করোনা পরীক্ষার সুযোগ নেই সবার!



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
বার্তা ২৪.কম

বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

দুই দুটি মেশিন আছে। করোনার পরীক্ষাও হচ্ছে। কিন্তু সুযোগ সবার জন্য নয়। শুধু নিজেদের রোগী আর চিকিৎসকদের করোনার পরীক্ষা করছে রাজশাহী বক্ষব্যাধি হাসপাতাল। রাজশাহীতে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় মেশিন দুটি কাজে লাগানো উচিত বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

রাজশাহী বক্ষব্যাধি হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, দ্রুত যক্ষ্মা শনাক্ত করার যন্ত্র ‘জিন-এক্সপার্ট’ দিয়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরীক্ষা করা সম্ভব। এখানে দুটি জিন এক্সপার্ট মেশিন আছে। একটি মেশিন ৪ মডিউলের, অন্যটি ১৬ মডিউলের। এগুলো প্রতি ঘণ্টায় ২০টি করে নমুনা পরীক্ষা করতে সক্ষম। দিনে পাঁচবারে মোট ১০০টি পরীক্ষা করতে সক্ষম এগুলো।

জিন-এক্সপার্ট মেশিনে

পিসিআর ল্যাবের বিকল্প এই পদ্ধতি রিয়েল টাইম পিসিআর হিসেবে দেশ-বিদেশে বেশ কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে। যেখানে পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করতে আট ঘণ্টা সময় লাগে, সেখানে জিন-এক্সপার্ট মেশিনে নমুনা প্রক্রিয়াকরণ করতে পাঁচ মিনিট সময় লাগে এবং ৪৫ মিনিটেই ফল পাওয়া যায়। এই মেশিনে পজিটিভ রোগীর ফলাফল ৩০ মিনিটে পাওয়া সম্ভব।

পদ্ধতিতে ভিটিএম টিউব থেকে নমুনা সরাসরি কার্টিজে দেওয়া হয়। এক ধাপে নমুনা পরীক্ষা সম্পন্ন হয় এবং সরাসরি কম্পিউটার থেকে ফলাফল পাওয়া যায়। এ পরীক্ষা ক্লিনিক্যাল মূল্যায়নে করোনাভাইরাস পজিটিভ ও নেগেটিভ রোগীর ক্ষেত্রে প্রায় শতভাগ সাফল্য পেয়েছে। অথচ এখানে বক্ষব্যাধি হাসপাতালের রোগী, চিকিৎসক ও কর্মচারী ছাড়া কারও করোনার পরীক্ষার সুযোগ নেই। সারাদিন অলস পড়ে থাকে মেশিন দুটি।

অপরদিকে রাজশাহীতে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ছেই। বেড়ে গেছে করোনা পরীক্ষার চাপও। কিন্তু এখন শুধুমাত্র রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) একটি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা করানো হচ্ছে। সেখানে প্রচুর চাপ। বাড়তি চাপের কারণে এখন আর দিনের রিপোর্ট দিনে পাওয়া যায় না। অপেক্ষা করতে হয় অন্তত পরের দিনের জন্য। এ অবস্থায় আলোচনায় এসেছে রাজশাহী বক্ষব্যাধি হাসপাতালের জিন-এক্সপার্ট মেশিনটি। এটি সাধারণ মানুষের জন্য উন্মুক্ত করা হলে প্রতিদিন প্রায় ১০০ জনের করোনা পরীক্ষা করা সম্ভব। অটোমেটিক এই মেশিনে এক ঘন্টার মধ্যেই করোনার রিপোর্ট পাওয়া যায়। তুলনামূলক কম খরচ ও স্বল্প সময়ে অধিকসংখ্যক পরীক্ষার জন্য জিন-এক্সপার্ট মেশিনটি খুবই কার্যকর। তবে দুটি মেশিনই এই করোনাকালে তেমন কাজে আসছে না।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, বক্ষব্যাধি হাসপাতালের এই মেশিনে জানুয়ারি মাস থেকে নির্ধারিত কিছু মানুষের করোনা পরীক্ষা হয়েছে। গত বুধবার পর্যন্ত প্রায় ২০০ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে এখানে। এগুলোর প্রায় ২৫ শতাংশ করোনা পজিটিভ এসেছে। মূলত এখানকার রোগী, চিকিৎসক এবং তাদের স্বজনদের করোনা পরীক্ষায় এটি ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

রাজশাহী বক্ষব্যাধি হাসপাতাল ঘুরে দেখা গেছে, হাসপাতালে তেমন লোকজনের আনাগোনা নেই। গেটের মুখে একটি ছোট কাগজে লেখা আছে, এখানে করোনা পরীক্ষা করা হয়। একটু এগিয়ে যেতেই চোখে পড়লো জিন-এক্সপার্ট ল্যাব। ল্যাবের পাশেই বানানো হয়েছে একটি নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্র। তবে সেটি ফাঁকা। কোন লোকজন নেই। ল্যাবটি তালাবন্ধ।

এদিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে নমুনার চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। অথচ মেশিন থেকেও কোন কাজ নেই এখানকার লোকজনের। ল্যাবটিও বেশিরভাগ সময় থাকে তালবদ্ধ। কারণ এটা সবার জন্য উন্মুক্ত নয়।

নাম না প্রকাশ করে ল্যাবের এক কর্মচারী জানান, এখানে দিনে মোট ১০ থেকে ১৫টা টেস্ট করানো হয়। এটি সবার জন্য উন্মুক্ত নয়। জরুরী কিছু রোগী ও তাদের নিজস্ব চিকিৎসক, নার্স ও তাদের পরিবারে সদস্যদের জন্য এটি ব্যবহার করা হয়। এখানে তেমন কিটও নেই। বর্তমানে মাত্র ১০০টির মত কিট আছে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলী বলেন, এখন রাজশাহীর মধ্যে শুধুমাত্র মেডিকেল কলেজেই করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। আমরা চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছি। আমাদের এখানে প্রতিদিন দুই শিফটের জায়গায় চার শিফট কাজ করেও প্রতিদিনের নমুনা প্রতিদিন পরীক্ষা করে শেষ করতে পারছি না। প্রতিদিন এখানে সর্বোচ্চ ৩৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করা সম্ভব। অথচ জমা হচ্ছে ৪০০টিরও বেশি নমুনা।

তিনি আরও বলেন, এই মুহূর্তে রোগ নির্ণয় করাটাই জরুরি। কারণ রোগ নির্ণয় না হলে তো চিকিৎসা করানো যাবে না। যত বেশি পরীক্ষা হবে, ততই ভালো। এ অবস্থায় যে যে সুযোগ আছে কাজে লাগানো উচিৎ।

এ বিষয়ে রাজশাহীর সিভিল সার্জন ডা. কাইয়ুম তালুকদার বলেন, জিন-এক্সপার্ট মেশিন দিয়ে করোনা পরীক্ষা করা হয়। বাংলাদেশের অনেক জায়গায় হচ্ছে। এটি বেশি সংখ্যক হয় না। কিন্তু রাজশাহী বক্ষব্যাধি হাসপাতাল আমাদের আয়ত্বে না। সেখানকার মেশিন শুধু সেখানকার রোগী ও চিকিৎসকদের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এটা সবার জন্য করা যায় কিনা সে বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলা হবে।

রাজশাহী বক্ষব্যাধি হাসপাতালের সুপার ডা. সুলতানা আক্তার বলেন, আমাদের এখানে করোনা পরীক্ষা সবার জন্য উন্মুক্ত নয়। এখানে টিবি রোগীদের করোনা পরীক্ষা করা হয়। এছাড়া আমাদের স্টাফদেরও পরীক্ষা করানো হয় এখানে। কোন কোন দিন ৪ বা ৫টা টেস্ট হয়, আবার কোনদিন ১৪ থেকে ১৫টি করোনা পরীক্ষা হয়। এটি সবার জন্য উন্মুক্ত করার সুযোগ নেই, কারণ এখানে আমাদের রোগী ভর্তি থাকে অনেক। তাদের অবস্থাও অনেক জটিল থাকে।

পাওনা টাকা চাওয়ায় শিক্ষককে মারপিট



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
পাওনা টাকা চাওয়ায় শিক্ষককে মারপিট

পাওনা টাকা চাওয়ায় শিক্ষককে মারপিট

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে আব্দুল কাদের ভূঁইয়া (৪৮) নামের এক শিক্ষককে মারপিট করার দায়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী শিক্ষক।

আব্দুল কাদের ভূঁইয়া উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের কুরশি গ্রামের মৃত আমির উদ্দিন ভূঁইয়ার ছেলে ও বহরপুর ইউনিয়নের আড়কান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক।

অভিযোগপত্র সূত্রে জানা যায়, নবাবপুর ইউনিয়নের বকশিবাড়ী গ্রামের মাটি ব্যবসায়ী মুক্তার হোসেনের নিকট ৩ লাখ টাকায় পুকুর খননের মাটি বিক্রির করেন ভুক্তভোগী শিক্ষক। চুক্তি অনুযায়ী মাটি কাটা শেষ হয়ে গেলেও চুক্তির কোন টাকাই পরিশোধ করেনি। রোববার (২৬ মার্চ) বিকালে বকশিবাড়ির কুড়ুম বাজারে টাকা চাইতে গেলে কিছু বুঝে উঠার আগেই কাঠের বাটাম হাতে নিয়ে অতর্কিতভাবে হামলা করে। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করান।

বাদী কাদের ভূঁইয়া বলেন, আমি তার কাছে ৩ লাখ টাকা পাই। আজ না কাল দেব এমন করে ঘুরাতে থাকেন। গত রোববার টাকা চাইতে গেলে তিনি আমাকে বেদম প্রহার করেন। এ ঘটনায় আমি নিজেই বাদী হয়ে বালিয়াকান্দি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি।

বালিয়াকান্দি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান বলেন, অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অভিযুক্ত মাটি ব্যবসায়ী মোক্তার হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরও বন্ধ পাওয়া যায়।

;

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

  • Font increase
  • Font Decrease

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আট দিনের সফরে মঙ্গলবার সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন।

রাষ্ট্রপতিকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি বিমান (ফ্লাইট নং বিজি-৫৮৪) মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যাত্রা করবে।

রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন বাসসকে একথা জানান।

সিঙ্গাপুরে আবদুল হামিদের আটদিনের সফরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং সিঙ্গাপুর ন্যাশনাল আই সেন্টারে চোখের চিকিৎসা করার কথা রয়েছে।

রাষ্ট্রপতি ৫ এপ্রিল দেশে ফিরবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

;

দুবাইতে বাংলাদেশের ৫৩ তম জাতীয় ও স্বাধীনতা দিবস উদযাপন



তোফায়েল পাপ্পু, সংযুক্ত আরব আমিরাত (দুবাই) থেকে:  
দুবাইতে বাংলাদেশের ৫৩ তম জাতীয় ও স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

দুবাইতে বাংলাদেশের ৫৩ তম জাতীয় ও স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

  • Font increase
  • Font Decrease

 

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে বাংলাদেশের ৫৩ তম জাতীয় ও স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দুবাইয়ের জুমেইরার আটলান্টিসে আনুষ্ঠানিক অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে বাংলাদেশ কনসাল জেনারেল।

২৬ শে মার্চ অনুষ্ঠান উদযাপনে শত শত বাংলাদেশী অংশ নেয়। যদিও স্বাধীনতা দিবস ২৬শে মার্চ পালিত হয়, তবে রমজানেরকারণে দুবাইতে উদযাপন কয়েক দিন আগে অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

এতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আবদুল আজিজ আল নেয়াদিএবং প্রধান অতিথি ছিলেন মোহাম্মদ আল মেইরি।

এসময় দুবাই এবং উত্তর আমিরাতের অন্যান্য কনস্যুলেটের গণ্যমান্য ব্যক্তিরাও উপস্থিত ছিলেন।

 এসময় বক্তব্যে আল নেয়াদি সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাসরত বাংলাদেশী প্রবাসীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, “বাংলাদেশ এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সব দিক থেকে একটি শক্তিশালী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক রয়েছে এবং আমরাভবিষ্যতে আরও সহযোগিতার প্রত্যাশায় রয়েছি।”

 বাংলাদেশের কনস্যুলেট জেনারেলের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেনের সঞ্চালনায় বাংলাদেশের ইতিহাস এবং দেশেরঅর্থনৈতিক ও আর্থিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে দর্শকদের আলোকিত করেন। এসময় তিনি বলেন জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানস্বাধীনতা ঘোষণা করেছিলেন, বাংলাদেশকে একটি স্বাধীন দেশে পরিণত করেছিলেন। তারপর থেকে, আমরা তার স্বপ্ন পূরণেরজন্য কাজ করে যাচ্ছি এবং অনেক দূর এগিয়েছি,” হোসেন বলেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এটি একটি কাকতালীয় যেসংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাংলাদেশ এই বছর তাদের ৫৩ তম জাতীয় দিবস উদযাপন করবে। “এটি আমাদের ভ্রাতৃত্বপূর্ণবন্ধন লালন করার জন্য একটি অনন্য সুযোগ প্রদান করতে সাহায্য করবে। গত এক দশকে দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কএবং সহযোগিতার আদান-প্রদানের ব্যাপক উন্নতি হয়েছে।

;

তাসকিনের আগুন বোলিং হারল আয়ারল্যান্ড



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বোলিং আক্রমণে এসে নিজের প্রথম বলেই লরকান টাকারকে বোল্ড করলেন তাসকিন আহমেদ। সেই ওভারে তাসকিন নিয়েছেন আরও ২ উইকেট। মাত্র ৭ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেয়া তাসকিনের ওভারেই গুঁড়িয়ে যায় আয়ারল্যান্ডের জয়ের স্বপ্ন। নিজের দ্বিতীয় ওভারে এসে প্রথম বলেই ফেরান হ্যারি টেক্টরকে। তাতে নিজের প্রথম ৭ বলেই ৪ উইকেট নেন তাসকিন। পুরো ম্যাচে ২ ওভার বোলিং করে ৪ উইকেট নেয়া ডানহাতি এই পেসার দিয়েছেন ১৬ রান। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে ২২ রানে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

বোলিং আক্রমণে এসে নিজের প্রথম বলেই লরকান টাকারকে বোল্ড করলেন তাসকিন আহমেদ। সেই ওভারে তাসকিন নিয়েছেন আরও ২ উইকেট। মাত্র ৭ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেয়া তাসকিনের ওভারেই গুঁড়িয়ে যায় আয়ারল্যান্ডের জয়ের স্বপ্ন। শেষ দিকে হ্যারি টেক্টরের কেবল হারের ব্যবধানই কমিয়েছে। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে ২০ রানে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

চট্টগ্রামে ৮ ওভারে ১০৪ রান তাড়া করতে নেমে নাসুম আহমেদের বলে তারই মাথার উপর দিয়ে তুলে দিয়ে চার মারেন পল স্টার্লিং। আইরিশ অধিনায়ক সেই ওভারে মেরেছেন আরও দুই চার। শেষ বলে রস অ্যাডায়ার চার মেরে নাসুমের করা প্রথম ওভার থেকে আয়ারল্যান্ড আনে ১৮ রান। মুস্তাফিজুর রহমানের করা দ্বিতীয় ওভার থেকে এসেছে ১৪ রান। তাতে দুই ওভারে বিনা উইকেটে ৩২ রান তোলে সফরকারীরা।

স্টার্লিং ও অ্যাডায়ারের রান তোলার গতি থামান হাসান মাহমুদ। বৃদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে প্রথম তিন বল ডট দেয়ার পর আইরিশদের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন ডানহাতি এই পেসার। হাসানের দারুণ এক ইয়র্কারে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরে যান ১০ বলে ১৩ রান অ্যাডায়ার। উইকেট নেয়ার সঙ্গে সেই ওভারে মাত্র ৫ রান দেন হাসান। তিনে নামা লরকান টাকারকে রান খাতা খোলার পরই বিদায় করেছেন তাসকিন আহমেদ।

ইনিংসের চতুর্থ ওভারে প্রথমবার বোলিং এসে নিজের প্রথম বলেই দুর্দান্ত ইয়র্কার ডেলিভারি করেন ডানহাতি এই পেসার। খানিকটা এগিয়ে খেলতে চেয়ে বলেন লাইন মিস করেন টাকার। তাতে ১ রানেই ফিরে যেতে হয় তাকে। একই ওভারে চতুর্থ বলে স্টার্লিংকেও ফেরান তাসকিন। ২৭ বছর বয়সি এই পেসারের গুড লেংথ ডেলিভারিতে ক্রস ব্যাটে খেলতে চেয়েছিলেন স্টার্লিও। তবে ব্যাটে-বলে করতে পারেননি তিনি।

ফলে ৮ বলে ১৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন আইরিশ অধিনায়ক। তাসকিনকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে থার্ডম্যানে থাকা শামীম পাটোয়ারির হাত ক্যাচ দিয়ে শূন্য রানে আউট হন জর্জ ডকরেল। তাতে হ্যাটট্রিকের সুযোগ তৈরি হয় তাসকিনের। সেটি না পারলেও প্রথম বলে টাকারকে ফেরানোয় ওভার হ্যাটট্রিক হয় তার।

এদিকে প্রথম ওভারে মাত্র ৫ রান দিলেও নিজের দ্বিতীয় ওভারে হাসান দিয়েছেন ১৬ রান। তবে সাকিব আল হাসান প্রথমবারের মতো বোলিং এসে মাত্র ৫ রান দিলে শেষ দুই ওভারে আইরিশদের প্রয়োজন হয় ৩৯ রান। টেক্টর ও গ্যারেথ ডেলানিরা সেই সমীকরণে মেলাতে পারেননি। তাতে প্রথম ম্যাচে হারতে হয়েছে আইরিশদের।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে শুরু থেকেই আগ্রাসী ক্রিকেট খেলতে থাকেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার লিটন ও রনি। প্রথম ওভারেই হ্যারি টেক্টরকে ছক্কা হাঁকান লিটন, সেই ওভারে আসে ১১ রান। দ্বিতীয় ওভারে মার্ক অ্যাডায়ারকে ছক্কা হাঁকান রনি। সেই ওভারে লিটন আরেকটি চার হাঁকালে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে যোগ হয় আরও ১৪ রান।

আইরিশ বোলারদের ওপর এ দিন একটু বেশিই চড়াও হন রনি। পাওয়ার প্লে'র শেষ ওভারে অ্যাডায়ারকে তিনটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান তিনি। সেই ওভারে ২০ রানের সুবাদে পাওয়ার প্লে'তে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় বিনা উইকেটে ৮১ রান। সমানতালে এগিয়ে যাচ্ছিলেন লিটনও।

যদিও হাফ সেঞ্চুরি করতে পারেননি তিনি। অষ্টম ওভারে ব্যক্তিগত ৪৭ রানে বিদায় নেন ড্যাশিং এই ওপেনার। ২৩ বলে খেলা ইনিংসটিতে ছিল চারটি চার ও তিনটি ছক্কার মার। ক্রেইগ ইয়ংয়ের স্লোয়ার বল বুঝতে পারেননি লিটন। মিড অফে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। সহজ ক্যাচ মিস করেননি আইরিশ দলপতি পল স্টার্লিং।

প্রথম ৫০ রান পেতে বাংলাদেশের সময় লাগে ২৫ বল। আর পরের ৫০ পার করতে বাংলাদেশ খেলে ২৮ বল। লিটন ফিরলেও ঝড় থামাননি রনি। মাত্র ২৪ বলে নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান বাড়াতে থাকেন নাজমুল হোসেন শান্তও। যদিও ১৩ বলে ১৪ রান করে ফিরে যান শান্ত। টেক্টরের বলে স্টাম্পিং হয়ে ফিরে যান তিনি। এরপর শামীমও হাত খুলে খেলতে থাকেন রনির সঙ্গে।

১৪তম ওভারে বিদায় নেন রনি। ফেরার আগে ৩৮ বলে সাতটি চার এবং তিনটি ছক্কায় ক্যারিয়ার সেরা ৬৭ রান করেন তিনি। গ্রাহাম হিউমের অফ কাটারে বোল্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন রনি। এর এক ওভার পর বিদায় নেন শামীমও। ফেরার আগে ২০ বলে ৩০ রান করেন তিনি। অ্যাডায়ারের স্লোয়ারে এক্সট্রা কাভারে ক্যাচ তুলে দেন শামীম। এই ক্যাচটিও লুফে নেন স্টার্লিং।

১৭২ রানে চার উইকেট হারানোর পর সাকিব আল হাসানের ব্যাটে দুইশ পার করে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। সাকিব ২০ এবং মেহেদী হাসান মিরাজ ৫ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছেড়েছেন। ১৯.২ ওভারের পর বৃষ্টি নামলে খেলা বন্ধ হয় খেলা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

বাংলাদেশ- ২০৭/৫ (১৯.২ ওভার) (রনি ৬৭, লিটন ৪৭, শামীম ৩০; ইয়াং ২/৪৫)

আয়ারল্যান্ড- ৮১/৫ (৮ ওভার) (ডেলানি ২১*, টেক্টর ১৯, স্টার্লিং ১৭; তাসকিন ৪/১৬, হাসান ১/২০)

;