নো-ফটো



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
তৈমুর আলি খান

তৈমুর আলি খান

  • Font increase
  • Font Decrease

সাইফ আলী খান ও কারিনা কাপুর পুত্র তৈমুর আলি খানকে ছোটখাটো ‘মহাতারকা’ বলাই যায়। মিডিয়া এই পিচ্চির প্রতি যে পরিমাণ মনোযোগ দিয়েছে, তা অন্য কারও ক্ষেত্রে ঘটেনি।

এমনিতে পাপারাজ্জিদের সঙ্গে তৈমুরের খুবই ভালো সম্পর্ক। তাদের সামনে রীতিমতো পোজ দিয়ে ছবি তোলে সে। আলোকচিত্রীদের জিজ্ঞেসও করে, ‘ভালো আছ? কী খেয়েছ?’ কিন্তু এই পাপারাজ্জিদের উপরই সম্প্রতি কিছুটা নারাজ হয়েছিলো ছোট নবাব।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে তৈমুর আলি খানের একটি ভিডিও। যেখানে দেখা যাচ্ছে, মায়ের হাত ধরে গাড়ি থেকে নেমে লিফটে ওঠার আগের মুহূর্তে হাজারো ক্যামেরার ফ্ল্যাশ ঘিরে ধরে মা-ছেলেকে। শুরুতেই তৈমুর বলে, ‘নো-ফটো’।

কিন্তু কে কার কথা শুনছে? পাপারাজ্জিরা তখন ব্যস্ত সেরা ফ্রেম লেন্সবন্দি করতে। এর মাঝেই খানিকটা বিরক্তির সুরে পা ছুঁড়ে দেয় তৈমুর।

বলিউড তারকা সাইফ আলী খান ও কারিনা কাপুর খানের একমাত্র সন্তান তৈমুর আলী খান। এই ছেলের জন্ম ২০১৬ সালের ২০ ডিসেম্বর। মজা করে তাকে ডাকা হয় ‘মিনি নবাব’।

‘হনুফা’ চরিত্রটি খুব পছন্দ করেছি-পার্নো মিত্র



বিনোদন রিপোর্ট, বার্তা ২৪.কম
পার্নো মিত্র

পার্নো মিত্র

  • Font increase
  • Font Decrease

নূরদ্দিন জাহাঙ্গীরের লেখা উপন্যাস অবলম্বনে ফজলুল তুহিনের পরিচালনায় নির্মিত হচ্ছে চলচ্চিত্র ‘বিলডাকিনী’। নওগাঁর পতিসরে চলছে এর শুটিং।

গত ৩ জানুয়ারি থেকে চলচ্চিত্রটির চিত্রধারণ চলছে। ১৮ জানুয়ারি শুটিং শিবিরে যোগ দিলেন পশ্চিমবঙ্গে অভিনেত্রী পার্ণো মিত্র। কেন্দ্রিয় চরিত্রটি তারই।

চলচ্চিত্রটির নির্মাতা বার্তা ২৪.কমকে বিস্তারিত জানালেন চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে।

বললেন, “গ্রামাঞ্চলের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক দ্বন্দের একটি গল্প। একটি মেয়ের সন্তান হয়। কিন্তু সন্তানটা কার তা নিয়ে একটা প্রশ্ন তৈরি হয়। গ্রামবাসীরা কেউ মেয়েটার পক্ষে দাঁড়ায়, কেউ বিপক্ষে দাঁড়ায়। কিন্তু মেয়েটা তার গর্ভের সন্তান নিয়ে কোন আপোষ করতে চায় না। সেই নারীটার গল্প নিয়েই ‘বিলডাকিনী’। চরিত্রটির নাম হনুফা। এ চরিত্রেই অভিনয় করছেন পার্নো মিত্র।”

পার্নো মিত্রর সঙ্গে চলচ্চিত্রটি অভিনয় করছেন মোশাররফ করিম। দুজনই চলচ্চিত্রটি নিয়ে উচ্ছ্বসিত।

তুহিন আরও বললেন, “পার্নো নিজেই একটু আগে আমাকে বলল-আমি আমার হনুফা চরিত্রটি খুব পছন্দ করেছি। সে যেহেতু চরিত্রটিকে পছন্দ করেছে কাজও ভালো করবে। মোশাররফও বলেছে-এনজয় করছি। সবমিলে কাজটা ভালো হচ্ছে-আমিও আশাবাদী।

নির্মাতা জানান, একটানা নির্মাণে আগামী ২৭ তারিখ পর্যন্ত চলচ্চিত্রটির শুটিং চলবে।

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালে অঞ্জন দত্ত পরিচালিত 'রঞ্জনা আমি আর আসবো না' সিনেমাটির মাধ্যমে আলোচনায় আসেন এই অভিনেত্রী। 'দত্ত ভার্সাস দত্ত', 'বেডরুম', কয়েকটি মেয়ের গল্প', 'আমি আর আমার গার্লফ্রেন্ড' 'মাছ, মিষ্টি, মোর', 'শেষ অঙ্ক', 'গ্ল্যামার'সহ বেশ কয়েকটি আলোচিত চলচ্চিত্রে তিনি কাজ করেছেন। বাংলাদেশের বড়পর্দায় মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’ চলচ্চিত্রটির মধ্য দিয়ে অভিষেক ঘটে তার।

 

 

 

 

 

 

;

হোলিতে মুক্তি পাচ্ছে অক্ষয়ের ‘বচ্চন পাণ্ডে’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
‘বচ্চন পাণ্ডে’ ছবির পোস্টারে অক্ষয় কুমার

‘বচ্চন পাণ্ডে’ ছবির পোস্টারে অক্ষয় কুমার

  • Font increase
  • Font Decrease

এ বছরের বহুল প্রতীক্ষিত ছবিগুলোর মধ্যে অন্যতম ‘বচ্চন পাণ্ডে’। কমেডি ও রোমান্সে ভরপুর এই ছবিটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অক্ষয় কুমার ও কৃতি শ্যানন।

ইতিমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে ছবিটিতে অক্ষয়ের ফাস্ট লুক। আজ (১৮ জানুয়ারি) ছবিটির নতুন পোস্টার প্রকাশ করে এর মুক্তির তারিখ ঘোষণা করলেন নির্মাতারা।

সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ১৮ মার্চ হোলি উৎসবের দিন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে ছবিটি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবিটির নতুন পোস্টার শেয়ার করে এর মুক্তির তারিখ ঘোষণা করেছেন অক্ষয় কুমার নিজেও।

ফরহাদ সামজি পরিচালিত ‘বচ্চন পাণ্ডে’ প্রযোজনার দায়িত্বে রয়েছেন সাজিদ নাদিয়াড়ওয়ালা।

;

ইলিয়াস কাঞ্চনকে জায়েদ- ‘এইসব নোংরামি বন্ধ করেন’



বিনোদন রিপোর্ট, বার্তা ২৪.কম
ইলিয়াস কাঞ্চন ও জায়েদ খান

ইলিয়াস কাঞ্চন ও জায়েদ খান

  • Font increase
  • Font Decrease

সোমবার সকালে চিত্রনায়িকা শিমু হত্যাকাণ্ডে বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধারের সন্দেহের তীর ওঠে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে। স্যোসাল মিডিয়ায় গুঞ্জন, আসন্ন শিল্পী সমিতি নির্বাচনের ঠিক দশদিন আগে এমন রহস্যময় হত্যাকাণ্ডে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জায়েদের সংশ্লিষ্টতার কথা।

হাওয়ায় সেই গুঞ্জন বাড়তে না দিয়ে এ বিষয়ে মুখ খুলতে মধ্যরাতেই গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন জায়েদ খান। সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন শিমুর ভাই শহিদুল ইসলাম খোকনকে। জানান, তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার।

গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে খোকন দাবি করেন, শিমুকে হত্যার পেছনে দায়ি তার স্বামী। জায়েদ খানকে নির্দোষ দাবি করেন তিনি।

অন্যদিকে জায়েদ খান জানান, হত্যাকাণ্ডের খবর জানার পর থেকে শিমুর বড়ভাইকে তিনিই সহযোগিতা করেছেন আইনি আশ্রয় নিতে।

তিনি বলেন, “শিমুর হত্যার তীব্র প্রতিবাদ জানাই আমি। আমি র‌্যাবকে ধন্যবাদ জানাই যে, তারা ইতোমধ্যে আসামিকে ধরে ফেলেছে। গতকাল বিকেলে আমি যখন শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত তখন শিমুর ভাই আমাকে পাশে ডেকে নিয়ে বললেন, জায়েদ ভাই, কাল থেকে শিমুকে খুঁজে পাচ্ছি না। কলাবাগান থানায় জিডি করেছি। আপনার সহযোগিতা চাই। আমি তাৎক্ষণিক এ বিষয়ে সহযোগিতার হাত বাড়াই।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য আমার ভাই নাজমুলকে বিষয়টি জানাই। শিমুর ফোন নম্বর দিয়ে তার সর্বশেষ লোকেশনটা কোথায় তা জানতে বলি। এরপরেই নাজমুল জানান, কেরানীগঞ্জে শিমুর ডেডবডি পাওয়া গেছে।”

নির্বাচনকে ঘিরে তার নামে এ ধরণের ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা অভিযোগ ছড়ানোয় বিরোধী শিবিরকে দায়ি করেন জায়েদ খান। তিনি বলেন, “ঘটনার পর পর আমাকে জড়ানোর ষড়যন্ত্র চলছে। বলা হচ্ছে, ১২দিন আগে শিমুর সঙ্গে আমার ঝগড়া হয়েছে। অথচ গত দুই বছর ধরে আমার সঙ্গে তার কোনো যোগাযোগ নাই।”

“একদল লোক আছে যারা সুন্দর একটি নির্বাচনকে কলঙ্কিত করতে চাচ্ছে। এরা সবখানে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে! একটা হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তার বিচার চাইবে কী, সেটা নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে। আসন্ন শিল্পী সমিতির নির্বাচনে আমাকে চাপে ফেলার চেষ্টা করছে। আমি চাই, প্রকৃত খুনিদের খুঁজে বের করা হোক।”-যোগ করেন জায়েদ খান।

তিনি জানান, কয়েকজন নামধারী শিল্পী তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছেন। তাদের বিরুদ্ধে তিনি শিগগিরই আইনি আশ্রয় নিবেন।

এদিকে, শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ২০১৭ সালে জায়েদ খান সাধারণ সম্পাদক হয়ে দায়িত্ব পাওয়ার পর ১৮৪জন শিল্পীর সদস্য পদ হারানো নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ক্ষোভ ও বঞ্চনার কথা বলে আসছিলেন শিল্পীরা। তাদের মধ্যে ছিলেন চিত্রনায়িকা শিমুও। হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর জায়েদ খানের বিরুদ্ধে সংবাদ মাধ্যমে চিত্রনায়িকা শিমুর একটি পুরনো সাক্ষাতকারও স্যোসাল মিডিয়ায় নতুন করে ভাইরাল হয়েছে।

সোমবার রাতে, এফডিসিতে সদস্যপদ হারানো শিল্পীদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে চিত্রনায়ক রিয়াজ আবেগাক্রান্ত হয়ে কেঁদে ফেলেন। বিষয়টিকে ‘মেকি কান্না’ বলে অভিহিত করে, বিরোধী প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী ইলিয়াস কাঞ্চনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “ইলিয়াস কাঞ্চন ভাইকে বলবো, আপনারা সম্মানিত মানুষ, ভালোবাসার মানুষ এইসব নোংরামি বন্ধ করেন। রিয়াজ ভাই অভিনয় করে মেকি কান্না করছে। উনিই এদেরকে সহযোগি সদস্য করেছিলেন।”

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৭ জানুয়ারি) রাতে নায়িকা শিমুকে হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী সাখাওয়াত আলী নোবেলকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। হত্যার সঙ্গে জড়িত বন্ধু ফরহাদকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রাতভর জিজ্ঞাসাবাদের পর দায় স্বীকার করে নোবেল। সোমবার সকালে রাজধানীর কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ব্রিজের নীচ থেকে শিমুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢাকায় স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতালে মর্গে রাখা হয়।

১৯৯৮ সালে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘বর্তমান’ সিনেমা দিয়ে রুপালি পর্দায় তার অভিষেক হয়। একে একে অভিনয় করেছেন ৫০টিরও বেশি নাটকে। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবেও দর্শকরা তাকে পর্দায় পেয়েছে। ২৩টি সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছিলেন বলে জানা গেছে।

;

সংসার ভাঙল ধানুশ-ঐশ্বরিয়ার



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ঐশ্বরিয়া ও ধানুশ

ঐশ্বরিয়া ও ধানুশ

  • Font increase
  • Font Decrease

গত বছরের শেষ দিকে সংসার ভাঙনের খবর দিয়ে সকলকে চমকে দিয়েছিলেন নাগা চৈতন্য ও সামান্থা রুথপ্রভু। সেই ভাঙনের রেশ কাটতে কাটতেই এবার ১৮ বছরের সংসার জীবনের ইতি টানলেন দক্ষিণের সুপারস্টার ধানুশ-ঐশ্বরিয়া দম্পতি।


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে বিচ্ছেদের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে ধানুশ লিখেছেন, ‘বন্ধু হিসেবে, জুটি হিসেবে, বাবা-মা হিসেবে ১৮ বছরের এই পথ চলা। সফরটা ছিল মানুষ হিসেবে বেড়ে ওঠার, একে অপরকে বুঝে ওঠার, মানিয়ে চলার। আজ আমরা এমন এক সিদ্ধান্তে এসে পৌঁছেছি, যেখানে আমরা বুঝতে পারছি এবার আমাদের পথ আলাদা হওয়াটাই ভালো। আমি আর ঐশ্বর্যা আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যুগল হিসেবে এতদিন থেকেছি। এবার নিজেদের নিজেদেরকে বোঝার পালা’।

ধানুশ আরও যোগ করেন, ‌‘আগামী দিনগুলোতে বরং একে অপরকে বোঝার জন্য আর একটু সময় দেব। সকলের কাছে অনুরোধ অনুগ্রহ করে আমাদের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাবেন এবং আমাদের ব্যক্তিগত জীবনের গোপনীয়তা বজায় রাখতে দেবেন।’

একই বিবৃতি ঐশ্বরিয়াও তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন। সঙ্গে রজনীকান্ত কন্যা লেখেন, ‘এই পোস্টের জন্য আলাদা কোনও ক্যাপশনের দরকার নেই প্রয়োজন তোমাদের ভালোবাসা।’

দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্তের মেয়ে ঐশ্বরিয়া। ২০১২ সালে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। তার প্রথম ছবি ‘৩’-এর নায়ক ছিলেন ধানুশ। সেই সিনেমার গান ‘কোলাভরি ডি’ তুমুল জনপ্রিয় হয়েছিল। পরে ২০০৪ সালে ঐশ্বরিয়াকে বিয়ে করেন দক্ষিণের এই তারকা। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ২০।

কিছুদিন আগেই মুক্তি পয়েছে আনন্দ এল রাই পরিচালিত ছবি ‘আতরাঙ্গি রে’। অক্ষয় কুমার, সারা আলি খানকে ছাপিয়েও ধানুশের অভিনয় প্রশংসা পেয়েছে বিভিন্ন মহলে।

;