পঙ্গু হয়ে যেতে পারেন বেসবাবা সুমন, চেয়েছেন দোয়া

বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সাইদুস সালেহীন খালেদ সুমন

সাইদুস সালেহীন খালেদ সুমন

  • Font increase
  • Font Decrease

মরণ ব্যাধি ক্যান্সারকে বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে সেই আঙ্গুল দিয়ে বারবার গিটার ধরেছেন। শরীরে প্রায় ১ ডজন স্ক্রু নিয়ে স্টেজ মাতিয়ে গেছেন। তিনি বাংলাদেশের জনপ্রিয় রক ব্যান্ড ‘অর্থহীন’ এর প্রতিষ্ঠাতা এবং দলনেতা সাইদুস সালেহীন খালেদ সুমন (বেসবাবা সুমন)।

সম্প্রতি এই জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী নিজের ফেসবুকে জানিয়েছেন, আমার শরীর ভাল না। আমি সারাদিন বিছানায় শুয়ে থাকি। আমার স্পাইনের অবস্থা খুব খারাপ। ১৯ তারিখে (১৯ মার্চ) জার্মানি যাচ্ছি সার্জারির জন্য, যদিও ডাক্তাররা খুব একটা আশাবাদী নয়। সার্জারি আন্সাক্সেলফুল হলে আমার সারা জীবনের জন্য পঙ্গু হয়ে যাবার সম্ভাবনা আছে। দেখা যাক কি হয়। Happiness is a choice and life is beautiful. সবাই দোয়া করবেন।

বেসবাবা সুমনের বর্তমান শারীরিক অবস্থা জানতে অর্থহীন ব্যান্ডের ম্যানেজার রাজু আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘সুমন ভাই কারো সঙ্গে যোগাযোগের মত অবস্থায় নেই। তার মোবাইল সহ সকল কিছু বন্ধ। বর্তমানে তিনি তার ঢাকার বাসাতেই অবস্থান করছেন। ১৯ তারিখ তিনি জার্মানি যাবেন অপারেশনের জন্য।’

সাইদুস সালেহীন খালেদ সুমন

১৯৮৬ সালে ‘ফ্রিকোয়েন্সি’ ব্যান্ড গঠনের মাধ্যমে সুমন তার রক সংগীতের জীবন শুরু করেন। মাত্র ১৯ বছর বয়সের মধ্যে অনেকগুলো ব্যান্ডে বেস বাজানোর সৌভাগ্য হয় তার। ১৯৯৭ সালে তিনি সেই সময়ের জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘ওয়ারফেজ’ গিটারবাদক হিসেবে যোগ দেন। দুই বছর ওয়ারফেজে বাজানোর পর, ১৯৯৯ সালে নিজের প্রথম একক অ্যালবাম ‘সুমন ও অর্থহীন’ প্রকাশ করেন তিনি। অ্যালবামটি অনেক জনপ্রিয়তা পেলে, সে বছর অর্থহীন ব্যান্ডের যাত্রা শুরু করেন সুমন। বাংলাদেশের অন্যতম সেরা এই বেইজ গিটারিস্ট নিজের প্রকৃত নামের চেয়ে সংগীত জগতে বেসবাবা সুমন নামে বহুল পরিচিত। ২০১৩ সাল থেকে একাধিকার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েও গান ছাড়েননি এই সুরের জাদুকর।

আপনার মতামত লিখুন :