মধ্যরাতে লাদাখ সীমান্তে গোলাগুলি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারত-চীন সীমান্তে ফের গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে লাদাখের প্যাংগন লেকের দক্ষিণ তীরের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় এ ঘটনা ঘটেছে।

তবে চীন অভিযোগ করেছে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলএসি) অবৈধভাবে অতিক্রম করে ভারতীয় সেনারা গুলি চালিয়েছে। পরে এর পাল্টা জবাব দিয়েছে চীনের সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনী বলে জানিয়েছে দেশটির পিপল’স লিবারেশন আর্মির এক মুখপাত্র। চীন পাল্টা জবাব কী দিয়েছে তা স্পষ্ট করে বলেনি। ভারতের পক্ষ থেকেও এখন পর্যন্ত পাল্টা কোনও প্রতিক্রিয়াও জানানো হয়নি।

চীনের পিপল’স লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) মুখপাত্র অভিযোগ করে বলেছেন, ভারতীয় সেনারা অবৈধভাবে নিয়ন্ত্রণ রেখা অতিক্রম করে প্যাংগন লেকের দক্ষিণ তীর এবং শেনপাও পার্বত্য এলাকায় ঢুকে পড়ে। পিএলএ’র পশ্চিমাঞ্চলীয় কমান্ডের মুখপাত্র সিনিয়র কর্নেল ঝ্যাং সুইলি এক বিবৃতিতে বলেন, অভিযানকালে চীনের সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনীর টহল দলের ওপর মারাত্মক হুমকিমূলক গুলি বর্ষণ করে ভারতীয় বাহিনী আর পরিস্থিতি স্থিতিশীল করতে পাল্টা পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয় চীনা বাহিনী। ভারতের এই আচরণকে মারাত্মক উস্কানি আখ্যা দিয়ে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমরা ভারতের বিপদজনক এই পদক্ষেপ এখনই বন্ধ করার অনুরোধ করছি।

গত দুই সপ্তাহ ধরে অন্তত দুইবার লাদাখের প্যাংগন লেকের দক্ষিণ তীরে চীনা সেনাবাহিনী উস্কানিমূলক কাজে জড়িত রয়েছে। তবে ভারত এলএসি-তে একতরফাভাবে স্থিতাবস্থা পরিবর্তনের এই প্রয়াস রোধ করতে সক্ষম হয়েছিল বলে দাবি করা হয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে। এতে বলা হয়, এসব ঘটনার সময়ে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে কোনও শারীরিক সংঘাত হয়নি।

উল্লেখ্য, গত ১৫ জুন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সংঘাতে জড়ায় ভারত ও চীনের সেনা সদস্যরা। এতে ভারতের অন্তত ২০ সেনা নিহত হয়। ওই সংঘাতের পর জুলাই মাসে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের আলোচনার পর সেনা সরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে সম্মত হয় ভারত ও চীন। তবে এখন পর্যন্ত সেই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়নি।