রাজবাড়ীতে ভাবিকে হত্যায় দেবরের যাবজ্জীবন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজবাড়ীতে গৃহবধূ পারভীন হত্যা মামলায় দীর্ঘ শুনানি শেষে হামেদ আলী মন্ডল (৩৫) নামের এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের জেল দেওয়া হয়েছে। এ সময় মামলার অপর তিন আসামি সুফিয়া বেগম প্রিয়া (২২), হাসিনা খাতুন (৫০) ও নাছিকে (৩০) খালাস দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিলুফার সুলতানা এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত হামেদ আলী মন্ডল রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর মলি­কপাড়ার মৃত কেসতম আলী মন্ডলের ছেলে।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ৯ আগস্ট রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর মল্লিক পাড়ায় পারিবারিক কলহের জের ধরে মৃত কেসমত আলী মন্ডলের বড় ছেলে হাসেম আলীর স্ত্রী পারভীনকে তার স্বামী ও সন্তানদের অনুপস্থিততে দেবর হামেদ আলী, তার স্ত্রী সুফিয়া বেগম প্রিয়া, শাশুড়ি হাসিনা খাতুন ও ননদ নাছি খাতুন বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে পায়খানায় ফেলে রাখে।

এ ঘটনায় পরদিন ১০ আগস্ট গৃহবধূ পারভীনের ভাই খোকন মোল্লা বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামি করে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা করেন। যার দীর্ঘ শুনানি শেষে আজ রায় হলো।

রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাড. উজির আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দীর্ঘ শুনানি শেষে গৃহবধূ পারভীন হত্যা মামলার রায় হয়েছে। এতে হামেদ আলী মন্ডল নামের একজনের যাবজ্জীবন দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালতের বিচারক এবং মামলার অন্যান্যদের খালাস দিয়েছেন।