সিরাজগঞ্জ ইকোনমিক জোনের ব্রিজের গার্ডার ধস, শ্রমিক আটকা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম, সিরাজগঞ্জ
ছবি: বার্তা ২৪

ছবি: বার্তা ২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরাজগঞ্জে ইকোনমিক জোনের নির্মাণাধীন একটি ব্রিজের তিনটি গার্ডার ধসের ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নির্মাণাধীন ব্রিজটির ৩টি গার্ডার ধসে পরে। এঘটনায় একজন শ্রমিক এখনো নিচে চাপা পড়ে আছে। সেখানে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস।

আহত শ্রমিকরা হলেন, মো. হাফিজুল ইসলাম (২৪), জহুরুল ইসলাম (৬০) ও জুবায়ের (২২)।  

গার্ডার ধসের সময় ওই গার্ডারে ৩জন শ্রমিক কাজ করছিলেন বলে জানা গেছে। এরমধ্যে আহত একজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ও আরেকজনকে  প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আর জুবায়ের নামের একজন গার্ডারের নিচে চাপা পড়ে আছে। জুবায়ের সিরাজগঞ্জ সদরের মিরপুর মহল্লার মাহমুদ আলীর ছেলে।

সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর উপসহকারী পরিচালক আব্দুল মান্নান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গার্ডারে কাজ করা অবস্থায় অল্পের জন্য রক্ষা পাওয়া শ্রমিক হাফিজুল ইসলাম বলেন, আমরা দুই গার্ডারের মাঝখানে ক্রস গার্ডারের কাজ করছিলাম। হঠাৎ গার্ডারগুলো  ভেঙে পড়ে। এসময় আমি দৌড়ে সরে গেলেও বাকি দুজন সরতে পারেনি। পরে পাশে কাজ করা আরও কয়েকজন এগিয়ে এসে জহুরুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে জুবায়ের এমনভাবে চাপা পড়েছে যে তাকে আমরা খুঁজেও পাইনি। আমরা কোনকিছু বুঝে ওঠার আগেই এই ঘটনা ঘটে গেছে।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সেরাজুল ইসলাম বলেন, খবর পাওয়ার পরেই সেখানে পুলিশের একটি টিম পাঠানো হয়েছিল। আইনশৃঙ্খলার যেন অবনতি না ঘটে সেদিকে খেয়াল রাখা হচ্ছে। ধসে যাওয়া গার্ডারের নিচে একজন চাপা পড়ে আছেন। ফায়ার সার্ভিস তাকে উদ্ধারে কাজ করছেন। আমরা তাদেরকে সহযোগিতা করছি।

সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর উপসহকারী পরিচালক আব্দুল মান্নান বলেন, খবর পাওয়ার পরেই ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে কাজ শুরু করেছে। আমরা জানতে পেরেছি এখানে তিনজন শ্রমিক কাজ করছিলেন। এর মধ্যে একজনকে আগেই উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকি জন ঠিক আছে।

তিনি আরও বলেন, এখনও একজন শ্রমিক ধসে যাওয়া গার্ডারের নিচে চাপা পড়ে আছেন। তার শুধু হাত দেখা যাচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে তিনি মারা গেছেন। তাকে উদ্ধারে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। যেহেতু নিচে বালু তাই বালু সরিয়ে তাকে উদ্ধারে কাজ চলছে।

   

বরিশালে গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বরিশাল
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বরিশাল নগরীর নাজিরের পুল এলাকা থেকে সাড়ে তিন কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর ৩ টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

বরিশাল মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা শাখার উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদারের নির্দেশনায় পুলিশ পরিদর্শক কমলেশ চন্দ্র হালদার ও এসআই মো: সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে গোয়েন্দা শাখার একটি চৌকস টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানে ২ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- বরিশাল জেলার গৌরনদী মহিলাড়া বেজাহার ২ নং ওয়ার্ডের মৃত আলতাফ মাতুব্বরের ছেলে মো: ইমরান মাতুব্বর (৩০) ও নগরী কাউনিয়া থানাধীন ৭ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত শাহজাহান হাওলাদারের ছেলে মো: বাবুল হাওলাদার (৬২)।

বরিশাল মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা শাখার উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার জানান, আমাদের কাছে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২ জন ব্যক্তি ৩ কেজি ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নেওয়ার সময় তাদেরকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

;

কামরাঙ্গীরচর নাগরিক পরিষদের প্রতিনিধিদের সাথে মেয়র তাপসের মতবিনিময়



Sajid Sumon
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের দপ্তরে কামরাঙ্গীরচর নাগরিক পরিষদের সমন্বয়ক হাসান আহমেদ ও সদস্য সচিব এস এম মওলা রেজার নেতৃত্বে ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দলের সাথে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের এই মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) বিকালে বৈঠকে নাগরিক পরিষদ প্রতিনিধিবৃন্দ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের কাছে এক স্মারকলিপি হস্তান্তর করেন এবং পরিষদের সভাপতি একুশে পদক ও স্বাধীনতা পুরস্কার প্রাপ্ত কবি নির্মলেন্দু গুণের কামরাঙ্গীরচরস্থ সৃজন কুঠির (বাড়ি) পরিদর্শনের আমন্ত্রণ পৌঁছে দেন। জবাবে ঢাদসিক মেয়র সুবিধাজনক সময়ে কবির সৃজন কুঠির পরিদর্শনে যাবেন বলে জানান।

মতবিনিময়কালে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস প্রতিনিধি দলকে আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেল পুনরুদ্ধার ও নান্দনিক পরিবেশ সৃষ্টি, কামরুল ইসলাম সরণি এবং ইনার সার্কুলার রিং রোড প্রতিষ্ঠাসহ অন্যান্য উন্নয়ন পরিকল্পনা সম্পর্কে অবগত করেন। এছাড়াও বৈঠকে ঢাদসিক মেয়র এসব উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কামরাঙ্গীরচর হতে কাউকে উচ্ছেদ করা হবে না এবং কামরাঙ্গীরচরে স্থাপনা নির্মাণে কোনো অনুমোদিত প্রকল্প নেই বলে জানান।

বৈঠক শেষে নাগরিক পরিষদ প্রতিনিধিগণ মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপসকে ঢাদসিক'র উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে সন্তুষ্টি জানান এবং আশ্বস্ত হয়েছেন মর্মে অবগত করেন। এছাড়াও প্রতিনিধিবৃন্দ কামরাঙ্গীরচরের উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে স্বার্থান্বেষী মহলের সৃষ্ট বহুমাত্রিক গুজবের বিরুদ্ধে সজাগ থেকে তা প্রতিহত করবেন বলে ঢাদসিক মেয়রকে জানান।

;

কালুরঘাটে পানির রিজার্ভ ট্যাংকে পড়ে কর্মচারীর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম নগরীর কালুরঘাট শিল্প এলাকায় কাদের ট্রেডিং কোম্পানির লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠানের পানির রিজার্ভ ট্যাংকে পড়ে হাবিবুর রহমান (৫৫) নামে এক কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর দুইটার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ওই ট্যাংক থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশকে হস্তান্তর করে।

নিহত হাবিবুর রহমান বাড়ি পটুয়াখালী জেলার মির্জাপুর উপজেলার মাধবখালী গ্রামে।

বিয়ষটি বার্তা২৪.কমকে নিশ্চিত করেছেন কালুরঘাট ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়ন স্টেশন অফিসার মো. বাহার উদ্দিন।

তিনি বলেন, ভারি শিল্প এলাকার কাদের ট্রেডিং কোম্পানির লিমিটেডের কর্মচারীর হাবির প্রতিষ্ঠানটির আন্ডারগ্রাউন্ড রিজার্ভার হাউজ থেকে বালতি কেটে পানি নিয়ে গিয়ে নিচে পড়ে যায়। খবর পেয়ে আমরা ওই পানির ট্যাংক থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছি।

মো. বাহার উদ্দিন বলেন, লোকটি আজকে রোজা রেখেছিল। কাপড় ধোঁয়ার জন্য বালতি কেটে পানি তোলার সময় নিচে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলে আমরা কিছু ভেজা কাপড় পেয়েছি। ওই প্রতিষ্ঠানটি আগুন লাগার পর থেকে বন্ধ রয়েছে। মেরামতের কাজ চলছে।

এর আগে গেল বছরের ৩১ ডিসেম্বর দিবাগত রাত পৌনে ১১টার দিকে এ ওই প্রতিষ্ঠানটিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছিল। সেসময় ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের মোট নয়টি গাড়ি গিয়ে ভোর ৩টা ১৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

;

রাঙামাটিতে বজ্রপাতে নিহত ২



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, রাঙামাটি
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

রাঙামাটির দুই উপজেলার পৃথক স্থানে বজ্রাপাতে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। জেলার লংগদু উপজেলা ও বরকল উপজেলার ভূষণছড়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাতে ঝড়ো হাওয়াসহ প্রচণ্ড বজ্রপাত শুরু হলে রাঙামাটির লংগদু উপজেলাধীন ভাইবোনছড়াস্থ স্কুলটিলা নামক এলাকায় ঘুমন্ত অবস্থায় বজ্রাঘাতে আয়েশা আক্তার নামের ১১ বছর বয়সী কিশোরী ঘটনাস্থলেই মারা যায়। নিহত আয়েশা একই এলাকার শিহাব উদ্দিনের মেয়ে।

এ সময় ঘরে থাকা আরো ৪ সদস্য গুরুত্বর আহত হয়েছেন। আহতদের তাৎক্ষণিকভাবে লংগদু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা করা হয়।

নিহতের বাবা জানায়, তার একমাত্র বসবাসের স্থানটুকুও রাত্রে বজ্রপাতের আগুনে পুড়ে গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

অপরদিকে, মধ্যরাতের ঝড় বৃষ্টিতে মুহুর্মুহু বজ্রপাতের আঘাতে গুরুতর আহত হয়ে রাঙামাটির বরকলে জটিলা চাকমা (৫৮) নামের এক গৃহবধু নিহত হয়েছেন। বুধবার রাত আড়াইটার দিকে বরকল উপজেলাধীন ভূষণছড়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ভুধছড়া গ্রামে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতের স্বামী প্রমোদ কানু চাকমা জানান, রাতে হঠাৎ বজ্রপাত ও ঝড় বৃষ্টি শুরু হয়। এ সময় আমি খাটের ওপর ঘুমিয়ে পড়েছিলাম আর আমার স্ত্রী মেয়ে ও নাতনিসহ মাটিতে বিছানা করে ঘুমিয়ে পড়ে। এরপর হঠাৎ আচমকা বাড়ির ছাদে বজ্রপাত হলে আমার স্ত্রী অজ্ঞান হয়ে পড়ে। পরে তার গুরুতর অবস্থা দেখে নিকটস্থ বরকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় অলৌকিকভাবে নিহতের সাথে থাকা তার ছোট মেয়ে ও নাতনি প্রাণে বেঁচে যান।

 

;