ইউক্রেনের ইইউতে প্রবেশের বিরোধিতা করছে হাঙ্গেরি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবান। ছবি : সংগৃহীত

হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবান। ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

হাঙ্গেরির ক্ষমতাসীন দল দেশটির পার্লামেন্টে একটি রেজুলেশন পেশ করেছে, যাতে দেশটির সরকারকে ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) ইউক্রেনের যোগদানের বিষয়ে আলোচনা শুরু করাকে সমর্থন না করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

আল-জাজিরা জানিয়েছে, এর কারণ আগামী সপ্তাহে একটি গুরুত্বপূর্ণ শীর্ষ সম্মেলনের আগে ব্রাসেলসের উপর চাপ বাড়াতে চাচ্ছে বুদাপেস্ট।

হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবান সতর্ক করেছেন যে, ইইউ নেতারা ইউক্রেনের সদস্যপদ নিয়ে আলোচনা শুরু করার বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছাতে ব্যর্থ হতে পারে এবং বিষয়টিকে শীর্ষ সম্মেলনের আলোচ্যসূচিতে রাখা উচিত নয়।

হাঙ্গেরির ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল দল ফিদেজ কর্তৃক বুধবার (৬ ডিসেম্বর) পেশ করা সংসদীয় প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়নের সম্প্রসারণ নীতিটি নিয়ম এবং কর্মক্ষমতার উপর ভিত্তি করে একটি উদ্দেশ্যমূলক প্রক্রিয়া হওয়া উচিত।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য দেশগুলোর মধ্যে ঐকমত্যের ভিত্তিতে ইউক্রেনের সদস্যপদ নিয়ে আলোচনা শুরু হওয়া উচিত।’

রাশিয়াপন্থী এই নেতার অধীনে হাঙ্গেরি প্রায়শই মস্কোর আক্রমণের মধ্যে ইউক্রেনকে সমর্থন করার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রচেষ্টাকে জটিল করেছে।

ওই রেজল্যুশনে আরও বলা হয়েছে, ইইউ নেতাদের প্রথমে ইউক্রেনের সম্ভাব্য সদস্যপদ ব্লকের মধ্যে সংহতি এবং কৃষিনীতিগুলোকে কীভাবে প্রভাবিত করবে তার একটি পুঙ্খানুপুঙ্খ মূল্যায়ন করা উচিত।

এদিকে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘অরবান বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) প্যারিসে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁর সঙ্গে দেখা করবেন।

অন্যদিকে, সমালোচকরা অরবানকে ইইউ তহবিলে বিলিয়ন ইউরো অ্যাক্সেস পেতে ব্রাসেলসকে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করার অভিযোগ করেছেন।

   

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন শেহবাজ শরিফ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পাকিস্তানের ২৪তম এবং টানা দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএলএন) প্রেসিডেন্ট শেহবাজ শরিফ।

সোমবার (৪ মার্চ) পাকিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানীতে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নেন তিনি।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জিও নিউজের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি শেহবাজ শরিফকে প্রধানমন্ত্রীর শপথ পড়িয়েছেন।

শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ, সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারি, পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) চেয়ারম্যান ও জোটসঙ্গী বিলাওয়াল ভুট্টো-জারদারি এবং বিভিন্ন প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীরাও।

এর আগে রোববার (৩ মার্চ) জাতীয় পরিষদে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে ভোটাভুটিতে শেহবাজ শরীফ ২০১ ভোট পেয়ে পাকিস্তানের ২৪তম প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পিটিআইয়ের ওমর আইয়ুব খান পেয়েছেন ৯২ ভোট।

২০২২ সালের এপ্রিলে পাকিস্তানের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে বিরোধীদের আনা অনাস্থা ভোটে ক্ষমতাচ্যুত হয় ইমরান খানের দল পিটিআইয়ের নেতৃত্বাধীন জোট সরকার। পদত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান। এরপর শেহবাজ শরীফের নেতৃত্বে দেশটিতে বিরোধীরা জোট সরকার গঠন করে।

চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে জাতীয় পরিষদ নির্বাচন হয়। এবারের নির্বাচনে কোনো দল সরকার গঠন করার মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। সবচেয়ে বেশি আসন পান পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আসন পায় পিএমএল-এন। তৃতীয় স্থান পায় পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)। এমএল-এন ও পিপিপি জোটবদ্ধভাবে সরকার গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়।

পিপিপি ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী পদে শেহবাজ শরীফকে সমর্থন দিয়েছে মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট-পাকিস্তান (এমকিউএম-পি) ও ইস্তেকাম-ই-পাকিস্তান পার্টি। আর পিটিআই নেতা ওমর আইয়ুবকে সমর্থন করছে সুন্নি ইত্তেহাদ কাউন্সিল।

;

ইরানে ইসরায়েলি গুপ্তচরের ফাঁসি কার্যকর



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি ওয়ার্কশপে ড্রোন হামলায় জড়িত থাকার দায়ে ইসরায়েলি গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের এক গুপ্তচরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে বোমা হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে অভিযোগ এনে ইসরায়েলি এই গুপ্তচরকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ইরান।

ইরানের রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তাসংস্থা আইআরএনএ ও সংবাদমাধ্যম দ্য সানের পৃথক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার (২ মার্চ) দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় সিস্তান-বালুচিস্তান প্রদেশের জাহেদান কারাগারে ইসরায়েলি ওই গুপ্তচরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। তবে তার নাম কিংবা পরিচয় প্রকাশ করা করা হয়নি।

২০২৩ সালের ২৮ জানুয়ারি ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছিল, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ইস্ফাহানস্থ একটি ওয়ার্কশপে কয়েকটি ছোট্ট ড্রোনের সাহায্যে হামলা চালানো হয়। কিন্তু আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে ঐ হামলা ব্যর্থ করে দেওয়া হয়।

ইস্ফাহানের বিচার বিভাগের প্রধান হুজ্জাতুল ইসলাম জাফারি এ সম্পর্কে বলেছেন, এই ব্যর্থ হামলার পর মোসাদের ঐ গুপ্তচর নিজের পরিচয় গোপন করে ইরান থেকে পালিয়ে যায়। এর ১৩ দিন পর ইরানের বিচার বিভাগের সহযোগিতা ও নিরাপত্তা বাহিনীর প্রচেষ্টায় তাকে একটি প্রতিবেশী দেশ থেকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর আদালতের মাধ্যমে বিচার প্রক্রিয়া শেষে রোববার (৩ মার্চ) তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

;

বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দিল ভারত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দিয়েছে ভারত। দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা ন্যাশনাল কো-অপারেটিভ এক্সপোর্ট লিমিটেডের (এনসিইএল) মাধ্যমে এই পেঁয়াজ বাংলাদেশে রফতানি করা হবে।

সোমবার (৪ মার্চ) ভারতের বৈদেশিক বাণিজ্যবিষয়ক মহাপরিচালকের দফতরের (ডিজিএফটি) (ডিজিএফটি) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের পাশাপাশি মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে ১৪ হাজার ৪০০ টন পেঁয়াজ রফতানি করবে নয়াদিল্লি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানির জন্য ভোক্তা বিষয়ক বিভাগের সঙ্গে পরামর্শ করে জাতীয় কো-অপারেটিভ এক্সপোর্ট লিমিটেড (এনসিইএল) একটি রূপরেখা তৈরি করবে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, পেঁয়াজ রফতানিতে ভারতের নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকলেও দেশটির সরকার বন্ধুত্বপূর্ণ কিছু দেশে নির্দিষ্ট পরিমাণ পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দিয়েছে। দেশগুলোর অনুরোধের ভিত্তিতে ভারতের সরকার নির্দিষ্ট পরিমাণ পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দিয়েছে। এর আগে, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুপারিশের ভিত্তিতে বাংলাদেশে সীমিত পরিমাণে পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দেয় নয়াদিল্লি।

মূল্যবৃদ্ধি ঠেকাতে ভারত ২০২৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর রফতানির ওপর ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করে।

;

আগামীকাল তুরস্ক সফরে যাচ্ছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট আব্বাস



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস মঙ্গলবার (৫ মার্চ) গাজা সংঘাত বন্ধ এবং ফিলিস্তিনি দলগুলোর পুনর্মিলন প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনার জন্য তুর্কিতে যাবেন বলে নিশ্চি করেছেন তুর্কি।প্রশাসন 

রোববার (৩ মার্চ) আন্টালিয়ার ভূমধ্যসাগরীয় ছুটির রিসর্টে একটি বার্ষিক কূটনীতি ফোরামের (আন্টালিয়া ডিপ্লোম্যাসি ফোরাম, এডিএফ) সমাপনী বক্তব্যে ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদ আল-মালিকি এবং  তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও ফিলিস্তিনের পক্ষে সোচ্চার আইনজীবী হাকান ফিদান এই কথা বলেছেন। 

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যকার প্রায় পাঁচ মাসের সংঘাত থামানোর জন্য নিবিড় কূটনীতির লক্ষ্যে এই সফরে যাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

এ সপ্তাহের মধ্যে মুসলমানদের পবিত্র মাস রমজান শুরুর আগেই একটি যুদ্ধবিরতি নিশ্চিত করতে চেষ্টা করছে মিশর, কাতার এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশগুলো বিভিন্ন মধ্যস্থতার আলোচনা করে আসছে।

আল-মালিকি বলেছেন, সফরকালে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রেসিডেন্ট আব্বাস। মন্ত্রী এই সফরকে 'দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার কার্যকর সম্পর্কের প্রতিফলন' হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

ইউরোপীয় দেশগুলোকে উদ্দেশ করে ফোরামে ফিলিস্তিনের শীর্ষ কূটনীতিক আরও বলেন, 'দেশগুলোকে তাদের নিজেদের উদ্যোগ নিতে হবে এবং তাদের ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিয়ে শুরু করতে হবে। '

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের কথা উল্লেখ করে রিয়াদ আল-মালিকি বলেন, এই অঞ্চলে (গাজায়) ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার মধ্যে 'একমাত্র বৈধ কর্তৃপক্ষ যারা গাজায় কাজ করবে এবং তা অব্যাহত রাখবে।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাকান ফিদানও দেশটিতে আব্বাসের সফর নিশ্চিত করেছেন। ফিদান বলেন, এরদোগান ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্টের কাছে গাজার সর্বশেষ পরিস্থিতি এবং যুদ্ধের গতিপথ শুনতে চেয়েছিলেন। এ বিষয়েই এরদোগান ও আব্বাসের মধ্যে আলোচনা হবে বলে জানান তিনি। 

;