আশুলিয়ায় বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ



উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
আশুলিয়ায় বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

আশুলিয়ায় বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকার অদূরে শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ায় এক মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে ও শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে কারখানার সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন একটি তৈরি পোশাক কারখানার শতাধিক শ্রমিক।

বুধবার (৩০ জুন) বিকেলে আশুলিয়ার জিরাবো এলাকায় সাউদার্ন ডিজাইন লিমিটেড কারখানার সামনে এ বিক্ষোভ করেন চাকরি হারানো ১৩৮ জন শ্রমিক।

কারখানার শ্রমিকরা জানান, গত ঈদে তাদের মে মাসের বেতন বকেয়া রেখে ছুটি দেয় কারখানা কর্তৃপক্ষ। এরপর ১৩৮ জন শ্রমিককে অবৈধভাবে ছাঁটাই করা হয়। পরে মালিকপক্ষ ও বিজিএমইএ তাদের সঙ্গে বৈঠক করে বকেয়া পরিশোধের জন্য আজ ৩০ জুন সময় দেয়। কিন্তু আজ কারখানায় আসলে টাকা জোগাড় হয়নি বলে নানা তালবাহানা শুরু করে মালিকপক্ষ। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানার সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে মালিকপক্ষ পুলিশ এনে সেখানে তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে।

এ বিষয়ে সাউদার্ন ডিজাইন লিমিটেড কারখানার এইচআর ম্যানেজার আজিজুল হক বলেন, আজ বকেয়া পরিশোধের কথা থাকলেও ব্যাংকের জটিলতার কারণে টাকা তোলা যায়নি। আগামী সোমবার শ্রমিকদের সব পাওনা পরিশোধ করে দেওয়া হবে।

   

চট্টগ্রামে তরুণের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
চট্টগ্রামে তরুণের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

চট্টগ্রামে তরুণের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম নগরীর চাঁন্দগাও থানাধীন অনন্যা আবাসিক এলাকা থেকে শাওন বড়ুয়া (২৫) নামের এক তরুণের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

চাঁন্দগাও থানা সূত্রে জানা গেছে, নিহত শাওন বড়ুয়া চট্টগ্রামের সরকারি ওমরগণি মুসলিম এডুকেশন সোসাইটি (এম.ই.এস.) কলেজের শিক্ষার্থী ছিল।

চান্দগাঁও থানার ওসি জাহিদুল কবির বলেন, খবর পেয়ে অনন্যা আবাসিক এলাকা থেকে শাওন বড়ুয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার বাড়ি সাতকানিয়ায়। তাকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছি। কি কারণে এই তরুণকে হত্যা করা হয়েছে, সেটি বের করতে আমাদের একটা দল তদন্ত করছে।

;

রফতানির বাজার ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান রাষ্ট্রপতির



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বস্ত্র খাতে বিনিয়োগ, উৎপাদনশীলতা, কর্মসংস্থান ও রফতানি বৃদ্ধির পাশাপাশি নিরাপদ এবং পরিবেশবান্ধব শিল্প-কারখানা গড়ে তুলতে শিল্পপতি, শিল্প উদ্যোক্তাগণসহ দেশপ্রেমিক নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ‘জাতীয় বস্ত্র দিবস ২০২৪’ উপলক্ষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এ কথা জানান। তিনি বলেন, উৎপাদনশীলতা বাড়াতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। বিশ্বের সম্ভাব্য সব স্থানে আমাদের রফতানি পণ্যের বাজারকে ছড়িয়ে দিতে হবে।কয়েকটি পণ্যের ওপর নির্ভর না করে রফতানি পণ্যের সংখ্যা বাড়ানোরও জোর তাগিদ দেন রাষ্ট্রপ্রধান।

তিনি বলেন, আমাদের কূটনৈতিক মিশনগুলোকে কাজে লাগাতে হবে এবং অর্থনৈতিক কূটনীতিকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। কোন দুষ্টচক্র বা স্বার্থান্বেষী মহল যাতে উৎপাদনমুখী কারখানার পরিবেশ নষ্ট করতে না পারে সে ব্যাপারে ব্যবসায়ী নেতাসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকার আহবান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।

সাহাবুদ্দিন বলেন, কেউ যাতে উৎপাদনমুখী কারখানার পরিবেশ নষ্ট করতে না পারে সেজন্য সজাগ থাকতে হবে। সরকার সবসময় আপনাদের পাশে আছে ও থাকবে। রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণের জন্য আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন কারিগরি শিক্ষা সম্প্রাসারণ ও দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টির লক্ষ্যে সরকারের পাশাপাশি ব্যবসায়ী শিল্পপতি ও বিনিয়োগকারীদেরকে এগিয়ে আসতে হবে।

পূর্বের যে কোনো সময়ের তুলনায় বৈদেশিক বাণিজ্য এখন অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং, প্রতিযোগিতামূলক এবং জ্ঞান ও নীতিমালাভিত্তিক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দদের এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে।

ব্যবসায়ী নেতাদের উদ্দেশে রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার ও পারিশ্রমিক নিশ্চিত করতে হবে। শ্রমিকরাই উৎপাদনমুখী শিল্পের চালিকাশক্তি। কারখানা ও শ্রমিক একে-অপরের পরিপূরক। শ্রমিক ভালো থাকলে কারখানা ভালো থাকবে, তিনি উল্লেখ করেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, মনে রাখতে হবে আপনারা শুধু মুনাফার জন্য ব্যবসা পরিচালনা করছেন না। আপনাদের সামাজিক দায়িত্বের বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে দেখতে হবে।

তিনি বলেন, তৈরি পোশাক ও বস্ত্র খাতকে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় সক্ষম, শক্তিশালী, নিরাপদ ও যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। তিনি আন্তর্জাতিক বাজারের চাহিদানুযায়ী ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় নতুন নতুন প্রযুক্তিসমূহকে সাদরে গ্রহণ করার ও অনুরোধ করেন।

দেশের সমাজ, অর্থনীতি, সংস্কৃতি, শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থানে বস্ত্র ও পাট খাতের ভূমিকা অপরিসীম উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারের চাহিদা বিবেচনায় বস্ত্র খাতের সম্প্রসারণের লক্ষ্যে নানামুখী কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করতে হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বিনির্মাণে বস্ত্র শিল্পের ভূমিকা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। দেশের সর্ববৃহৎ শ্রমঘন এই সেক্টরে আধুনিক যন্ত্রপাতি ও তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধির মাধ্যমে ‘স্মার্ট টেক্সটাইল’ সেক্টর গড়ে তোলা সম্ভব।

রাষ্ট্রপতি বলেন, বর্তমানে বস্ত্রখাত আমাদের অর্থনীতির প্রধান চালিকাশক্তি হিসেবে শুধু জাতীয় অর্থনীতিকেই সমৃদ্ধ করেনি, একই সঙ্গে নিশ্চিত করেছে অগণিত মানুষের কর্মসংস্থান যার ৮০ শতাংশ মহিলা এবং পরোক্ষভাবে প্রায় এক কোটি মানুষের জীবিকার প্রধান উৎস। তিনি জানান, দেশের মোট রফতানি আয়ের প্রায় ৮৫ শতাংশ বস্ত্র শিল্প থেকে অর্জিত হচ্ছে। গ্রামীণ দারিদ্র্য বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়ন ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে বস্ত্র খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

উন্নত-সমৃদ্ধ ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গঠনের মাধ্যমে রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নে বস্ত্র খাত উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে বলে রাষ্ট্রপতি বিশ্বাস করেন। বাংলাদেশের বস্ত্রশিল্পের ইতিহাস সুপ্রাচীন এবং গৌরবময় উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের নেয়া সকল কার্যক্রম বাংলাদেশের বিকাশমান বস্ত্রখাতকে আরো সমৃদ্ধ করবে এবং বিদেশি বিনিয়োগকারীদের নিকট আকর্ষণীয় করে তুলবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক। অন্যান্যের মধ্যে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আব্দুর রউফ, বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন (বিটিএমএ) সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন এবং বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারারর্স এন্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিজিএমইএ) সহ-সভাপতি মো. শহীদুল্লাহ আযম বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে ‘জাতীয় বস্ত্র দিবস ২০২৩’ এর একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে ১১টি প্রতিষ্ঠান-ব্যবসায়ীকে রাষ্ট্রপতির সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। রাষ্ট্রপতি সেখানে একটি ফটোসেশনে অংশ নেন।

;

রংপুরে চালককে হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাই



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
রংপুরে চালককে হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাই

রংপুরে চালককে হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাই

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুর মহানগরীর নয়াহাট এলাকায় ধানক্ষেত থেকে জাহেদুল ইসলাম (৫৫) নামে এক অটোরিকশা চালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে নগরীর হাজিরহাট থানার নয়ারহাট বাজার সংলগ্ন রংপুর-বদরগঞ্জ সড়কেরর পাশে একটি ধানক্ষেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। জাহিদুলকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা অটোরিকশা ছিনতাই করে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জাহেদুল গঙ্গাচড়া উপজেলার বুড়িডাঙ্গী এলাকার মৃত খরকু মিয়ার ছেলে এবং পেশায় অটোরিকশা চালক।

আরপিএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) শাহনুর আলম পাটোয়ারী জানান, ধারণা করা হচ্ছে, মঙ্গলবার ভোরের দিকে তাকে হত্যা করে ধানক্ষেতে ফেলে অটোরিকশা নিয়ে পালিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। 

পুলিশ জানায়, তার হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। তদন্তের পর জানা যাবে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুর্বৃত্তদের আইনের আওতায় আনতে অভিযানও চালানো হচ্ছে বলে জানায় পুলিশ।

;

দুই প্রতিষ্ঠানের সরকারি বেতন নেন ইউপি সদস্য সেরাজুল



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সিরাজগঞ্জ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরাজগঞ্জে দুই প্রতিষ্ঠান থেকে সরকারি বেতন ভাতা নেন ইউপি সদস্য সেরাজুল ইসলাম। একদিকে দাখিল মাদরাসার অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর। অন্যদিকে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য।

জনপ্রতিনিধি হয়ে নিয়মবহির্ভূতভাবে সরকারি বেতন-ভাতা নিচ্ছেন সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার খোকশাবাড়ি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. সেরাজুল ইসলাম। সেরাজুল ইসলাম ২০১২ সালে শালুয়া ভিটা সিনিয়ার দাখিল মাদরাসায় যোগদান করেন ও ২০২১ সালে ইউপি সদস্য পদে নির্বাচিত হন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শিক্ষা ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের নিয়ম না মেনে ক্ষমতার অপব্যবহার করে শালুয়া ভিটা সিনিয়ার দাখিল মাদরাসার অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে ১২ হাজার টাকা বেতন উত্তোলন করেন। একই সঙ্গে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে জনপ্রতিনিধি হিসেবে ৩ হাজার ৬শ টাকা এবং ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সম্মানী পান ৪ হাজার ৪শ টাকা। সর্বমোট প্রত্যেক মাসে সরকারি দুই প্রতিষ্ঠান থেকে ২০ হাজার টাকা বেতন ভাতা নেন।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এলিজা সুলতানা বলেন, এমপিওভুক্ত (মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার) কোনো মাদরাসা বা স্কুল, কলেজের শিক্ষক যদি জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হন তাহলে তিনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বা ইউনিয়ন পরিষদের এক জায়গা থেকে সরকারি বেতন-ভাতা নিতে পারবেন। সেরাজুল ইসলাম যদি দুই প্রতিষ্ঠান থেকে সরকারি বেতন-ভাতা নিয়ে থাকেন, তাহলে এ পর্যন্ত যা নিয়েছে তা যেকোনো এক প্রতিষ্ঠানের সরকারি কোষাগারে ফেরত দিতে হবে।

ইউপি সদস্য সেরাজুল ইসলাম দুই জায়গা থেকে সরকারি বেতনভাতা নেওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, দুই জায়গা থেকে বেতন-ভাতা নেওয়া যাবে না এটা আমার জানা নেই।

খোকশাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম রশিদ মোল্লা বলেন, ইউপি সদস্য সেরাজুল ইসলামের দুই প্রতিষ্ঠানের বেতনভাতার বিষয়ে কিছু বলতে পারবো না।

সিরাজগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. আফছার আলী বলেন, কেউ সরকারি দুই প্রতিষ্ঠান থেকে বেতন উত্তোলন করতে পারবেন না। তবে সম্মানী ভাতা নিতে পারবে বলে তিনি জানান।

;