মাতৃভাষা দিবসে শ্রদ্ধা জানিয়ে কৃষকের শিল্পকর্ম



ছাইদুর রহমান নাঈম, উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ)
ছবি: বার্তা ২৪

ছবি: বার্তা ২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

২১ শে ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কৃষক তার জমিকে বিভিন্ন শিল্পকর্ম দিয়ে সাজিয়েছেন ৷ দেশের প্রতি শহীদদের প্রতি সম্মান ও ভালোবাসা জানিয়ে শিল্পকর্ম এঁকেছেন নিজের জমিতে। পরম যত্নে এসব কাজ নিজের হাতে করেছেন কৃষক রুমান আলী।

দৃষ্টি নন্দিত কারুকার্য শোভিত সবুজ ফসলের মাঠ। যেখানে ফুটিয়ে তুলা হয়েছে দেশের বিভিন্ন চিত্র। যে মাটির ঘাসে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের রক্তে লাল হয়েছিল বাংলার জমিন। যে মাটিতে মিশে আছে শহীদের রক্ত। সেই মাটির ফসলের মাঠে কৃষক ফুটিয়ে তুলেছেন লাল সবুজের পতাকা ও শহীদ মিনার ৷ ভাষার মাসে উন্মুক্ত করে দিয়েছেন সবার জন্য।

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের গোবরিয়া-আবদুল্লাহপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ গ্রামে ফসলের মাঠে এমনি শিল্পকর্ম তৈরি করে তাক লাগিয়েছেন কৃষক রুমান আলী। শাকসবজি দিয়ে তৈরি করেছেন শহীদ মিনার, লাল সবুজের পতাকা, বাংলা লেখা সহ বিভিন্ন দৃশ্য।


জাতীয় দিবসগুলোতে তিনি তার জমিকে সাজান বিভিন্ন ভাবে ৷ বিভিন্ন স্থানের মানুষ আসেন দেখার জন্য। এই চিত্র দেখতে বিভিন্ন স্থান থেকে ছুটে আসছে মানুষ। ভাষার মাসে উন্মুক্ত থাকবে এই ফসলের মাঠ।

জানা যায়, কুলিয়ারচর উপজেলার গোবরিয়া আবদুল্লাহপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ গ্রামে ফসলের মাঠে কৃষক রুমান আলী তৈরি করেছেন শিল্পকর্ম। নিজের এক একর ১৪ শতাংশ জমিতে ঘাস এবং শাক সবজি দিয়ে সুনিপূণ কারুকার্য তৈরি করেছেন। মানুষজন তার জমিতে এসে ছবি তুলছেন। লাল শাক, ঘাস দিয়ে তৈরি হয়েছে শিল্পকর্মটি।

এ বিষয়ে কৃষক রুমান আলী বার্তা ২৪.কম-কে বলেন, দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকেই আমি এটি করেছি। এছাড়াও কৃষি কাজের প্রতি বর্তমান সময়ের তরুণদের আকৃষ্ট করাটাও লক্ষ্য ছিল। দেশকে ভালোবাসি। মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা শহীদদের জন্য আমি আমার এ কাজকে উৎসর্গ করলাম। 

   

নানীর সাথে নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে দুই ভাইয়ের মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, জামালপুর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

 

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় নানীর সাথে যমুনা নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে মিনহাজ উদ্দিন (১০) ও মিনাল মিয়া (৮) নামে দুই সহোদর ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার সাপধরী ইউনিয়নের দুর্গম চরশিশুয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তারা উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের জারুলতলা এলাকার আজাহার মিয়ার ছেলে। এর আগে ঈদের দুইদিন আগে বাবা-মার সাথে তারা নানা দুদু সরকারের বাড়িতে ঘুরতে আসে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাপধরী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ্ আলম মন্ডল।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ দুপুর ১টার দিকে বাড়ির পাশে নানীর সাথে যমুনা নদীতে মাছ ধরতে যায় ওই দুই শিশু। মাছ ধরার এক পর্যায়ে নদীর পানিতে ডুবে নিখোঁজ হয় তারা। অনেক খোঁজাখুজির এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর তাদের মরদেহ নদীতে ভেসে উঠে।

সাপধরী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ্ আলম মন্ডল বার্তা২৪.কম-কে জানান, তাদের নানা খুবই দরিদ্র। নদীতে মাছ ধরেই জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন। দুপুরে নানীর সাথে যমুনা নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

;

হাসপাতালে এক্স-রে রুম থেকে বিষধর সাপ উদ্ধার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
হাসপাতালে এক্স-রে রুম থেকে বিষধর সাপ উদ্ধার

হাসপাতালে এক্স-রে রুম থেকে বিষধর সাপ উদ্ধার

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে এক্স-রে রুম থেকে বিষধর শঙ্খিনী সাপ উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) রাতে উপজেলার কালাবিবির দীঘির মোড় এলাকায় অবস্থিত ওই হাসপাতালের এক্স-রে কক্ষ থেকে সাপটি উদ্ধার করে।

জানা যায়, হাসপাতালের এক্স-রে কক্ষটি ভবনের নিচতলায় অবস্থিত। শুক্রবার সন্ধ্যায় এক্স-রে করাতে গিয়ে একটি শঙ্খিনী সাপ দেখেন কর্মচারীরা। এতে তারা আতঙ্কিত হয়ে ছোটাছুটি করতে থাকেন। পরে খবর দেওয়া হলে স্নেক রেসকিউ টিম বাংলাদেশের সদস্যরা রাত সাড়ে নয়টার দিকে সাপটি উদ্ধার করেন।

সাপ উদ্ধারকারী দলের সদস্য মো. মেহরাজ হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ১০ মিনিটের মধ্যে ৪ ফুট লম্বা সাপটি উদ্ধার করা হয়। দেখলেই কেউ যাতে সাপ না মারে এজন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে।

 

;

রাজধানীসহ ৬ বিভাগে তাপপ্রবাহ, থাকবে আরও কিছুদিন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
রাজধানীসহ ৬ বিভাগে তাপপ্রবাহ, থাকবে আরও কিছুদিন

রাজধানীসহ ৬ বিভাগে তাপপ্রবাহ, থাকবে আরও কিছুদিন

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানী ঢাকাসহ, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপ প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। আগামী ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত এ তাপপ্রবাহ চলমান থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) আবহাওয়া অধিদপ্তরের এক পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংস্থাটি পূর্বাভাসে জানায়, আজ শনিবার সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আবহাওয়া সিনপটিক অবস্থায় বলা হয়েছে, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, তাপমাত্রা যদি ৩৬ থেকে ৩৭ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস হয়, তাকে মৃদু তাপপ্রবাহ বলে। ৩৮ থেকে ৩৯ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে মাঝারি তাপপ্রবাহ বলা হয়। তাপমাত্রা ৪০ থেকে ৪১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে তীব্র তাপপ্রবাহ বলা হয়। আর অতি তীব্র হয় ৪২ ডিগ্রি বা এর বেশি হলে।

শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় রাঙামাটিতে ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় রেকর্ড করা হয় ৩৬ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

;

পর্যটকের বেশে ইয়াবা কারবার, আটক ২



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
পর্যটকের বেশে ইয়াবা কারবার, আটক ২

পর্যটকের বেশে ইয়াবা কারবার, আটক ২

  • Font increase
  • Font Decrease

 

ঈদের ছুটি কাটাতে রাজধানীতে বেড়াতে আসার পথে ইয়াবা বহনের অভিযোগে দুইজনকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা মেট্রো: (দক্ষিণ)।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- চোকোথাইন তনচংগ্যা (৩৫) ও মংকেথাইন তনচংগ্যা (৩৫)। তাদের দুজনের বাড়ি কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায়।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিএনসির মেট্রো: দক্ষিণ কার্যালয়ের সূত্রাপুর সার্কেলের উপপরিদর্শক আব্দুল মতিন মিয়া।

তিনি বলেন, চলমান ঈদ-উল-ফিতরের ছুটিতে মাদক ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য রুখতে তিনটি ভিজিলেন্স ও টহল টিম গঠন করেছে ঢাকা মেট্রো দক্ষিণ। শনিবার ভোরে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার এর টোল প্লাজায় খাগড়াছড়ি থেকে ঢাকায় আসা শান্তি পরিবহনের দুটি বাসে তল্লাশি চালানো হয়। এসময় দুটি বাস থেকে পাঁচ হাজার পিস ইয়াবাসহ দুইজনকে আটক করা হয়।

প্রথমে তিন হাজার পিস ইয়াবাসহ চোকোথাইন তনচংগ্যা (৩৫) আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যমতে একই পরিবহনের আরেকটি বাসের যাত্রীবেশে আসা মংকেথাইন তনচংগ্যাকে (৩৫) দুই হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা জানায়, টেকনাফ থেকে ইয়াবা নিয়ে তারা গাজীপুরের জয়দেবপুর এলাকায় পৌঁছে দিতে যাচ্ছিল। প্রতি চালানে তারা বিশ হাজার টাকা করে পেত। ঈদের ছুটিতে ঢাকা শহরে ঘুরতে আসার পাশাপাশি নগদ অর্থের লোভে তারা ইয়াবা পাচারে জড়ায় বলে জানায়।

পরিচয় লুকাতে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে তারা কক্সবাজার থেকে প্রথমে বান্দরবান যায়। বান্দরবান থেকে নৌপথে রাঙামাটি পৌঁছায় এবং রাঙামাটি থেকে বাসে করে ফেনী আসে। পরে ফেনী থেকে বাস বদল করে খাগড়াছড়ির বাসে উঠে ঢাকায় আসে।

;