করোনাকে শিশুর সংকটে পরিণত হতে দিতে পারি না: রাবাব ফাতিমা



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের সভাপতি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা

জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের সভাপতি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা

  • Font increase
  • Font Decrease

শিশুদের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান এবং নিয়মিত কর্মসূচিসমূহ অব্যাহত রাখার ক্ষেত্রে করোনা মহামারির প্রভাব তীব্র উদ্বেগের একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা এই মহামারিকে শিশুদের সংকটে পরিণত হতে দিতে পারি না বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের সভাপতি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) নিউ ইয়র্কে ইউনিসেফের নির্বাহী বোর্ডের দ্বিতীয় নিয়মিত অধিবেশনের উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

করোনার কারণে বিশ্বব্যাপী শিশুরা যে ভয়াবহ পরিণতির মুখোমুখি হয়েছে তা তুলে ধরেন রাষ্ট্রদূত ফাতিমা। তিনি বলেন, এর প্রভাবে ৮০ মিলিয়নেরও বেশি শিশু চরম দারিদ্র্যের মুখোমুখি দাড়িয়েছে, ১.৬ বিলিয়ন শিশু স্কুলের বাইরে রয়েছে আর ১ বছরের কম বয়সী ৮০ মিলিয়ন শিশু জীবন রক্ষাকারী ভ্যাকসিন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কোভিডের ফলে ক্ষুধার্ত শিশুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৬ মিলিয়নে। বিশ্বজুড়ে ইউনিসেফের কর্মীরা অক্লান্ত পরিশ্রম ও নিবেদিত সেবা প্রদানের মাধ্যমে অস্বাভাবিক এই পরিস্থিতিতে যেভাবে সাড়া দিয়েছেন তার জন্য ধন্যবাদ জানান ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের সভাপতি।

নজীরবিহীন এই সংকট মোকাবিলায় কর্মসূচি গ্রহণের ক্ষেত্রে ইউনিসেফকে সৃজনশীল চিন্তাভাবনা ও উদ্ভাবনশীল সমাধানে উদ্বুদ্ধ করেন তিনি। পাশাপাশি জাতিসংঘের অন্যান্য সংস্থার সাথে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা অব্যাহত রাখার ওপর জোর দেন রাষ্ট্রদূত ফাতিমা।

চলতি অধিবেশনে ইউনিসেফের ‘কান্ট্রি প্রোগ্রাম ডকুমেন্ট’ সমূহের বিষয়বস্তু ‘শিক্ষা’ এর সাথে সামঞ্জস্য রেখে অনলাইন ও দূরশিক্ষণে প্রবেশাধিকারকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়ার আহ্বান জানান নির্বাহী বোর্ড সভাপতি। প্রতিটি স্কুলকে ইন্টারনেটের সাথে এবং প্রতিটি যুবককে তথ্যের সাথে সংযুক্ত করার প্রয়াসে গৃহীত ইউনিসেফ ও আইটিই’র যৌথ পদক্ষেপ ‘গিগা’ এর সফলতার কথা তুলে ধরে তিনি সকল অংশীদারকে মহৎ এই কাজে তাদের দক্ষতা ও আর্থিক বিনিয়োগের মাধ্যমে অবদান রাখার আহ্বান জানান।

মেয়েরা বিশেষ ঝুঁকিতে রয়েছে উল্লেখ করে মেয়েদের অগ্রগতি নিশ্চিত, মর্যাদা রক্ষা ও নিগ্রহ থেকে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে নারী শিক্ষায় আরও বেশি বিনিয়োগের আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত ফাতিমা। লিঙ্গ-ভিত্তিক সহিংসতা ও বৈষম্য এবং ঋতুজনিত স্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে সচেতনতা ও সুবিধার অভাবসহ এ জাতীয় নানাবিধ প্রতিবন্ধকতা দূর করে নারী ও মেয়েদের পূর্ণ সম্ভাবনা উন্মোচনের গুরুত্ব তুলে ধরেন তিনি। পানিতে ডুবে মৃত্যু প্রতিরোধের বিষয়টিতে তিনি বিশেষ গুরুত্ব দেন।

পানিতে ডুবে মৃত্যু প্রতিরোধের বিষয়টিতে তিনি বিশেষ গুরুত্ব দেন। বৈশ্বিকভাবে ১-১৪ বছর বয়সী শিশু-কিশোরের মৃত্যুর ক্ষেত্রে পানিতে ডুবে মৃত্যু প্রধান একটি কারণ এবং এ কারণে বিশ্বে প্রতিবছর ৩ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি শিশুর মৃত্যু হয় বলে উল্লেখ করেন রাষ্ট্রদূত ফাতিমা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ অন্যান্য সংস্থা এবং এনজিওসমূহের সঙ্গে যৌথভাবে দেশ পর্যায়ে ডুবে মৃত্যু রোধের পক্ষে জনসচেতনতা সৃষ্টির কাজ আরও জোরদার করতে ইউনিসেফের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

উদ্বোধনী অধিবেশনে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক হেনরিয়েটা এইচ ফোর। তিনি ইউনিসেফের বিস্তারিত কর্মকাণ্ড এবং প্রতিষ্ঠানটি যে সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছে তা তুলে ধরেন। অধিবেশনে সদস্য দেশ সমূহের স্থায়ী প্রতিনিধি ও প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন।

চট্টগ্রামের বিনিয়োগ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চায় বেলজিয়াম



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
চট্টগ্রামের বিনিয়োগ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চায় বেলজিয়াম

চট্টগ্রামের বিনিয়োগ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চায় বেলজিয়াম

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রামের বিনিয়োগ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চায় বেলজিয়াম। এক্ষেত্রে পূর্ণ সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র (প্রতিমন্ত্রী) বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) বেলজিয়ামের রাষ্ট্রদূত দিদিয়ের ভান্ডেরহেসেল্ট চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে মেয়রের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এ আশ্বাস দেন।

মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম ঐতিহাসিকভাবেই বন্দর ও বাণিজ্য নগরী হিসেবে বিখ্যাত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের এই বাণিজ্য সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে টানেল নির্মাণ থেকে বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন খাতে বিশাল বিনিয়োগ করেছেন। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের উন্নয়নে আড়াই হাজার কোটি টাকার প্রকল্প বরাদ্দ দিয়েছেন। এ প্রকল্পের মাধ্যমে চট্টগ্রামে উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে তোলা হচ্ছে যা চট্টগ্রামকে বিশ্বের বাণিজ্যিক হাবে পরিণত করবে। বেলজিয়াম চট্টগ্রামে বিনিয়োগ করে আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারে।এক্ষেত্রে আমি পূর্ণ সহযোগিতা করব।

বেলজিয়ামের রাষ্ট্রদূত বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের দ্বিতীয় বৃহৎ বন্দরের মালিক বেলজিয়াম। চট্টগ্রামের বন্দর ও যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং বিনিয়োগ সম্ভাবনা যাচাই করতে আমরা চট্টগ্রামে এসেছি এবং পর্যবেক্ষণ থেকে চট্টগ্রামে বিনিয়োগের ব্যাপারে আমরা অত্যন্ত ইতিবাচক।

'বর্তমানে বাংলাদেশে বেলজিয়ামের বেশ কিছু বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ব্যবসা পরিচালনা করছে। ভবিষ্যৎে বেলজিয়ামের আরো অনেক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে বিনিয়োগের সম্ভাবনা আছে। বিশেষ করে ভারী শিল্প এবং প্রযুক্তিখাতে বেলজিয়ামের অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলাম, সচিব খালেদ মাহমুদ,প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মনিরুল হুদা, জনসংযোগ ও প্রটোকল কর্মকর্তা আজিজ আহমদ, বেলজিয়ামের বাণিজ্য বিষয়ক কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বাংলাদেশে বেলজিয়ামের সাথে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য পরিচালনাকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ।

;

সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের প্রাইভেট প্র্যাকটিস শুরু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রোগীদের বৈকালিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সরকারি হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসকদের নির্ধারিত ডিউটি শেষে প্রাইভেট প্র্যাকটিস করার অনুমোদন দিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) প্রাথমিকভাবে পাইলটিং আকারে জেলা পর্যায়ে ১২টি এবং উপজেলা পর্যায়ে ৩৯টি হাসপাতালে এই সেবা কার্যক্রম চালু করা হয়েছে৷

এদিন দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের বৈকালিক চেম্বার’- কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসকরা বিকালে নিজ কর্মস্থলে বসে রোগী দেখবেন। আজ থেকে পাইলট প্রকল্প হিসেবে আমরা প্রাতিষ্ঠানিক প্রাকটিস শুরু করতে যাচ্ছি। এতে করে বিকাল তিনটা থেকে সাধারণ মানুষ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের কাছ থেকে সেবা নিতে পারবেন। দুপুর আড়াইটার পরে সরকারি চিকিৎসকদের দায়িত্ব শেষ হয়ে যায়। তারপর তিনটি থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত তারা চেম্বার প্র্যাকটিস করতে পারবেন। তারা নিজ হাসপাতালে বসে রোগী দেখবেন, রোগীদের সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষাও করতে পারবেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় এ কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে শুরু হবে। অল্প-সময়ের নোটিশে আজকে যেসব হাসপাতাল প্রস্তুত হতে পেরেছে, সেগুলোকে আজ যুক্ত করেছি। বিশেষ কোনো ক্রাইটারিয়ার মাধ্যমে না। প্রথমে আমরা ২০টি উপজেলার কথা বলেছিলাম, এখন তা ৩৯টি হয়েছে। কারণ এরা সবাই প্রস্তুত, আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

আমরা আশা করছি, এ বছরের মধ্যে বাংলাদেশের সব হাসপাতালেই এই প্রাতিষ্ঠানিক প্রাকটিস চালু করতে পারব বলে জানান জাহিদ মালেক।

পাইলটিং এর প্রথম ধাপে যেসব হাসপাতালে চালু হচ্ছে ইনস্টিটিউশনাল প্র্যাকটিস-

ঢাকা বিভাগ: মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল, রাজবাড়ি জেলা সদর হাসপাতাল, ঢাকার সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ঢাকার কেরাণীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং শরিয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

চট্টগ্রাম বিভাগ: ফেনী জেলা সদর হাসপাতাল এবং ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল এবং পেকুয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতাল, নোয়াখালী সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং বান্দরবানের লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

ময়মনসিংহ বিভাগ: ৪ জেলার মধ্যে জামালপুর জেলা সদর হাসপাতাল এবং সরিষাবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, শেরপুরের নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

খুলনা বিভাগ: ৪ জেলায় এই বৈকালিক সেবা চালু হচ্ছে। এগুলো হলো- ঝিনাইদহ জেলা সদর হাসপাতাল, যশোরের মনিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, মাগুরার শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং কুষ্টিয়ার কুমারখালি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

রাজশাহী বিভাগ: ৩ জেলায় বৈকালিক সেবা চালু হচ্ছে। এগুলো হলো- নওগাঁ জেলা সদর হাসপাতাল এবং সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং বড়াইগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং রাজশাহীর পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

রংপুর বিভাগ: ৫ জেলায় এই সেবা চালু হচ্ছে। এগুলো হলো- ঠাকুরগাঁও জেলা সদর হাসপাতাল, কুড়িগ্রাম জেলা সদর হাসপাতাল, দিনাজপুরের ফুলবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, রংপুরের বদরগঞ্জ এবং গংগাচরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং নীলফামারীর ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

বরিশাল বিভাগ: ৩ জেলায় এই সেবা চালু হচ্ছে। এগুলো হলো- ভোলা জেলা সদর হাসপাতাল এবং চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, বরগুনার আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং বরিশালের আগৈলঝড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

সিলেট বিভাগ: ৪ জেলায় এই সেবা চালু হচ্ছে। এগুলো হলো- সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল এবং ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সিলেটের গোপালগঞ্জ এবং বিশ্বনাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

;

হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়ল ৫ এপ্রিল পর্যন্ত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় আরেক দফা বাড়ানো হয়েছে। বর্ধিত সময় অনুযায়ী আগামী ৫ এপ্রিল পর্যন্ত নিবন্ধন করা যাবে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) নিবন্ধনের সময় বাড়িয়ে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এনিয়ে সপ্তমবারের মতো হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়ানো হলো।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মোট এক লাখ ১৮ হাজার ২৮৬ জন হজযাত্রী নিবন্ধিত হয়েছেন। এরমধ্যে সরকারিভাবে ৯ হাজার ৯৩৫ জন এবং বেসরকারিভাবে এক লাখ ৮ হাজার ৩৫১ জন নিবন্ধিত হয়েছেন। এখনও কোটা পূরণে ৮ হাজার ৯১২ জন হজযাত্রীর নিবন্ধন বাকি আছে।

হজ অনুবিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে কতজন হজ করতে যাবেন তা সৌদি সরকারকে জানানোর শেষ তারিখ আগামী ৯ মে।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, এবার হজের খরচ বেশি হওয়ায় শুরু থেকেই নিবন্ধনে ভাটা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কিন্তু তারা তো কাউকে ডেকে এনে নিবন্ধন করাতে পারেন না।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে চলতি বছরের ২৭ জুন (৯ জিলহ্জ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। সৌদি আরবের সঙ্গে হজচুক্তি অনুযায়ী, এবার বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ করতে পারবেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৫ হাজার জন এবং অবশিষ্ট এক লাখ ১২ হাজার ১৯৮ জন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ করার সুযোগ পাবেন।

;

৫ এপ্রিল থেকে মেট্রোরেল চলবে সকাল ৮টা-দুপুর ২টা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মেট্রোরেল আগামী ৫ এপ্রিল থেকে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত চলবে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন সিদ্দিক এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, মেট্রোরেল সেবা শুরুতে সকাল ৮টা থেকে দুপুর পর্যন্ত প্রতিদিন চার ঘণ্টার জন্য চালু ছিল এবং যাত্রীরা কীভাবে গণপরিবহনের নতুন পদ্ধতিতে অভ্যস্ত হয় তার ওপর নির্ভর করে সময় বাড়ানো হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, ভাল অভিজ্ঞতা পেয়ে ডিএমটিসিএল ৫ এপ্রিল থেকে বেলা সাড়ে ১২টার পরিবর্তে বেলা ২টা পর্যন্ত চালু রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এম এ এন সিদ্দিক বলেন, উত্তরা দক্ষিণ ও শেওড়াপাড়া স্টেশন ৩১ মার্চ থেকে জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে, কারণ ডিএমটিসিএল ওই দুটি স্টেশন চালুর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

উত্তরা দক্ষিণ ও শেওড়াপাড়া স্টেশন চালু হলে যাত্রীরা উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ৯টি স্টেশন ব্যবহার করে মেট্রোরেল যাতায়াত করতে পারবেন।

ডিএমটিসিএলের একজন কর্মকর্তা বলেন, আমরা দুটি দল গঠন করেছি যারা অপারেশনের জন্য উত্তরা দক্ষিণ এবং শেওড়াপাড়া স্টেশনের অপারেশন টিমের সাথে সমন্বয় করবে।

গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের যোগাযোগের ইতিহাসে একটি মাইলফলক স্থাপন করে বাংলাদেশে প্রথম এলিভেটেড মেট্রোরেল উদ্বোধন করেন।

তিনি শহরের দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেল প্রকল্পের ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইন-৬ এর ১১.৭৩ কিলোমিটার অংশের ফলক উন্মোচন করেন।

;