পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের ছবি ৬৫ কোটিতে বিক্রি!

ইসলাম ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
উসমান হামদি বের আঁকা চিত্রকর্ম, ছবি: সংগৃহীত

উসমান হামদি বের আঁকা চিত্রকর্ম, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতরত এক মুসলিম নারীকে নিয়ে চিত্রিত একটি তুর্কি চিত্রকর্ম রেকর্ডদামে বিক্রি হয়েছে। কল্পনাতীত মূল্যে বিক্রি হওয়ায় ছবিটি ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। উনিশ শতকের বিখ্যাত উসমানি চিত্রশিল্পী উসমান হামদি বের আঁকা ওই চিত্রকর্মটি ২৮ সেপ্টেম্বর লন্ডনের বনহামসে এক নিলামে বিক্রি হয়।

৬.৩ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড মূল্যে চিত্রকর্মটি বিক্রি হয়। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬৫ কোটি টাকার সমপরিমাণ।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৮৮০ সালে আঁকা চিত্রটি বিখ্যাত তুর্কি ক্যালিওগ্রাফার উসমান হামদি বের একটি অনন্য শিল্পকর্ম। ১৩৯ বছরের পুরনো ওই চিত্রে ঘরের ভেতরে খুব মনোযোগ সহকারে এক নারীর কোরআন পড়ার দৃশ্য রয়েছে। কাপড়ের ক্যানভাসে তিনি ওই ছবিটি আঁকেন। তার এ চিত্রটিতে মুসলিম নারীর এক স্বতন্ত্র্যরূপ প্রকাশ পায়। প্রাচুর্যতার মাঝে থেকেও আল্লাহতায়ালাকে পাওয়ার নিরন্তর সাধনার অনন্য বৈশিষ্ট্য ফুঁটে উঠে তার এ অংকনে।

আন্তর্জাতিক নিলামে এর আগে কোনো তুর্কি চিত্র এতো দামে বিক্রি হয়নি। ৪১.১ বাই ৫১ সেন্টিমিটার আয়তনের ক্যানভাসের ওপর তেলরঙে অঙ্কিত এই চিত্রকর্মটিতে উসমান হামদি বে তার নিজস্ব ভঙ্গিতে তৎকালীন উসমানি সাম্রাজ্যের নাগরিকদের ঘরের অভ্যন্তরীণ চিত্র তুলে ধরেছেন এবং এর মাধ্যমে তুর্কি ইসলামি সংস্কৃতিকে ফুঁটিয়ে তুলেছেন।

নিলামের শুরুতে কেউ ধারণা করেনি যে, চিত্রটি এত দামে বিক্রি হবে। অথচ সবার ধারণা পাল্টে রেকর্ডদামে এটি বিক্রি হলো।

নিলাম বিশেষজ্ঞদের মতে, কোরআন সম্পর্কীয় হওয়ায় চিত্রটির প্রতি ক্রেতাদের এতো আগ্রহ এবং তারা এতো মোটা অংক খরচ করে এটি কিনেছেন।

উল্লেখ্য, উসমান হামদি বে (১৮৪২-১৯১০) ছিলেন বিখ্যাত একজন তুর্কি প্রত্মতত্ত্ববিদ, চিত্রশিল্পী ও চিন্তাবিদ। ১৮৪২ সালে তৎকালীন উসমানি সাম্রাজ্যের রাজধানী ইস্তানবুলে জন্মগ্রহণকারী উসমান হামদি বে আধুনিক তুর্কি চিত্রশিল্পের এক অগ্রদূত। তুর্কি চিত্রকলায় তিনি আধুনিক এক ধারা সৃষ্টি করেন। যা এখনকার চিত্রশিল্পীরা অনুসরণ করছেন বেশ আগ্রহ নিয়ে।

আপনার মতামত লিখুন :