ট্রেনে শতভাগ যাত্রী পরিবহন শুরু, স্ট্যান্ডিং টিকিট বন্ধ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেনের শতভাগ টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। একইসঙ্গে প্রতিটি যাত্রীবাহী ট্রেনের এক আসন ফাঁকা রেখে যাত্রী বসার নিয়ম বদলে গেছে । সব আসনে শতভাগ যাত্রী পরিবহন করছে প্রতিটি ট্রেন। পাশাপাশি সিটে বসছে যাত্রীরা। তবে আন্তনগর সকল ট্রেনে স্ট্যান্ডিং টিকিট বিক্রি বন্ধ আছে বলে জানিয়েছেন রেল কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেই সারা দেশে শতভাগ যাত্রী নিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। অনলাইন এবং স্টেশনের কাউন্টারে প্রতিটি ট্রেনের শতভাগ আসনের টিকিট মিলছে। গতকাল রেলপথ মন্ত্রণালয় শতভাগ টিকিট বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

ট্রেনে শতভাগ যাত্রী নেওয়ার বিষয়ে কমলাপুর রেলস্টেশনের স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুদ সারোয়ার বার্তা২৪.কম-কে বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আগে ট্রেনে মোট আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী বহন করা হতো। কিন্তু আজ থেকে সকল ট্রেনে শতভাগ যাত্রী নিয়ে চলছে। তবে এ ক্ষেত্রে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য যাত্রীদের মধ্যে আমরা সচেতনতা বাড়ানোর চেষ্টা করে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, একইসঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মোবাইল অ্যাপ ও অনলাইনে ৫০ শতাংশ টিকিট এবং স্টেশনের কাউন্টার থেকে ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। সকাল ৬টা থেকে অনলাইনে এবং সকাল ৮টা থেকে কাউন্টারে টিকিট কাটতে পারবেন যাত্রীরা।

এদিকে, শতভাগ টিকিট দেওয়ার ফলে অনলাইন ও স্টেশনের কাউন্টারে পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। অনলাইন ও কাউন্টার থেকে যাত্রার ১০ দিন আগের অগ্রিম টিকিট কিনতে পারছেন যাত্রীরা।

করোনার কারণে গত ২৫ মার্চ সন্ধ্যা থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিলো। সরকারের নির্দেশনার পর গত ৩১ মে থেকে আন্তনগর ট্রেন চালু করা হয়।

উল্লেখ, এখন মোট ১০৯ জোড়া অর্থাৎ ২১৮টি যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল করছে বিভিন্ন রুটে। এদিকে সব মিলে সারা দেশে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল করে ৩৬২টি।

আপনার মতামত লিখুন :