অ্যান্টিভাইরাল ওষুধে মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ রোধ সম্ভব: ল্যানসেট



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নতুন আতঙ্কের নাম হয়ে উঠেছে ‘মাঙ্কিপক্স’। বিরল এই ভাইরাস সম্পর্কে খুব একটা স্পষ্ট ধারণা ছিল না বিশ্ববাসীর। কারণ এই ভাইরাসটি মধ্য ও পশ্চিম আফ্রিকার প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে দেখা যেত। কিন্তু সম্প্রতি ইউরোপ, আমেরিকা, কানাডাসহ বেশ কিছু দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে চিন্তায় পড়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও।

তবে, যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস বলছে, এই ভাইরাসে আক্রান্ত বেশিরভাগ মানুষ কয়েক সপ্তাহের মধ্যে সুস্থ হয়ে ওঠেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ২০১৮ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে যুক্তরাজ্যে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত সাতজন নিয়ে গবেষণা চালানো হয়। গবেষণার সমীক্ষা সম্প্রতি ল্যানসেট পত্রিকায় প্রকাশ করা হয়। এই গবেষণা অনুযায়ী, এমন কিছু ‘অ্যান্টিভাইরাল’ ওষুধ আছে যা প্রয়োগ করলে মাঙ্কিপক্সের উপসর্গগুলিকে প্রশমিত করা সম্ভব। শুধু তাই নয়, এই সব ওষুধের প্রয়োগ করে রোগীরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠেছেন— এমনই দাবি গবেষকদের। এ ক্ষেত্রে রোগীদের উপর দুটি ভিন্ন অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ— ব্রিনসিডোফোভির এবং টেকোভিরিমাট প্রয়োগ করেই আশানুরূপ ফলাফল পেয়েছেন গবেষকরা।

মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ ঠেকাতে গবেষকরা ব্রিনসিডোফোভির নামক ওষুধটির কার্যকারিতা সম্পর্কে অনেকটা নিশ্চিত হলেও টেকোভিরিমাটের বিষয়ে আরও গবেষণার প্রয়োজন আছে বলে মনে করছেন। গবেষকরা আরও জানিয়েছেন, রক্ত এবং লালারসের নমুনা পরীক্ষা করলেই শরীরে মাঙ্কি পক্সের উপস্থিতি টের পাওয়া সম্ভব।

এই ভাইরাসে আক্রান্তদের শরীরে প্রাথমিক উপসর্গের মধ্যে রয়েছে জ্বর, মাথাব্যথা, ফুসকুড়ি, র‍্যাশ। মুখ থেকে শুরু হয়ে শরীরের বাকি অংশে ছড়িয়ে পড়বে এই র‍্যাশ। তবে, সহজে মানুষের মধ্যে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা খুবই বিরল।

বিশেষজ্ঞদের দাবি, আক্রান্ত ব্যক্তির কাছাকাছি থাকলে বেড়ে যেতে পারে সংক্রমণের আশঙ্কা। শ্বাসনালি, ক্ষত স্থান, নাক, মুখ কিংবা চোখের মাধ্যমে এই ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে সুস্থ ব্যক্তির দেহেও। যৌন মিলনের মাধ্যমেও এই রোগ ছড়িয়ে পড়ে।

মাঙ্কিপক্সের কোনো নির্দিষ্ট ভ্যাকসিন নেই, তবে বেশ কয়েকটি দেশ বলেছে যে তারা গুটিবসন্তের ভ্যাকসিন মজুদ করছে, যা সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রায় ৮৫% কার্যকর। কারণ দুটি ভাইরাস প্রায় একই রকম।

আমেরিকার একদল বিশেষজ্ঞের মতে, স্মল পক্সের টিকার মাধ্যমেও এই রোগের সংক্রমণ ঠেকিয়ে রাখা সম্ভব।

রাশিয়ান সোনা আর কিনবে না যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে এবার রাশিয়া থেকে সোনা আমদানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও জাপান।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, এই পদক্ষেপ পুতিনের যুদ্ধ মেশিনের হৃদয়ে আঘাত করবে।

জার্মানিতে শুরু হওয়া জি৭ সম্মেলনে বিশ্বের শীর্ষ সাত ধনী দেশের নেতারা রোববার (২৬ জুন) এ সিদ্ধান্ত নেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, ২০২১ সালে রাশিয়া সোনা রফতানি করে দেড় হাজার কোটি ডলারের বেশি আয় করেছে।

জি৭ এর বাকি তিন দেশ জার্মানি, ফ্রান্স এবং ইতালি রাশিয়ার সোনা আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপের দলে যোগ দেবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এক টুইটে তিনি বলেন, একসঙ্গে, জি৭ দেশগুলো ঘোষণা করবে যে তারা আর রাশিয়ার সোনা আমদানি করবে না। যেসব খাত থেকে রাশিয়া কোটি কোটি ডলার আয় করে সোনা তার অন্যতম।

লন্ডন বিশ্বে অন্যতম বৃহৎ সোনার বাজারগুলোর একটি। যুক্তরাজ্য সরকার থেকে বলা হয়, রাশিয়ার কাছ থেকে সোনা আমদানি বন্ধের ‘সিদ্ধান্ত পুতিনের সক্ষমতা এবং তার যুদ্ধের জন্য অর্থের যোগাড় করার কাজে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে।

গত ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানোর পর থেকে পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার ধনী ব্যক্তি, ব্যাংক, ব্যবসা ও রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানকে লক্ষ্য করে বিভিন্ন ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাজ্য এবং অন্যান্য দেশগুলি এ পর্যন্ত এক হাজারেরও বেশি রাশিয়ান ব্যক্তি এবং ব্যবসাকে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

;

বেলারুশকে ‌‘ইস্কান্দার-এম’ পারমাণবিক সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র দেবে রাশিয়া



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বেলারুশকে ‌‘ইস্কান্দার-এম’ পারমাণবিক সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র দেবে রাশিয়া

বেলারুশকে ‌‘ইস্কান্দার-এম’ পারমাণবিক সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র দেবে রাশিয়া

  • Font increase
  • Font Decrease

মিত্রদেশ বেলারুশকে ইস্কান্দর-এম পারমাণবিক সক্ষম স্বল্প-পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র দেবে রাশিয়া। শনিবার (২৫ জুন) সেন্ট পিটার্সবার্গে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর মধ্যে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক থেকে এ সিদ্ধান্তের ঘোষণা আসে।ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

এ সময় প্রতিবেশী ইউক্রেন-রাশিয়া ইস্যুতে লিথুয়ানিয়া ও পোল্যান্ডের তীব্র সমলোচনা করেন লুকাশেঙ্কো। দেশ দু’টি আগ্রাসী ও ঘৃণ্য আচরণ করছে বলে উদ্বেগ জানান তিনি। ইউক্রেনের হয়ে যুদ্ধরত ভাড়াটে সেনাদের বেশিরভাগই পোল্যান্ডের বলেও দাবি করেন তিনি। রাশিয়া থেকে বেলারুশ হয়ে কালিনিনগ্রাদে ট্রানজিট বন্ধে বহু চেষ্টা করছে লিথুয়ানিয়া, করেন এমন অভিযোগও। সমানে সমান জবাব নিশ্চিতে পুতিনের কাছে সামরিক সহায়তা চান লুকাশেঙ্কো।

লুকাশেঙ্কো বলেন, লিথুয়ানিয়া ও পোল্যান্ডের উদ্দেশ্য সংঘাত তৈরি। এটা স্পষ্ট তাদের পেছনে কারও ইন্ধন আছে। একই আচরণ লিথুয়ানিয়ার।

পুতিন বলেছেন, ছয় ইউরোপীয় দেশে যুক্তরাষ্ট্রের বিপুল সংখ্যক বিধ্বংসী মারণাস্ত্র আছে। ২৫৭টি যুদ্ধবিমান আছে। ইউরোপের বাইরেও এমন চিত্র। পোল্যান্ড-লিথুয়ানিয়ার বিরুদ্ধে এখনই হয়তো সামরিক পদক্ষেপ দরকার নেই। তবে আমি একমত, দেশের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। তাই বেলারুশকে ইস্কান্দর এম ট্যাকটিক্যাল মিসাইল সিস্টেম দেয়া হবে।

;

নরওয়েতে বন্দুক হামলায় নিহত ২, আহত ২১



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নরওয়ের রাজধানী অসলোতে বন্দুক হামলায় দুই জন নিহত এবং আরও ২১ জন আহত হয়েছেন।

স্থানীয় সময় শনিবার (২৫ জুন) শহরের বেশ কয়েকটি বারের সামনে গিয়ে গুলি চালায় ওই বন্দুকধারী। খবর বিবিসির।

৪২ বছর বয়সী সন্দেহভাজন বন্দুকধারীকে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ।

টোর বারস্টাড নামে পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, লন্ডন পাব থেকে কাছের একটি ক্লাব ও একটি সড়কে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সময় শনিবার রাতে বন্দুক হামলার ওই ঘটনার কয়েক মিনিটের মাথায় সন্দেহভাজন হামলাকারীকে কাছাকাছি একটি সড়ক থেকে গ্রেফতার করা হয়।

অসলোর প্রাণকেন্দ্রে থাকা দ্য লন্ডন পাব নামের ওই ক্লাবটি সমকামীদের কাছে বেশ জনপ্রিয় নাইটক্লাব।

এ ঘটনাকে নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী জোনাস গাহর স্টোয় ভয়ানক ও মর্মান্তিক আক্রমণ বলে অভিহিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি বলেন, আমি একজন ব্যক্তিকে ব্যাগ নিয়ে আসতে দেখেছি এবং সে ব্যাগ থেকে বন্দুক বের করে গুলি করতে শুরু করে।

;

গর্ভপাত নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়কে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললেন বাইডেন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গর্ভপাতের জন্য মার্কিন নারীদের সাংবিধানিক অধিকার বাতিলের রায়কে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

গর্ভপাতকে বৈধতা দেওয়া প্রায় ৫০ বছরের পুরোনো আইনটি শুক্রবার (২৪ জুন) দেশটির সুপ্রিম কোর্ট বাতিল করে দেয়।

দেশবাসীর উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে বাইডেন বলেন, যেভাবে নারীদের সংবিধান প্রদত্ত অধিকারকে কেড়ে নেওয়া হল, তা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি বলেন, এই রায়ে আমেরিকার লাখ লাখ নারীর জীবন নাটকীয়ভাবে পরিবর্তন করবে এবং দেশটিতে এ নিয়ে উত্তেজনা বাড়বে।

শুক্রবার এক রায়ে আমেরিকার শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, গর্ভপাতের অধিকার সংবিধান দেবে না। তা দেওয়া হবে কি হবে না, তা স্থির করবে স্থানীয় প্রদেশের প্রশাসন। পাঁচ দশক আগে রো বনাম ওয়েড মামলার রায়কে বাতিল করে দিয়ে আদালত শুক্রবার এই রায় দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ওই মামলায় আদালত জানিয়েছিল, গর্ভপাত আমেরিকার নারীদের সংবিধান প্রদত্ত অধিকার। বাইডেন বলেন, ‘আদালত আমেরিকাবাসীর সংবিধানপ্রদত্ত মৌলিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। শীর্ষ আদালতের এই রায়ের ফলে দেশ ১৫০ বছর পিছিয়ে গেল।

সুপ্রিম কোর্টে এই রায়ের একটি খসড়া প্রস্তাব প্রকাশ্যে আসার পরেই দেশে জুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। প্রেসিডেন্ট বাইডেনও এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট এই ধরনের রায় দেওয়ায় শুধু গর্ভপাতের অধিকার নয়, সমকামীদের অধিকারও ক্ষুণ্ণ হবে।

;