শীতের আগমনে উৎসবমুখর বাংলাদেশ

ড. মাহফুজ পারভেজ, অ্যাসোসিয়েট এডিটর, বার্ত২৪.কম
লোক সংগীত সুষমা, ছবি: বার্তা২৪.কম

লোক সংগীত সুষমা, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আসি আসি করে চলে আসছে শীত আর বাংলাদেশ হচ্ছে উৎসবমুখর। লোকায়ত বাংলার সাংস্কৃতিক সুষমা নানা উৎসব ও আয়োজনের বাতাবরণে উন্মোচিত হচ্ছে। বাংলার চিরায়ত গান, পালা, পুথিপাঠ, যাত্রা, নৃত্য গ্রামে, গঞ্জে, জনপদে মুখরিত হতে শুরু করেছে।

বাংলার লোকঐতিহ্যের অনুপম ভাণ্ডার ও প্রসিদ্ধ পূর্ব মৈমনসিংহ-গীতিকা'র লীলাক্ষেত্রে শুরু হয়েছে ৬ দিনব্যাপী লোক সংগীত উৎসব। ময়মনসিংহ থেকে বার্তা২৪.কম'র চৌকস প্রতিনিধি ওবায়দুল হক পাঠিয়েছেন উৎসবের বর্ণাঢ্য ভিডিও স্টোরি।

শুধু ময়মনসিংহ নয়, সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে আছে লোকজ সংগীতের সমৃদ্ধ ধারা। উত্তরবঙ্গের রংপুরের ভাওয়াইয়া, রাজশাহীর গম্ভীরা ছাড়াও ধামাইল, মুর্শিদি, বাউল সংগীতের হৃদয় - ছোঁয়া আবেশ মিশে আছে সারা দেশেই। সিলেট, কুমিল্লা, নোয়াখালী, ফরিদপুর, চট্টগ্রামের আঞ্চলিক আবহে সংগীতের বহুমাত্রিক ধারা যুগ যুগ ধরে মানুষের সাংস্কৃতিক জীবনকে আলোড়িত করছে। আলোকিত করছে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ভূগোলকে।

বাংলার লোক সংগীত ও সংস্কৃতির যে বিশ্ববিশ্রুত যশ ও সুনাম, তা সমগ্র বাংলাদেশব্যাপী প্রসারিত। বাংলার মেঠোপথ, নদীতীর, বটমূল ও লোকালয়ে কান পাতলেই বহমান বাতাসের সমান্তরালে প্রবহমান সুরের দোলা টের পাওয়া যায়। মন উচাটন হয় লোকায়ত শিল্পীর চিরায়ত সুরের টানে।

শুধু সংগীত নয়, গ্রামীণ শিল্প, কুটির সামগ্রী, মৃৎশিল্প, ক্রীড়া ও বিনোদন আবহমান বাংলার মহার্ঘ সম্পদ। শীতের আবাহনে, বিশেষত হেমন্তের ধান কাটার পরের অবসর সময়ে বাঙালি মাতোয়ারা হয় লোকজ সংগীতে, ক্রীড়ায় ও নানা রকমের উৎসব ও আয়োজনে।

উৎসব আর সংগীতময়তা বাঙালির প্রাণময়তার প্রমাণবহ প্রতীক। মারী, খরা, দুঃখ, দারিদ্র্যের পরেও বাঙালি উৎসবমুখর। বিত্ত নয়, চিত্ত সম্পদে বাঙালি ঐশ্বর্যের অধিকারী। শত বিরূপতাতেও বাঙালি গান গায়। বেদনাকে ভাসিয়ে দেয় উদাসী বাতাসে। বিষাদকে মিশিয়ে দেয় প্রমত্তা নদীর ভরাস্রোতে। যাবতীয় যাতনাকে একাকার করে দেয় অমলধবল জোছনার মায়াবী আলোর রেখায়।

শীতে যে উৎসবমুখর বাংলাদেশ জাগ্রত হয় তার সামগ্রিক সংগীত ও সংস্কৃতি নিয়ে, তাকে আন্তরিকভাবে ধারণ করে বাংলার, বাঙালির সংবাদ সারথি বার্তা২৪.কম। বার্তা২৪.কম'র প্রতিষ্ঠাতা, বাংলাদেশের অনলাইন ও মাল্টিমিডিয়া সাংবাদিকতার পথিকৃৎ ব্যক্তিত্ব আলমগীর হোসেনের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে ও নির্দেশনায় বাংলার ক্ষুদ্র ও বৃহত্তম সাংস্কৃতিক সম্ভাবনা ইতিমধ্যেই স্থান পেয়েছে বাংলাভাষীদের এই জনপ্রিয় পোর্টালে।

সর্বশেষ ও সর্বগুরুত্বপূর্ণ সংবাদ চয়নের পাশাপাশি বার্তা২৪.কম লালন করছে বাংলার, বাঙালির সাংস্কৃতিক বিভা ও বৈভব। সংবাদ সারথি বার্তা২৪.কম বাংলার, বাঙালির প্রাত্যহিক যাপিত জীবনের যাবতীয় অনুষঙ্গকে ধারণ করছে তার প্রকাশিত রিপোর্টে এবং প্রচারিত ভিডিও স্টোরিতে। একবিংশ শতকের তথ্যপ্রযুক্তি তাড়িত দ্রুতলয় পৃথিবীর কেন্দ্র ও প্রান্তে প্রান্তে বসবাসকারী লক্ষ-কোটি বাংলাভাষীর কাছে অপরিহার্য সংবাদ সারথি এবং অনিবার্য সাংস্কৃতিক বাতায়ন হয়ে বার্তা২৪.কম পরিণত হয়েছে বাংলার, বাঙালির নির্ভরযোগ্য-বিশ্বস্ত বান্ধব।

আপনার মতামত লিখুন :