চিকেন হালিম



লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
রোজার সময় হালিমের কদর হয়ে যায় আকাশ চুম্বি। ছবি: বার্তা ২৪.কম

রোজার সময় হালিমের কদর হয়ে যায় আকাশ চুম্বি। ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

 

এমনি সময় যেমন তেমন কিন্তু রোজার সময় হালিমের কদর হয়ে যায় আকাশ চুম্বি। কারো কারো বাসায় তো ছোলা পিঁয়াজুর মতোই হালিমও থাকে নিত্য দিনের আয়োজন।

সময় বাচাতে হোক বা রান্নাকে সহজ করতেই হোক আজকাল বাজারে রেডি হালিম মিক্স পাওয়া যায় একেবারে মসলাসহ। তবে নিজেরা তৈরি করতে পারলে তো কথাই নাই কিন্তু অনেকেই ঝামেলার কারণে রান্না না করে বাইরে থেকেই কিনে খান।

হালিম মিক্স ঘরে তৈরি করে রেখে দিলে দীর্ঘদিন খাওয়া যায়। আর একেবারেই উপায় না থাকলে দোকানের রেডি হালিম মিক্স তো আছেই। তাহলে চলুন দেখে নেই ঘরে হালিম তৈরির উপায়

হালিমের উপকরণ

হালিম মিক্স দুই কাপ, পৌনে এক কাপ সরিষার তেল, পেঁয়াজ কুচি এক কাপ, এক টেবিল চামচ আদা পেস্ট, শুকনা মরিচ পেস্ট, স্বাদ মতো লবণ, পেঁয়াজ বেরেস্তা, এক কেজি চিকেন, আস্ত সরিষা, রসুন কুচি, শুকনো মরিচ ৪/৫টি, ধনিয়া পাতা কুচি, আদার কুচি, কাঁচা মরিচ ‍কুচি এবং লেবুর টুকরো।

প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে হালিম মিক্স ফুটন্ত গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে ১৫ থেকে ২০ মিনিট। পৌনে দুই কাপ হালিম মিক্সের জন্য পাঁচ কাপ পানি লাগবে। এরপর চুলায় হাড়িতে দিয়ে দিন পৌনে এক কাপ সরিষার তেল। এতে দিন পেঁয়াজ কুচি এক কাপ। পেঁয়াজ গোল্ডেন করে ভেজে নিতে হবে।

পেঁয়াজে গোল্ডেন কালার আসলে দিন এক টেবিল চামচ আদা পেস্ট, এক টেবিল চামচ রসুন পেস্ট, শুকনা মরিচ পেস্ট, স্বাদ মতো লবণ, পেঁয়াজ বেরেস্তা ও হালিমের মিক্স মসলা। এবারে সামান্য পানি দিয়ে মসলাটা কষিয়ে নিন।

মসলা কষানো হলে এতে চিকেন দিয়ে দিন। এবার ভালোভাবে চিকেন কষিয়ে নিতে হবে। চিকেন থেকে পানি বের হয়ে এটা টেনে না আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। চিকেন কষানো হলে এতে দিন চার কাপ পরিমাণ গরম পানি। পানির পরিমাণের উপর নির্ভর করবে হালিমের ঘণত্ব। এবার এটা ঢেকে রাখুন ফুটে ওঠা পর্যন্ত।

পানি ফুটে উঠলে এবার এতে দিয়ে দিন ভিজিয়ে রাখা হালিম মিক্স। এটা ১০ থেকে ১৫ মিনিট রান্না করতে হবে মিডিয়াম লো ফ্লেমে। তবে ডাল চালের মিশ্রণটি যেহেতু ঘন তাই নেড়ে রান্না করতে হবে নইলে তলানিতে লেগে যাবে।

হালিমের চাল-ডাল ফুটে ঘন হয়ে এলে বাগার দিতে হবে। বাগারের জন্য একটি প্যানে দিন সরিষার তেল। তেল গরম হলে দিন আস্ত সরিষা। সরিষার বাগার হালিমে ভিন্ন একটা স্বাদ এনে দেয়। এরপর দিন শুকনো মরিচ ৪/৫টি। এগুলো ভাজা হলে এবার দিয়ে দিন পেঁয়াজ ও রসুন কুচি। এগুলো গোল্ডেন করে ফ্রাই করতে হবে।

পেঁয়াজ রসুনে গোল্ডেন কালার চলে এলে এই পর্যায়ে দিয়ে দিন সামান্য হলুদ গুড়া এতে কালারটা সুন্দর আসে। ফ্রাই করা হলে এবার এগুলো হালিমের মধ্যে দিয়ে দিন। এবার সব হালিমের সাথে ভালোভাবে মিক্স করে নিতে হবে।

নামানোর আগে দিয়ে দিন লেমন জেস্ট। এটা অপশোনাল চাইলে নাও দিতে পারেন। তবে লেমন জেস্ট দেয়ার ফলে সুন্দর একটা ফ্লেভার ক্রিয়েট হয় হালিমে। আর এই ছোট ছোট বিষয়গুলোর জন্যই আপনার হালিম হবে সবার থেকে আলাদা এবং স্পেশাল। 

চিকেন হালিম ডেকোরেশনের জন্য উপরে দিয়ে দিন পেঁয়াজ বেরেস্তা, ধনিয়া পাতা কুচি আদার কুচি। আর মাঝ বরাবর দিয়ে দিন ভেজে রাখা বাগারের রসুন-পেঁয়াজ। পাশে দিয়ে সাজিয়ে দিন লেবুর স্লাইস। সবার উপরে দিন শুকনো একটা মরিচ ভাজা।

পছন্দমতো টক-ঝাল অ্যাড করে খাওয়ার জন্য পাশেই রেখে দিন কিছু আদা কুচি, ধনিয়া পাতা কুচি, কাঁচা মরিচ ‍কুচি এবং লেবুর টুকরো।

যারা রেড মিট খেতে চান না বা খান না তারা অনায়াসেই খেতে পারেন চিকেন হালিম। এবার আপনিও বানিয়ে ফেলুন চিকেন হালিম এবং প্রিয়দের সাথে উপভোগ করুন মজাদার এই খাবারটি।