গঙ্গার লাশগুলো অ্যাম্বুলেন্স থেকে ফেলা হয়



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ভারতের গঙ্গায় ভেসে আসছে মানুষের লাশ। গত সোমবার বিহারে রাজ্যের বক্সারে গঙ্গা নদীতে ৭১টি লাশ ভেসে আসে। আর মঙ্গলবার ওই জায়গা থেকে ৫৫ কিলোমিটার উজানে উত্তর প্রদেশ রাজ্যের গাজিপুরে ভেসে আসে আরও কিছু লাশ। তবে মোট কত লাশ ভেসে এসেছে, তা জানা যায়নি।

এদিকে বিহার-উত্তর প্রদেশ সীমান্তের এক সেতুর ওপর থেকে নদীতে লাশ ফেলার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বিহারের বিজেপির সাংসদ জনার্দন সিং সিগরিওয়াল অভিযোগ করেন, উত্তর প্রদেশ রাজ্যের বালিয়া সীমান্তের কাছে বিহারের শরন এলাকায় জয়প্রভা সেতুতে অ্যাম্বুলেন্স করে করোনায় মারা যাওয়া রোগীদের নিয়ে এসে নদীতে ফেলছেন চালকেরা। অ্যাম্বুলেন্সের চালকেরা যাতে নদীতে মরদেহ ফেলতে না পারেন, সে ব্যাপারে তিনি শরনের জেলা প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানান।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়, গঙ্গায় লাশ ভেসে আসার ঘটনায় জনমনে আতঙ্ক ও ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। বিহারের রাজ্য প্রশাসনের দাবি, উত্তর প্রদেশ থেকে এসব লাশ ভেসে আসছে। কারণ, বিহারে নদীতে লাশ ভাসিয়ে দেওয়ার কোনো রীতি নেই।

বক্সার প্রশাসন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, গতকাল বক্সারে গঙ্গা থেকে রাতভর লাশগুলো উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়ে ময়নাতদন্ত করা হয়। লাশগুলো পচে গিয়েছিল। লাশগুলো থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

তবে নদীতে লাশ ফেলার জন্য দুই রাজ্যকেই দুষছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। অরবিন্দ সিং নামের এক ব্যক্তি বলেন, বিহার ও উত্তর প্রদেশ দুই জায়গা থেকেই অ্যাম্বুলেন্সের চালকেরা নদীতে লাশ ফেলছেন।

এনডিটিভি জানায়, প্রত্যন্ত এলাকায় করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তিদের কীভাবে সৎকার করতে হয়, তা তাদের জানা নেই। তাই মরদেহ থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে, এমন আশঙ্কায় তারা মরদেহগুলো নদীতে ভাসিয়ে দিচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এভাবে নদীতে লাশ ভেসে আসায় আতঙ্কিত মানুষ। তারা মনে করছেন, এতে নদীর পানি থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। এমন পরিস্থিতিতে স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, তারা এ ঘটনা তদন্ত করে দেখছে।

এদিকে প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে আখন্দ নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, ‘প্রশাসনকে আমরাই বিষয়টি জানিয়েছি। কিন্তু তাদের পক্ষ থেকে কোনো পদক্ষেপ দেখতে পাচ্ছি না। এভাবে নদীতে লাশ ভেসে আসতে থাকায় আমরা করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে ভীত।’

বিহারের ঘটনা নিয়ে টুইট করেছেন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের নদী উন্নয়ন, গঙ্গা পুনর্জীবন, পানিসম্পদ ও স্যানিটেশনবিষয়ক মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াত। সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলোকে বিষয়টি আমলে নিতে বলেছেন তিনি।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, ‘বক্সারে গঙ্গা নদীতে লাশ ভেসে আসার ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক। এটির অবশ্যই তদন্ত হওয়া উচিত। মা গঙ্গা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা মোদি সরকারের অঙ্গীকার। লাশ ভেসে আসার ঘটনা অপ্রত্যাশিত। সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলোর উচিত অতিদ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা।’