বিদেশে বাংলাদেশিদের ক্রেডিট কার্ডে খরচের শীর্ষে ভারত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে বিদেশে গিয়ে বাংলাদেশিরা ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন সেবা ও পণ্য কিনে ৫০৭ কোটি টাকা খরচ করেছেন। যা মার্চের তুলনায় এপ্রিলে ৩ কোটি ৪০ লাখ টাকা বেশি। মার্চে খরচ করেছিল ৫০৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে থেকে এতথ্য জানা যায়।

তবে, এপ্রিল মাসে বিদেশিরা বাংলাদেশে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন করেছেন ক্রেডিট কার্ডে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য বলছে, বাংলাদেশিরা বিদেশে গিয়ে ক্রেডিট কার্ডে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ করেন ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, থাইল্যান্ড ও আরব আমিরাত। বিদেশে বাংলাদেশিদের ক্রেডিট কার্ডে খরচের ৫০ শতাংশই এই চার দেশে হয়ে থাকে।

বাংলাদেশিদের একটি বড় অংশ প্রতি মাসে ভারতে ভ্রমণ ও চিকিৎসার জন্য যান। সাম্প্রতিক সময়ে দেশটিতে বাংলাদেশিদের ভ্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। এ কারণে বাংলাদেশিদের ক্রেডিট কার্ড সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হচ্ছে ভারতে। চলতি বছরের এপ্রিলে প্রতিবেশী দেশটিতে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে বাংলাদেশিরা ৯৭ কোটি ৯০ লাখ টাকা খরচ করেছেন, যা মোট খরচের ১৯ দশমিক ৩১ শতাংশ। ভারতে খরচের এ অঙ্ক মার্চে ছিল ১০৬ কোটি টাকা।

যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে বাংলাদেশিরা ৬৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা খরচ করেছে, যা মোট খরচের ১৩ দশমিক ১২ শতাংশ; থাইল্যান্ড গিয়ে ৪৬ কোটি ৬০ লাখ টাকা এবং আরব আমিরাতে খরচ হয়েছে ৪০ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এ ছাড়া সৌদি আরবে ৩৭ কোটি, সিঙ্গাপুরে ৩৫ কোটি ৭০ লাখ, যুক্তরাজ্যে ৩১ কোটি ৮০ লাখ এবং কানাডায় প্রায় ২৫ কোটি টাকা কার্ডে খরচ করেছেন বাংলাদেশিরা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের এক কর্মকর্তা বলেন, একজন বাংলাদেশি নাগরিক বিদেশে গিয়ে প্রতি বছর ১২ হাজার ডলারের সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা খরচ করতে পারেন। এ অর্থ কার্ডের মাধ্যমে খরচ করতে পারেন, আবার বিদেশে যাওয়ার সময় নগদ ডলারও সঙ্গে করে নিয়ে যেতে পারেন। তবে কার্ডের মাধ্যমে ডলার পেমেন্ট করতে গেলে একবারে সর্বোচ্চ ৩০০ ডলার পর্যন্ত খরচ করার সুযোগ রয়েছে।

গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধ-বার্ষিক ব্যবসা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধ-বার্ষিক ব্যবসা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধ-বার্ষিক ব্যবসা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

  • Font increase
  • Font Decrease

গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধবার্ষিক ব্যবসা পর্যালোচনা সভা-২০২৪ রাজধানী ঢাকার বনানীস্থ শেরাটনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১৩ জুলাই) উক্ত সম্মেলনের উদ্বোধন ও সভাপতিত্ব করেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ হাবিব হাসনাত। সভায় চলতি বছরের প্রথম ষাম্মাসিক সময়ে অর্জিত সাফল্যের পর্যালোচনা এবং বাৎসরিক লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

এসময় অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী মশিউর রহমান জেহাদ, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক আতাউস সামাদ ও সামি করিম, প্রধান কার্যালয়ের বিভাগীয় প্রধান এবং সকল শাখা ব্যবস্থাপকগণ উপস্থিত ছিলেন। শাখার অপারেশন ম্যানেজার ও উপশাখার ইন-চার্জগণ এসময় অনলাইনে যুক্ত ছিলেন।

;

আকিজবশির গ্রুপের ‘জনতা জুট মিলস্ লিমিটেড’ কর্মীরদের বেতন দেবে বিকাশ-এ



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সম্প্রতি বিকাশের সঙ্গে আকিজবশির গ্রুপের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে

সম্প্রতি বিকাশের সঙ্গে আকিজবশির গ্রুপের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে

  • Font increase
  • Font Decrease

এখন থেকে বিকাশ-এর ‘পে-রোল সলিউশন’ ব্যবহার করে ৯ হাজার কর্মীর বেতন প্রদান করবে দেশের অন্যতম শীর্ষ শিল্পগোষ্ঠী আকিজবশির গ্রুপের প্রতিষ্ঠান ‘জনতা জুট মিলস্ লিমিটেড’।

শনিবার (১৩ জুলাই) এই লক্ষ্যে সম্প্রতি বিকাশের সঙ্গে আকিজবশির গ্রুপের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তির ফলে প্রতিষ্ঠানটির কর্মীরা বিকাশ-এর পে-রোল সলিউশনের মাধ্যমে লাইনে দাঁড়ানোর ঝামেলা ছাড়াই সরাসরি তাদের বিকাশ অ্যাকাউন্টে বেতন-ভাতা গ্রহণ করবেন।

সম্প্রতি বিকাশ-এর চিফ কমার্শিয়াল অফিসার আলী আহম্মেদ এবং আকিজবশির গ্রুপের চিফ অপারেশনস অফিসার হেলাল আহমেদ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন। বিকাশ-এর এর প্রধান কার্যালয় আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিকাশ-এর হেড অব বিজনেস সেলস মাশরুর চৌধুরী, জেনারেল ম্যানেজার (বিজনেস সেলস) মো. সৌমেল রেজা খান, আকিজবশির গ্রুপের ডিরেক্টর-গ্রুপ এইচআর দিলরুবা শারমিন খান, সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার আবদুহু সুফীসহ দুই প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

বিকাশ-এর পে-রোল সলিউশন ব্যবহারের ফলে একদিকে শিল্পপ্রতিষ্ঠানটির কর্মীরা যেমন সরাসরি তাদের বিকাশ অ্যাকাউন্টে বেতন-ভাতা পাবেন, অন্যদিকে ক্যাশ টাকার ঝামেলা দূর হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির কর্মীদের সামগ্রিক বেতন ব্যবস্থাপনা হয়ে উঠবে আরও সহজ ও সাশ্রয়ী।

উল্লেখ্য, আকিজবশির গ্রুপের সিরামিক, স্যানিটারি ও বাথওয়্যার, প্লাস্টিক, পার্টিক্যাল বোর্ড, পাট, ইস্পাত, চা-সহ বিভিন্ন খাতে ব্যবসা রয়েছে।

২০১৫ সালে চালু হওয়া বিকাশ-এর ডিজিটাল পে-রোল সলিউশনের মাধ্যমে এই মুহূর্তে দেশজুড়ে ১১ শতাধিক প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করছে। ক্যাশ টাকা পরিবহনের ঝুঁকি এড়িয়ে, কর্মীদের কর্মঘন্টা অপচয় না করে, ছেঁড়া-ফাটা-নকল কিংবা ভাংতি টাকার ঝামেলা ছাড়াই প্রতিষ্ঠানগুলো নিমেষেই তাদের কর্মীদের বেতন-ভাতা বিতরণ করতে পারছে এই সলিউশনটি ব্যবহার করে। পাশাপাশি, নিজের বিকাশ অ্যাকাউন্টে বেতন পেয়ে কর্মীরা সেই অ্যাকাউন্ট থেকেই ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ডিজিটাল লোন, সেভিংস, বীমাসহ দরকারি সব আর্থিক সেবা নিতে পারছেন। এছাড়াও, মোবাইল রিচার্জ, সেন্ড মানি, কেনাকাটা, গ্যাস-বিদ্যুৎ-পানির বিল দেয়া, শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের ফি প্রদান, বাস-ট্রেন-লঞ্চের টিকেট কাটা-সহ বিভিন্ন সেবা ব্যবহার করতে পারছেন তারা।

;

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধবার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলন অনুষ্ঠিত



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধবার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলন, ছবি: সংগৃহীত

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের অর্ধবার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলন, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক পিএলসি’র অর্ধবার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলন-২০২৪ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১২ জুলাই) সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী জনাব জাফর আলম। সভাপতিত্ব করেন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মুহাম্মদ ফোরকানুল্লাহ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব আব্দুল হান্নান খান ও জনাব মোহাম্মদ হাবীবুর রহমান, বিভাগীয় প্রধানগণ, আঞ্চলিক প্রধানগণ এবং ঊর্ধ্বতন নির্বাহীবৃন্দ। সম্মেলনে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অংশগ্রহণ করেন দেশব্যাপী বিস্তৃত ১৭৯টি শাখার ব্যবস্থাপকবৃন্দ ও ২৩৬টি উপশাখার ইনচার্জবৃন্দসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ। অর্ধবার্ষিক ব্যবসায় সম্মেলনে ২০২৪ সালের প্রথম ছয় মাসের ব্যাংকের ব্যবসায়িক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হয় এবং জুলাই-ডিসেম্বর এই ছয় মাসে ব্যবসায়িক লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য কর্মকৌশল ও তার বাস্তবায়ন নিয়ে আলোচনা করা হয়।

ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী জনাব জাফর আলম বলেন, সকলের প্রচেষ্টায় আমরা বছরের প্রধমার্ধের ব্যবসায়িক লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। বৈদেশিক বাণিজ্য ও রেমিট্যান্স আহরনসহ বিভিন্ন সূচকে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের প্রবৃদ্ধি লক্ষনীয়। সকলের প্রচেষ্টায় সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক সফলতার ধারাবাহিকতা বজায় রেখে কাক্সিক্ষত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

;

ক্ষতিগ্রস্ত গ্যাস পাইপ মেরামত সম্পন্ন, বিকেলে পরিস্থিতি উন্নতি হবে



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ক্ষতিগ্রস্ত গ্যাস পাইপ মেরামত সম্পন্ন, ছবি: সংগৃহীত

ক্ষতিগ্রস্ত গ্যাস পাইপ মেরামত সম্পন্ন, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আনোয়ারা-ফৌজদারহাট পাইপলাইনের ক্ষতিগ্রস্ত পাইপ মেরামত ও গ্যাস কমিশনিং সম্পন্ন হয়েছে।

শুক্রবার (১২ জুলাই) সকাল সাড়ে ৭টায় গ্যাস সরবরাহ শুরু হয়েছে বিকেল নাগাদ গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক হবে বলে জানিয়েছে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ।

এলএনজি সরবরাহ ও গ্যাসগ্রিডের চাপ (বর্তমান ৭০ পিএসআই) এর সঙ্গে সমন্বয় করে পর্যায়ক্রমে গ্যাস সঞ্চালন ও চাপ বৃদ্ধি করা হচ্ছে। সিইপিজেডের জেটি নির্মাণের জন্য সয়েল টেস্ট কাজ পরিচালনার সময় জিটিসিএলের ৪২ ইঞ্চি ব্যাসের আনোয়ারা-ফৌজদারহাট উচ্চচাপ গ্যাস সঞ্চালন পাইপলাইনের ক্ষতিসাধন করে। নদীর তীর হতে ২৮০ মিটার দূরত্বে মাটির ১.৫ মিটার গভীরে পাইপলাইনটি অবস্থিত।

বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ সকল পাইপলাইনের ম্যাপ রাখার নির্দেশ দিয়ে বলেন, ম্যাপিং হাতে থাকলে এরকম দুর্ঘটনা ঘটবে না। গ্রাহক ভোগান্তি লাঘোব করতে নিয়মিত মনিটরিং বাড়াতে হবে অনাকাঙ্ক্ষিত এই ঘটনার জন্য গ্রাহকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

ঘূর্ণিঝড় রিমালের পর থেকেই গ্যাস সংকট বিরাজ করছে। ঝড়ে পন্টুনের সঙ্গে ধাক্কা লেগে সামিট গ্রুপের ভাসমান এলএনজি টার্মিনালের পাইপ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ওই ঘটনার পর থেকেই ওই এফএসআরইউ থেকে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। ১৫ জুলাই নাগাদ চালু হওয়ার কথা রয়েছে। সামিট গ্রুপের ভাসমান ওই টার্মিনালটি দৈনিক ৫০০ মিলিয়ন গ্যাস সরবরাহ দিতে পারে। গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়া সারাদেশেই তার প্রভাব পড়েছে। শিল্প কারখানা ও সিএনজি ফিলিং স্টেশনে স্বল্পচাপ বিরাজ করছে। সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলোতে যানবাহনের লম্বা সারি দেখা যাচ্ছে।

;