সমীক্ষায় বাংলা প্রকাশনা শিল্প



আবুল খায়ের মুহাম্মাদ, কন্ট্রিবিউটিং করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
সমীক্ষায় বাংলা প্রকাশনা শিল্প

সমীক্ষায় বাংলা প্রকাশনা শিল্প

  • Font increase
  • Font Decrease

পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার নামজাদা 'মিত্র ও ঘোষ প্রকাশনী'র ভানু বাবু (সবিতেন্দ্রনাথ রায়)-এর 'কলেজ স্ট্রিটে সত্তর বছর' এবং 'আনন্দ প্রকাশনী প্রাইভেট লিমিটেড'-এর বাদল বসু (দ্বিজেন্দ্রনাথ বসু) রচিত 'পিয়ন থেকে প্রকাশক' গ্রন্থে সেখানকার প্রকাশনা শিল্পের ইতিবৃত্ত সবিস্তারে বর্ণনা করা হয়েছে। আরও অনেকেই স্মৃতি ও অনুসন্ধানে কলকাতার 'বটতলা সাহিত্য' থেকে অভিজাত প্রকাশনার উত্তরণের আদ্যোপান্ত অন্বেষণ করেছেন।

কিন্তু বাংলাদেশ কেন্দ্রিক প্রকাশনার দুইশত বছরের সুপ্রাচীন ঐতিহ্যময় ইতিবৃত্ত নিয়ে তেমন কাজ হয় নি। মুঘল রাজধানী ঢাকার প্রধান বাণিজ্যকেন্দ্র চকবাজারের 'কিতাব পট্টি' থেকে বাংলাবাজারের উত্থানের শিহরণ জাগানো আখ্যান বলতে গেলে অন্ধকারে চাপা পড়ে রয়েছে। বিশেষত ঢাকার প্রকাশনার সুবৃহৎ কেন্দ্রস্থল বাংলাবাজার নিয়ে তেমন স্মৃতিচারণ ও ইতিহাসভিত্তিক সমীক্ষা নেই বললেই চলে।

অথচ পুরনো ঢাকার বুড়িগঙ্গা তীরের বাংলাবাজার নামক এলাকাটি আশেপাশের ফরাশগঞ্জ, লালকুঠি, প্যারীদাশ রোড ছাড়িয়ে সদরঘাট পর্যন্ত প্রকাশনা ও বিপণনের এক অবারিত জগৎ উন্মোচিত করেছে। যেখানে ছাপা, বাধাই, ব্লক, টাইপ, ফাউন্ডি, ডিজাইনের আদি যুগ পেরিয়ে কম্পিউটার ও অফসেট প্রেসের রূপান্তরের মাধ্যমে আধুনিক প্রকাশনার মজবুত কাঠামো বিদ্যমান।

ঢাকার ল্যান্ডস্কেপ প্রসারিত হয়ে প্রকাশনার ক্ষেত্রও উত্তর থেকে দক্ষিণে আজিজ, শাহবাগ, আরামবাগ, ফকিরাপুলে সম্প্রসারিত। তথাপি, বাংলাদেশের প্রকাশনার নাভিমূল বাংলাবাজারে মোট ব্যবসার আশি শতাংশ আবর্তিত। সৃজনশীল, মননশীল প্রকাশনা, পাঠ্যপুস্তক ব্যবসা মিলিয়ে শত শত প্রতিষ্ঠানে কয়েক হাজার মানুষের রুজিরোজগার নির্ভর করে এখানে এবং প্রতিদিন লেনদেন হয় কোটি কোটি টাকা আর প্রকাশ পায় শত শত বই।

বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ইতিহাসের অনিবার্য অনুষঙ্গ বাংলাবাজার নিয়ে বিস্তারিত গবেষণা ও সমীক্ষা না থাকাটা সত্যিই দুঃখজনক। জাতির মনন ও বুদ্ধিবৃত্তিক ইতিহাসের উজ্জ্বলতম অধ্যায়কে জানতে বাংলাবাজারের ঐতিহাসিক অনুধ্যান অপরিহার্য। এমনই পটভূমিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও লেখক ড. মাহফুজ পারভেজ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের প্রকাশনা শিল্পের বহুমাত্রিক ইতিহাসের সন্ধানে লিপ্ত হয়ে রচনা করেছেন 'প্রকাশনা শিল্প, স্টুডেন্ট ওয়েজ, মোহাম্মদ লিয়াকতউল্লাহ' শীর্ষক গবেষণামূলক গ্রন্থ।

সাধারণার্থে বাংলাদেশের প্রকাশনা শিল্প এবং বিশেষার্থে ৭০ বছরের প্রাচীন প্রতিষ্ঠান স্টুডেন্ট ওয়েজ এর প্রয়াত প্রধান নির্বাহী ও প্রকাশক মোহাম্মদ লিয়াকতউল্লাহ প্রসঙ্গে আলোচনায় এই গ্রন্থে বাংলাবাজার ও প্রকাশনা জগতের ক্রমিক-পালাবদল, সংশ্লিষ্ট বিষয়াবলি, ব্যক্তিগত-অভিজ্ঞতাবাদী-ঐতিহাসিক পর্যবেক্ষণে উপস্থাপিত হয়েছে, যা হারিয়ে যাওয়া পরিবর্তমান পরিস্থিতির প্রতিচ্ছবি।

বস্তুতপক্ষে, আমাদের চোখের সামনে দিয়ে একই সঙ্গে দশক, শতাব্দী ও সহস্রাব্দের পালাবদলের তোড়ে বদলেছে ঢাকার ল্যান্ডস্কেপ ও প্রকাশনা শিল্পের মানচিত্র। অনেক ঐতিহ্য বিলুপ্ত হয়েছে। নব্যরা দখল করেছে অনেক কিছু। বাংলাবাজার থেকে আজিজ, কনকর্ড হয়ে বাংলামোটর পেরিয়ে প্রসারিত আধুনিক ঢাকায় ও সারা বাংলাদেশে প্রলম্বিত হয়েছে লেখক, পাঠক ও প্রকাশনার দিগন্ত, যদিও প্রকাশনার আদিস্থল হিসেবে বাংলাবাজারের ঐতিহ্য, গৌরব ও গুরুত্ব অদ্যাবধি অটুট।

সেই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের প্রকাশনা শিল্পের যুগ-সন্ধিক্ষণের ঐতিহাসিক প্রতিষ্ঠান ‘স্টুডেন্ট ওয়েজ’ এবং সঙ্কুলকালের সেনাপতি মোহাম্মদ লিয়াকতউল্লাহকে আবর্তিত করে দুইশত বছরের প্রাচীন বাংলা প্রকাশনার ঢাকা ও কলকাতার সামগ্রিক পরিস্থিতি ও সময়কালের ঘটমান প্রপঞ্চসমূহকে তুলনামূলক বীক্ষণে উপস্থাপন করা হয়েছে এ গ্রন্থে। হারিয়ে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব, প্রকাশনা সংস্থা, লেখক ও গ্রন্থের বিষয়েও আলোকসম্পাত করা হয়েছে। বাংলা প্রকাশনা শিল্প এবং গ্রন্থাগার সংক্রান্ত নীতি-পরিকল্পনা গ্রহণে ও ইতিহাস প্রণয়নে সহায়ক হবে এই গুরুত্বপূর্ণ  গ্রন্থ।

প্রকাশক স্টুডেন্ট ওয়েজ ছাড়াও অনলাইনে রকমারি.কমে পাওয়া যাচ্ছে ড. মাহফুজ পারভেজ রচিত 'প্রকাশনা শিল্প, স্টুডেন্ট ওয়েজ, মোহাম্মদ লিয়াকতউল্লাহ' শীর্ষক গবেষণামূলক গ্রন্থটি, যার অর্ডার লিংক:

https://www.rokomari.com/book/218005/prokashona-shilpo-student-waya-mohammad-liaquatullah.