'টাঙ্গাইল সাহিত্য সংসদ' ও কবি মাহমুদ কামাল



ড. মাহফুজ পারভেজ, অ্যাসোসিয়েট এডিটর, বার্তা২৪.কম
কবি মাহমুদ কামাল।

কবি মাহমুদ কামাল।

  • Font increase
  • Font Decrease

রুদ্ধ পরিস্থিতিতে সাহিত্য বরং বেগবান হয়। কবিতা প্রতিবাদ ও মুক্তির ভাষা খুঁজে পায়। দুই বিশ্বযুদ্ধ, মারি, বন্যা, সংঘাত কবলিত মানব জাতি পৃথিবীকে উপহার দিয়েছে শ্রেষ্ঠতম সাহিত্য।

বৈশ্বিক মহামারি কালেও সাহিত্যচর্চা থেমে নেই। বরং সঙ্গরোধের বদ্ধ পরিস্থিতিকে বহুমাত্রিক আবহে চিত্রিতকরণের কাজ চলছে সাহিত্যের বিভিন্ন মাধ্যমে। বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশেও থেমে নেই সাহিত্যচর্চা। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সরব রয়েছেন কবি ও কথাকারদের সাহিত্য প্রচেষ্টা। এমনই উল্লেখ্যযোগ্য সাহিত্যিক তৎপরতা চলছে টাঙ্গাইলে।

টাঙ্গাইল এক উর্বর ভূমি, যেখানে সাহিত্য-সংস্কৃতির ফল্গুধারা প্রবহমান। ঐতিহ্যবাহী বৃহত্তর ময়মনসিংহের এই জনপদ বৃহত্তর ঢাকা আর সুবিশাল উত্তরবঙ্গের মাঝখানে যেন এক নান্দনিক সেতু।

সমকালের টাঙ্গাইল আধুনিক বাংলা সাহিত্যের অসংখ্য প্রতিভার যেমন জন্ম দিয়েছে, তেমনই সাহিত্যের অনিন্দ্য কেন্দ্র রূপেও বিরাজমান। ঢাকার পর সম্ভবত বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রের উল্লেখ্যযোগ্য একটি হলো টাঙ্গাইল। সেখানে করোনার বিরূপ পরিস্থিতিতেও সামাজিক কাঠামোতে শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতির দ্যোতনা সুস্পষ্ট।

সেখানে 'টাঙ্গাইল সাহিত্য সংসদ'র নেতৃত্বে নিয়মিত সাহিত্য বিষয়ক তৎপরতা পরিচালিত হওয়ার খবর সত্যিই আশাব্যঞ্জক। যে উদ্যোগে গুরুত্ব দেওয়া হয় কবিতাকে। বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্ট কবিগণ এতে আমন্ত্রিত, সম্বর্ধিত হয়েছেন। এবার করোনাকালে আয়োজিত হয়েছে ৩২৯তম অনুষ্ঠান।

সমগ্র আয়োজনের প্রাণপুরুষ 'টাঙ্গাইল সাহিত্য সংসদ'র সভাপতি মাহমুদ কামাল। একাধারে তিনি কবি, অধ্যাপক, সাংবাদিক, গ্রন্থাগার সংগঠক, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব। 'অরণী' নামের একটি গতিশীল লিটল ম্যাগাজিনের সম্পাদকও তিনি।

কবি মাহমুদ কামাল একাধিক কাব্যগ্রন্থ এবং বহু গ্রন্থের প্রণেতা। সজিব ও সৃষ্টিশীল লেখক হিসেবে সদা সচল। বাংলাদেশ ও ভারতে সমানভাবে সমাদৃত।

একটি আস্ত জীবনকে কবিতা তথা সাহিত্যের জন্য নিবেদন করে কবি মাহমুদ কামাল শুধু নিজেই ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠাতা ও স্বীকৃতি পেয়ে তৃপ্ত নন। তিনি বাংলাদেশের নানা স্থানে চলমান সাহিত্য সাধনাকে প্রণোদনা জাগাতে সর্বদাই তৎপর। নানা বয়সের নানা স্থানের কবিদের আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে ধরতেও সফল হয়েছেন তিনি। 'টাঙ্গাইল সাহিত্য সংসদ'র মাধ্যমে বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের উল্লেখ্যযোগ্য কোনও কবিই তাঁর সাদর আমন্ত্রণ বঞ্চিত হননি। 'অরণী' লিটলম্যাগের মাধ্যমেও তিনি অসংখ্য কবিকে বৃহত্তর পাঠক সমাজের সামনে উপস্থাপন করেছেন। কবিতা নিয়ে 'টাঙ্গাইল সাহিত্য সংসদ'র নিয়মিত আয়োজন ছাড়াও অনুষ্ঠিত করেছেন বহু উৎসব। তদুপরি, পদক, পুরস্কার ও সম্মাননায় ভূষিত করেছেন তিনি প্রকৃত মেধাবী কবি ও লেখকদের।

বাংলাদেশে চলমান বিরূপ পরিস্থিতিতে ও বিভাজিত সাহিত্য মানচিত্রে সুদূর টাঙ্গাইলে অবারিত এক প্রবাল দ্বীপের মতো জাজ্বল্যমান 'টাঙ্গাইল সাহিত্য সংসদ' এবং কবি ও সংগঠক মাহমুদ কামাল।