ক্যাচ মিসে হার দিয়ে সুপার টুয়েলভ শুরু টাইগারদের



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
নাসুম আহমেদ

নাসুম আহমেদ

  • Font increase
  • Font Decrease

সাকিব আল হাসান ও নাসুম আহমেদের স্পিন জাদুতে জয়ের পথেই ছিল টাইগাররা। কিন্তু কথায় আছে না, ক্যাচ মিস তো ম্যাচ মিস। ক্রিকেটের সেই চিরন্তন কথাটি আজ ফলে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের বেলায়। লিটন দাসের দুটি ক্যাচ মিসেই ম্যাচটা মূলত হাতছাড়া হয়ে যায়। আর তাতেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে ৫ উইকেটে হার মানে বাংলাদেশ।

শ্রীলঙ্কার দুই সেট ব্যাটসম্যানরা জীবন ফিরে পান। আফিফ হোসেনের বলে ১২.৩ ওভারে ভানুকা রাজাপাকসের ক্যাচ ফেলে দেন লিটন। এক ওভার বিরতি দিয়ে ফের ক্যাচ মিস।

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ১৪.৩ ওভারে লিটন এবার ফেলে দেন চারিথ আসালাঙ্কার ব্যাট ছোঁয়া বল। এবার কপাল পুড়ে মুস্তাফিজুর রহমানের। জীবন ফিরে পেয়ে দুজনেই হয়ে উঠেন বিধ্বংসী। মারকুটে ব্যাটিংয়ে লঙ্কানদের জয় উপহার দেন দুজনে।

৩১ বলে ৩ বাউন্ডারি আর ৩ ছক্কায় ৫৩ রান নিয়ে রাজাপাকসের সাজঘরে ফিরলেও অপরাজিত থেকে যান ম্যাচসেরা আসালাঙ্কা। ৪৯ বলে ৫ বাউন্ডারি আর ৫ ছক্কায় ৮০ রানের দাপুটে এক ইনিংস খেলে বাংলাদেশের হাত থেকে জয় নিয়ে তবেই মাঠ ছাড়েন টপ-অর্ডার এ ব্যাটসম্যান।

তার আগে পাথুম নিসানকা দলীয় স্কোরে যোগ করেন ২৪ রান। ১৮.৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্য ১৭২ রানের স্কোর ছুঁয়ে ফেলে শ্রীলঙ্কা। ৭ বল হাতে রেখে জিতে যায় তারা।

বাংলাদেশের হয় দুটি করে উইকেট শিকার করেন সাকিব আল হাসান ও নাসুম আহমেদ। বাকি উইকেটটি যায় মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের পকেটে।

তার আগে প্রথমে ব্যাট হাতে নেমে জ্বলেন ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম শেখ। পরে রান খরা কাটান মুশফিকুর রহিম। দুরন্ত ব্যাটিংয়ে দুজনেই পান দাপুটে ফিফটির দেখা। নাঈম-মুশফিকের অর্ধ-শতকের ওপর ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের পুঁজি দাঁড়িয়েছে ১৭১ রান।

অর্ধ-শতক করে সাজঘরে ফেরার আগে ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম শেখ সংগ্রহ করেন ৬২ রান। তবে ৫৭* রানের হার না মানা দাপুটে এক ইনিংস খেলে অপরাজিত থেকে যান মুশফিকুর রহিম।

অনেক দিন পর ওপেনিং জুটি রানের দেখা পাচ্ছিল। তবে বেশিদূর আগাতে পারেনি তারা। দলীয় ৪০ রানে ভেঙে যায় লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈম শেখের জুটি। লিটন ফিরেন ১৬ রান নিয়ে। আর সাকিব আল হাসান আউট হয়েছেন ১০ রান নিয়ে।

শ্রীলঙ্কার হয়ে একটি করে উইকেট নেন চামিকা করুনারত্নে, বিনুরা ফার্নান্ডো ও লাহিরু কুমারা।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস হেরে ব্যাট হাতে মাঠে নামে টাইগাররা। শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় লঙ্কানরা।

একাদশে একটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে লাল-সবুজের দল। শারজাহর মন্থর ও টার্নিং উইকেট বিবেচনায় পেসার তাসকিন আহমেদের জায়গায় দলে ঢুকেন স্পিনার নাসুম আহমেদ।

ম্যাচের আগের দিনই জানা গিয়েছিল। সাইড স্ট্রেইন ইনজুরির কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে দর্শক হয়ে থাকতে পারেন মহেশ থিকশানা। বাস্তবে সেটাই হয়েছে। আনফিট থিকশানার বদলে শ্রীলঙ্কার একাদশে খেলেন বিনুরা ফার্নান্ডো।

বিশ্বকাপ মাঠে গড়ানোর আগেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা। তবে সেটি ছিল বিশ্বকাপের অফিসিয়াল ওয়ার্ম-আপ ম্যাচ। তবে তাতে জয় তুলে নিতে পারেনি লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। টাইগারদের হারিয়ে জয়ের উল্লাসে মেতে ছিল লঙ্কানরা। আজ সেই হারের মধুর প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ থাকলেও পারেনি টাইগাররা। উল্টো ফের হারের তেতো স্বাদ হজম করল তারা। 

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন কুমার দাস, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান (উইকেটরক্ষক), শেখ মেহেদী হাসান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান ও নাসুম আহমেদ।

শ্রীলঙ্কা একাদশ: পাথুম নিসানকা, কুসাল পেরেরা, চারিথ আসালাঙ্কা, আভিশকা ফার্নান্দো, দাসুন শানাকা (অধিনায়ক), ভানুকা রাজাপাকসা, ভানিন্দু হাসারাঙ্গা, চামিকা করুনারত্নে, দুশমন্থ চামিরা, লাহিরু কুমারা, বিনুরা ফার্নান্দো।