পূর্ব আফ্রিকার সবচেয়ে বড় মসজিদ জিবুতিতে

ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জিবুতির খলিফা আব্দুল হামিদ মসজিদ, ছবি: সংগৃহীত

জিবুতির খলিফা আব্দুল হামিদ মসজিদ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বন্ধুত্বের নিদর্শনস্বরূপ ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের মসজিদ কূটনীতির অংশ হিসেবে জিবুতিতে দেশটির সবচেয়ে বড় মসজিদের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।

তুরস্কের অর্থায়নে নির্মিত ওই মসজিদটি শুধু জিবুতি নয় পূর্ব আফ্রিকার সবচেয়ে বড় মসজিদ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

চার বছর আগে শুরু হওয়া মসজিদটির কাজ শেষ হওয়ায় এ মাসেই তা খুলে দেওয়া হবে। উসমানীয় খিলাফতের অন্যতম খলিফা দ্বিতীয় আব্দুল হামিদের নামে নির্মিত মসজিদটিতে একসঙ্গে ৬ হাজার মুসল্লির নামাজ আদায় করতে পারবেন।

উদ্বোধনের পর এটি হবে পূর্ব আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় মসজিদ।

তুরস্কের দিয়েনেট ফাউন্ডেশনের (টিভিডি) সহযোগিতায় নির্মিত মসজিদটি উসমানীয় সাম্রাজ্যের স্থাপত্যের অনুকরণে নির্মিত হয়েছে। উসমানীয় স্থাপত্যরীতিতে অঙ্কিত দেয়াল এই মসজিদের অন্যতম আকর্ষণ। ২০১৫ সালে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোগানের জিবুতি সফরকালে এই মসজিদটি নির্মাণের জন্য আলোচনা হয়।

আলোচনায় জিবুতির প্রেসিডেন্ট ইসমাইল ওমর এরদোগানকে বলেন, তিনি উসমানীয় আদলে তার দেশে একটি মসজিদ নির্মাণের কথা বলেন, যেখানে আজানের মধুর ধ্বনি শোনা যাবে।

ওই আলোচনার পর জিবুতির রাজধানীতে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের পাশে সমুদ্র থেকে জেগে ওঠা বিশাল এলাকায় প্রায় ১৩ হাজার স্কয়ার মিটার জায়গায় নির্মিত হয়েছে দ্বিতীয় আব্দুল হামিদ মসজিদ।

৪৬ মিটার উচ্চতার দু’টি মিনার, ২৭ মিটার উচ্চতার একটি গম্বুজ এবং উসমানীয় স্থাপত্যরীতিতে অঙ্কিত দেয়াল এই মসজিদের অন্যতম আকর্ষণ। তুরস্কের ননপ্রফিটস পরিচালক মেহমুদ সাবাস পোলাত বলেন, খেলাফতে উসমানীর অবসানের পর এটিই আফ্রিকাতে প্রথম মসজিদ, যেটি খেলাফতে উসমানের কোনো খলিফাকে উৎসর্গ করা হলো।

খলিফা আব্দুল হামিদ ১৯১৮ সালে ইন্তেকাল করেন। তিনি অটোম্যানের ৩৪তম খলিফা ছিলেন।

তুরস্কের প্রেসিডেন্সি ফর রিলিজিয়াস অ্যাফেয়ার্সের (ডিআইবি) অধিভুক্ত টিডিভি। বিদেশের মাটিতে তুরস্কের মসজিদের নির্মাণ কর্মসূচি তত্ত্বাবধান করে আসছে এই সংস্থাটি। এই সংস্থার অধীনে নির্মিত মসজিদ মসজিদগুলোর নির্মাণ সরঞ্জাম তুরস্ক থেকে নেওয়া হয়।

জিবুতি উত্তর-পূর্ব আফ্রিকার একটি প্রজাতান্ত্রিক দেশ। এটি সামরিক কৌশলগত একটি অবস্থানে বাব এল মান্দেব প্রণালীর তীরে, লোহিত সাগর ও এডেন উপসাগরের সংযোগস্থলে অবস্থিত। দেশটির রাজধানী ও বৃহত্তম শহরের নামও জিবুতি। ছোট্ট এই দেশে ৯ লাখের মতো লোক বসবাস করেন। দেশটির শতকরা ৯৪ শতাংশ জনগণ মুসলমান।