বুদ্ধের জীবন দর্শন আমাকে আকৃষ্ট করে: কাদের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
কঠিন চীবর দান ও জাতীয় বৌদ্ধ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কঠিন চীবর দান ও জাতীয় বৌদ্ধ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

'গৌতম বুদ্ধ আমাকে প্রবলভাবে আকৃষ্ট করে। তার লেখা বক্তব্য ও জীবন দর্শন আমাকে বরাবরই প্রবলভাবে আকৃষ্ট করে। একজন শান্তিকামী ও শান্তির জন্য লড়ে যাওয়া এই মানুষটি দ্বারা আমি দারুণভাবে প্রভাবিত।'

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার সংলগ্ন মাঠে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের শুভ কঠিন চীবর দান ও জাতীয় বৌদ্ধ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, 'পঁচাত্তরে যখন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়, তারপরে বিচ্ছিন্ন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনগুলোকে বুঝাতে আমি দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়ে গৌতম বুদ্ধের একটি বাণী শুনিয়ে বিভ্রান্ত নেতাকর্মী ও আওয়ামী অনুসারীদের বলতাম, -মানুষের প্রজ্ঞা চিরকালের আর কালিমা ও কলঙ্ক সাময়িক।'

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে হত্যাকারীরা তার সম্পর্কে যেসব কালিমা ও কলঙ্ক ছড়ায়, সেগুলো সময়ের সাথে বিলীন হয়ে যাবে। কিন্তু তার যে প্রজ্ঞা সেটা তাকে সারা জীবন বাঁচিয়ে রাখবে। এমনটা বলেই আমি বিভ্রান্ত আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত করার চেষ্টা করেছি এবং সফলও হয়েছি।'

কঠিন চীবর দান ও জাতীয় বৌদ্ধ মহাসম্মেলন-২০১৯-এ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জনাব এ কে এম রহমত উল্লাহ, থাইল্যান্ড থেকে আগত প্রঞ্চাই পোলাওদামা, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে মহাপরিচালক এবং স্বাচিপ সভাপতি ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়া। এছাড়াও সম্মেলনে সারা বাংলাদেশ থেকে আগত বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ভিক্ষুগণ উপস্থিত ছিলেন। 

আপনার মতামত লিখুন :