অভিবাসীদের অবদান প্রদর্শিত হবে ম্যানচেস্টার মিউজিয়ামে



মোজো ডেস্ক
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ব্রিটিশ মিউজিয়ামের সহযোগিতায় এখন থেকে ম্যানচেস্টার মিউজিয়ামে প্রদর্শন করা হবে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশীয় অভিবাসীদের বৈচিত্রময় ইতিহাস ও অভিজ্ঞতা। গত ১৮ ফেব্রুয়ারি মিউজিয়ামটি আবারও চালু হয়েছে। যা দ্য ইউনিভার্সিটি অব ম্যানচেস্টারের অংশ এবং যুক্তরাজ্যের সর্বপ্রথম মিউজিয়াম যেখানে স্থায়ীভাবে সাউথ এশিয়া গ্যালারি সংযোজন করা হয়েছে।

ম্যানচেস্টার মিউজিয়াম চিন্তার উন্মেষ ঘটানোর পাশাপাশি নানারকম অনুষ্ঠান ও পাবলিক প্রোগ্রামের আয়োজন করবে। দ্য সাউথ এশিয়া গ্যালারি কালেক্টিভের সহযোগিতায় (কো-কিউরেট) যুক্তরাজ্যে বসবাসরত দক্ষিণ এশীয় কমিউনিটির অবদান স্মরণ করবে মিউজিয়ামটি। এতে করে তরুণ প্রজন্ম দক্ষিণ এশিয়ার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি সম্পর্কে আরও গভীরভাবে জানতে পারবে। মিউজিয়ামটির মূল আকর্ষণের মধ্যে রয়েছে - বাংলাদেশের রিকশা, ’৪৭-এর দেশভাগের সময় পরিধান করা হয়েছে এমন শাড়ি এবং দ্য সিং টুইনস’র মতো ব্রিটিশ শিল্পীদের তৈরি করা মুর্যাল, যেখানে দক্ষিণ এশীয় অভিবাসীদের অভিজ্ঞতা ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

মিউজিয়ামের দক্ষিণ এশীয় গ্যালারি স্বতন্ত্রভাবে কো-কিউরেট করছে দ্য সাউথ এশিয়া গ্যালারি কালেক্টিভ। কমিউনিটি লিডার, শিক্ষাবিদ, শিল্পী, ইতিহাসবিদ, সাংবাদিক ও সঙ্গীতশিল্পী সহ ৩০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি এই কালেক্টিভের সাথে সম্পৃক্ত। এই গ্যালারিতে গল্প-নির্ভর ডিজাইনের মাধ্যমে ৬টি মূল থিমে দক্ষিণ এশিয়ার বৈচিত্রপূর্ণ প্রেক্ষাপট ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। থিমগুলো হলো - পাস্ট অ্যান্ড প্রেজেন্ট; লিভড এনভায়রনমেন্টস; সায়েন্স অ্যান্ড ইনোভেশন; সাউন্ড, মিউজিক অ্যান্ড ড্যান্স; ব্রিটিশ এশিয়ান ও মুভমেন্ট অ্যান্ড এম্পায়ার।

‘পাস্ট অ্যান্ড প্রেজেন্ট’ থিমে ওই সময়কার প্রত্নতত্ত্ববিদদের দৃষ্টিভঙ্গির বাইরে গিয়ে বর্তমান প্রেক্ষাপটে প্রাচীন সিন্ধু সভ্যতাকে দেখার সুযোগ পাবে মানুষ। পাশাপাশি, ‘লিভড এনভায়রনমেন্ট’ থিমে দক্ষিণ এশীয়দের জীবনে একে অপরের প্রতি যত্নশীল হওয়ার গুরুত্ব এবং এখানকার পরিবেশের ওপর ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের প্রভাব ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। থিমের এই অংশে একটি চলচ্চিত্র দেখানো হবে, যেখানে ভাসমান বাগানের মাধ্যমে বাংলাদেশের পরিবেশ দূষণ প্রতিরোধ সংক্রান্ত পদক্ষেপের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

আধুনিক কোয়ান্টাম বিজ্ঞানের অন্যতম উদ্ভাবক সত্যেন্দ্রনাথ বসু সহ তিনজন উপেক্ষিত কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির অবদান তুলে ধরার মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়ার উদ্ভাবনের চিত্র তুলে ধরবে ‘সায়েন্স অ্যান্ড ইনোভেশন’ থিম। এছাড়া, ‘সাউন্ড, মিউজিক অ্যান্ড ড্যান্স’ থিমের মাধ্যমে এ অঞ্চলের সঙ্গীতের বিভিন্নরকম ধারা ফুটিয়ে তোলা হবে। থিমের এই অংশে রয়েছে শ্রীলংকার প্রাচীন শঙ্খ-বাদ্য ‘হাকগেডিয়া’ থেকে শুরু করে ৮০ ও ৯০ দশকের সময় জনপ্রিয় উদযাপনের বিভিন্ন রীতি (সাউথ এশিয়ান ডেটাইমার্স রেভস)।

‘ব্রিটিশ এশিয়ান’ থিমে তুলে ধরা হবে মূলধারার ব্রিটিশ এশিয়ান সংস্কৃতিতে জায়গা পায় না এমন নারী ও এলজিবিটি (কিউয়ার) কমিউনিটির সদস্যদের গল্প এবং পপ থেকে শুরু করে শিল্পকর্মের বিভিন্ন অভিব্যক্তির মাধ্যমে নিজের পরিচয় অন্বেষণ করা হবে। সবশেষে ‘মুভমেন্ট অ্যান্ড এম্পায়ার’ থিমে দেখানো হবে দক্ষিণ এশিয়ার স্বেচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃত দেশান্তর, যেখানে মানব সভ্যতার ইতিহাসে ঘটে যাওয়া সবচেয়ে বড় দেশান্তর ’৪৭-এর দেশভাগের দুঃসহ স্মৃতি ও যুদ্ধের ভয়াবহতা তুলে ধরা হবে।

এ বিষয়ে ম্যানচেস্টার মিউজিয়ামের সাউথ এশিয়া গ্যালারির কিউরেটর নুসরাত আহমেদ বলেন, ‘ব্রিটেনে জন্ম নেয়া প্রথম প্রজন্মের দক্ষিণ এশীয় হিসেবে এরকম একটি যুগান্তকারী প্রকল্পের অংশ হওয়া অত্যন্ত আনন্দের বিষয়। সাউথ এশিয়া গ্যালারি এমন একটি স্থান তৈরি করতে চায়, যা এই প্রজন্মের ধারণা ও দৃষ্টিভঙ্গি তৈরিতে সাহায্য করবে। আমরা অন্যান্য অভিবাসী কমিউনিটির সাথেও সংযুক্ত হতে চেষ্টা করবো এবং এর সমৃদ্ধির জন্য ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাবো। গ্যালারিটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যেন মনে হবে কোনো মানুষ আসলে তার নিজের গল্পই বলছে।’

ব্রিটিশ মিউজিয়ামের পরিচালক হার্টউইগ ফিশার বলেন, ‘এই নতুন সাউথ এশিয়া গ্যালারি স্থাপনে ম্যানচেস্টার মিউজিয়ামকে সহযোগিতা করতে পেরে ব্রিটিশ মিউজিয়াম অত্যন্ত আনন্দিত। উদ্ভাবনী এই প্রকল্পের মধ্য দিয়ে আমরা ম্যানচেস্টারে আমাদের সহকর্মী ও কমিউনিটিগুলো থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবো। যুক্তরাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে থাকা দর্শকদের জন্য অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে গ্যালারি তৈরি করা আমাদের জাতীয় প্রোগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ অংশ।’

   

বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই’র নতুন কমিটি



তোফায়েল আহমেদ, সংযুক্ত আরব আমিরাত
বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই’র নতুন কমিটি

বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই’র নতুন কমিটি

  • Font increase
  • Font Decrease

সংযুক্ত আরব আমিরাতে পেশাজীবী সাংবাদিকদের প্রভাবশালী সংগঠন বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই'র দ্বিবার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে এনটিভির প্রতিনিধি মামুনুর রশীদ সভাপতি ও একুশে টেলিভিশনের আরব আমিরাত প্রতিনিধি মুহাম্মদ মোরশেদ আলম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

শনিবার (১৮ মে) বাংলাদেশ সমিতি শারজার নিজস্ব কার্যালয়ে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে প্রধান কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন বাংলাদেশ সমিতি ইউএই'র সভাপতি প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন। সহকারী কমিশনার ছিলেন বাংলাদেশ সমিতি শারজার সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ আবুল বাশার, বাংলাদেশ সমিতি দুবাইয়ের সিনিয়র সহ সভাপতি ইয়াকুব সৈনিক ও বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল দুবাইয়ের সিনিয়র সহ সভাপতি মুহাম্মদ আইয়ুব আলী বাবুল।

নির্বাচনে পরিদর্শক ছিলেন বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল দুবাইয়ের কনসাল জেনারেল বি এম জামাল হোসেন ও কনস্যুলেটের প্রেস উইংয়ের প্রধান প্রথম সচিব মুহাম্মদ আরিফুর রহমান।

এর আগে, গত ১১ মে পূর্বের কমিটি বিলুপ্তি ঘোষণা করে আলহাজ্ব খোরশেদ আলমকে আহবায়ক ও ন ম জিয়াউল হক চৌধুরীকে সদস্য সচিব এবং মেহেদি রুবেল, আরিফ শিকদার বাপ্পি ও কেএম জাহেদকে সদস্য করে ৫ জন বিশিষ্ট নির্বাচনী আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ১১টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সিনিয়র সহ সভাপতি পদে এখন টেলিভিশনের আমিরাত প্রতিনিধি কামরুল হাসান জনি, সহ সভাপতি দৈনিক বার্তার মুহাম্মদ মোদাস্সের শাহ, যুগ্ম সম্পাদক ডেইলি বাংলাদেশের প্রতিনিধি আবদুল্লাহ আল শাহীন , সাংগঠনিক সম্পাদক চ্যানেল 24 এর প্রতিনিধি মুহাম্মদ ইশতিয়াক আসিফ, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ শাহজাহান, দপ্তর সম্পাদক মুহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মদ মুহাম্মদ নওশের আলম, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মুহাম্মদ ইরফানুল ইসলাম, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মুহাম্মদ নিয়াজ নির্বাচিত হয়েছেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শিবলী আল সাদিক, সাবেক অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ ইসমাঈল, মুহাম্মদ শামসুল হক, মুহাম্মদ খোরশেদুল আলম জাসেদ, আশরাফুল ইসলাম ভূইয়া, মুহাম্মদ শাফায়াত উল্লাহ, মোশাররফ হোসেন, তোফায়েল আহমেদ, মুহাম্মদ মুন্নাসহ নেতৃবৃন্দরা।

পর্যবেক্ষক দলের প্রধান বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল দুবাইয়ের কনসাল জেনারেল বি এম জামাল হোসেন প্রেসক্লাবের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, এ নির্বাচন সবার জন্য একটি উদাহরণ হয়ে থাকবে। আমাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী আপনারা অসাধারণ একটি নির্বাচন উপহার দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি বিজয়ীদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

এছাড়াও প্রধান নির্বাচন কমিশনার বাংলাদেশ সমিতি ইউএই'র সভাপতি প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন নির্বাচনের নিয়ম কানুন ও সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

আহবায়ক কমিটির সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও নির্বাচন কমিশনারদের সুদক্ষ নেতৃত্বে সুন্দর নির্বাচন উপহার দেওয়ায় প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়।

;

কিরগিস্তানে জনতার হামলার শিকার বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের শিক্ষার্থীরা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কিরগিজস্তানে বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের শিক্ষার্থীরা স্থানীয় উত্তেজিত জনতার হামলার শিকার হয়েছেন।

স্থানীয় সময় শনিবার (১৮ মে) কিরগিজস্তানের ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অব মেডিসিনের বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা হামলার শিকার হয়েছেন।

উজবেকিস্তানে বাংলাদেশ দূতাবাস সুত্রে জানা গেছে, কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকেতে গত কয়েকদিন ধরে উত্তেজিত জনতা পাকিস্তান, ভারত ও বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের আবাসস্থল হোস্টেল লক্ষ্য করে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে।

কিরগিজ এবং আন্তর্জাতিক ছাত্র, বিশেষ করে পাকিস্তানি ও মিশরীয়দের মধ্যে ঝগড়ার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে এ উত্তেজনা তৈরি হয়।

কিরগিজে অবস্হানকারী বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ঘরের ভেতরে এবং সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে উজবেকিস্তানে বাংলাদেশ দূতাবাস।

;

যুক্তরাজ্যের রিফিউজিদের মানবিক সহযোগিতা দিচ্ছে এইডমিইউকে



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
যুক্তরাজ্যের রিফিউজিদের মানবিক সহযোগিতা দিচ্ছে এইডমিইউকে

যুক্তরাজ্যের রিফিউজিদের মানবিক সহযোগিতা দিচ্ছে এইডমিইউকে

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাজ্যে বসবাসরত রিফিউজি যারা মানবেতর জীবনযাপন করছেন তাদের সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছে এইডমিইউকে। কষ্টের মধ্য দিয়ে দিনাতিপাত করা এসকল মানুষকে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী ও খাবার সরবরাহ করে যাচ্ছে এই অর্গানাইজেশন। ‘ইউনাইটিং ফর বেটার কমিউনিটি’ এই স্লোগানকে ধারন করে এইডমিইউকে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (৯ মে) ইয়র্ক মসজিদ ও ইসলামিক সেন্টারে রিফিউজি দু’শতাধিক পরিবারের মাঝে খাবার পরিবেশন ও নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

এই উপলক্ষে আয়োজিত কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, যুক্তরাজ্যে যারা রিফিউজি স্ট্যাটাসে আছেন তাদের মধ্যে অনেকে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তাদের সনাক্তের মাধ্যমে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে এইডমিইউকে। সংস্থাটির এই মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে বক্তারা বলেন, মানবতার সেবায় বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনাসহ নানাবিদ সচেতনতামুলক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে চলেছে এই সংস্থাটি। সংস্থাটির উত্তোরত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন অনুষ্ঠানের বক্তারা।

কর্মসূচিতে ইয়র্কের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এইডমিইউকে’র অ্যাডভাইজার খালেকুজ্জামান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আখলাকুজ্জামান হারুন, রাকিব আলী, মাহতাব শামীম, ফারুক মিয়া, এইডমিইউকে’র সিইও মাকসুদ রহমান, ফিনান্স ডিরেক্টর দেওয়ান ছয়েফ আহমেদ, প্রোজেক্ট ও প্লানিং ডিরেক্টর জিহান আহমেদ চৌধুরী, কমিউনিকেশন হেড রিয়াজ চৌধুরী, ইভেন্ট হেড আনামু হক।

;

কুয়েতে বসেই এনআইডি সেবা পাবেন প্রবাসীরা



কুয়েত করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুয়েত
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দীর্ঘ অপেক্ষার পর কুয়েতে বসবাসরত বাংলাদেশি প্রবাসীদের জন্য ভোটার নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সেবা চালু করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস। এর মধ্য দিয়ে দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ হচ্ছে দেশটিতে থাকা প্রায় ৩ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশির।

শুক্রবার (৩ মে) স্থানীয় সময় বিকেলর দেশটির মিসিলা এলাকায় অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে এ সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. আশিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশনার মো. আহসান হাবীব খান।

ইসি আহসান হাবীব খান বলেন, কুয়েত প্রবাসীদের দীর্ঘদিনের আকাঙ্ক্ষা ছিল যে, তারা যেন জাতীয় পরিচয় পত্র এখান থেকে পায়। আমাদের এম্বাসেডরের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এবং আমাদের কাছে অনুরোধের প্রেক্ষিতে আমি এখানে এসেছি। এর সাথে প্রবাসীদের আশাটা পূরণ হল। এই অনুষ্ঠানের আজকে উদ্বোধন করা হয়েছে। প্রবাসীরা অনেকদিন ধরে দীর্ঘ প্রতিক্ষা ছিল কবে এনআইডি পাবেন।

তিনি আরও বলেন, প্রবাস জীবনটা খুবই কষ্টের, প্রবাসীরা আমাদের দেশের জন্য অনেক কিছু করে। আমি মাঝে মাঝে বলি, প্রবাসীরা হচ্ছে দেশের প্রাণ। প্রবাসীদেরকে আমি আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। তারা অনেক কিছুর বিনিময়ে বিদেশ থেকে দেশে অর্থ পাঠাচ্ছে। পাশাপাশি তারা নিজেদের পরিবার-পরিজনকে সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছে।

রাষ্ট্রদূত মো. আশিকুজ্জামান বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্র বা এনআইডি একটি দেশের নাগরিক হিসেবে অত্যন্ত জরুরি। এনআইডি ছাড়া যেমন প্রয়োজনীয় অনেক কাজ সম্পন্ন করা অসম্ভব, ঠিকই তেমনই সুনির্দিষ্ট একটি দেশের নাগরিক মর্যাদাও পাবেন না। আজ কুয়েতে জাতীয় পরিচয়পত্র কার্যক্রমের উদ্বোধন হওয়ার মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্ন পূরণ হলো।

দূতাবাসের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে কুয়েত বাংলাদেশ দূতাবাসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা-কর্মচারী, প্রবাসে বাংলাদেশ কমিউনিটি নেতারা ও প্রবাসী গণমাধ্যমকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রবাসী বাংলাদেশিরা উপস্থিতি ছিলেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র সেবা কার্যক্রম শুরু হওয়ায় তারা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন এবং বাংলাদেশ সরকার ও কুয়েতে দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানান।

এর আগে নির্বাচন কমিশনার মো. আহসান হাবীব খান দূতাবাসে প্রবাসীদের এনআইডি নিবন্ধনের কার্যক্রম প্রক্রিয়ার বিভিন্ন অংশ পরিদর্শন করেন। পরবর্তীতে আলোচনাসভায় এনআইডি নিয়ে প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা ও প্রশ্নের জবাব দেন। এসময় ১৯ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে স্মার্ট এনআইডি কার্ড প্রদান করেন।

;