Alexa

তুরস্কের ইজমিরে চলছে দুই সপ্তাহব্যাপী বাংলাদেশের শিল্পকর্ম প্রদর্শনী

তুরস্কের ইজমিরে চলছে দুই সপ্তাহব্যাপী বাংলাদেশের শিল্পকর্ম প্রদর্শনী

তুরস্কের ইজমিরে চলছে দুই সপ্তাহব্যাপী বাংলাদেশের শিল্পকর্ম প্রদর্শনী, ছবি: বার্তা২৪.কম

তুরস্ক, ইজমির থেকে: তুরস্কের তৃতীয় বৃহত্তম শহর ইজমিরে মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় ইজমির পেইন্টিং এন্ড স্কাল্পচার মিউজিয়াম এন্ড গ্যালারি ও আঙ্কারা বাংলাদেশ দূতাবাসের যৌথ উদ্যোগে বাংলাদেশের শিল্পকর্ম প্রদর্শনী ‘লোটাস এন্ড সোল’ উদ্বোধন করেন তুরস্কে নিয়োজিত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম আল্লামা সিদ্দিকি।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ইজমির ট্যুরিজম এন্ড কালচারাল ডিপার্টমেন্টের প্রধান কান এরগেন ও আঙ্কারায় নিয়োজিত বাংলাদেশ দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি সবুজ আহমেদ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Sep/26/1537972207416.jpg

বাংলাদেশের প্রখ্যাত শিল্পী পারভেজ হাসান রিগান ও নাবিলা নাবির অঙ্কিত শিল্পকর্ম প্রদর্শনী ‘লোটাস এন্ড সোল’ আগামী ৮ অক্টোবর পর্যন্ত ইজমির পেইন্টিং এন্ড স্কাল্পচার মিউজিয়াম এন্ড গ্যালারিতে চলবে।

ইজমির ট্যুরিজম এন্ড কালচারাল ডিপার্টমেন্টের প্রধান কান এরগেন তার বক্তৃতায় বঙ্গবন্ধুর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর দুই দেশের গভীর সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের ঢাকা ও চট্টগ্রামে আধুনিক তুরস্কের স্থপতি মোস্তফা কামাল আতাতুর্কের নামে সড়কের নাম এবং তুরস্কের আঙ্কারা ও ইজমিরে বঙ্গবন্ধুর নামে সড়কের নামকরণ প্রমাণ করে দুই দেশের সর্ম্পকের গভীরতা। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল এর লেখা কবিতা ‘কামাল পাশা’র কথাও কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Sep/26/1537972229115.jpg

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম আল্লামা সিদ্দিকি তার বক্তব্যে বর্তমানে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক খাতে অভূতপূর্ণ উন্নয়ন এবং সম-সাময়িক বিশ্বের উদীয়মান ভূরাজনৈতিক গুরুত্বের কথা তুলে ধরেন। বাংলাদেশ ও তুরস্কের মধ্যে ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন । তিনি একসঙ্গে অর্থনীতি, বাণিজ্য, শিক্ষা, সংস্কৃতি ও পর্যটন ক্ষেত্রে এই দু’টি বন্ধুপ্রতিম দেশের সম্ভাব্যতা তুলে ধরেন। তাছাড়া ইজমিরের সঙ্গে বাংলাদেশের বিশেষ সম্পর্কের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ভবিষ্যতে যৌথভাবে এমন অনুষ্ঠান আরও করা হবে।

অনুষ্ঠানে শতাধিক তুর্কি নাগরিক ও ইজমিরে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি ছাত্ররা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :