দুবাই প্রদর্শনীতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের সংগৃহীত কোরআন



ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
দুবাই প্রদর্শনীতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের সংগৃহীত কোরআন

দুবাই প্রদর্শনীতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের সংগৃহীত কোরআন

  • Font increase
  • Font Decrease

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও তৃতীয় প্রেসিডেন্ট টমাস জেফারসনের সংগৃহীত পবিত্র কোরআনের একটি কপি দুবাই প্রদর্শনীতে দেখা যাবে। মার্কিন প্রেসিডেন্টের ব্যবহৃত কোরআনের দুর্লভ কপিটি ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত লাইব্রেরি অব কংগ্রেসের অন্যতম থেকে আনা হয়েছে।

পবিত্র কোরআনের কপিটি অত্যন্ত যত্নের সঙ্গে সুরক্ষিত কাঠের বাক্সে দুবাই প্রদর্শনীতে আনা হয়। কম্পন ও তাপমাত্র পরিবর্তন সনাক্তে তাতে সেন্সর রাখা হয়। তাছাড়া দীর্ঘ যাত্রাপথে গ্রন্থাগার বিশেষজ্ঞ, নিরাপত্তাকর্মী ও আন্তর্জাতিক শিপিং কোম্পানির বিশেষজ্ঞ দল ছিলেন। মধ্যপ্রাচ্যে প্রথমবারের মতো এ দুর্লভ কপি প্রদর্শনীতে রাখায় সবার মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছে দর্শনার্থীদের মাঝে।

আমেরিকান মুসলিম অ্যান্ড মাল্টিফেইথ এম্পাওয়ারমেন্ট কাউন্সিলের প্রতিষ্ঠাতা আনিলা আলি আন্তধর্মীয় প্রতিনিধি দলের হয়ে দুবাই আসেন। তিনি বলেন, ‘এটা আমার জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম একজনের মালিকানায় থাকা পবিত্র কোরআনের কপি বিশ্বের কাছে প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে, যা ধর্মীয় বৈচিত্রের প্রতি আমেরিকার শ্রদ্ধার প্রতীক হিসেবে গণ্য হবে।’

মধ্যপ্রাচ্যের আরব আমিরাতে চলমান বিশ্বের সর্ববৃহৎ প্রদর্শনী ‘দুবাই এক্সপো ২০২০’-এর যুক্তরাষ্ট্রের প্যাভিলিয়নে তা রাখা হবে। পবিত্র কোরআনের ঐতিহাসিক ইংরেজি অনুবাদের ভূমিকা লেখেন জর্জ সেল। দুই খণ্ডের পবিত্র কোরআনের অনুবাদটি ১৭৬৪ সালে লন্ডনে প্রথম মুদ্রিত হয়।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জেফারসনের সংগৃহীত কোরআন

লাইব্রেরি অব কংগ্রেসের তথ্য মতে, জেফারসন সংগৃহীত পবিত্র কোরআনের কপিটি যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম সংগ্রহ বলে বিবেচিত। ছয় মাসব্যাপী মেলা আগামী বছরের মার্চ পর্যন্ত চললেও জেফারসনের অনুবাদ শুধু প্রথম তিন মাস প্রদর্শনীতে থাকবে।

টমাস জেফারসন ছিলেন রাজনীতিবিদ, কূটনীতিক, আইনজীবী, স্থপতি, সংগীতজ্ঞ, দার্শনিক ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম। যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে ১৭৯০-১৭৯৩ সালে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ১৮০১ থেকে ১৮০৯ সাল পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তৃতীয় রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ভূরাজনৈতিক কারণে মুসলিম বিশ্বের প্রতি জেফারসনের প্রবল আগ্রহ ছিল। ১৭৭৭ সালে নানা প্রচেষ্টায় তৎকালীন মরক্কো সর্বপ্রথম আমেরিকার স্বাধীনতাকে স্বীকৃতি দেয়। মুসলিমদের ধর্মীয় অধিকার প্রতিষ্ঠায় নানামুখী ভূমিকা রাখায় জেফারসন আমেরিকান মুসলিমদের কাছে স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব।

১৮০৫ সালে প্রথম বারবারি যুদ্ধের সময় জেফারসন একজন তিউনিশিয়ান দূতকে রমজান মাসে হোয়াইট হাউসে আপ্যায়ন করেছিলেন। এমনকি জেফারসন মুসলিম অতিথিদের রমজান মাসে ইফতারের জন্য আমন্ত্রণ জানাতেন।

২০০৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা রাজ্যের কংগ্রেস থেকে প্রথম মুসলিম প্রতিনিধি হিসেবে কিথ এলিসন নির্বাচিত হন। তখন তিনি জেফারসনের সংগৃহীত পবিত্র কোরআনের কপি ধরে শপথ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেন। পরবর্তীতে নির্বাচিত মুসলিম প্রতিনিধি রাশিদা তালিবও একইভাবে জেফারসনের ঐতিহাসিক কোরআনের অনুবাদ কপি ধরে শপথ নেন।

জেফারসন একজন ইসলাম অনুরাগী ছিলেন। তিনি সবসময় সাথে পবিত্র কোরআনের ইংরেজি ভাষায় অনূদিত এই কপিটি রাখতেন।

আমেরিকার তৃতীয় প্রেসিডেন্ট ছিলেন টমাস জেফারসন। দেশটির স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রের রচয়িতাও তিনি। তিনিই আমেরিকায় বর্ণবাদের বিরুদ্ধে প্রথম কথা বলেন। ১৭৭৬ সালে স্বাধীনতা লাভের পর দেশটির ১৩টি অঙ্গরাজ্যের সীমানাও নির্ধারণ করেন জেফারসন। ক্রীতদাস আইনের বিরুদ্ধেও শক্ত অবস্থান নিয়েছিলেন মার্কিন এ রাজনীতিবিদ। রাজনৈতিক দার্শনিক হিসেবেও জেফারসনের সুখ্যাতি ছিল। ১৭৪৩ সালের ১৩ এপ্রিল ভার্জিনিয়ার শ্যাডওয়েল শহরে জন্মগ্রহণ করেন টমাস জেফারসন।

বিশ্বের সব দেশের অত্যাধুনিক শিল্প মেলা হিসেবে ‘দুবাই এক্সপো ২০২০’ মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম দেশ হিসেবে আরব আমিরাতে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করে। ১৮৫১ সালে সর্বপ্রথম লন্ডনে এ মেলার যাত্রা শুরু হয়। এ বছরের প্রদর্শনীতে ১৯২টির বেশি দেশের প্যাভিলিয়ন আছে। করোনা সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২৫ মিলিয়নের বেশি দর্শনার্থী তা দেখতে আসবে। গত বছর হওয়ার কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে তা এক বছর পিছিয়ে গত ১ অক্টোবর শুরু হয়।

-খালিজ টাইমস অবলম্বনে