের নতুন শাখার শুভ উদ্বোধন করা হয়।

ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও জনাব আবুল কাশেম মোঃ শিরিন আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যাংকের এ শাখার উদ্বোধন করেন। নতুন শাখার সুষ্ঠু পরিচালনা এবং দেশের অগ্রগতি ও ব্যবসা বাণিজ্যের সমৃদ্ধির জন্য মহান আল্লাহর অশেষ রহমত কামনা করে দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু করা হয়।

উদ্বোধনী দিন থেকেই ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের অনান্য শাখার মত এ শাখাতেও অনলাইন ব্যাংকিং, এটিএম ও সিআরএম সার্ভিস, রিটেল, এসএমই এবং কর্পোরেট লোন, ক্রেডিট কার্ড, এজেন্ট ব্যাংকিং, মোবাইল ব্যাংকিং এবং রেমিট্রেন্স সার্ভিস প্রদান করছে।

স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিগণ এবং অন্যান্য আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

   

ইসলামী ব্যাংকের ময়মনসিংহ জোনের এজেন্ট ব্যাংকিং সম্মেলন অনুষ্ঠিত



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ পিএলসির ময়মনসিংহ জোনের এজেন্ট ব্যাংকিং ব্যবসায় উন্নয়ন সম্মেলন এবং মানি লন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা সম্প্রতি জামালপুরের একটি রিসোর্টে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে বক্তব্য দেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর আবুল ফায়েজ মুহাম্মদ কামালউদ্দিন।

সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ মাকসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে বিভিন্ন সেশনে বক্তব্য দেন ময়মনসিংহ জোনপ্রধান মোঃ আনিসুল হক, এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এ কে এম মাহবুব মোরশেদ, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ আবদুল জলিল ও অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট কাজী মোহাম্মদ ইসমাঈল। সম্মেলনে জোনের অধীন শাখাসমূহের প্রধান ও এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটের স্বত্বাধিকারীগণ অংশগ্রহণ করেন।

;

৪৩৯ কোটি টাকার সার কিনছে সরকার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজার থেকে ৪৩৮ কোটি ৯১ লাখ টাকার ইউরিয়া, ডিএপি সার ও ফসফরিক এসিড কেনার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এরমধ্যে ২৫৩ কোটি ৪৪ লাখ টাকার ডিএপি সার, ১২২ কোটি ৫৫ লাখ টাকার ইউরিয়া সার এবং ৬২ কোটি ৯২ লাখ টাকার ফসফরিক এসিড রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সভাপতিত্বে কমিটির সভায় এসব প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়। সভা শেষে সভার সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাঈদ মাহবুব খান।

এ প্রসঙ্গে অতিরিক্ত সচিব জানান, রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির আওতায় জি টু জি পদ্ধতিতে সৌদি আরবের মা আদেন থেকে ৪০ হাজার টন ডিএপি সার আমদানি ব্যয় হবে ২৫৩ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। প্রতি মেট্রিক টনের দাম পড়বে ৫৭৬ মার্কিন ডলার। যা আগে ছিল ৫৮৯ মার্কিন ডলার।

এছাড়া কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেডের (কাফকো) কাছ থেকে ৩০ হাজার টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার কেনা হবে। এতে মোট ব্যয় হবে ১২২ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। প্রতি টনের দাম পড়বে ৩৭১ দশমিক ৩৭ ডলার। যা আগে ছিল ৩১৬ দশমিক ৬২৫ মার্কিন ডলার। এছাড়াও আন্তর্জাতিক উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে ১০ হাজার টন ফসফরিক এসিড কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ৬২ কোটি ৯২ লাখ টাকা। প্রতি টনের দাম পড়বে ৫৭২ ডলার। যা আগে ছিল ৫৮২ ডলার। এ ফসফরিক এসিড সরবরাহ করবে চায়নার জুনজুয়াই ইকো টেকনোলজি কোম্পানি। এদের ঢাকার প্রতিনিধি হিসেবে রয়েছে মেসার্স বেস্ট ইস্টার্ন।

;

২৪৯ কোটি টাকার ডাল-গম কিনছে সরকার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজার থেকে ২৪৯ কোটি ৮৭ লাখ টাকার ডাল ও গম কেনার অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এরমধ্যে ৮৩ কোটি ১২ লাখ টাকার মসুর ডাল এবং ১৬৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকার গম কেনা হবে।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সভাপতিত্বে কমিটির সভায় এসব প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়। সভা শেষে সভার সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাঈদ মাহবুব খান।

তিনি জানান, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে সিঙ্গাপুরের প্রতিষ্ঠান এম এস এগ্রো কট ইন্টারন্যাশনাল থেকে ৫০ হাজার টন গম কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ১৬৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। প্রতি টন গমের মূল্য পড়বে ৩০৩ দশমিক ১৬ ডলার। আগের ক্রয় মূল্য ছিল ৩১৫ দশমিক ২৯ ডলার।

এদিকে রাষ্ট্রীয় বিপণন সংস্থা টিসিবির জন্য স্থানীয়ভাবে উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে ৮ হাজার টন মসুর ডাল কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। রাজশাহীর নাবিল নবা ফুডস লিমিটেড থেকে এই মসুর ডাল কিনতে মোট খরচ হবে ৮৩ কোটি ১২ লাখ টাকা। প্রতিকেজি মসুর ডালের দাম পড়বে ১০৩ টাকা ৯০ পয়সা।

;

১৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে তেল কিনছে সরকার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
১৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে তেল কিনছে সরকার

১৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে তেল কিনছে সরকার

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ-এর (টিসিবি) মাধ্যমে বিক্রির জন্য ১ কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এতে মোট ব্যয় হবে ১৭৪ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। সেই হিসেবে প্রতি লিটারের খরচ পড়বে ১৫৮ দশমিক ৭৯ টাকা।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৈঠকে এটি ছাড়াও মোট ১২টি প্রস্তাব অনুমোদন পেয়েছে। 

সভা শেষে অনুমোদিত প্রস্তাবগুলোর বিস্তারিত তুলে ধরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাঈদ মাহবুব খান বলেন, ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে ১৬৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকায় ৫০ হাজার মেট্রিক টন গম আমদানি করা হবে। প্রতি মেট্রিক টনের দাম পড়বে ৩০৩ দশমিক ১৯ মার্কিন ডলার। সেইসঙ্গে ৮ হাজার মেট্রিক টন মসুর ডাল আমদানি করা হবে, যার মোট দাম পড়বে ৮৩ কোটি ১২ লাখ টাকা। এছাড়া জিটুজি পদ্ধতিতে ২৫৩ কোটি ৪৪ লাখ টাকায় ৪০ হাজার মেট্রিক টন সার আমদানি করা হবে সৌদি আরব থেকে। প্রতি মেট্রিক টন সারের দাম পড়বে ৫৭৬ ডলার।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব জানান, ১৪ হাজার ২৫০টি কমিউনিটি ক্লিনিকের জন্য ওষুধ কেনা হবে, যার দাম পড়বে ১৪৯ কোটি ৯৯ লাখ টাকা। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ক্যাম্পাস নির্মাণে ১৮৯ কোটি ৫৭ লাখ টাকার একটি প্রকল্পও অনুমোদন পেয়েছে আজকের সভায়। এছাড়া, এলএনজি আমদানির সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে।

;