একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু ৮ ডিসেম্বর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

উচ্চ মাধ্যমিক বা একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের ভর্তির আবেদন গ্রহণ শুরু ৮ ডিসেম্বর থেকে। চলবে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এবারও একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে। ভর্তির জন্য কোনো পরীক্ষা হবে না। অনলাইনে হবে ভর্তির কাজটি।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি তপন কুমার সরকার এ তথ্য জানান।

তপন কুমার বলেন, আগামী ৮ ডিসেম্বর থেকে একাদশে ভর্তির অনলাইন আবেদন শুরু হবে। যা চলবে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। শিক্ষার্থীরা সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পছন্দক্রম দিয়ে আবেদন করতে পারবে।

তপন কুমার আরও বলেন, আজ শিক্ষামন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত একাদশে ভর্তি বিষয়ক এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

গত ২৮ নভেম্বর চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ করা হয়। এ পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ, যা আগের বছর ছিল ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ। এবার সাধারণ নয়টি শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৮৮ দশমিক ১০ শতাংশ। মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৮২ দশমিক ২২ শতাংশ আর কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে ৮৯ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

   

সামনে পরীক্ষার খাতা, মনে বাবা হারানোর শোক



উপজেলা করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ)
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আশা ছিলো অনেক আদরের মেয়ে এসএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করলে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করবেন পিতা ফজলুর রহমান। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার আগেই তাকে দুনিয়ায় মায়া ত্যাগ করতে হলো। পিতার মরদেহ কবরে রেখে মেয়ে আবনি নাসরিন পূর্ণকে পরীক্ষায় বসতে হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) চলমান এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পরীক্ষা দিয়েছেন তিনি। মেয়ে পূর্ণের সামনে পরীক্ষার খাতা, মনে পিতা হারানোর বেদনা। চোখের পানিতে ভিজেছে খাতা৷ আর তাকে শান্তনা দিয়েছে সহপাঠী ও হলের শিক্ষকরা।

হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলায় কটিয়াদী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষা কেন্দ্রে।

জানা যায়, কটিয়াদী পশ্চিমপাড়ার বাসিন্দা ও বাজারের ব্যাবসায়ী ফজলুর রহমান দুদু মিয়া গতকাল বুধবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। বৃহস্পতিবার সকালেই দাফন সম্পন্ন হয়। ওইদিনই তার দ্বিতীয় কন্যার চলমান এসএসসি ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা ছিলো। বাবার মৃত্যুর শোকের মধ্যেই মেয়ে অংশগ্রহণ করে পরীক্ষায়। শিক্ষার্থী আবনি নাসরি পূর্ণ কটিয়াদী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

কটিয়াদী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদিউল আলম মাহফুজ বলেন, ঘটনাটি হৃদয়বিদারক। আবনি নাসরিন পূর্ণ আমার প্রতিষ্ঠানের একজন ভালো শিক্ষার্থী। আমরাও শোকাহত। কেন্দ্র সচিবসহ সবাই তাকে শান্তনা দিয়েছে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য। পরবর্তীতে সে সুন্দর ভাবেই পরীক্ষা দিয়েছে।

;

‘বাংলাদেশের তরুণদের জন্য সহযোগিতা শক্তিশালী করবে রাশিয়া’



ডেস্ক রিপোর্ট, বার্তা২৪.কম
-কথা বলছেন রোসশোত্রুদনিচেস্তভো'র মস্কো হেড অফিসের ডেপুটি হেড পাভেল শেভতসভ। ছবি: সংগৃহীত

-কথা বলছেন রোসশোত্রুদনিচেস্তভো'র মস্কো হেড অফিসের ডেপুটি হেড পাভেল শেভতসভ। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের তরুণদের শিক্ষা, সংস্কৃতি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে রাশিয়ার সহযোগিতা ভবিষ্যতে আরও শক্তিশালী হবে বলে জানিয়েছেন, রোসশোত্রুদনিচেস্তভো'র মস্কো হেড অফিসের ডেপুটি হেড পাভেল শেভতসভ। ‘বাংলাদেশের শিক্ষাগত, বৈজ্ঞানিক ও যুব কর্মকাণ্ডে রসোট্রুডনিচেস্টভোর ভূমিকা’ শীর্ষক একটি সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

বিশ্বব্যাপী রাশিয়ান হাউসের মস্কোর প্রধান কার্যালয় রোসশোত্রুদনিচেস্তভো'র ডেপুটি হেড পাভেল শেভ্ত্সভ্ এবং বাংলাদেশি মিডিয়া প্রতিনিধিদের সঙ্গে মঙ্গলবার রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন এ অনুষ্ঠান হয়। ঢাকাস্থ রাশিয়ান হাউস বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর, রাশিয়ান ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটি উইথ বাংলাদেশ এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক একাডেমির সহযোগিতায় এটি আয়োজন করে।

শুরুতে ঢাকায় রাশিয়ান হাউসের পরিচালক পাভেল দভইচেনকভ্ তার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, ১৯৭৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে, ঢাকায় রাশিয়ান হাউস সর্বদা বাংলাদেশের তরুণদের জন্য শিক্ষা ও সংস্কৃতিসহ প্রতিটি কর্মকাণ্ডে সক্রিয় রয়েছে। মস্কোতে রোসশোত্রুদনিচেস্তভো'র প্রধান কার্যালয় দ্বারা পরিচালিত বিভিন্ন প্রোগ্রামের মাধ্যমে, এছাড়াও বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষার জন্য রাশিয়ায় রুশ সরকারের বৃত্তির সুযোগ সংক্রান্ত কার্যক্রমের পাশাপাশি রুশ ভাষা কোর্স উন্নয়নের কাজ।

সংবাদ সম্মেলনে পাভেল শেভ্ত্সভ্ বলেন, রাশিয়া বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত বন্ধুত্বপূর্ণ দেশ। বর্তমান ডিজিটাল বিশ্বে বাংলাদেশের প্রতিযোগিতার জন্য দক্ষ জনশক্তি খুবই প্রয়োজন। রাশিয়ায় উচ্চশিক্ষা গ্রহণে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ক্রমবর্ধমান আগ্রহের কারণে, রাশিয়ান সরকার ধীরে ধীরে বৃত্তির সংখ্যা ১২৪-এ উন্নীত করেছে, আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে এই সংখ্যা ভবিষ্যতে আরও বাড়বে, এবং রোসশোত্রুদনিচেস্তভো'র বাংলাদেশ প্রতিনিধি কার্যালয় ঢাকার রাশিয়ান হাউস বাংলাদেশের যেকোনো উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের প্রক্রিয়ায় জন্য যথেষ্ট সক্রিয়।


তিনি রাশিয়ান সরকারের নিউ জেনারেশন এবং ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফেস্টিভ্যাল ২০২৪-এ আগ্রহের জন্য বাংলাদেশের যুব প্রতিনিধিদের ধন্যবাদ জানান এবং তাদের রাশিয়ায় স্বাগত জানান। তিনি গণমাধ্যম প্রতিনিধি ও অন্যান্য অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের বিস্তারিত উত্তর দেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযুদ্ধ একাডেমী ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ। সংবাদ সম্মেলনের পর বাংলাদেশী শিল্পীরা অনুপ্রেরণামূলক দেশাত্মবোধক গান ও নৃত্য পরিবেশন করেন।

;

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের দ্বিতীয় ধাপের ফল প্রকাশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার দ্বিতীয় ধাপের (খুলনা, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগ) লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। এতে লিখিত পরীক্ষায় ২০ হাজার ৬৪৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.mopme.gov.bd এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট www.dpe.gov.bd -তে ফলাফল পাওয়া যাবে। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা মোবাইলেও মেসেজ পাবেন।

গত ২ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় ধাপে রাজশাহী, খুলনা ও ময়মনসিংহ বিভাগের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে প্রথম পর্বে বরিশাল, সিলেট ও রংপুর বিভাগের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় ২০২৩ সালের ৮ ডিসেম্বর। ওই পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয় ২০ ডিসেম্বর। এ পর্বের মৌখিক পরীক্ষার ফলাফলও শিগগিরই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

প্রথম ধাপে তিন লাখ ৬০ হাজার ৭০০, দ্বিতীয় ধাপে চার লাখ ৫৯ হাজার ৪৩৮ এবং তৃতীয় ধাপে তিন লাখ ৪০ হাজার প্রার্থী আবেদন করেন। বর্তমানে সারাদেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে ৮ হাজারের বেশি পদ শূন্য রয়েছে।

;

‘বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য রাশিয়ান বৃত্তি ক্রমান্বয়ে বাড়ানো হবে’



ডেস্ক রিপোর্ট, বার্তা২৪.কম
-মস্কোর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রোসোত্রুদনিচেস্তভোর (রাশিয়ান হাউজেস অ্যাবরড) ডেপুটি হেড পাভেল এ. শেভ্ত্সভ। ছবি: সংগৃহীত

-মস্কোর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রোসোত্রুদনিচেস্তভোর (রাশিয়ান হাউজেস অ্যাবরড) ডেপুটি হেড পাভেল এ. শেভ্ত্সভ। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য রাশিয়ান বৃত্তি ক্রমান্বয়ে বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন মস্কোর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রোসোত্রুদনিচেস্তভোর (রাশিয়ান হাউজেস অ্যাবরড) ডেপুটি হেড পাভেল এ. শেভ্ত্সভ। বাংলাদেশ- রাশিয়ার বন্ধুত্ব আগামী দিনে আরও সুদৃঢ় হওয়ার আশাবাদও জানান তিনি।

মঙ্গলবার রাশিয়ান হাউস ইন ঢাকার উদ্যোগে মুক্তিযুদ্ধ একাডেমি ট্রাস্টের সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্মরণে ‘নেটিভ হিসাবে রাশিয়ান ভাষা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই আশাবাদ জানান তিনি।

স্বাগত বক্তব্যে ঢাাকাস্থ রাশিয়ান সেন্টারের পরিচালক পাভেল দভইচেনকভ্ বাংলাদেশে রুশ ভাষা শিক্ষার প্রসারে ঢাকার রাশিয়ান হাউসের কার্যক্রম এবং বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য রুশ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত বৃত্তি বৃদ্ধিতে রাশিয়ান হাউসের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা তুলে ধরেন এবং রাশিয়ান সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচিতে বাংলাদেশের তরুণদের উন্নয়নে ‍অংশগ্রহন সহায়তা।

পাভেল এ. শেভতসভ তার বক্তৃতায় বলেন, এটা প্রমাণিত যে বাংলাদেশীরা রাশিয়াকে খুব ভালোবাসে এবং বাঙালিদের রুশ ভাষায় কথা শুনে আমি মুগ্ধ। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য রাশিয়ান সরকারের বৃত্তি ক্রমান্বয়ে বাড়ানো হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন সোভিয়েত রাশিয়ান গ্র্যাজুয়েট ও রাশিয়ান ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটি উইথ বাংলাদেশ এর সভাপতি সাত্তার মিয়া, ঢাকায় রাশিয়ান হাউসের রাশিয়ান ভাষা শিক্ষক ইয়াসমিন সুলতানা; আজকের পত্রিকার উপ-সম্পাদক জাহেদ রেজা নূর এবং শিক্ষক, অনুবাদক, রাশিয়ান সাহিত্যের লেখক এবং মিলিটারি ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (এমআইএসটি)’র নিউক্লিয়ার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ (এনএসই) এর সহযোগী অধ্যাপক ওলগা রায়, মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শাহজাহান সরদার; এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক একাডেমি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ।

বক্তারা গভীর শ্রদ্ধার সাথে রাশিয়ার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক এবং মানবিক সহায়তার কথা স্মরণ করেন এবং বাংলাদেশ- রাশিয়ার বন্ধুত্ব আরও সুদৃঢ় হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তারা রাশিয়ায় উচ্চশিক্ষা এবং সমৃদ্ধ রুশ সাহিত্য প্রকৃতভাবে জানার লক্ষ্যে রুশ ভাষা শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করেন। অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন জেলার মুক্তিযোদ্ধা, রুশ ভাষার শিক্ষার্থী, বাংলাদেশের গণমাধ্যম প্রতিনিধিসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

;