বিদ্যমান কাঠামোতে সুষ্ঠু নির্বাচনে বিএনপিকে মতামত দেওয়ার আহ্বান



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

  • Font increase
  • Font Decrease

সংবিধান অনুযায়ী আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে বিএনপিকে বিদ্যমান কাঠামোর মধ্যে কিভাবে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন করা যায়, সেই বিষয়ে মতামত দিতে বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর সংসদ ভবন এলাকায় নিজের সরকারি বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় নির্বাচন কিভাবে, কার অধীনে হবে, এটি মীমাংসিত বিষয়। সংবিধান সম্মতভাবেই পরবর্তী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নিরপেক্ষ এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন ও নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্টের জন্য বিএনপি প্রস্তুতি শুরু করেছে। তাদের এই ধরনের অসাংবিধান প্রয়াস অতীতের মতো সুফল বয়ে আনবে না।

‘বরং বিদ্যমান কাঠামোর আওতায় একটি ট্রেডিবল ইলেকশন আয়োজন কি করা যায় তা নিয়ে আপনারা মতামত দিন। সময় হলে আওয়ামী লীগ নির্বাচন কমিশনে মতামত দেবে। তাই গত ১৩ বছর ধরে বিএনপির নিষ্ফল আন্দোলন যেমন ব্যর্থ হয়েছে, এবারের প্রয়াসও নিষ্ফল হতে ব্যর্থ।

দেশের আইন আদালতের তোয়াক্কা না করে মনগড়া কথা বলাই বিএনপির স্বভাব উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভাবনায় এবং চর্চায় বিএনপির একমুখী দর্শন তাদের রাজনৈতিক অস্তিত্বের শেকড়কে দিনদিন দুর্বল করছে।

‘সরকার বেগম জিয়াকে ভয়ে বিদেশ যেতে দিচ্ছে না’ খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে বিএনপি নেতাদের এই বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রকৃতপক্ষে বিএনপিই বেগম জিয়ার চিকিৎসা চায় কিনা তা নিয়ে জনমনে সন্দেহ আছে।

তিনি বলেন, বিএনপি নেতারা বেগম জিয়ার চিকিৎসা-মুক্তির ইস্যুতে রাজনীতি করছে বেশি। বেগম জিয়ার চিকিৎসার ব্যাপারে যতটা না নজর দিচ্ছেন, তার চেয়ে তাদের চিন্তা বেগম জিয়াকে ইস্যু করে রাজনীতি করা। শেখ হাসিনা সরকার বেগম জিয়া কিংবা ক্ষয়িষ্ণু বিএনপিকে ভয় পায় না বরং তার বয়স এবং স্বাস্থ্যের ওপর নজর দিয়ে সাজা স্থগিত করেছে শেখ হাসিনা চতুর্থবারের মতো। এ উদারতা একমাত্র শেখ হাসিনাই দেখিয়েছেন। বিএনপি শেখ হাসিনার উদারতকে দুর্বলতা ভাবলে ভুল করবে।

একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামির বিদেশগমন বিদ্যমান আইনে সুযোগ আছে কি না, তা বিএনপি ভালো করেই জানেন। আইন মন্ত্রণালয় বিষয়টি ভালো করে জানিয়ে দিয়েছে। কিন্তু বিএনপি জেনে শুনে না দেখার ভান করে জনগণকে বিভ্রান্ত করার কৌশল নিয়েছে। অথচ যে নেত্রীর মুক্তির জন্য তারা মায়াকান্না করছে সেই নেত্রীর মুক্তির জন্য তারা একটি কার্যকর বিক্ষোভ মিছিলও বাংলাদেশের কোথাও করতে পারেনি, বলেন ওবায়দুল কাদের।

এর আগে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিআরটিসির কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।