হুমকির মুখে ভূঞাপুর-তারাকান্দি সড়ক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, টাঙ্গাইল
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে ১১১টি গ্রামের কয়েক লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি তলিয়ে গেছে ফসলি জমি। বন্যাকব‌লিত মানুষজন গবাদিপশু নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে। রয়েছে খাদ্য সংকট।

বৃহস্প‌তিবার (১৮ জুলাই) টাঙ্গাইলে যমুনা নদীর পা‌নি বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ৯১ সে‌ন্টি‌মিটার উপর দি‌য়ে প্রবা‌হিত হ‌চ্ছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/18/1563427996601.jpg

বুধবার (১৭ জুলাই) রাত ১১টার দিকে ভূঞাপুর উপজেলার তাড়াই এলাকার বাঁধ ভেঙে নতুন করে প্রায় ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়। ওই সময় তীব্র স্রো‌তে নদীর পা‌নি প্রবেশ করায় ভে‌ঙে গেছে কয়েকটি ঘর-বা‌ড়ি। এছাড়া ভূঞাপুর-তারাকান্দি সড়কের বেশ কয়েকটি স্থান দিয়ে পানি লিকেজ হচ্ছে। এতে হুমকির মুখে রয়েছে সড়কটি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাড়াই এলাকার বাঁধ রক্ষায় কোনো উদ্যোগ না নেওয়ায় গ্রামবাসী চেষ্টা করেও সেটি রক্ষা করতে পারেনি।

অন্যদিকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের মাঝে ২০০ মেট্রিক টন চাল বিতরণ করা হয়েছে। তবে অধিকাংশ বানভাসি মানুষ ত্রাণ না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

আপনার মতামত লিখুন :