যুক্তরাষ্ট্রে চায়না টেলিকমের লাইসেন্স বাতিল



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চীনের টেলিকম খাতের অন্যতম বৃহত্তম প্রতিষ্ঠান চায়না টেলিকমের লাইসেন্স বাতিল করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর ফলে চীনা টেলিকম প্রতিষ্ঠানটি যুক্তরাষ্ট্রে কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না। জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি বিবেচনা করে যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিষ্ঠানটির লাইসেন্স বাতিল করেছে মার্কিন প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল কমিউনিকেশন কমিশন (এফসিসি) স্থানীয় সময় মঙ্গলবার এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এফসিসির কর্মকর্তারা মনে করছেন, চীনের সরকারি নিয়ন্ত্রণাধীন এই টেলিকম প্রতিষ্ঠানটির মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের অনলাইন যোগাযোগ ব্যবস্থায় প্রবেশ, তথ্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও অপব্যবহারের সুযোগ রয়েছে। যা যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি। এজন্য আগামী ৬০ দিনের মধ্যে চায়না টেলিকমকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে কার্যক্রম গুটিয়ে নিতে হবে।

চীনের টেলিকম বাজারে প্রভাবশালী তিনটি প্রতিষ্ঠানের একটি চায়না টেলিকম। ১১০টি দেশের কোটি কোটি গ্রাহককে টেলিকম সেবা দিয়ে আসছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রায় দুই দশক ধরে চায়না টেলিকম যুক্তরাষ্ট্রে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। মার্কিন প্রশাসনের লাইসেন্স বাতিলের সিদ্ধান্তকে ‘হতাশাজনক’ বলে উল্লেখ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এক বিবৃতিতে চায়না টেলিকম বলেছে, গ্রাহকসেবা নিশ্চিতের জন্য সম্ভাব্য সকল বিকল্প অনুসরণের পরিকল্পনা করা হবে।

চলতি বছরের এপ্রিলে এফসিসি যুক্তরাষ্ট্রে চায়না টেলিকমের সেবা বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিল। গত বছর চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে ও জেডটিই–এর কার্যক্রম জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি বলে উল্লেখ করেছিল এফসিসি।

এমন এক সময় চায়না টেলিকমের লাইসেন্স বাতিলের খবর প্রকাশ পেল যখন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রী জেনেট ইয়েলেন চীনের উপপ্রধানমন্ত্রী লিউ হে–এর সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এসময় দুই পরাশক্তির মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও উন্নত করার বিষয়ে কথা বলেছেন দুনেতা। বাণিজ্য বিরোধ ও তাইওয়ান ইস্যুতে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক শীতল হয়েছে।