যুক্তরাষ্ট্রে ৭০০ গ্যাং সদস্য গ্রেফতার



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: রয়টার্স

ছবি: রয়টার্স

  • Font increase
  • Font Decrease

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এল সালভাদর, গুয়াতেমালা এবং হন্ডুরাস সীমান্তে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত সংস্থার বিশেষ করে এমএস -১৩ এবং ১৮তম স্ট্রিট গ্যাংয়ের ৭০০ এরও বেশি সদস্যকে গ্রেফতার করেছেন।

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অভিযোগ এনেছে দেশটির বিচার বিভাগ। যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংবাদসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানা যায়।

এক বিবৃতিতে আমেরিকার অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ এবং মধ্য আমেরিকার আইন প্রয়োগকারী সদস্যরা অভ্যন্তরীণ অপরাধে জড়িত গ্যাং সদস্য এবং সহযোগীদের শনাক্ত ও গ্রেফতার করেছে। তারা সবসময় অপরাধ বন্ধে সহযোগিতা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ রয়েছে।

অপারেশন রিজিওনাল শিল্ড (ওআরএস) এর অধীনে এক সপ্তাহ ধরে অভিযানে, আভ্যন্তরীণ অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের এল সালভাদর, গুয়াতেমালা, হন্ডুরাস, মেক্সিকো এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃপক্ষকে ঐক্যবদ্ধ করে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, চলতি সপ্তাহে এল সালভাদোরের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা দেশে সংগঠিত অপরাধ গ্রুপের ১ হাজার ১৫২ সদস্যের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অভিযোগ দায়ের করেছে। জাতীয় সিভিল পুলিশ সন্ত্রাসবাদ, হত্যা, চাঁদাবাজি, অপহরণ, অর্থ পাচার এবং মানব পাচারের অভিযোগে ৫৭২ জনকে আটক করেছে।

গুয়াতেমালায় কর্তৃপক্ষ ৮০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে, ৪০ জনকে গ্রেফতারে করেছে এবং ইতোমধ্যে হেফাজতে থাকা ২৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা কার্যকর করেছে, তারা সবাই ১৮তম স্ট্রিট গ্যাং এবং এমএস -১৩ এর সদস্য। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে গুয়াতেমালা কর্তৃপক্ষ মাদক, আগ্নেয়াস্ত্র জব্দ করে এবং চাঁদাবাজি, হত্যার ষড়যন্ত্রের জন্য অভিযোগ দায়ের করেছে।

হন্ডুরাসে যৌথ অভিযানে ৭৫ জনেরও বেশি এমএস-১৩ এবং ১৮তম স্ট্রিট গ্যাং সদস্য ও পাঁচ পুলিশ অফিসারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া ১০ জনেরও বেশি লোকের বিরুদ্ধে সার্চ ওয়ারেন্ট জারি করেছে।