Barta24

বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

মেহরীনের জোড়া কনসার্ট

মেহরীনের জোড়া কনসার্ট
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট


  • Font increase
  • Font Decrease

দেশে এবং দেশের বাইরে এই সপ্তাহেই টানা দুটি কনসার্টে গান শোনাবে পপ তারকা মেহরীন মাহমুদ।


প্রথম কনসার্টটি হবে রাজধানী ঢাকার মোহাম্মদপুরে, শারীরিক শিক্ষা কলেজ মাঠে।

/uploads/files/IANI23aDpPLuujZr0gEEmECvEViFr6te2j6Hh1CN.jpeg


আগামী ২৭ জুলাইয়ের এই কনসার্টে মঞ্চ কাঁপানোর জন্য আরও থাকছেন নগরবাউল জেমস, মাকসুদ ও ঢাকা এবং ব্যান্ড আর্টসেল।


কনসার্ট ছাড়াও এখানে দেখানো হবে বর্তমান সরকারের সফলতা নিয়ে তথ্যচিত্র।

পুরো অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হচ্ছে আইআরবি ইভেন্ট লিমিটেডের উদ্যোগে এবং ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের সহযোগিতায়।

বিকেল তিনটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত পুরো মাঠ এবং আশপাশের মানুষ ভাসতে থাকবে সুরের মোহনায়।

/uploads/files/fwUQuXodElYDbcXq2tgf4ubVakH8qj8JgeyRLfZU.jpeg

মেহরীন বললেন-

কনসার্ট মানেই ভিন্ন রকম আয়োজন। লাইট, সাউন্ড সবকিছু মিলিয়ে ভিন্নরকম পরিবেশ তৈরি হয়। সরাসরি দর্শকদের সামনে গাওয়া সব সময় ভিন্ন রকম উদ্দীপনা তৈরি করে। সরাসরি গান গাওয়া সব সময় চ্যালেঞ্জিং। তবে দর্শকদের সামনে গাওয়া দারুণ উপভোগ করি। এবারের কনসার্টেও দর্শকরা আমাকে ভিন্নভাবে খুঁজে পাবেন। এ ছাড়াও বাকি তিনজনের গান পুরো অনুষ্ঠান মাতিয়ে রাখবে। সব মিলিয়ে দুর্দান্ত একটি কনসার্ট হবে, আশা করা যায়।

কনসার্টের উৎসবে আরও হাওয়া দিতে মাত্র দুইশো টাকার টিকিটের সঙ্গে থাকছে প্রাণ লাচ্ছি ফ্রি।

থাকছে র‌্যাফেল ড্রতে বেশ কিছু আকর্ষণীয় পুরষ্কার।

টিকেট কেনা যাচ্ছে ticketchi.com, টেস্টি ট্রিটের সব আউটলেট এবং আইআরবি ইভন্টে লিমিটেডের ফেসবুক পেজ থেকে।

/uploads/files/HLfQwA3jUQ8HAg2DBnY6lNacsnsihdC4H5I8VdYS.jpeg

অন্য কনসার্টটি হবে কলকাতায়, আগরতলার রবীন্দ্র ভবনে (২ নং প্রেক্ষাগৃহে)।

আগামী ২৭ তারিখ থেকে তিনদিনের জন্য চলবে ‘ঢাকা-আগরতলা ডি-ফটোক্যাফে আন্তর্জাতিক ছবি উৎসব ২০১৮’।

দর্শনার্থীরা প্রতিদিন বিকেল তিনটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত ফ্রি এন্ট্রিতে যোগ দিতে পারবেন উৎসবে।


সেখানেই ২৯ জুলাই রাত আটটা থেকে মঞ্চ মাতাবে মেহরীন এবং আনাড়ি।


/uploads/files/SW8PNGdpmgH13nFIAlFODRi4GyC6S2JvNCHrr5uJ.jpeg

আগরতলার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়বেন তারা একইদিন, জানালেন মেহরীন।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে দেশে ফিরবেন আগস্টের দুই তারিখ।

ছবি সংগ্রহঃ ফেসবুক


আরও পড়ুনঃ

উত্তম কুমারের তিন প্রিয়
‘বিনোদন আসলে ব্যবসা না, এটা কে বুঝবে!’
জ্যাম-এর শহরে ঋতুপর্ণা
আপনার মতামত লিখুন :

উজমা হবেন শ্রদ্ধা

উজমা হবেন শ্রদ্ধা
শ্রদ্ধা কাপুর ও উজমা আহমেদ

উজমা আহমেদকে যারা চেনেন না তাদের জন্য শুরুতেই একটা সত্যি ঘটনা বলা যাক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে তাহির আলি নামে একজনের সঙ্গে তার পরিচয় হয়েছিলো। বন্ধুত্বের টানে তাহিরের সঙ্গে দেখা করতে পাকিস্তানের ইসলামাবাদ গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেখানে গিয়ে বন্দুকের মুখে পড়তে হয় তাকে।

দিল্লির এই তরুণীর মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে জোরপূর্বক বিয়ে করেন তাহির। এমনকি উজমা যেনো কখনও দিল্লিতে ফিরতে না পারেন সেজন্য তার পাসপোর্টসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আটকে রেখেছিলেন তাহির। কিন্তু কোনো একভাবে পাকিস্তানি আদালতের শরণাপন্ন হন উজমা। পান সুবিচার।

রূপালি পর্দায় উজমা আহমেদের চরিত্র ফুটিয়ে তুলবেন বলিউড অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুর। ইতোমধ্যে তিনি কাজটি করতে সম্মতি জানিয়েছেন।

শিবম নায়ার পরিচালিত নাম চূড়ান্ত না হওয়া ছবিটিতে ভারতের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের চরিত্রটি রাখা হবে। তবে তার ভূমিকায় কে অভিনয় করবেন তা এখনও জানা যায়নি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/26/1561564688203.jpg
পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে উজমা আহমেদ

 

শ্রদ্ধা কাপুর এখন ‘সাহো’ ছবি নিয়ে ব্যস্ত। এতে তার সহশিল্পী হিসেবে দেখা যাবে ‘বাহুবলী’ তারকা প্রভাসকে। এছাড়া ৩২ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীর হাতে আছে রেমো ডি’সুজার ‘স্ট্রিট ড্যান্সার থ্রিডি’ (বরুণ ধাওয়ান) ও নিতেশ তিওয়ারির ‘ছিচ্চোরে’ (সুশান্ত সিং রাজপুত)।

ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়ায় পুলিশ ডেকেছিলেন একতা

ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়ায় পুলিশ ডেকেছিলেন একতা
একতা কাপুর ও তুষার কাপুর

পরিবারের সঙ্গে তিরুপাতি ঘুরতে গিয়েছিলেন প্রযোজক একতা কাপুর। আর সেসময় কোনো এক কারণে ছোট ভাই তুষার কাপুরের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। দুই ভাই-বোনের ঝগড়া নাকি এতোটাই বেড়ে গিয়েছিল যে একতাকে বাধ্য হয়ে পুলিশ ডাকতে হয়েছিল।

সোনি এন্টারটেইনমেন্ট চ্যানেলে প্রচারিত কমেডি শো ‘দ্য কপিল শর্মা শো’-এর একটি পর্বের শুটিং করতে এসে এমনটা নিজে মুখেই স্বীকার করেছেন একতা কাপুর।

এ প্রসঙ্গে একতার ভাষ্য, ‘অন্যান্য ভাই-বোনদের মতো আমার ও তুষারের মাঝেও অনেক ঝগড়া হয়। আপনারা যেনে অবাক হবেন যে, একবার আমরা পরিবারের সবাই মিলে তিরুপাতি গিয়েছিলাম। সেখানে কোনো এক কারণে তুষারের সঙ্গে আমার অনেক ঝগড়া হয়। এমনকি ও আমার নাকে ঘুষিও মেরেছিল সেসময়। পরে আমি পুলিশকে ফোন দেই।’
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/26/1561559452507.jpgযোগ করে একতা আরও বলেন- যদি কখনও কোনো ফ্যামিলি ট্রিপ হয় তাহলে এই দুই ভাই-বোন এক গাড়িতে চড়েন না। ঝগড়া এড়ানোর জন্য নাকি তারা এমনটা করে থাকেন।

এদিকে, তুষার কাপুর বলেন- ‘আমরা যখন একসঙ্গে স্কুলে যেতাম তখনও আমাদের মাঝে অনেক লড়াই হতো। একে অপরের শার্টের বোতাম ছিড়ে ফেলতাম।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র