সব টেস্ট হারের এক বছর!

এম. এম. কায়সার, স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
সাদা পোশাকে ব্যর্থ বাংলাদেশ ক্রিকেট দল

সাদা পোশাকে ব্যর্থ বাংলাদেশ ক্রিকেট দল

  • Font increase
  • Font Decrease

সবার আগে একটা সার্বিক হিসাব।

বছরজুড়ে বাংলাদেশ খেলে সবমিলিয়ে পাঁচটি টেস্ট ম্যাচ। হিসেবটা খুব সহজেই আপনি মনে রাখতে পারবেন। এই পাঁচ টেস্টের সবকটিতেই বাংলাদেশ হেরেছে। একেবারে ৫-০!

বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ড সফরে যায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সেখানে তিন টেস্ট হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সন্ত্রাসী হামলার কারণে ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট বাতিল হয়ে যাওয়ায় সিরিজটা দুই টেস্টেই সীমাবদ্ধ থাকে। শুরুর সেই দুই টেস্টে বাংলাদেশ মোটেও সুবিধা করতে পারেনি। সেডন পার্ক ও বেসিন রিভার্জ পার্কের দুই টেস্টেই বাংলাদেশ কোন প্রতিদ্বদ্বিতা গড়তে পারেনি। দুটো টেস্টই হারে বাংলাদেশ ইনিংসের ব্যবধানে।

 বিশ্বকাপের পরে সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামে বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের সেই টেস্ট ম্যাচে আফগানিস্তানের মতো টেস্টে নতুন দলের কাছে হেরে যায় বাংলাদেশ। বৃষ্টিতে শেষদিনের সিংহভাগ সময় নষ্ট হয়েছিল। ম্যাচ বাঁচাতে হলে শেষের এক ঘন্টা বাংলাদেশকে ব্যাট হাতে টিকে থাকতে পারলেই হত। কিন্তু রশিদ খানের স্পিনের কাছে শেষের এক ঘন্টায় উড়ে যায় সব প্রতিরোধ। বৃষ্টি বাধা টপকে আফগানিস্তান মেতে উঠে জয়ের উল্লাসে। নিজের মাঠে সব ধরনের প্রস্ততি নিয়েও বাংলাদেশ হেরে গেল আফগানিস্তানের কাছে এই টেস্টে।

অথচ এটি ছিল বাংলাদেশের ১১৫তম টেস্ট। আর আফগানিস্তানের খেলছিল সবে তাদের তৃতীয় টেস্ট।

বছরের শেষভাগে টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের সময়টা আরো ভয়াবহ কাটে। ভারতের মাটিতে নভেম্বরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশ বিন্দুমাত্র প্রতিযোগিতা গড়তে পারেনি। ইন্দোর এবং কলকাতায় দুটো টেস্ট ম্যাচ হারে বাংলাদেশ তিনদিনের মধ্যেই। দুটো হারই আবার ইনিংস ব্যবধানে। কলকাতায় প্রথমবারের মতো গোলাপি বলের টেস্ট ম্যাচে বাংলাদেশের পারফরমেন্সের রং লজ্জায় লাল!

পুরো বছরে এই পাঁচ টেস্টে বাংলাদেশের তিন ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি পান। মজার তথ্য হলো তামিমের ১২০, সৌম্য সরকারের ১৪৯ এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ১৪৬, এই তিন সেঞ্চুরিই এলো হ্যামিল্টন টেস্টে। সেটি ছিল বছরে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট। পরের চার টেস্টে বাংলাদেশের আর কেউ সেঞ্চুরি করতে পারেননি।

-হ্যাঁ, আফগানিস্তানের বিপক্ষেও সেঞ্চুরি করতে পারেননি বাংলাদেশের কোন ব্যাটসম্যান। অথচ ২২৪ রানে জয়ী সেই টেস্টে আফগানিস্তানের রহমত শাহ ঠিকই ১০২ রানের সেঞ্চুরির আনন্দে হাসেন।

২০১৯ সাল টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের জন্য দুঃস্মৃতির বছর!

টেস্ট ক্রিকেটে সার্বিক হিসেবটাও সুখকর কিছু নয়। ১১৭ টেস্টে বাংলাদেশ জিতেছে মাত্র ১৩টি। হেরেছে ৮৮ টি ম্যাচে। ড্র হয়েছে ১৬টি টেস্ট। নতুন বছরে কি টেস্টে আলোয় ফিরতে পারবে বাংলাদেশ?

আপনার মতামত লিখুন :