সেপ্টেম্বরেই যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২ লাখ হবে



বিশ্বজিত সাহা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্তের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে ২১ লাখের কাছাকাছি। দেশটির শুধুমাত্র নিউইয়র্কেই সংক্রমণ ছাড়িয়েছে ৪ লাখের উপরে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০২০ সাল শেষ হওয়ার বহু আগেই, সেপ্টেম্বর নাগাদ আমেরিকায় মৃতের সংখ্যা ছুঁয়ে ফেলবে ২ লাখ।

আমেরিকায় গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। আর মৃতের সংখ্যা ৮৯৪ জন। হিসাবে দেখা যায় দেশটিতে গড়ে প্রতিদিন প্রায় ১ হাজার মানুষ মারা যাচ্ছেন। আমেরিকায় মোট মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ১৬ হাজার ২৪ জন।

আমেরিকায় আক্রান্ত ও মৃতের দিক দিয়ে সবার প্রথমে নিউ ইয়র্ক নগরী। এ পর্যন্ত শহরটিতে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কাগজে কলমে ৩০ হাজার ৭৩৯ জন। তবে এ তালিকায় ধরা হয়নি যারা বাড়িতে, গাড়িতে রাস্তায় বা অন্যত্র মারা গেছেন।

এরই মধ্যে লক ডাউন শিথিল করা হলো নিউ ইয়র্ক নগরীর। সাবওয়ে ও রাস্তাঘাটে চলাচলে মানা হচ্ছে না নিয়মাবলী। আবার অন্যদিকে চলছে পুলিশি নির্যাতনে নিহত কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্রয়েড হত্যা বিরোধী আন্দোলন। গত একদিনে নিউ ইয়র্কে মৃতের সংখ্যা ৫৯ জন। নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৮৬। নিউ ইয়র্কে মোট সংক্রমণের সংখ্যা ৪ লক্ষ ২ হাজার ১৯ জন। সংক্রামক বিশেষজ্ঞদের ধারণা আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে নিউ ইয়র্ক সিটি জটিল পরিস্থিতির সম্মুখীন হবে।

এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক সময় বলেছিলেন, এক লাখের আগে পরে এসে মৃত্যু থেমে যাবে। তখনও আমেরিকায় মৃতের সংখ্যা ছিল ৬০ থেকে ৭০ হাজার। সে নিয়ে বিতর্কও বাঁধে। এক লাখ নাগরিকের মৃত্যুর পরে সংখ্যাটির মর্ম কী, তা বোঝাতে একটি প্রথম সারির মার্কিন দৈনিক নিউইয়র্ক টাইমস মৃত ব্যক্তিদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করে। কিন্তু সেসবও এখন অতীত। গোটা পৃথিবীতে সংক্রমণের গতি এখন সব চেয়ে বেশি। দৈনিক এক লাখ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন এই করোনাভাইরাসে। আমেরিকায় মৃতের সংখ্যা এই মুহূর্তে ১ লাখ ১৬ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে।

হার্ভার্ড গ্লোবাল হেল্‌থ ইনস্টিটিউট'র প্রধান আশিষ ঝা মার্কিন টিভি চ্যানেল সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, আমেরিকা আরো অনেক মৃত্যু দেখবে। তিনি বলেন, 'সংক্রমণের গতি যদি এ দেশে আর নাও বাড়ে, সংক্রমণের রেখাচিত্রটিকে যদি আমরা সরল করেও আনি, এই আশঙ্কা খুব অযৌক্তিক নয়, সেপ্টেম্বরের মধ্যে মৃতের সংখ্যা ২ লাখ পেরিয়ে যাবে।'

আশিষ ঝা জানান, বড় দেশগুলোর মধ্যে একমাত্র আমেরিকাই, এমন ভয়াবহ সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসার আগেই লকডাউন তুলে দিচ্ছে। নিউ মেক্সিকো, ইউটা, অ্যারিজোনায় সংক্রমণ বৃদ্ধির হার ৪০%। ফ্লরিডা ও আরকানসাস- অন্য দুই হটস্পট। এর মধ্যে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদে দেশ জুড়ে বিক্ষোভ চলছে। হোয়াইট হাউস করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্স ফের আশঙ্কা প্রকাশ করেছে, বিক্ষোভ-আন্দোলনের জেরে সংক্রমণ আরো বাড়বে।

   

মালয়েশিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

মালয়েশিয়ায় পবিত্র ঈদ উল ফিতরের দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ (৩১), আলি আজগর ও মো. সোহেল মিয়া।

বুধবার (১০ এপ্রিল) ঈদের দিন স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৪৯ মিনিটে দেশটির পেরাক রাজ্যের কাম্পার এলাকায় উত্তর-দক্ষিণ এক্সপ্রেসওয়েতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গাড়িতে থাকা ৮ বাংলাদেশির সবাই ক্যামেরন হাইল্যান্ডে একটি ফার্মে কাজ করতেন। এ খবর প্রকাশ করেছে দেশটির জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদপত্র বারনামা।

গাড়িচালক কবির হোসেন ( ৩২), সাইফুল ইসলাম ( ২৫), রাজু মিয়া (২৭) সোহেল রানা (৩০ ) অক্ষত অবস্থায় রয়েছেন। তবে মোহাম্মদ সোহেল নামে একজনকে গুরুতর অবস্থায় পার্শ্ববর্তি তাপাহ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কাম্পার পুলিশের পক্ষ থেকে আরো জানানো হয়, দুপুর ১ টা ৪৯ মিনিটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। কুয়ালালামপুর আশার পথে চলন্ত গাড়ির টায়ার ফেটে গেলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারান এবং গার্ডরেলে ধাক্কা লেগে গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। পরে পেছন থেকে একটি লরি সজোরে ধাক্কা দেয়। ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।

;

আমিরাতে ঈদ আনন্দে শামিল প্রবাসীরা



তোফায়েল আহমেদ পাপ্পু, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছে। নিজেদের মতো করে ঈদ উদযাপন করছেন প্রবাসীরা। উৎসবের আনন্দ সবার সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার চেষ্টা করছেন।

বুধবার (১০ এপ্রিল) আবুধাবিতে সকাল ৬টা ২২ মিনিটে, দুবাইয়ে সকাল ৬টা ২০ মিনিটে, শারজাহ ও আজমানে ৬টা ১৭ মিনিটে, রাস আল খাইমায় সকাল ৬টা ১৫ মিনিটে, ফুজাইরাহ ও খোরফাক্কানে ৬টা ১৪ মিনিটে এবং উম্ম আল কুওয়াইনে সকাল ৬টা ১৩ মিনিটে ঈদগাহ ময়দানে ও মসজিদে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া অন্যান্য অঞ্চলের মধ্যে আল আইনে ৬টা ১৫ মিনিটে ও জায়েদ সিটিতে ৬টা ২৬ মিনিটে ঈদ জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে।

তবে ঈদের সবচেয়ে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে রাজধানী আবুধাবির শেখ জায়েদ মসজিদে। সূর্য ওঠার আগেই বিশাল ঈদগাহ ময়দান কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। সেখানে বেশিরভাগ মুসল্লি বাংলাদেশি, পাকিস্তানি ও ভারতীয়। জামাত শেষে দেশ, জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

ঈদের নামাজ শেষ করে প্রবাসীরা মোবাইল ফোনে দেশের প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। বাসায় ফিরে আরব দেশের প্রধান খাদ্য খেজুর, পায়েস, বিরিয়ানি-পোলাও ও বিভিন্ন ধরনের মিষ্টি জাতীয় খাবার খান সবাই। ঈদের আনন্দ উদযাপনে বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ঘুরে বেড়াবেন অনেকেই।

সিলেটের রায়হান আহমেদ রিয়াদ বলেন, দেশের মতো আনন্দটা তেমন নেই বললেই চলে। প্রবাসে ঈদ মানে সকালে ঘুম থেকে উঠে ঈদগাহে নামাজ পড়ে রুমে এসে পরিচিতজনের সাথে কোলাকুলি করে ঘুমানো, পরিবার-পরিজনের সঙ্গে মোবাইলে কথা বলে সময় পার করা।

প্রবাসী কামরান চৌধুরী জানান, প্রবাসে ঈদের দিনে সবচেয়ে বেশি মনে পড়ে দেশে প্রিয়জনদের সঙ্গে কাটানোর ঈদের দিনগুলোর কথা। তারপরও আমরা আমাদের মতো করে ঈদের আনন্দকে নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেওয়ার চেষ্টা করি।প্রবাসীদের ঈদের দিনগুলোকে অন্যান্য দিনগুলোর সঙ্গে পার্থক্য করা কঠিন। কারণ অনেক প্রবাসীকেই ঈদের দিনও তাদের নির্ধারিত ডিউটি করতে হয়।

ঈদ মানেই আনন্দ। তবে পরিবার-পরিজন, বন্ধু-বান্ধব, শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিয়ে ঈদ উদযাপন করলে ঈদের উল্লাস আরও গাঢ় হয়। প্রবাসীদের জীবনে এই উল্লাসের সুযোগ নেই। প্রবাসীদের ঈদ উদযাপন অন্যদের চেয়ে আলাদা। প্রবাসে বাংলাদেশের মতো ঈদের আমেজ পুরোপুরি থাকে না। তবুও সবাই সাধ্যমতো চেষ্টা করেন একে অন্যের সঙ্গে কুশল বিনিময়, কোলাকুলি, খাওয়া-দাওয়া এবং ঘুরে বেড়ানোর মধ্য দিয়ে ঈদের আনন্দ উদযাপন করতে।

;

মালয়েশিয়া আতশবাজি বিক্রির সময় ২ বাংলাদেশি আটক



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, ব্যাংকক (থাইল্যান্ড)
মালয়েশিয়া আতশবাজি বিক্রির সময় ২ বাংলাদেশি আটক

মালয়েশিয়া আতশবাজি বিক্রির সময় ২ বাংলাদেশি আটক

  • Font increase
  • Font Decrease

আতশবাজি ও নানা ধরনের বাজি বিক্রির অপরাধে ২ জন বাংলাদেশিসহ মোট ৩ জন বিদেশিকে আটক করেছে মালয়েশিয়ার কেলানতান ইমিগ্রেশন বিভাগ।

রোববার (৭ এপ্রিল) কোতাবারু শহর থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

কেলানতান ইমিগ্রেশনের পরিচালক মোহা. ফয়জাল সামশুদ্দিন বলেন, আটককৃতদের মধ্যে ২ জন বাংলাদেশি পুরুষ এবং একজন থাই নারী। এদের সকলের বয়স ৩০ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে।

ইমিগ্রেশন আইন ১৯৬৩ এর ৩৯ (বি) ধারা অনুযায়ী অবৈধ কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকায় তাদের আটক করা হয়েছে অপারেশন জাজা’র মাধ্যমে।

সামশুদ্দিন জানান, আটককৃতদের ইতিমধ্যে তানাহ মেরা ইমিগ্রেশন ডিপোতে পাঠানো হয়েছে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য। স্থানীয়দের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে, তাদের চোখে অবৈধ বিদেশি বা বিদেশিরা অবৈধ কাজে যুক্ত রয়েছে এমন কিছু জানা থাকলে আমাদের তথ্য দিয়ে সহায়তা করার জন্য।

অভিবাসীদের অবৈধ কাজকে আশ্রয় দিলে বা সেই কাজে সহযোগিতা করলে বা তাদের রক্ষা করার চেষ্টা করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে স্থানীয়দের হুশিয়ার করেন তিনি।

;

কাতারে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার নিবন্ধন করতে ইসির টিম সক্রিয়



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
কাতারে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার নিবন্ধন করতে ইসির টিম সক্রিয়

কাতারে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার নিবন্ধন করতে ইসির টিম সক্রিয়

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের আইডিইএ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের অধীনে কাতারে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করার উদ্দেশ্যে নির্বাচন কমিশনের দল এখন কাতারে অবস্থান করছে।

প্রবাসী ভোটার নিবন্ধন এ কার্যক্রমের নেতৃত্ব দিচ্ছেন আইডিইএ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল হাসনাত মোহাম্মদ সায়েম। বর্তমানে সম্পূর্ণ কার্যক্রমের টেস্ট ট্রায়াল চলমান।

এর আগে গত ১৯ মার্চ ২০২৪ নির্বাচন কমিশনের একটি টেকনিক্যাল টিম কাতারে পৌঁছে। ৬ সদস্যের এই টিমের নেতৃত্ব দিচ্ছেন আইডিইএ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আশরাফুল হক জিহাদ। দলটি কাতারে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে ভোটার নিবন্ধনের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনীয় ইকুইপমেন্ট সেটাপ, নেটওয়ার্ক সংযোগ এবং দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদান সম্পন্ন করেছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে বর্তমান কমিশন কর্তৃক প্রবাসী ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রমে গতি আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়। ইতোমধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, যুক্তরাজ্য ও ইতালিতে প্রবাসী ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় কাতারে কাতারে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রমের জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি চলমান।

ভোটার নিবন্ধন প্রক্রিয়ার প্রশিক্ষণ ও নিবন্ধন কার্যক্রম পরিচালনা শেষে উভয় দলের আগামী ৫ এপ্রিল দেশে ফেরার কথা রয়েছে। টেস্ট ট্রায়াল শেষে মান্যবর রাষ্ট্রদূত এবং মাননীয় নির্বাচন কমিশনের উপযুক্ত প্রতিনিধির উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে কাতারে ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রম চালু হবে।

 

;