রফতানি আদেশ বাতিলে ক্ষতিপূরণ চাইল এশিয়ার ৯ সংগঠন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসের কারণে তৈরি পোশাক খাতের বায়ারদের দায়িত্বশীল আচরণের অনুরোধ জানিয়েছে পোশাক খাতের এশিয়ার ছয়টি দেশের ৯টি সংগঠনের জোট সাসটেইনেবল টেক্সটাইল অব দ্যা এশিয়ান রিজিয়ন (এসটিএআর)।

বুধবার (০৮ এপ্রিল) এক যৌথ বিবৃতিতে রফতানি আদেশ বাতিল করলে শতভাগ ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছে সংগঠনগুলো। ৬টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের শুধু তৈরি পোশাক খাতের কারখানাগুলোর রফতানি আদেশ বাতিল ও স্থগিত হয়েছে ৩ দশমিক ০৪ বিলিয়ন ডলারের সমান।

বিবৃতিতে ক্রেতা ও ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্যে বলা হয়, চুক্তির পর যেসব পণ্যের উৎপাদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে সেসব পণ্যের রফতানি আদেশ বাতিল যেন না করা হয়, স্বাক্ষরিত চুক্তির দরেই যেন পোশাক নেওয়া হয় এবং এ নিয়ে নতুন করে আর দর-কষাকষি না করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, একান্ত যদি রফতানি আদেশ বাতিল বা স্থগিত করতেই হয় সে ক্ষেত্রে শতভাগ ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে। যাতে এ দুঃসময়ে শ্রমিকসহ উদ্যোক্তাদের বিপদ কিছুটা উপশম হয়।

করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্বব্যাপী যে অভূতপূর্ব পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে তাতে ব্যবসা বাণিজ্যে দায়িত্বশীল আচরণ করতে অনুরোধ করা হয়েছে বিবৃতিতে। বিশেষ করে তৈরি পোশাকের বৈশ্বিক সরবরাহ চেইনের সঙ্গে সম্পর্কিত ব্র্যান্ড, ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের। কারণ, অতীতের যে কোনো সময়ের তুলনায় এই সময়টা বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

বিবৃতি দেওয়া সংগঠনগুলো হচ্ছে, বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিজিএমইএ), বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিকেএমইএ), চায়না ন্যাশনাল অ্যাপারেলস অ্যান্ড টেক্সটাইল কাউন্সিল ( সিএনটিএসি), গার্মেন্টস ম্যানুফেকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন ইন কম্বোডিয়া(জিএমএসি), মিয়ানমার গার্মেন্টস ম্যানুফেকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (এমজিএমএ), পাকিস্তান হোসিয়ারি ম্যানুফেকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোটার্স অ্যাসোসিয়েশন (পিএইচএমএ), পাকিস্তান টেক্সটাইল টেক্সটাইল অ্যাসোসিয়েশন (পিটিইএ), টাওয়েল ম্যানুফেকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোটার্স অ্যাসোসিয়েশন অব পাকিস্থান (টিএমএ) ও ভিয়েতনাম টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্টস অ্যাসোসিয়েশন (ভিআইটিএএস)।

আপনার মতামত লিখুন :