বর্ষায় ভ্রমণে যা রাখবেন সাথে

লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
বর্ষাকালে ঘুরাঘুরিতে কিছু অনুষঙ্গ অবশ্যই সাথে রাখতে হবে, ছবি: সংগৃহীত

বর্ষাকালে ঘুরাঘুরিতে কিছু অনুষঙ্গ অবশ্যই সাথে রাখতে হবে, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বৃষ্টির সময় ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা করা হলে, মাথায় রাখতে হয় শতেক দরকারি জিনিসপত্রের হিসাব।

স্বাভাবিকভাবে সবাই চেষ্টা করে কম জিনিস বহন করার। কারণ এতে ঘুরতে সুবিধা হয়।

বৃষ্টিকালীন সময়ে বের হলে সাথে ছাতা তো থাকেই, তবে ছাতার সাথে আরও কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস রাখতে হবে। এ সময়ে কোন জিনিসগুলো সাথে রাখা প্রয়োজন জেনে রাখুন।

ছাতা

বৃষ্টি মানেই সাথে ছাতা বহন করা। অনেকের কাছে বিরক্তকর মনে হলেও ভিজতে না চাইলে ব্যাগে ছাতা রাখতে হবে। কম বৃষ্টি হলে হালকা ভারের ছাতা রাখা যায়, তবে ঝড়ো বৃষ্টি হলে অবশ্যই ভারী ছাতা প্রয়োজন হবে। তা না হলে, প্রবল বাতাসে ছাতার হুক ভেঙ্গে যেতে পারে।

রেইনকোট

শিশু থেকে বড় সকলের জন্যেই রেইনকোট ব্যবহার দারুণ উপযুক্ত। নিজেকে বৃষ্টির হাত থেকে সম্পূর্ণ শুষ্ক রাখতে রেইনকোট সবচেয়ে কার্যকরী। বাচ্চাদের কোথাও নিয়ে গেলে রেইনকোট সাথে রাখুন, বৃষ্টি হলে তা পরিয়ে বাইরে বের হোন, এতে তারা সহজে ভিজবে না। এছাড়া অনেকে বাইক বা সাইকেল চালান। তারাও প্যান্টসহ জ্যাকেট রেইনকোট পরতে পারেন। এতে জামার কোন অংশই ভিজবে না ও বৃষ্টি শেষে শুষ্ক থাকতে পারবেন।

জুতা

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/11/1562848722180.jpg

বৃষ্টিতে আরেকটি খুব দরকারি হল জুতা। কাদাযুক্ত রাস্তায় হাঁটাহাঁটি করা খুব অসহ্য হলেও সঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌছাতে চাইলে, যানবাহনের পাশাপাশি হাঁটতেও হয়। এছাড়া বৃষ্টির সময় ঘুরতে গেলে, বিশেষ করে পাহাড়ি এলাকায় গেলে জুতা নিয়ে বেশ খেয়াল রাখতে হয়। পাহাড়ি অঞ্চলে গেলে শু বা কেডস জাতীয় জুতা, যেগুলো গ্রিপ্স রাখতে পারে সেগুলো ব্যবহার করা উচিৎ। এতে কাদাতে পা সহজে পিছলিয়ে যাবে না এবং বৃষ্টিতে যেসব পোকার পরিমাণ বেশি থাকে সেগুলো থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

তবে আশেপাশে কোথাও বা নিচু স্থানে ঘুরতে গেলে প্লাস্টিক বা যেগুলো দ্রুতই শুকিয়ে যাবে এমন স্যান্ডেল বা জুতা পড়তে পারেন।

ওয়াটারপ্রুফ ও জিপলক ব্যাগ

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/11/1562848698153.jpg

বৃষ্টির সময় প্রয়োজন এমন ব্যাগ যেটি পানিতে ভিজবে না, পানি প্রবেশ করবে না ও ভিতরের জিনিসপত্রগুলো সুরক্ষিত থাকবে। তাই ব্যাগ যখন কিনবেন দেখে নিন সেটি ওয়াটারপ্রুফ কিনা এবং সেটিতে চেইন ঠিকমত আছে নাকি, যেন খোলা না থাকে।

তোয়ালে বা রুমাল

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/11/1562848681028.jpg

বৃষ্টিতে ভিজে ঘুরাঘুরি করতে কমবেশি অনেকই করেন। তবে ভেজা অবস্থায় বেশিক্ষণ থাকা ঠিক নয়। ঠাণ্ডা, জ্বর, সর্দি এমন সময়ে খুব জলদি দেখা দেয়। তাই সাথে রাখুন ছোট তোয়ালে বা রুমাল, যেটি সহজেই পানি চুষে নিবে এবং দ্রুত বাতাসের সংস্পর্শে শুকিয়ে যাবে। এতে করে বৃষ্টিতে ভেজার পরপরই মাথার চুলসহ শরীর ভালোভাবে মুছে ফেলা যাবে।

হালকা পোশাক

বৃষ্টির দিন ভারী কাপড় পড়া উচিৎ নয়, কারণ এমন পোশাক বৃষ্টিতে ভিজলে সহজে শুকাতে চায় না। এমন সময় হালকা ধরণের জামা পরিধান করা উচিৎ যেগুলোতে পানি ঝরে যাবে, দাগ বসবে না, দ্রুত শুকিয়ে যাবে এবং পরে আরাম বোধ হবে। এ ধরণের জামা ব্যাগে বেশি জায়গাও নেয় না এবং ব্যাগ ভারীও হয়না।

টর্চলাইট

বৃষ্টির দিন কারেন্টের সমস্যাতো থাকেই, তবে এ সময় দিনভর অন্ধকার পরিবেশ হয়ে থাকে। এ সময়ে পাহাড়-জঙ্গলে ঘুরলে অন্ধকারে সহজে দেখা যায়না। এছাড়া রাতে দুর্ঘটনার প্রবণতা বেশি থাকে। তাই সাথে রাখুন ছোট টর্চলাইট বা এমন কোনো লাইট যেটির চার্জ অনেকক্ষণ থাকবে ও ভালো আলো দিতে পারবে।

স্মার্ট ওয়াচ

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/11/1562848621597.jpg

ডিজিটাল প্রযুক্তির যুগে সবকিছুই হাতের মুঠোয়। শুধু যে মোবাইল ফোনে সবকিছু করা হয়, তা নয়। এখন হাতে পড়া ঘড়িতেও রয়েছে মোবাইলের কিছু কার্যক্রম যেমন- ম্যাসেজ দেখা, কল ধরে কথা বলা, কত কিলোমিটার হেঁটেছেন সে হিসাব রাখা, মোবাইল ট্র্যাক করা, দিক নির্দেশনা ইত্যাদি। তাই সম্ভব হলে ঘুরতে যাওয়ার আগে সাথে রাখুন একটি ডিজিটাল ঘড়ি। চমৎকার বিষয়টি হল, স্মার্ট ওয়াচ বৃষ্টিতে ভিজলেও নষ্ট হওয়ার ভয় নেই। এতে বৃষ্টিতে আপনার মোবাইল বারাবার বের করার প্রয়োজন হবে।

পাওয়ার ব্যাংক

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/11/1562848603466.jpg

মোবাইল, লাইট, স্মার্ট ঘড়ি চার্জ দিতে যেখানে সেখানে বিদ্যুৎ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর হয়ে যাবে। তাই ডিভাইসগুলোর চার্জের জন্য সাথে রাখুন পাওয়ার ব্যাংক।

মশার ঔষধ 

বৃষ্টিতে মশার উৎপাত চারিদিকে বেশি থাকে। তাই যেখানেই ঘুরতে যাওয়া হোক না কেনো সাথে রাখুন মশার ঔষধ, ক্রিম বা স্প্রে। এছাড়াও সাথে মশার কয়েল বা মশা মারার উপাদান রাখুন।

খাওয়ার ঔষধ

ব্যাগে প্রাথমিক চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ঔষধ যেমন: জ্বরের জন্য প্যারাসিটামল, নাপা বা এইস প্লাস, এলার্জির ঔষধ, গ্যাস্ট্রিকের ঔষধ, পোকামাকড়, মশা কামড়ানোর ক্রিম, ব্যান্ডেজ, কেটে গেলে ক্ষত পরিষ্কারের জন্য অ্যান্টিসেপটিক ইত্যাদি রেখে দিন।

প্লাস্টিক বা পলিথিন

বৃষ্টিতে আপনার জিনিসগুলো ভিজে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য সাথে রাখুন প্লাস্টিকের ব্যাগ বা পলিথিন। আপনার বহনের ব্যাগটি ওয়াটারপ্রুফ হলেও, বেশিভাগ জিনিসপত্র প্লাস্টিকে মুড়িয়ে ব্যাগে রাখুন। বিশেষ করে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস, ঔষধ, পরিধেয় পোশাক। এতে কোনোভাবে ব্যাগে পানি ঢুকলে জিনিসগুলো ভিজে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা পাবে। এছাড়াও ভিজে যাওয়া জামা-জুতা পলিথিনে মুড়িয়ে ব্যাগে নিতে পারবেন, এতে পানি ছড়িয়ে যাবেনা।

আপনার মতামত লিখুন :