টিকটক থেকে ‘ঝালাক দিখলা যা’ জয়ী মনীষা রানি



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ঝালাক দিখলা যা: সিজন ১১’র বিজয়ী মনীষা রানি

ঝালাক দিখলা যা: সিজন ১১’র বিজয়ী মনীষা রানি

  • Font increase
  • Font Decrease

নাচের রিয়েলিটি শো দিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন। ব্যর্থ হয়ে ফিরে যেতে হলেও, ব্যক্তিত্ব দিয়ে সবার মনে দাগ কাটেন। কঠোর পরিশ্রম, চর্চা এবং হার না মানার উদ্যমে নতুন পথে জীবনে এগিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত মানুষকে সফলতা এনে দেবেই। জীবনের চাকা ঘুরে সেই ডান্স রিয়েলিটি শো’য়ের মাধ্যমেই স্বপ্ন পূরণ করলেন।

বলছি বিহারের মেয়ে মনীষা রানির কথা। ভারতে এখন খুব পরিচিত এক নাম। জনপ্রিয় বিতর্কিত শো ‘বিগবস: ওটিটি- সিজন টু’ থেকে তার জনপ্রিয়তা দেশব্যাপী ছড়িয়ে যায়। বিগবসে অভিষেক মালহান এবং এলভিস যাদবের সাথে, তার অকৃত্রিম বন্ধুত্ব ছাড়িয়ে গিয়েছিল খেলার কঠোর নিয়মকেও।

বিগবসে বিজয়ী হতে না পারলেও, জয় করেছিলেন শত শত ভারতবাসীর মন। তবুও তার হাতে ট্রফি দেখতে না পারার আফসোস ছিল মনীষা ভক্তদের। অবশ্য সেই আফসোসও অবশেষে দূর হলো। ভারতীয় জনপ্রিয় নাচের রিয়েলিটি শো ‘ঝালাক দিখলা যা’ এর সিজন ১১-এর ট্রফি উঠেছে মনীষা রানির হাতে। বন্ধু এলভিশের মতোই ওয়াইল্ড কার্ডে এন্ট্রি নিয়ে শেষবাজি মারলেন মনীষা।

বিহার কন্যা মনীষা রানি

ধনশ্রী বর্মা, অদ্রিজা সিনহা ,শোয়েব ইব্রাহিম এবং শ্রীরাম চন্দ্রের সাথে ফাইনালে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর ট্রফি ওঠে মনীষঅর হাতে।  ট্রফি ছাড়াও পেয়েছেন নগদ ৩০ লাখ রুপি। নৃত্য প্রশিক্ষক আশুতোষ পওয়ারের জন্য ছিল পুরষ্কার হিসেবে ১০ লাখ রুপি।

সাবলীল ব্যক্তিত্ব এবং নিজের জড়তাকে কাটিয়ে উঠেছিলেন মনীষা। তার সরলতা এবং উৎফুল্ল মনোভাবের কারণে সকলের মনের রানি হয়ে উঠেছেন মনীষা রানি। সিজন ফিনালের আগেই মনিষার শুভাকাক্ষীদের দেখা যায়, তার জন্য ভোট চাইতে। বিভিন্ন সেলিব্রিটিরা তাদের দর্শকদের অনুরোধ করেছিলেন, মনীষাকে ভোট দিয়ে জিতিয়ে দেওয়ার জন্য।

ট্রফি জেতার পর তিনি সকলকে ধন্যবাদ জানান। বিচারক এবং দর্শকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি আরও বলেন, ‘ঝলক দিখলা যা’-তে জয়লাভ করা তার স্বপ্ন ছিল, যা এখন পূরণ হয়েছে। এরই সাথে নৃত্যশিল্পী হিসেবে তার সব প্রতিকূলতার কথাও উল্লেখ করেন মনীষা।   

ছোটবেলা থেকেই নাচতে ভালোবাসেন মনীষা। নাচ শেখার জন্যই ছোটবেলায় বিহার থেকে কোলকাতায় আসেন। সেখানে পুরোদমে প্রশিক্ষণ অব্যহত রেখেছিলেন। পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেন মুম্বাই যাওয়ার। সেই সিদ্ধান্তই তার জীবন বদলে দিয়েছে।   

   

আবারও শাকিব তর্কে নাম উঠে এলো অপু-বুবলির



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
শবনম বুবলী, সাকিব খান, অপু বিশ্বাস / ছবি: সংগৃহীত

শবনম বুবলী, সাকিব খান, অপু বিশ্বাস / ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢালিউড কিং শাকিব খান। দীর্ঘ অনেক বছর ধরে বাংলা সিনেমার সাথে যুক্ত আছেন তিনি। তবে তার সিনেমা নিয়ে যতটা আলোচনা হয়, ঠিক ততটাই আলোচনায় থাকেন তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও। প্রেম, বিয়ে, সংসার, সন্তান, বিচ্ছেদ- সব নিয়েই নানা ধরনের আলোচনায় থাকেন তিনি। বিশেষ করে উৎসবের মৌসুম আসলেই আলোচনা যেন আরও বেশি মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে।

ঈদে প্রকাশ পেয়েছে সাকিবের সিনেমা রাজকুমার। সিনেমা হলগুলো রেকর্ড সংখ্যক হল পেয়েছে সিনেমাটি। এখনো সিনেমা হলে ভালো চলছে ‘রাজকুমার‘। তার উপর ঈদ। তবে এই যৌথ খুশির সম্মেলনেও শাকিব নাকি বিরক্ত। তার ঘনিষ্ঠ মহল থেকে জানা যায় দ্বিতীয় স্ত্রী বুবলীর মন্তব্যে নাখোশ শাকিব।        

শাকিব-বুবলী

এবার ঈদের এক সাক্ষাৎকারে গণমাধ্যমে বুবলী জানান, তার এবং শাকিবের এখনো বিচ্ছেদ হয়নি। তারা আলাদা থাকছেন বটে, তবে এখনো সময় নিচ্ছেন। ভিন্ন বসবাসের কারণ হিসেবে তিনি জানান, কেবল দম্পতির মধ্যকার ভুল বোঝাবুঝিই তার কারণ। তবে সন্তান শেহজাদ খান বীরের জন্য তাদের দেখা সাক্ষাৎ এবং মেলামেশা হচ্ছে।      

এই সাক্ষাৎকারের মন্তব্যে নাকি খুশি নন শাকিব। নিজের মতামত উনি অনেক আগেই  স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। তারপরও এমন মন্তব্য শুনে তিনি নাকি অবাক হন।

এমনকি এমনও গুঞ্জন শোনা গেছে, বুবলীর মন্তব্যের জের ধরেই অপু অভিমান করেছিলেন। সেই কারণে নাকি ঈদের দিন ছেলেকে নিয়ে শশুরবাড়ি যেতে চাননি তিনি। পরে সেই বাড়িতে থেকে লোক এসে অপু-জয়কে নিয়ে যায়।

এই নিয়ে মন্তব্য করেন অপু। যদিও সবটা খোলাসা করেন নি; তবে তিনি জানান ঈদের দিন অনেক রাত অবধি শাকিবের বাসাতেই ছিলেন তিনি। ছেলে জয় দাদাবাড়িতে অনেক মজা করেছে। অপু এও বলেন, তার নিজের বাবা-মা বেঁচে নেই। শশুর-শাশুড়িই তাই তার বাবা মা এবং ননদ সবচেয়ে কাছের বন্ধু। শশুরবাড়িতেও নাকি সবার প্রিয় অপু বিশ্বাস।       

শাকিব-অপু

যদিও নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তেমন একটা মুখ খুলতে দেখা যায়না শাকিবকে। তবে ভিন্নতা দেখা যায় বিপরীত দিক থেকে। তার দুই প্রাক্তন স্ত্রী অপু বিশ্বাস এবং শবনম বুবলী দুইজনই চিত্র নায়িকা। সেই হিসেবে তারা দুজনও অত্যন্ত সুপরিচিত। বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে প্রায়ই শাকিবকে নিয়ে মুখ খোলেন তারা। বের হয়ে আসে বিভিন্ন তথ্য।

যদিও কখনো নিজে কোনো তথ্যের সত্যতা নিয়ে মন্তব্য করেন না শাকিব। তবে তার ঘনিষ্ঠ মাধ্যম থেকে প্রায়ই তার প্রতিক্রিয়ার তথ্য জানা যায়।

;

বাবা হচ্ছেন সুপারম্যানখ্যাত হেনরি ক্যাভিল



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
হেনরি ক্যাভিল এবং নাটালি ভিসকুসো

হেনরি ক্যাভিল এবং নাটালি ভিসকুসো

  • Font increase
  • Font Decrease

সম্প্রতিত রিবুট করা হয়েছে ডিসি এক্সটেন্ডেড ইউনিভার্স। জেমস গান এবং পিটার সাফরানের নির্দেশে প্রায় পুরানো সকল অভিনেতাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। প্রাক্তন ডিসি ইউনিভার্সে সুপারম্যানের অভিনয় করতেন হেনরি ক্যাভিল। নেটিজেনদের মতে তিনি ছিলেন ‘পারফেক্ট সুপারম্যান’।

তবুও ধর্তাকর্তাদের নির্দেশে চরিত্রটি ছাড়তে হয়েছে। শুধু রয়ে গেছে সুপারম্যান চরিত্রে হেনরির অভিনীত ম্যান অব স্টিল, জাস্টিস লীগ এবং ডার্ক নাইট ট্রিলজি সিনেমাগুলো।    

তবে অতীত ভুলে সামনে এগিয়ে চলছেন অভিনেতা। ব্যক্তিগত এবং পেশাগত দুইক্ষেত্রেই তার নতুন ধাপ শুরু হতে চলেছে। গুঞ্জন রয়েছে শিগগিরই মার্ভেলের কোনো সুপার পাওয়ারড বিয়িং-এর চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। পাশাপাশি ব্যক্তিগত জীবনেও এক নতুন অভিজ্ঞতার স্বাদ নিতে চলেছেন তিনি।

বান্ধবী নাটালি ভিসকুসোর সাথে হেনরি ক্যাভিল 

হেনরি ক্যাভিল এবং তার বান্ধবী নাটালি ভিসকুসো দীর্ঘদিন ধরে একত্রে রয়েছেন। ৩ বছরের সম্পর্কে একসঙ্গে আছেন এই তারকা দম্পতি। তবে প্রাক্তন এই সুপারম্যান এবার প্রথমবার বাবা হতে চলেছেন।

সম্প্রতি সকলের সামনে এই সুখবর দেন তারকা দম্পতি। ভক্তরা প্রথম এই ব্যাপারে জানতে পারেন, যখন নাটালি একটি কালো ড্রেস পরে হেনরির সঙ্গে ডেটে যান। সেখানে তার বেবিবাম্প স্পষ্ট নজরে পড়ে। নেটিজেনরা এই দম্পতিকে অভিনন্দন জানান।    

৪০ বছর বয়েসি হেনরি মিডিয়ার সামনে তার অনুভূতি প্রকাশ করেন। সম্প্রতি এই হলিউড তারকা একটি প্রিমিয়ারে যোগ দিয়েছিলেন। নিউ ইয়র্ক সিটিতে ‘দ্য মিনিস্ট্রি অব আনজেন্টালম্যানলি ওয়্যারফেয়ার’ এর সেই প্রিমিয়ারি প্রথম সন্তান নিয়ে অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন।

সাক্ষাৎকারে তিনি নিজের উত্তেজনা প্রকাশ করেন। অভিনেতা বলেন, তিনি এবং নাটালি দু’জনেই বেশ উত্তেজিত। তিনি এও বলেন, সকলের জন্য আরও অনেক কিছু অপেক্ষা করছে।   

সাক্ষাৎকার শেষে হেনরি একজন ভালো বাবা হবেন এমন শুভ কামনা জানান সাংবাদিক। এতে হেসে ওঠেন অভিনেতা।

তথ্যসূত্র: পিপল

;

শ্যামল মাওলা ও চমকের ‘ফাঁকি’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
শ্যামল মাওলা ও চমকের ‘ফাঁকি’

শ্যামল মাওলা ও চমকের ‘ফাঁকি’

  • Font increase
  • Font Decrease

ঈদুল ফিতর একদিনের হলেও এই উৎসবের অনুষ্ঠান চলে ৭ দিন অবধি। বিনোদন মাধ্যম সংশ্লিষ্টরা তাই ঈদকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন নাটক এবং সিনেমা উপস্থাপন করে। ঈদের আনন্দ মৌসুমেই আসছে শ্যামল মাওলা এবং রুকাইয়া জাহান চমক অভিনীত টেলিফিল্ম ‘ফাঁকি’।

এই টেলিফিল্মটি প্রকাশ করা হবে চ্যানেল আইতে। ঈদের বিশেষ আয়োজনে ঈদের ৬ষ্ঠ দিন অর্থাৎ, ১৬ এপ্রিল সম্প্রচার করা হবে দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে। টেলিফিল্মের পরিচালনায় করেছেন রাশেদ শামীম স্যাম। ‘ফাঁকি’ টেলিফিল্মটি কাহিনি ও চিত্রনাট্য নিয়ে কাজ করেছেন রিপন মাহমুদ।

এতে প্রধান চরিত্রে শ্যামল মাওলা এবং রুকাইয়া জাহান চমক রয়েছেন। আরও অভিনয় করেছেন, জয়রাজ, সাদমান সামির ও সানজিদা মিলাসহ আরও অনেকে। একটি শান্ত ও সুন্দরভাবে সংসার করা এক দম্পতির জীবনে লুকিয়ে থাকা সন্দেহ এবং হিংস্রতা নিয়ে এগিয়েছে গিয়েছে ফাঁকি'র গল্প।

পরিচালক রাশাদ শামিম স্যাম তার পরিচালিত ফাঁকি টেলিফিল্ম সম্পর্কে বলেন, ‘ফাঁকি মূলত স্বামী-স্ত্রীর দাম্পত্য সম্পর্কের টানাপোড়েনের গল্প। যেখানে দুজন দুজনকে সন্দেহের বশবর্তী হয়ে তাদের প্রেম পরিণত হয় শত্রুতায়। একটা সময় তারা একে অপরকে মেরে ফেলার জন্য খুনি ভাড়া করার পরিকল্পনা করে। এভাবেই ফাঁকি গল্পটি এগিয়ে যায়। শ্যামল মাওলা তার চিরাচরিত চরিত্রের বাইরে নিজেকে ভেঙে এই টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন। অভিনেত্রী চমক ফাঁকি টেলিফিল্মে যে চরিত্রে অভিনয় করেছেন তা এক কথায় দুর্দান্ত। অন্যান্য অভিনয় শিল্পীরাও নিজেদের সর্বোচ্চটুকু দিয়ে আমার এই টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন।’

অভিনেতা শ্যামল মাওলা ফাঁকি টেলিফিল্মটি নিয়ে খুবই আশাবাদী। তিনি বলেন, ‘পরিচালক রাশাদ শামীম স্যাম গতানুগতিক গল্পের বাইরে গিয়ে একটি ব্যতিক্রমধর্মী গল্প বলতে চেষ্টা করেছেন। দর্শক এই টেলিফিল্মের প্রতিটি দৃশ্যে টানটান উত্তেজনা খুঁজে পাবেন।’

সম্পর্কের মাঝে সন্দেহ পাল্টে দিতে সংসার আর জীবনের গতি-প্রকৃতি। যা বিনাশ করে দেয় মানুষের সুখ। এমনই এক মৌলিক গল্প নিয়ে টেলিফিল্ম ফাঁকি দর্শকদের মন জয় করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন পরিচালক রাশাদ শামীম স্যাম।

;

আসছে জীবন-নওশীনের ‘বেপরোয়া প্রেম’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জীবন এবং নওশীন

জীবন এবং নওশীন

  • Font increase
  • Font Decrease

কলেজের প্রথম দিনেই চেয়ারম্যানের মেয়ে আফিয়াকে দেখে ভালো লেগে যায় জীবনের। এরপর দুজনের পরিচয় থেকে বন্ধুত্ব এবং সম্পর্ক গড়ে উঠে। একটা সময়ে পরিবারে জানাজানি হলে সম্পর্কের বিষয়টি মানতে চায় না আর তখনই তারা পালিয়ে যাবার সিদ্ধান্ত নেয়। এরপরই গল্প মোড় নেয় অন্যদিকে।

কিশোর বয়সের ভালোলাগার খুঁনসুটির এরকম গল্পে নির্মিত হয়েছে নাটক ‘বেপরোয়া প্রেম’। এতে আফিয়া ও জীবন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তরুণ দুই অভিনয়শিল্পী নওশীন নাহার ও নিলয় আহমেদ। এটি পরিচালনা করেছেন ম ম পৃথ্বী।

নওশীন নাহার বলেন, ‘একদম কিশোর বয়সের ভালো লাগার খুঁনসুটির গল্প। রোমান্টিকতার পাশাপাশি এখানে একটা সামাজিক বার্তা রয়েছে যেটা নাটকটি দেখলে দর্শকরা বুঝতে পারবেন।’

জানা গেছে, আগামীকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় নাটকটি ইউটিউবে উন্মুক্ত হবে।

নাটকটিতে দুটি গান রয়েছে যেগুলোতে কন্ঠ দিয়েছেন শোভন রায় ও সারজিল আমিন সিয়াম৷ শাহরিয়ার সোহাগের চিত্রনাট্যে নাটকটিতে আরও অভিনয় করেছেন ফারুক আহমেদ, রকি খান, রত্না খান ও সিয়াম নাসির প্রমুখ।

;