সুস্থ থাকতে খালি পেটে পান করুন কুসুম গরম পানি



লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনা মহামারীর এই সময়ে সুস্থ থাকার জন্য বিশেজ্ঞরা বার বার গরম পানি পান করার পরামর্শ দিচ্ছেন। অনেকেই সকালে খালি পেটে পানি পান করেন। তবে তা যদি হয় কুসুম গরম পানি তাহলে সুস্থ-সবল থাকার পথে আরও একধাপ এগিয়ে থাকা সম্ভব।

ঠান্ডা লাগা, কফ জমে যাওয়া এবং গলা ব্যাথায় গরম পানি কার্যকর ভূমিকা রাখে। প্রতিদিন সকালে কুসুম গরম পানি পান করলে কফ তরল হয়ে বের হয়ে যাবে। গলা ব্যাথা ও নাসারন্দ্রের পথও পরিষ্কার রাখবে।

দীর্ঘদিন ধরে থাকা হজমের সমস্যা, অতিরিক্ত ওজন, কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো এমন অনেক স্বাস্থ্য সমস্যার সহজ সমাধান হলো কুসুম গরম পানি। নিয়মিত সকালে কয়েক গ্লাস কুসুম গরম পানি পান করলে এই সমস্ত সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

প্রতিদিন সকালে অন্তত হাফ লিটার কুসুম গরম পানি পান করলে শরীরের মেটাবলিসম বেড়ে যায় এবং শরীরের ওজন কমে। তবে গরম পানির সাথে লেবু মিশিয়ে পান করলে তা বডি ফ্যাট ভাঙতে সাহায্য করে।

সাধারণ তাপমাত্রার পানির তুলনায় কুসুম গরম পানি পান করলে শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায় ফলে ঘাম হয় বেশি। অতিরিক্ত ঘাম শরীরে জমে থাকা দূষিত পদার্থ বের শরীর দ্রুত ডিটক্স করে। শুধু তাই নয়, বাড়বে শরীরের আভ্যন্তরীন তাপমাত্রাও। শরীরের তাপমাত্রা বাড়লে শিরা, ধমনীতে রক্তচলাচলের গতিও স্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি পায়।

এছাড়াও অনিয়মিত পিরিয়ড ও ব্যাথা থেকে মুক্তি দেয় কুসুম গরম পানি। পিরিয়ডের সময় রক্ত জমাট বেঁধে বেরোতে না পারলে ব্যাথা হতে থাকে। নিয়মিত সকালে কুসুম গরম পানি পান করলে জমাট বাঁধা রক্ত ভেঙে গিয়ে ব্লাড ফ্লো সঠিকভাবে হয় ফলে ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।