নোয়াখালীতে ৫৪ দিন পর কবর থেকে কিশোরীর মরদেহ উত্তোলন



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
নোয়াখালীতে ৫৪ দিন পর কবর থেকে কিশোরীর লাশ উত্তোলন

নোয়াখালীতে ৫৪ দিন পর কবর থেকে কিশোরীর লাশ উত্তোলন

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর সুবর্ণচরের চরক্লার্ক ইউনিয়নের পশ্চিম উরিরচর গ্রাম থেকে রাবেয়া বেগম (১৮) নামের এক কিশোরীর লাশ দাফনের ৫৪ দিন পর উত্তোলন করেছে পুলিশ। রাবেয়াকে হত্যার অভিযোগো তার পরিবারের পক্ষ থেকে আদালতে মামলা দায়েরের পর মৃতদেহটি উত্তোলন করে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অশোক বিক্রম চাকমা ও চরজব্বার থানা পুলিশের উপস্থিতিতে লাশটি উত্তোলন করা হয়। এর আগে, গত ২৩ ডিসেম্বর নিহতের ভাই হাদিছ বাদ হয়ে প্রধান অভিযুক্ত আবদুল মন্নান সহ ৩জনকে আসামি করে আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বাড়িতে একা থাকার সুবাদে প্রতিবেশী আবদুল মন্নান বিভিন্ন ভাবে রাবেয়াকে উতক্ত্য করত। এরই মধ্যে সে রাবেয়ার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। পরবর্তীতে বিভিন্ন সময় পরিবারের লোকজনের অজান্তে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রাবেয়ার সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। শারীরিক সম্পর্কের পর আবদুল মন্নানকে বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করলে সে তালবাহানা শুরু করে এবং রাবেয়াকে বিয়ে করারা বিষয়ে অনীহা প্রকাশ করে। গত বছরের ২০২২ সালের ৩০ নভেম্বর বিকেলে আবদুল মান্নানের সহযোগী আবুল কালাম ও ইমাম উদ্দিন বাবর বাড়িতে গিয়ে রাবেয়াকে হুমকি ধমকি দেয় এবং আবদুল মান্নানকে বিয়ে করার বিষয়টি ভূলে যেতে বলে। এসব বিষয়ে কাউকে জানালে তাকে হত্যা করা হবে বলেও হুমকি দিয়ে আসে। এ ঘটনায় মানুষিকভাবে ভেঙে পড়ে ওইরাতে বসত ঘরে বিষ পানে আত্মহত্যা করে রাবেয়া। আসামিদের অব্যহত হুমকিতে এবং তাদের দারা প্রভাবিত হয়ে সে আত্মহত্যা করেছে অভিযোগ এনে এবং সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার আশায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে নোয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন।

চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেব প্রিয় দাশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আদালতের নির্দেশে কিশোরীর লাশ উত্তোলন করা হয়। পরে ময়না তদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

   

১ টাকায় মাছ-তেল ক্রয়ে খুশি সিলেটের নিম্ন আয়ের মানুষ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সিলেট
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির বাজারে সিলেটে মাত্র ১ টাকায় মাছ-তেল ক্রয় করে খুশি নিম্ন আয়ের দেড়শতাধিক মানুষ। ১০ টাকার একটি টোকেন দিয়ে এক থেকে দেড় হাজার টাকার নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী সংগ্রহ করেন সুবিধাবঞ্চিত ও নিম্ন আয়ের মানুষরা।

শনিবার (২ মার্চ) আসন্ন রমজানকে সামনে রেখে সিলেট নগরীর তেমুখীস্থ একটি কমিউনিটি সেন্টারে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়।

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রীর মধ্যে ছিলো চাল, ডাল, তেল, ছোলা, আটা, নুডলস, লবণ, চিনি, মাছ, মুরগি, খাতা-কলমসহ নির্দিষ্ট ১৫টি পণ্যের মধ্যে ১০টি পণ্য ক্রয় করেন সুবিধাবঞ্চিত লোকজন। এরমধ্যে প্রতিটি পণ্যের মূল ধরা হয়েছে ১টাকা। তাই ১০টাকায় ১০টি পণ্য দুস্থ ও অসহায় মানুষরা চাহিদা মতো বাজার করে মহাখুশি।

বর্তমান বাজারে যখন এক লিটার সয়াবিন তেলের দাম ১৮০ টাকা এখানে মাত্র ১ টাকায় তেলে বিক্রি করা হয়। এক ডজন ডিম, বড় একটি নুডলস পাওয়া যায় মাত্র ১ টাকা করে। এছাড়াও ২৫০ টাকার ব্রয়লার মুরগি এখানে পাওয়া যায় পাঁচ টাকায়। মূলত দুস্থদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্যে সারা বছর জুড়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে এই ধরনের বাজারের আয়োজন করা হয়। এবছর ২০ হাজার পরিবারের মধ্যে এসব পণ্যসামগ্রী ১০টাকার বিনিময়ে বিতরণ করা হবে।

বাজার করতে আসা রহিমা বেগম নামে একজন বলেন, ১০ টাকার বাজারে এসে খুব ভালো লাগছে। এত কম দাম জিনিস পাওয়ার কথা চিন্তা করতে পারি নাই। এই বাজারের ব্যবস্থা করায় সত্যি খুব খুশি হয়েছি। কেনাকাটা করে মন ভরে খেতে পারবো। এবারের রমজানে এই বাজার খুব কাজে দিব।

টুকেরবাজার এলাকার বৃদ্ধ মহিলা আমেনা খাতুন বলেন, পাইছিরে বাবা আল্লাহ তোমরারে হায়াত দেউক্কা।আল্লাহ গেছে দোয়া করি। ১০ টাকায় চাল, তেল, মাছ, ডিম, ছোলা কিনতে পেরে।’

এসময় তিনি অশ্রুশিক্ত হয়ে আল্লাহ কাছে দোয়া করেন এবং স্বেচ্ছাসেবকে জড়িয়ে ধরে দোয়া করেন।

আব্দুল হামিদ নামে আরেকজন বলেন, সামনে রমজান মাস। দ্রব্যমূল্য বেড়ে যাচ্ছে। যাদের সামর্থ্য আছে শুধু তারা বাজার করছে। আসলে খুব আনন্দিত আমরা। আল্লাহ কাছে দোয়া করবো।

এবিষয়ে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবক রানা আহমেদ বলেন, সিলেটে ১৬০টি পরিবার মাত্র ১০ টাকায় যে পণ্যগুলো কিনেছেন তার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকা। সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পণ্য বাছাই করে নিজের ক্রয় করার স্বাধীনতা তৈরি করতে এ ধরনের আয়োজন করা হয়েছে। আর তারা যেন কোনোভাবেই মনে না করেন যে এটি কোনও দান, এজন্য নামমাত্র মূল্য নেওয়া হয়েছে।

;

গাজীপুরে বিষাক্ত মদপানে ২ মাংস বিক্রেতার মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গাজীপুর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বিষাক্ত মদপানে দুই মাংস বিক্রেতার মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (১ মার্চ) দিবাগত রাত ১২টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

এর আগে, ২৯ ফেব্রুয়ারি রাতে ওই দুই মাংস বিক্রেতা চুলাই মদ পান করেন। ঘটনার একদিন পর তারা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসক তাদের পার্শ্ববর্তী টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কুমুদীনি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

নিহতরা হলেন, জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার বালিঘাটা গ্রামের আজিবর মিয়ার ছেলে হেলাল উদ্দিন (৪৫) ও দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলার শিমুলতলী গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে কাদেরুল (২৮)। তারা বর্তমানে কালিয়াকৈর পৌরসভার হরিণহাটি, সরকারবাড়ি এলাকায় দুলাল উদ্দিন সরকারের আবাসিক কলোনিতে ভাড়া থেকে স্থানীয় বাজারে মাংস বিক্রি করতেন।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ এফ এম নাসিম বলেন, চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

;

প্রধানমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ারদের দেশ গড়ার কাজে লাগাতে বলেছেন: নওফেল 



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা ২৪

ছবি: বার্তা ২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, যারা ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেছেন তাদেরকে দেশ গড়ার কাজে লাগাতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষার কাজে তাদেরকে নিয়োজিত হতে বলেছেন। রাষ্ট্রের প্রয়োজনে তাদের লব্ধ জ্ঞান এবং মেধা ব্যবহার করার জন্য বলেছেন তিনি।

শনিবার (২ মার্চ) রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি ) এর ২ দিনব্যাপী প্রতিনিধি সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠান তিনি এসব কথা বলেন।

মহিবুল হাসান বলেন, বেসরকারি বিদ্যালয় পর্যায়ে বর্তমানে নতুন কারিকুলামের সকলের জন্য গণিতের যে প্রচলন হয়েছে সেখানে আমাদের অনেক শিক্ষকের প্রয়োজন। শিক্ষকের সেই যোগ্যতার জায়গায় আমাদের যে এত ডিপ্লোমা পর্যায়ে পাশ করেছেন, আমি মনে করি বিদ্যালয় পর্যায়ে গণিত এবং বিজ্ঞান শেখানোর জন্য তারা সবাই যোগ্য। আমরা মনে করছি প্রায় ৬০ হাজারের মতো প্যাটার্ন ভুক্ত শিক্ষকের অভাব আছে। পাস করা ইঞ্জিনিয়ারদের আমরা যদি সেখানে নিয়োজিত করতে পারি তাহলে কিন্তু আমাদের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য বিশেষ এক সহায়ক হবে। সেটা আমাদের বিবেচনায় আছে।

আরেকটি বিষয়, আমাদের অধ্যক্ষ হিসেবে পদোন্নতির ক্ষেত্রে যে চ্যালেঞ্জগুলো আছে এবং ইনক্রিমেন্টের ক্ষেত্রে যে চ্যালেঞ্জগুলো আছে সেগুলো অবশ্যই আমাদের নিরসন করতে হবে। তবে আপনারা জানেন বর্তমানে বৈশিক অর্থনৈতিক কারণে আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ আছে। সেগুলো বিবেচনা করেই আমাদের এগোতে হবে। 

তিনি বলেন, ভালো খারাপ সব জায়গাতেই আছে। তাই কোন বিশেষ খাত সমালোচনার মুখে পরুক আমরা সেটা মনে করি না গ্রহণযোগ্য। তাই বেসরকারি পলিটেকনিক্যল হলেই যে খারাপ হবে এটা আমি মনে করি না। কারণ অনেক পলিটেকনিক্যাল কিন্তু দেখা যাচ্ছে সরকারি পলিটেকনিক্যাল যেগুলো ভালো করছে না তাদের থেকে ভালো করছে। তাই আমরা এক কাতারে সবাইকে ফেলবো না। এখন আমরা কিভাবে মান নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পর্যায়ে থেকে যথাযথভাবে করতে পারি সেটা আমাদের দায়িত্ব। আমাদের ব্যর্থতাকে আমরা সেক্টরের ব্যর্থতা বলতে চাই না।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক বিশাল অংশ কিন্তু এখন বেসরকারি খাত। তাদের চাহিদাটা কি এটা কিন্তু আমাদের ইনস্টিটিউশনকে অবশ্যই গণনার মধ্যে আনতে হবে। সারা বিশ্ব কিন্তু এখন লেবার মার্কেট। সারা বিশ্বই কর্ম জগৎ। কেন তোমরা ইঞ্জিনিয়াররা ভাষা শিখে দক্ষতা অর্জন করে সারা বিশ্বে ছরিয়ে পড়তে পারবে না। শুধু সরকারের দিকে তাকিয়ে থাকবো পদ সৃজন হবে, প্রযুক্তিভিত্তিক পদ সৃজন হবে এটা তো কোন সঠিক সমাধান নয়। টেকসই সমাধান নয়। আমার শিক্ষার্থীরা তাহলে এতদিন ধরে কি করবে? ভাষার উপর প্রশিক্ষণ দিন। আমি যাই কিছু জানি না কেন প্রকাশ করতে না পারলে আমার চাকরি সম্ভব নয়। আমি মনে করি যে বিজ্ঞান, গণিত এবং কম্পিউটার প্রযুক্তির ক্ষেত্রে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষকের যে স্বল্পতা সেটা আমার মনে হয় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার পাস করাদের দ্বারা এটা নিরসন করা সম্ভব। এই লক্ষ্যে আমরা একটা বিশেষ ব্যবস্থা নিব। এটা নিয়ে আমরা কাজ শুরু করছি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক। সভাপতিত্ব করেন আইডিইবির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি এ কে এম এ হামিদ।

;

ওপারে বিস্ফোরণের বিকট শব্দ আর কালো ধোঁয়ায় এপারে আতঙ্ক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কক্সবাজার
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তে নাফ নদীর ওপার থেকে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে আবারও তীব্র বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির শব্দ ভেসে আসছে। সেই সঙ্গে স্পষ্ট কালো ধোঁয়া দেখছেন সীমান্তের বাসিন্দারা।

শনিবার (২ মার্চ) সকাল ৬টা থেকে উপজেলার হোয়াইক্যংয়ের ও হ্নীলা ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী মিয়ানমার এলাকায় থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ শোনার কথা জানিয়েছেন সীমান্ত এলাকা বাসিন্দারা। এসময় মিয়ানমারের অভ্যন্তরে আগুনের কালো ধোঁয়াও দেখেছেন তারা।

নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষায় মিয়ানমার সরকারী বাহিনীর সঙ্গে আরাকান আর্মিদের সঙ্গে চলছে সংঘর্ষ। হোয়াইক্যং ও হ্নীলা সীমান্তের পূূর্বে মিয়ানমার কুমিরহালি, নাইচদং, কোয়াংচিগং, শিলখালী, নাফপুরা এই গ্রামগুলোতে চলছে সংঘর্ষ। টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং থেকে শাহপরীর দ্বীপ পর্যন্ত ৫৪ কিলোমিটার নাফনদীতে বিজিবি ও কোস্টগার্ডের সদস্যরা টহল বৃদ্ধি করেছে।

হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী বলেন, আজ সকাল থেকে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়। একই সাথে আগুনের কালো ধোঁয়াও দেখা যায়। মিয়ানমারে কয়েকটি এলাকায় হয়তো আগুন জ্বলছে। কালো ধোঁয়া মানে অশনিসংকেত। ২০১৭ সালেও কালো ধোঁয়া দেখা গিয়েছিল। এই সময় রোহিঙ্গাদের ঢল আসছিল। তারপরও আমরা রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সজাগ আছি।

হ্নীলা এলাকার বাসিন্দা তারেক মাহমুদ রনি বলেন, ২০১৭ সালের পর আবারও দাউদাউ আগুনে পুড়ছে মিয়ানমারের আরকান রাজ্য। কয়েকদিন ধরে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। সীমান্তের কাছাকাছি বাসিন্দারা অনেক আতঙ্কে আছেন।

হোয়াইক্ষং এলাকার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম বলেন, ভোর থেকে উনছিপ্রাং সীমান্তে ব্যাপক গোলাগুলি হচ্ছে। কালকেও বিমান থেকে হামলা হয়েছে। সীমান্তের বাসিন্দাদের নতুন করে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

হোয়াইক্যং কান্জর পাড়া দেলোয়ার হোসেন বলেন, হোয়াইক্যং উনচিপ্রাং পুলিশ ফাঁড়ির পূর্বে সীমান্তে মিয়ানমান ওপার থেকে শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ২০ মিনিটের পর থেকে ভয়ঙ্কর শব্দে কেঁপে উঠছে সীমান্ত এলাকা। সেটি থেমে থেমে ভোর ৫টা পর্যন্ত চলে।

এ বিষয়ে কোস্ট গার্ড চট্রগ্রাম পূর্বজোনের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট তাহসিন রহমান বলেন, মিয়ানমারে চলমান যুদ্ধের কারণে সীমান্তের নাফনদে আমাদের টহল চলমান রয়েছে। নতুন করে বাংলাদেশে কোন অনুপ্রবেশকারীকে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

;