সন্তান থাকলে দ্বিতীয় বিয়ে উচিত নয় : অপু বিশ্বাস



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মুখে ভি শেপ এনেছেন অপু (চিকিৎসার আগের ও পরের ছবি)

মুখে ভি শেপ এনেছেন অপু (চিকিৎসার আগের ও পরের ছবি)

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢালিউড নায়িকা অপু বিশ্বাসের হাতে কোন সিনেমার কাজ না থাকলেও কি করে আলোচনায় থাকতে হয় তা তিনি ভালো করেই জানেন। নিয়মিত বিভিন্ন শো রুম উদ্বোধন অথবা ব্র্যান্ডের ফটোশ্যুট করে দর্শকের সামনে থাকতে চাইছেন তিনি। আর নতুন করে তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে, গুছিয়ে কথা বলার তকমা। তাকে যতো কঠিন কিংবা বিব্রতকর প্রশ্ন করা হলো না কেন, তিনি হাসিমুখে বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে উত্তর দিয়ে দর্শকের (বিশেষ করে নারী ভক্তদের) মন জয় করেছেন। তবে এবার তার দেওয়া এক বক্তব্য নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা সামালোচনা।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস কলকাতার গণমাধ্যম আনন্দবাজারকে এক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। সেখানে এক প্রশ্নের জবাবে অপু দাবি করেন, সন্তান থাকলে কোনো মেয়েরই দ্বিতীয় বিয়ে করা উচিত নয়। তিনি এরকমটা কখনোই করবেন না।

সাম্প্রতিক ফটোশুটে অপু বিশ্বাস

এই কথা নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে সমালোচনা। বেশিরভাগ নেটিজেনই তার এই বক্তব্যকে মেনে নিতে পারেননি। সেই সাক্ষাৎকারে অপু আরও বলেন, ২০০৯ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত এই ছয় বছর কোনো নায়িকাই তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পারেননি। অপু বলেন, ‘আমি যখন যেটা করি, সেখানে আমি অন্য কাউকে খুব বেশি কিছু করতে দিই না। এটা আমার যোগ্যতা। ওই সময়ে বাংলাদেশে আর কোনও নায়িকাকে দেখা যায়নি যে, আমার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কাজ করছে।’

শাকিব খানের সঙ্গে দেখা যাবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এখনই বলতে পারছি না। সময়ের উপর ছেড়ে দিলাম।’

এদিকে, আজ ভেল্লা লেজার কেয়ার সেন্টার নামের একটি প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পেজ থেকে একটি পোস্ট করা হয়েছে। তাতে ব্যবহার করা হয়েছে অপু বিশ্বাসের ছবি। সেখানে দাবী করা হয়েছে, এই নায়িকা তার মুখমন্ডলে কোরিয়ান মেয়েদের মতো ভি শেপ এনেছেন।

সাম্প্রতিক ফটোশুটে অপু বিশ্বাস

অপুর মুখে সার্জারি করা নিয়ে অনেক আগে থেকেই শোবিজে গুঞ্জন শোনা যায়। অনেকের দাবী, তিনি সার্জারি করিয়েছেন বলেই তার মুখমন্ডল পুরো শরীরের চেয়ে অনেক শুকনা লাগে। এমনকি তাকে দেখতে আগের চেয়ে সুন্দর লাগে। যদিও অপু বিশ্বাস এ নিয়ে কখনো মুখ খোলেননি।

   

নতুন ইন্ডিয়ান আইডল হলেন বৈভব গুপ্তা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বিচারক কুমার শানু ও শ্রেয়া ঘোষাল ট্রফি তুলে দিচ্ছেন বৈভবকে

বিচারক কুমার শানু ও শ্রেয়া ঘোষাল ট্রফি তুলে দিচ্ছেন বৈভবকে

  • Font increase
  • Font Decrease

তিন মাসের বেশি দীর্ঘ সফর শেষ হলো। গতকাল রবিবার জানা জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ইন্ডিয়ান আইডলের ১৪ নম্বর সিজনের চ্যাম্পিয়নের নাম। এবারের ট্রফি উঠেছে কানপুরের বৈভবের হাতে।

৩ মার্চ ছিল গানের ইন্ডিয়ান আইডলের ১৪ নম্বর সিজনের গ্র্যান্ড ফিনালে। টপ সিক্স দিয়ে শুরু হয় ফাইনালের অনুষ্ঠান। টপ সিক্সে নাম ছিল ফরিদাবাদের আদ্য মিশ্র, কলকাতার অনন্যা পাল ও শুভদীপ দাস চৌধুরী, বেঙ্গালুরুর অঞ্জনা পদ্মনাভন, কানপুরের বৈভব গুপ্তা, রাজস্থানের পীযুশ পানওয়ার-এর। সবাইকে হারিয়ে শিরোপা জেতেন বৈভব।

ইন্ডিয়ান আইডল ১৪-র ট্রফির সঙ্গে ২৫ লাখ টাকা ও একটি মারুতি সুজুকি ব্রেজা গাড়ি উপহার হিসেবে পেয়েছেন বৈভব গুপ্তা।

বৈভব জানান, শো-এর ট্রফি জেতা তার কাছে স্বপ্নের চেয়ে কম নয়। প্রয়াত মা-কে মনে করেন তিনি। বলেন, এতদূর আসতে পারব ভাবিনি। তবে যখন এসেছি একদিন আমার সেই স্বপ্নও পূরণ হবে বলে আসা রাখি।

৫ লাখ টাকা ও একটি মারুতি সুজুকি ব্রেজা গাড়ি উপহার হিসেবে পেয়েছেন বৈভব গুপ্তা

এবারের সিজনে বিচারকের আসনে ছিলেন শ্রেয়া ঘোষাল, বিশাল দাদলানি ও কুমার শানু। অনুষ্ঠানে ‘পরম সুন্দরী’, ‘ঘর মোরে পরদেশিয়া’ গেয়েছেন শ্রেয়া। সোনু নিগামের সঙ্গে ডুয়েটে শ্রেয়া গেয়েছেন ‘পিয়া বোলে’, ‘তু বাস দে দে মেরা সাথ’। কুমার শানু গেয়েছেন ‘পাগল মজনু দিওয়ানা,’ ‘দেখা তেরে মাস্ত নিগাহে’র মতো গান।

তথ্যসূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

;

`ইত্যাদি' দিয়ে গায়িকা ফারিণের অভিষেক



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাইফা অ্যাওয়ার্ডসে ফারিণ ওটিটির সেরা অভিনেত্রী (জুরি) পুরস্কার পেয়েছেন কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লার হাত থেকে

বাইফা অ্যাওয়ার্ডসে ফারিণ ওটিটির সেরা অভিনেত্রী (জুরি) পুরস্কার পেয়েছেন কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লার হাত থেকে

  • Font increase
  • Font Decrease

ছোটবেলা থেকেই গান করতেন এ সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। তৃতীয় শ্রেণি থেকে কলেজে পড়া পর্যন্ত নজরুলসংগীত শিখেছেন। কোনো একদিন গান করা হবে, ভাবনায় ছিল তার। সেই স্বপ্নের কথা প্রায় চার-পাঁচ বছর আগে একটি নাটকের শুটিংয়ে তাহসানের কাছে বলেছিলেন  ফারিণ। এরপর খালি গলায় ফারিণের কিছু গান শোনার সুযোগ হয় তাহসানের।

একদিন পিয়ানোর তালে ফারিণের কণ্ঠে গান শুনে অবাক হন তাহসান। তখন থেকেই ইচ্ছা ছিল, সময়-সুযোগ হলে ফারিণের সঙ্গে একটি গান করবেন তিনি। তাহসান বলেন, ‘এবার সেই সুযোগ হয়ে গেল। হানিফ সংকেত দাদা গত মাসে আমাকে ফোন দিয়ে বললেন, ‘‘ইত্যাদি”র জন্য দ্বৈত গান করতে চান। আমি বললাম, নতুন একজন করলে ভালো হয়। তখন ফারিণের কথা বললাম দাদাকে। ফারিণকে ফোন দেন দাদা। ফারিণও আগ্রহ দেখায়।’

সম্প্রতি ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র জন্য ‘রঙে রঙে রঙিন হব’ শিরোনামে তাহসানের সঙ্গে একটি দ্বৈত গানে কণ্ঠ দিয়েছেন ফারিণ। ২ মার্চ গানটির ভিডিও ধারণ হয়েছে। সেই শুটিংয়ে অংশ নেয়ার আগে ফারিণ গ্রহণ করেন বাইফা অ্যাওয়ার্ডস। তিনি ওটিটিতে সেরা অভিনেত্রী (জুরি) পুরস্কার পেয়েছেন কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লার হাত থেকে। গানের সঙ্গে সম্পর্ক থাকায় রুনা লায়লা এই অভিনেত্রীর কাছে অত্যন্ত স্পেশাল। সে কথা তিনি মঞ্চে বলেও গেছেন।

তাহসান ও ফারিণ

কবির বকুলের লেখা গানটির সুর ও সংগীত করেছেন ইমরান মাহমুদুল। ফারিণ বলেন, ‘নানা সময়ে, নানা অনুষ্ঠানে অনুরোধে গানের অংশ বিশেষ গাওয়া হয়েছে। সেসব গান শুনে অনেকেই গান করার অনুরোধ করে আসছিলেন। হঠাৎ করেই হানিফ সংকেত দাদার কাছে থেকে এই গানের জন্য প্রস্তাব আসে। গানটির ডেমো শুনে পছন্দ হয়। তা ছাড়া গান গাওয়ার ব্যাপারে বকুল ভাই ও তাহসান ভাই আগে থেকেই উৎসাহ দিয়ে আসছিলেন। তবে এমন হুট করেই গান গাইব, ভাবিনি।’

তাহসানের সঙ্গে গানটি গাওয়া তার জন্য অন্য রকম অনুভূতির। অনেক আগে থেকেই এই গায়কের গানের ভক্ত তিনি। এ প্রসঙ্গে ফারিণ বলেন, ‘প্রথম গান করলাম। তা-ও আবার তাহসান ভাইয়ের সঙ্গে। গানটির সঙ্গে সব প্রিয় মানুষ জড়িত। তাহসান ভাই তো আছেনই। গানটির গীতিকার বকুল ভাই, সুর ও সংগীত করেছেন ইমরান ভাই। প্রথম গানটিই আমার জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’

এই শাড়িতেই ইত্যাদিতে দেখা যাবে ফারিণকে

কেমন হলো গানটি, জানতে চাইলে ফারিণ বলেন, ‘ভালো হয়েছে। শোনার পর মনে হয়েছে, ভিন্ন ধরনের গান হয়েছে। এটি উৎসবের গান। ফিল-গুড টাইপ। আমার বিশ্বাস, সব শ্রেণির শ্রোতা-দর্শকের কাছে ভালো লাগবে এটি।’

এরই মধ্যে একটি বিজ্ঞাপনেও জিঙ্গেল করেছেন এই অভিনেত্রী। এখন থেকে মাঝেমধ্যে জিঙ্গেল, অডিও গান করার ইচ্ছার কথা জানালেন ফারিণ। বলেন, ‘গানটি করার পরপরই জিঙ্গেলে কণ্ঠ দিয়েছি। গান গাওয়ার ব্যাপারটি ভালোই লাগছে। ভবিষ্যতে আরও জিঙ্গেল কিংবা গান করার সাহস পাচ্ছি।’
গানটি নিয়ে তাহসান আরও বলেন, ‘এ ধরনের গান আগে করিনি। খুবই উৎসবের আমেজ নিয়ে, আনন্দময় একটি গান হয়েছে। রেকর্ডিংয়ের সময় আমার স্কেলেই ধরেছিলাম। কিন্তু ফারিণের জন্য একটু কষ্টই হচ্ছিল। পরে একটু নিচু স্কেলে গানটি করেছি। ফারিণ যে এত ভালো গাইবে, বুঝিনি। আমার বিশ্বাস, আগামী ঈদে গানটি নিয়ে আলোচনা হবে।’

বাইফা অ্যাওয়ার্ডস গ্রহণ করছেন ফারিণ

এদিকে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বঙ্গতে কাজ আরেফিন অমির ওয়েব ফিল্ম ‘অসময়’ মুক্তির পর প্রশংসিত হয়েছেন ফারিণ। এখন তিনি আলোচনায় চরকিতের মুক্তি পাওয়া শিহাব শাহীনের ওয়েব ফিল্ম ‘কাছের মানুষ দূরে থুইয়া’র জন্য। সিনেমাটি প্রীতম-ফারিণ জুটিকে দারুণ পছন্দ করেছেন দর্শকেরা।

তাহসান ও ফারিণের দ্বৈত কণ্ঠে গাওয়া গানটি আগামী ঈদুল ফিতরের অনুষ্ঠানমালায় ‘ইত্যাদি’তে প্রচারিত হওয়ার কথা।

;

তৃতীয় বিয়ে সারলেন কমেডিয়ান থেকে সাংসদ কাঞ্চন



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

  • Font increase
  • Font Decrease

পরকীয়ার অভিযোগ, বয়সের ফারাক নিয়ে প্রচুর সমালোচনাকে উপেক্ষা করে শ্রীময়ী চট্টরাজের মাথায় সিঁদুর পরিয়ে দিলেন অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক। শুরু হলো জীবনের তৃতীয় ইনিংস। সাত পাকে বাঁধা পড়লেন দুজন। শুভদৃষ্টি, মালাবদল থেকে শুরু করে বিয়ের সব নিয়ম পালন করে শ্রীময়ী চট্টরাজ থেকে মিসেস মল্লিক হলেন অভিনেত্রী।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ কলকাতার এক ব্যাঙ্কোয়েটে বসে তাদের বিয়ের আসর। ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান মেনেই চার হাত এক হয়েছে দুজনের। বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন পরিবার-পরিজনসহ আত্মীয়স্বজন।

বর-কনের সাজসজ্জাতেও বাঙালিয়ানার ছাপ স্পষ্ট। নিজের ডিজাইন করা লাল টুকটুকে বেনারসি, সোনার গয়না আর ফুলের সাজে দারুণ দেখাচ্ছিল নতুন বউকে। অন্যদিকে কাঞ্চন মল্লিকও সেজেছেন ধুতি-পাঞ্জাবিতে। কাঞ্চনের পোশাক কেমন হবে, তা-ও ঠিক করেছেন শ্রীময়ী। বিয়ের বেশ কিছু ছবি এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

এর আগে গত শুক্রবার হয়ে যায় তাদের আইবুড়ো ভাত। তৃতীয় দফায় আইবুড়ো ভাত খাওয়ায় সমালোচিত হয়েছিলেন কাঞ্চন মল্লিক। তাকে নিয়ে যেন হাসির রোল পড়ে নেট দুনিয়ায়। কিন্তু কাঞ্চন কিংবা শ্রীময়ীর কেউই এসবের কিছু তোয়াক্কা করেছেন বলে মনে হয় না। পাশাপাশি গায়েহলুদ, মেহেদি—সব নিয়মই মেনেছেন এই জুটি।

৬ মার্চ কলকাতার একটি হোটেলে তাদের রিসেপশন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

কাঞ্চন-শ্রীময়ী দম্পতি

সাবেক স্ত্রী পিঙ্কি ব্যানার্জির সঙ্গে পাকাপাকি বিচ্ছেদের কিছুদিন পরই ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে আইনি বিয়ে সেরেছিলেন কাঞ্চন-শ্রীময়ী। গতকাল সন্ধ্যায় সব সমালোচনাকে সরিয়ে দিয়ে পাকাপাকিভাবে কাঞ্চনকে আপন করে নিলেন শ্রীময়ী।

;

দুনিয়াতে এর চেয়ে ভাল দর্শক দেখি নাই : অমিতাভ রেজা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জাপানের ওসাকা এশিয়ান চলচ্চিত্র উৎসবে নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও প্রযোজক আসাদুজ্জামান

জাপানের ওসাকা এশিয়ান চলচ্চিত্র উৎসবে নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও প্রযোজক আসাদুজ্জামান

  • Font increase
  • Font Decrease

জাপানের ওসাকা এশিয়ান চলচ্চিত্র উৎসব ২০২৪-এ প্রদর্শিত হয়েছে নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরীর সিনেমা ‘রিকশা গার্ল’। গতকাল শুক্রবার ওসাকার সিনে রেবেল উমেদা সিনেমা হলে ছবিটি দেখানো হয়।

গত ২৯ ফেব্রুয়ারি সিনেমাটি নিয়ে জাপানে গেছেন নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও সিনেমাটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান হাফ স্টপ ডাউন-এর প্রযোজক আসাদুজ্জামান।

গতকাল সকালে ফেসবুকে অমিতাভ রেজা লিখেছেন, ‘প্রথম দিনের স্ক্রিনিং শেষ হলো। দুনিয়াতে এর চেয়ে ভাল দর্শক আমি কোথাও দেখি নাই, প্রায় তিনশো দর্শক, পুরো সিনেমাটা নিঃশব্দে শুধু দেখলো, তারপর এন্ড টাইটেলের শেষ কার্ডটা পর্যন্ত অপেক্ষা করলো করতালি দেবার জন্য। সিনেমা দেখার এ এক অদ্ভুত সংস্কৃতি তাদের, এই জন্যই হয়তো জন্মেছে একটা ওজু বা মিজুগুচি।’

গত শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই উৎসব শেষ হবে ১০ মার্চ। আগামী সোমবার সিনেমাটির আরেকটি প্রদর্শনী রয়েছে। ‘রিকশা গার্ল’ সিনেমার জাপানি ভাষার সাবটাইটেল করেছেন জাপানের ২২ শিক্ষার্থী।

‘রিকশা গার্ল’ সিনেমার পোস্টারে নভেরা

নাইমা নামের এক কিশোরীর জীবনযুদ্ধ ঘিরে আবর্তিত হয়েছে এ ছবির গল্প। শিল্পী নভেরা রহমান সিনেমাতে নাইমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন চম্পা, মোমেনা চৌধুরী, নরেশ ভূঁইয়া, অ্যালেন শুভ্র প্রমুখ।

ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন নাসিফ ফারুক আমিন ও শর্বরী জোহরা আহমেদ। বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘রিকশা গার্ল’ সিনেমার প্রযোজকেরা হলেন জিয়াউদ্দিন আদিল, ফরিদুর রেজা সাগর ও এরিক জে অ্যাডামস।

জার্মান ও বেলজিয়ামে পুরস্কৃত হয়েছে ‘রিকশা গার্ল’। এপ্রিলে সিনেমাটা বাংলাদেশের সিনেমা হলে মুক্তির কথা রয়েছে।

;