তালাকের পরও ভরণপোষণ পাবেন ভারতের মুসলিম নারীরা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিবাহবিচ্ছেদ হওয়ার পরেও স্বামীর কাছ থেকে ভরণপোষণ চাইতে পারেন মুসলিম নারীরা। বুধবার ( ১০ জুলাই) ভারতের সুপ্রিম কোর্ট এই আদেশ জারি করেছে।

বিচারপতি বিভি নাগারত্ন এবং বিচারপতি অগাস্টিন জর্জ মাসিহের ডিভিশন বেঞ্চ এই রায় দেন। বুধবার ( ১০ জুলাই) ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নারীদের ঘরের কাজ করা অথবা পরিবার সামলানোর জন্য জন্য কোন বিনিময় মূল্য ছিল না। এজন্য হোমমেকার বা গৃহিণীদের কাজের কোন স্বীকৃতি দিতেও দেখা যায়নি। কিন্তু এখন থেকে ভারতীয় পুরুষদের তাদের স্ত্রীদের ঘর সামলানো ও পরিবারের দেখাশোনা করার মূল্য দিতে হবে।

একজন তালাকপ্রাপ্ত মুসলিম নারী ফৌজদারি কার্যবিধির ধারা ১২৫ এর অধীনে তার স্বামীর কাছ থেকে ভরণপোষণ চাইতে পারেন-বিচারপতি বিভি নাগারথনা এবং বিচারপতি অগাস্টিন জর্জ মাসিহের বেঞ্চ এই রায় দেন। বেঞ্চ বলেছে, ভরণপোষণ চাওয়ার অধিকার সমস্ত বিবাহিত নারীদের জন্য প্রযোজ্য, ধর্ম নির্বিশেষে।

এর আগে তালাকের পর সাবেক স্বামীর প্রতি ভরণপোষণের দাবি জানিয়ে নিম্ন আদালতে মামলা করেন এক মুসলিম নারী। এর ফলে তেলেঙ্গানা হাইকোর্টের রায়ে অন্তর্বর্তীকালীন ভরণপোষণ প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হয়।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে শীর্ষ আদালতে মামলা করেন আবদুল সামাদ নামে ওই নারীর স্বামী। বুধবার তার সেই মামলা খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।
বিচারপতি নাগারত্ন বলেন, ‘আমরা এই আর্জি খারিজ করে দিচ্ছি। আর আমরা এটা বলছি যে শুধুমাত্র বিবাহিত নারীর জন্য নয়, বিবাহবিচ্ছিন্ন নারীদের জন্যও প্রযোজ্য হবে কোড অফ ক্রিমিনাল প্রসিডিওরের ১২৫ ধারা।’

কোড অব ক্রিমিনাল প্রসিডিউর তথা সিআরপিসির ১২৫ ধারায় কী আছে?

এই আইনের ১২৫ ধারায় স্ত্রী, সন্তান এবং পিতামাতার ভরণপোষণ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য সন্নিবেশিত আছে। এই ধারা অনুসারে, স্বামী, পিতা বা সন্তানের উপর নির্ভরশীল স্ত্রী, পিতা-মাতা বা সন্তানরা তখনই ভরণপোষণ দাবি করতে পারেন যখন তাদের জীবিকার অন্য কোন উপায় নেই।

মার্কিন চাপ প্রত্যাখ্যান করে রাশিয়া-চীনের প্রশংসা করলেন পেজেশকিয়ান



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইরানের সদ্য নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মাসুদ পেজেশকিয়ান বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোন চাপেই ইরান সাড়া দেবে না।

সেই সঙ্গে তিনি চীন ও রাশিয়ার সাথে ইরানের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কও স্মরণ করেন।

শনিবার (১৩ জুলাই) প্রকাশিত এক বিবৃতিতে তিনি এ কথা তুলে ধরেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

‘নতুন বিশ্বকে আমার বার্তা’ শিরোনামে প্রকাশিত ওই বিবৃতিতে পেজেশকিয়ান বলেছেন, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে... বাস্তবতা স্বীকার করতে হবে এবং বুঝতে হবে যে ইরান তাদের কোন চাপেই সাড়া দেবে না।। আবারও সবাইকে বলছি, ইরান চাপে পড়ে কিছু করে না, করবেও না এবং ইরান সরকারের প্রতিরক্ষা কৌশলে পরমাণু অস্ত্র অন্তর্ভুক্ত নয়।’

তিনি প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের উন্নয়ন এবং ইউরোপীয় দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের ইচ্ছাও প্রকাশ করেছেন।

বিবৃতিতে চীন ও রাশিয়াকে নিয়ে পেজেশকিয়ান বলেন, ‘কঠিন সময়ে চীন ও রাশিয়া নিরবচ্ছিন্নভাবে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমাদের কাছে এই বন্ধুত্ব খুবই মূল্যবান।’

তিনি বলেন, ‘রাশিয়া ইরানের মূল্যবান কৌশলগত মিত্র ও প্রতিবেশী। আমার প্রশাসন আমাদের এই সহযোগিতার সম্পর্কের আরও সম্প্রসারণ ও উন্নয়নে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকবে।’

মাসুদ পেজেশকিয়ান ইরানের একজন সংস্কারপন্থি নেতা। তিনি একজন হার্ট সার্জারি বিশেষজ্ঞ। দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় তাবরিজ অঞ্চল থেকে ৫ বার পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ২০০১ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন পেজেশকিয়ান। এ ছাড়া ২০১৬ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ইরানের পার্লামেন্টের ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা রয়েছে তার।

;

যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে ইসরায়েল-হামাস : জো বাইডেন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস গাজা উপত্যকায় যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে বলে দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

রয়টার্স জানিয়েছে, বাইডেন সামাজিক মাধ্যম এক্স-এ লিখেছেন, ‘কীভাবে একটি যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছানো যায় এবং জিম্মিদের বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে যায়, তার জন্য ছয় সপ্তাহ আগে আমি একটি বিস্তৃত প্রস্তাব তৈরি করেছিলাম। এখনো কাজ কিছু বাকি আছে এবং সেগুলো জটিল বিষয়। তবে সেই প্রস্তাবে এখন ইসরায়েল এবং হামাস উভয়ই সম্মত হয়েছে। সমঝোতার দায়িত্ব দেওয়া আমার টিম অগ্রগতি অর্জন করেছে এবং আমি এটি সম্পন্ন করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।’

বাইডেন বলেন, গত মে মাসের শেষের দিকে মার্কিন প্রস্তাবিত প্রস্তাবের প্রতি হামাসের সর্বশেষ প্রতিক্রিয়ার পর গাজা সংঘাতের পক্ষগুলোর মধ্যে পরোক্ষ আলোচনার একটি নতুন দফা আয়োজন সম্ভব হয়েছে।

এদিকে, গাজায় যুদ্ধ বিধ্বস্তদের সহায়তার জন্য সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত কাজ চালিয়ে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট তহবিল রয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘ প্রধান আন্তোনিও গুতেরেস।

শুক্রবার (১২ জুলাই) সংস্থাটির প্রধান একটি দাতা সম্মেলনে বলেছেন, ‘ফিলিস্তিনে জাতিসংঘের ত্রাণ ও শরণার্থী সংস্থার (ইউএনআরডব্লিউএ) কাছে যে পরিমাণ তহবিল রয়েছে তা দিয়ে আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য করা যাবে। কিন্তু এরপর আমাদেরকে অন্য কিছু ভাবতে হবে।’ তাই দাতাগোষ্ঠীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

শনিবার (১৩ জুলাই) বার্তা সংস্থা এপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ওই সম্মেলনে ইউএনআরডব্লিউএ প্রধান ফিলিপ লাজারিনি বলেছেন, ‘ইউএনআরডব্লিউএ-এর কিছু সংখ্যক কর্মচারী হামাসের হামলায় অংশ নেওয়ার ব্যাপারে জানুয়ারিতে ইসরায়েলি অভিযোগের পর বেশ কয়েকটি দেশ অর্থায়ন বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনায় আমরা এজেন্সির উপর আস্থা ফিরিয়ে আনতে অংশীদারদের সঙ্গে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছি।’

লাজারিনি আরো বলেছেন, তহবিলের নতুন প্রতিশ্রুতি সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জরুরি কার্যক্রম নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে।

গুতেরেস ইউএনআরডব্লিউএ-এর সহায়তা না পেলে ফিলিস্তিনিরা একটি গুরুত্বপূর্ণ লাইফলাইন হারাবে বলে সতর্ক করে দিয়ে ইউএন এজেন্সিকে তহবিল দেওয়ার জন্য দাতাদের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, গাজায় উদ্বাস্তুদের জন্য ইউএনআরডব্লিউএ’র এর কোন বিকল্প নেই। যুদ্ধে ইউএনআরডব্লিউএ’র ১৯৫ জন কর্মী নিহত হয়েছে। যা জাতিসংঘের ইতিহাসে কর্মীদের জন্য সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা।

;

পশ্চিমবঙ্গে উপনির্বাচনে বিজেপির ৩ আসনেও জয়ী তৃণমূল



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ, উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা, নদিয়ার রানাঘাট দক্ষিণ এবং কলকাতার মানিকতলা বিধানসভা কেন্দ্রে গত বুধবার (১০ জুলাই) বিধানসভা উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৩ জুলাই) চলছে ভোট গনণা।

তৃণমূলের দখলে ছিল কলকাতার মানিকতলা আসন। বিজেপির দখলে থাকা তিনটি আসন হচ্ছে-নদীয়ার রানাঘাট দক্ষিণ, উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা ও উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ। প্রার্থীর মৃত্যু, লোকসভায় নির্বাচন করার কারণে এই চারটি আসন শূন্য হয়।

সর্বশেষ ভোট গণনার ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, চার আসনেই জিতেছে তৃণমূল। ফলে এবার এই উপনির্বাচনে বিজেপিকে জোর ধাক্কা দিয়েছে তৃণমূল।

সর্বশেষ খবরে জানা গেছে, রানাঘাট দক্ষিণ আসনে তৃণমূল প্রার্থী মুকুটমণি অধিকারী, বাগদায় মধুপর্ণা ঠাকুর, মানিকতলায় সুপ্তি পান্ডে এবং রায়গঞ্জে তৃণমূল প্রার্থী কৃষ্ণ কল্যাণী জয় পেয়েছেন।

এনডিটিভি জানিয়েছে, এই চার আসনে এর আগে প্রার্থী ছিলেন মানিকতলায় সাধন পান্ডে, রানাঘাট দক্ষিণ মুকুট মণি অধিকারী, বাগদা বিশ্বজিৎ দাস ও রায়গঞ্জে কৃষ্ণ কল্যাণী।

মানিকতলায় ৬২ হাজারের বেশি ভোটে জিতেছে তৃণমূল। প্রয়াত সাধন পাণ্ডের স্ত্রী সুপ্তি পাণ্ডে ওই কেন্দ্রের বিধায়ক হতে চলেছেন। তৃণমূলের জয়ের ব্যবধান ৬২,৩১২ ভোট।

রানাঘাট দক্ষিণে তৃণমূল প্রার্থী মুকুটমণি অধিকারীর জয়ের ব্যবধান ৩৯,০৪৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিজেপির মনোজ কুমার বিশ্বাস ।

রানাঘাট দক্ষিণেও জয় পেয়েছে তৃণমূল। সরকারি ঘোষণা এখনো হয়নি। তবে গণনার শেষে প্রায় ৩৪ হাজার ভোটে এগিয়ে ছিলেন মুকুটমণি অধিকারী। তার জয়ও প্রায় নিশ্চিত।

রায়গঞ্জের পর বাগদাতেও জিতল তৃণমূল। চলতি বিধানসভায় রাজ্যের সর্বকনিষ্ঠ বিধায়ক হতে চলেছেন মতুয়া পরিবারের সদস্য এবং তৃণমূল সাংসদ মমতাবালা ঠাকুরের কন্যা মধুপর্ণা ঠাকুর। তার বয়স ২৫ বছর। ১৩ বছর পর এই কেন্দ্রে ফিরল তৃণমূল। মধুপর্ণার জয়ের ব্যবধান প্রায় ৩৪ বছর।

মানিকতলায় জয় নিশ্চিত হতেই বিজেপিকে কটাক্ষ করে তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ বলেন, ‘কল্যাণ চৌবে যত ভোটে হারবেন, ততগুলো রসগোল্লা তার বাড়িতে পাঠাব। বাম জমানার থেকে ভাল আছেন বাংলার মানুষ। বিজেপির প্রতি তাদের আস্থা নেই। ভুলকে ভুল বলে স্বীকার করছে। তাই মানুষের আস্থা রয়েছে।’

;

ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় রাশিয়ার তেলের ডিপোতে আগুন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় রাশিয়ার তেলের ডিপোতে আগুন/ ছবি: সংগৃহীত

ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় রাশিয়ার তেলের ডিপোতে আগুন/ ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাশিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় রোস্তভ অঞ্চলে একটি তেল ডিপোতে ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। এতে ওই ডিপোতে আগুন লেগে যায়।

শনিবার (১৩ জুলাই) ভোরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানায় বার্তা সংস্থা এপি।

স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এপি জানায়, ইউক্রেনের সর্বশেষ ড্রোন হামলায় রাশিয়ার একটি তেলের ডিপোতে আগুনে লেগেছে।

রোস্তভের আঞ্চলিক গভর্নর ভ্যাসিলি গোলুবেভ বলেছেন, ড্রোন হামলাটির কারণে ২০০ বর্গ মিটারের (২১০০ বর্গফুট) বিস্তৃত এলাকাটিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। তবে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

টেলিগ্রামে তিনি বলেন, প্রায় পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছে দমকল বাহিনীরা।

এলাকাটি যুদ্ধের ফ্রন্ট লাইন থেকে কয়েকশ’ কিলোমিটার দূরে।

এদিকে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ঘোষণা করেছে, তার বাহিনী চারটি ইউক্রেনীয় ড্রোন ভূপাতিত করেছে। এর দুটি রোস্তভ, একটি ইউক্রেন সংলগ্ন বেলগোরোড অঞ্চলে এবং আরেকটি আরো উত্তরে কুরস্কে।

;