তেল আবিবে নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েলের তেল আবিবের রাজপথে নতুন সরকার নির্বাচন প্রক্রিয়া চালু, জিম্মিদের মুক্তি ও গাজায় অব্যাহত যুদ্ধবিরোধী বিভিন্ন দাবি নিয়ে রাজপথের বিক্ষোভে অংশ নেন বিক্ষোভকারীরা।

স্থানীয় সময় শনিবার (২৩ জুন) বিক্ষোভকারীরা দেশটির জাতীয় পতাকা হাতে বিক্ষোভে অংশ নেন। এ সময় তারা দেশটিতে প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সরকারের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন।

বিক্ষোভকারীরা ইসরায়েলে নতুন নির্বাচন এবং গাজায় হামাসের হাতে জিম্মি থাকা ব্যক্তিদের দ্রুত ফিরিয়ে আনার দাবি জানান।

গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর নির্বিচার হামলা শুরুর আট মাস পেরিয়ে গেছে। এর পর থেকে প্রতি সপ্তাহান্তে ইসরায়েলের শহরগুলোয় বিক্ষোভ হয়ে আসছে। অনেক বিক্ষোভকারী ‘ক্রাইম মিনিস্টার’ ও ‘যুদ্ধ বন্ধ করুন’ লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে বিক্ষোভ করেন।  

শনিবারের বিক্ষোভে অংশ নেওয়া ৬৬ বছর বয়সী সাই এরেল সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি আমার নাতি–নাতনির ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন। তাই আমি বিক্ষোভে যোগ দিয়েছি। এখন আমরা যদি বের হয়ে না আসি আর ভয়ংকর এই সরকারের কবল থেকে পরিত্রাণ না পাই, তাহলে তাদের (শিশুদের) কোনো ভবিষ্যৎ থাকবে না।’

ইসরায়েলি আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশ্যে ক্ষোভ জানিয়ে এরেল বলেন, ‘নেসেটে (ইসরায়েলি পার্লামেন্ট) সব ইঁদুর বসে আছে। আমি তাদের মধ্যে কাউকে কিন্ডারগার্টেনের পাহারাদার হতে দিতে পারি না।’

সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারী সংগঠন ‘হোফশি ইসরায়েল’ বলছে, দেড় লাখের বেশি মানুষ গতকালের বিক্ষোভে যোগ দিয়েছিলেন। গাজায় যুদ্ধ শুরুর পর এটা ইসরায়েলে হওয়া বড় বিক্ষোভগুলোর একটি।

তেল আবিবের গণতন্ত্র চত্বরে বিক্ষোভকারীদের অনেকে মাটিতে শুয়ে পড়েন। এর আগে সেখানকার মাটি লাল রং করা হয়। বিক্ষোভকারীরা বলেন, নেতানিয়াহুর হাতে ইসরায়েলের গণতন্ত্র এভাবেই হত্যার শিকার হয়েছে।

জমায়েতে যোগ দেন ইসরায়েলের অভ্যন্তরীণ শিন বেত নিরাপত্তা সংস্থার সাবেক প্রধান ইউভাল দিসকিন। এ সময় তিনি বলেন, নেতানিয়াহু দেশের সবচেয়ে বাজে প্রধানমন্ত্রী।

৫০ বছর বয়সী ইয়োরাম বলেন, প্রতি সপ্তাহান্তে বিক্ষোভে আসেন তিনি। নেতানিয়াহুর কারণে ইসরায়েলে নির্বাচন দরকার।

ইয়োরাম আরও বলেন, ‘আমি আশা করি, বর্তমান সরকারের পতন ঘটবে। আর আমরা যদি ২০২৬ সালের নির্বাচনের তারিখের জন্য অপেক্ষা করে বসে থাকি, তাহলে সেটা আর গণতান্ত্রিক কোনো নির্বাচন হবে না।’

এদিকে শনিবার রাতে তেল আবিবের রাজপথে আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল করেন হামাসের হাতে জিম্মি ব্যক্তিদের হাজারো স্বজন ও সমর্থক।

ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেছেন বাইডেন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চলতি বছরের নভেম্বরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর অংশ হিসেবে পেনসিলভানিয়ায় এক নির্বাচনী প্রচারে হামলার শিকার হন আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ট্রাম্প।

ট্রাম্প জানান, এতে তার ডান কানের ওপরের অংশ ফুটো হয়ে গেছে। চিকিৎসা নেওয়ার পর হাসপাতাল ছেড়েছেন।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। কথা বলেছেন গুলিবিদ্ধ ট্রাম্পের সাথে।

রোববার (১৪ জুলাই) হোয়াইট হাউজের বরাত দিয়ে বিবিসি এ তথ্য জানায়।

হোয়াইট হাউসের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, এ ঘটনা শোনার পরই প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে কথা বলেছেন।

তবে তাদের মধ্যে কি নিয়ে কথা হয়েছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারেননি ওই কর্মকর্তা।

এছাড়াও তিনি পেনসিলভানিয়ার গভর্নর জোশ শাপিরো এবং বাটলারের মেয়র বব ড্যান্ডয়ের সাথেও কথা বলেছেন। 

;

হাসপাতাল ছেড়েছেন ট্রাম্প



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও আগামী নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। পেনিসেলভেনিয়ার বাটলার শহরে হওয়া এই হামলায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন তিনি। ঘটনার পরই স্থানীয় একটি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করানো হয়।

চিকিৎসা শেষে ট্রাম্প হাসপাতাল ছেড়েছেন বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

রোববার (১৪ জুলাই) বিবিসি জানায়, চিকিৎসা শেষে ট্রাম্প হাসপাতাল ছেড়েছেন। তবে তিনি এখন কোথায় যাচ্ছেন তা স্পষ্ট নয়। পেনিসেলভেনিয়ার বাটলার শহরের সমাবেশ শেষে আজ নিউ জার্সির বেডমিনস্টারে তার যোগ দেওয়ার কথা ছিল। 

এই সমাবেশের পর উইসকনসিনের মিলওয়াকিতে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর কথা রয়েছে।

;

২০০ ফুট দূর থেকে ট্রাম্পকে হামলা করা হয়



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
২০০ ফুট দূর থেকে ট্রাম্পকে হামলা করা হয়/ ছবিঃ সংগৃহীত

২০০ ফুট দূর থেকে ট্রাম্পকে হামলা করা হয়/ ছবিঃ সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনী প্রচারণায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনার পরপরই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গুলিতে হামলাকারী নিহত হয়েছেন।

২০০ থেকে ৩০০ ফুট দূরত্বে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানান দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

আইনশৃঙ্খলা প্রয়োগকারী একাধিক কর্মকর্তা সিবিএস নিউজকে জানান, ট্রাম্পকে একটি এআর-স্টাইলের রাইফেল দিয়ে গুলি করা হয়েছে। প্রায় ২০০ থেকে ৩০০ ফুট দূরত্বের অবস্থান থেকে এ হামলা চালানো হয়।

এ ঘটনার পরপরই হামলাকারী আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন বলেও জানান ওই কর্মকর্তারা। 

;

গুলিতে ডান কানের ওপরের অংশ ফুটো হয়ে গেছে: ট্রাম্প



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
গুলিতে ডান কানের ওপরের অংশে ফুটো হয়ে গেছে: ট্রাম্প/ ছবি: সংগৃহীত

গুলিতে ডান কানের ওপরের অংশে ফুটো হয়ে গেছে: ট্রাম্প/ ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে নির্বচনী প্রচার সমাবেশে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়েছে। এতে তার ডান কানের উপরের অংশ ফুটো হয়ে গেছে বলে সামাজিক মাধ্যম ট্রুথ সোশ্যালে দেওয়া এক পোস্টে জানান তিনি।

ওই পোস্টে ট্রাম্প জানান, "গুলির শব্দ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমি মঞ্চে বসে পড়ি এবং বুঝতে পারি কোন অঘটন ঘটেছে। বুলেটটি আমার ডান কানের চামড়া ফুটো করে দিয়েছে। অনেক রক্তক্ষরণ হয়েছিল, তখন আমি বুঝতে পেরেছিলাম কি ঘটছে।"

‘এটা অবিশ্বাস্য যে আমাদের দেশে এ রকম একটি ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারী সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। হামলাকারী নিহত হয়েছেন।’ পোস্টের শেষে ট্রাম্প বলেন, ‘ঈশ্বর আমেরিকার মঙ্গল করুন!’

ট্রাম্প বলেন, ‘নির্বাচনী প্রচারে গুলিতে যিনি নিহত হয়েছেন, তাঁর পরিবারকে আমি সমবেদনা জানাই। গুরুতর আহত আরেকজনের পরিবারের প্রতিও আমি সমবেদনা জানাই।’

এদিকে হামলার ঘটনার পর বিবৃতি দিয়েছেন ট্রাম্পের মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প। সামাজিক মাধ্যম এক্সে দেওয়া এক পোস্টে ইভাঙ্কা তাঁর বাবা ও হামলায় হতাহত ব্যক্তিদের প্রতি ভালোবাসা ও প্রার্থনা করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় শনিবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

;