অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যা কমাবে যে খাবারগুলো

ছবি: সংগৃহীত

পিরিয়ডের সাইকেলে সমস্যা দেখা দেওয়া খুবই প্রচলিত সমস্যা।

কোন মাসে পিরিয়ড সময়ের আগেই শুরু হয়, আবার কোন মাসে সময় পার হয়ে গেলেও পিরিয়ডের দেখা পাওয়া যায় না। অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভোগার কিছু নেই। শারীরিক, মানসিক ও পারিপার্শ্বিক নানান কারণেই, নির্দিষ্ট সময়ের কয়েকদিন আগে অথবা পরে পিরিয়ড হতে পারে।

তবে এখানেও একটি ‘কিন্তু’ আছে। অনিয়মিত পিরিয়ডের সঙ্গে যদি নিম্নোক্ত কিছু লক্ষণ দেখা দেয়, তবে দ্রুত ডাক্তারের শরনাপন্ন হতে হবে।

লক্ষণগুলো হলো-

১. পেট ব্যথা সহ বেশি রক্তপাত ও ব্লাড ক্লটের সমস্যা।

২. ২-৩ পিরিয়ড ধরে পিরিয়ডের স্থায়িত্বকাল এক সপ্তাহের অধিক সময় অথবা ২-৩ দিন থাকা।

৩. ২-৩ পিরিয়ড ধরে ২০ দিনের মাঝেই পিরিয়ড দেখা দেওয়া।

৪. ৩৫ দিনের অধিক সময় পর্যন্ত পিরিয়ড না হওয়া।

কেনো অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যা দেখা দেয়?

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/08/1541656285590.JPG

সাধারণত কিছু বিশেষ শারীরিক সমস্যার জন্য পিরিয়ডের স্বাভাবিক প্যাটার্নে সমস্যা দেখা দেয়। যার মাঝে দীর্ঘদিনের মানসিক চাপ, অতিরিক্ত শারীরিক চাপ, ইউরিনারি ট্র্যাক্টে ইনফেকশন, থাইরয়েড ডিসঅর্ডার, পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রম (PCOS), লং-টার্ম হরমোনাল মেডিকেশন, মেনোপজ ইত্যাদি।

অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যা দেখা দিলে সবার আগে বোঝার চেষ্টা করতে হবে উপোরক্ত কোন সমস্যাটি আছে। গর্ভধারণজনিত কারণে পিরিয়ড না হলে সেটাও নিশ্চিত হতে হবে। এছাড়া অনিয়মিত পিরিয়ডের সঙ্গে শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যায় উপকারি কিছু খাদ্য উপাদান

পরিমিত এক্সারসাইজের সঙ্গে স্বাভাবিক খাদ্যাভাস মানসিক চাপ কমাতে, স্বাভাবিক শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া চালু রাখতে সাহায্য করে। মানসিক চাপ কমাতে যেমন ইয়োগা বা মেডিটেশনের প্রয়োজন হয়, শরীরকে স্বাভাবিক অবস্থায় রাখার জন্যেও কিছু উপকারী খাদ্য উপাদানের প্রয়োজন হয়। যা অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যাকে দূর করতে সাহায্য করে।

তিলের বীজ

পিরিয়ডের সময় তলপেটের ব্যথা কমাতে তিলের বীজের পানীয় পান করতে হবে। এছাড়া এই পানীয় দেরিতে পিরিয়ড হবার সমস্যা দূর করে।

পানীয়টি তৈরিতে এক কাপ পানিতে এক চা চামচ তিলের বীজ মিশিয়ে উচ্চতাপে ফুটিয়ে ১/৪ কাপ পানিতে আনতে হবে। আধা চা চামচ গুঁড়ের এই পানীয়ের সঙ্গে মিশিয়ে পান করতে হবে।

আমলকী

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/08/1541656240193.jpeg

ভিটামিন-সি তে পরিপূর্ণ প্রাকৃতিক এই ফলটির রস মাত্রাতিরিক্ত রক্তপাতের সমস্যা কমায়। এছড়া পিরিয়ডের ফলে মাথা ঘোরাভাব ও বুক জ্বালাপোড়ার সমস্যাও প্রতিহত করে।

পাঁচ-ছয়টি বড় সাইজের আমলকীর রসের সঙ্গে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করতে হবে।

দই ও মধুর পানীয়

অতিরিক্ত রক্তপাতের সঙ্গে প্রচন্ড পেটেব্যথা কমাতে দই ও মধুর পানীয় পান করতে হবে। দুইটা টেবিল চামচ দই, এক চা চামচ মধু ও স্বাদের জন্য এক চিমটি লবণ মিশিয়ে নিতে হবে। প্রয়োজনে অল্প পানি যোগ করে পানীয়টি তৈরি করে পান করতে হবে।

উপকারী সবজী ও ফল

প্রাকৃতিক সকল সবজী ও ফল স্বাস্থ্যের জন্য নিশ্চিতভাবে উপকারী। তবে অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যা ও পিরিয়ডের উপসর্গ কমাতে কিছু বিশেষ সবজী ও ফল খাওয়া প্রয়োজন।

সবজী: গাজর, বিটরুট, ব্রকলি, পালং শাক।

ফল: কাঁচা পেঁপে, আপেল ও আনারস।

পুদিনা ও ধনিয়া পাতা

পুদিনা ও ধনিয়া পাতার মিশ্রণ হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বৃদ্ধি করে এবং পিরিয়ডের সময় কে নিয়ন্ত্রণে আনতে সাহায্য করে।

লবণ, বিটলবণ, আদা, রসুন, কাঁচামরিচের সঙ্গে পুদিনা ও ধনিয়া পাতা মিশিয়ে চাটনি তৈরি করতে হবে। এই চাটনি প্রতিদিন খেতে হবে।  

লাইফস্টাইল এর আরও খবর