ঈদে টানা ১০ দিন বন্ধ বুড়িমারী স্থলবন্দর



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, লালমনিরহাট
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ঈদুল ফিতরের সঙ্গে অন্য ছুটি যুক্ত হয়ে ঈদে টানা ১০ দিন বন্ধ থাকবে লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দর।

সোমবার (১ এপ্রিল) বন্দরের বোর্ডে ছুটির নোটিশ জারি করেছে কাস্টমস ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট (সিঅ্যান্ডএফ) অ্যাসোসিয়েশন।

বুড়িমারী স্থলবন্দর কাস্টমস ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট (সিঅ্যান্ডএফ) অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ছায়েদুজ্জামান ছায়েদ জানান, শবে কদর, ঈদুল ফিতর এবং বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ছুটির বিষয়ে জরুরি বৈঠক করেন ভারতের চ্যাংরাবান্ধা ও বাংলাদেশের বুড়িমারী স্থলবন্দর সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, আমদানি- রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশন, ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন ও ভুটান এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনসহ সংশ্লিষ্ট সব সংগঠন।

শনিবার (৬ এপ্রিল) হতে পরবর্তী সপ্তাহের রোববার (১৪ এপ্রিল) পর্যন্ত টানা ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) ঈদ পূর্ববর্তী শেষ কার্যদিবস ধার্য করে ছুটির নোটিশ উভয় দেশের কাস্টমস ও বন্দর কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট সব দফতরে চিঠি পাঠানো হয়েছে। ফলে শুক্রবার (৫ এপ্রিল) থেকে রোববার (১৪ এপ্রিল) পর্যন্ত টানা ১০ দিন বুড়িমারী স্থলবন্দরের সব ধরনের পণ্য আমদানি রফতানি বন্ধ থাকবে। সোমবার (১৫ এপ্রিল) যথারীতি বন্দরের সব ধরনের কার্যক্রম স্বাভাবিক হবে বলেও নোটিশে জানানো হয়।

বন্দরের আমদানি রফতানি কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও পাসপোর্টধারী যাত্রীদের যাতায়ত স্বাভাবিক থাকবে।

বুড়িমারী স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশ কর্মকর্তা উপ পরিদর্শক (এসআই) আহসান কবির পলাশ বার্তা ২৪ কমকে বলেন, আমদানি রফতানি বন্ধ থাকলেও পাসপোর্টধারী যাত্রীদের যাতায়াত স্বাভাবিক থাকবে। ঈদের ছুটিকে ঘিরে যাত্রীদের বাড়তি চাপ সামলাতেও আমরা প্রস্তুত। 

বুড়িমারী স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের সহকারী পরিচালক (ট্রাফিক) গিয়াস উদ্দিন বার্তা২৪.কমকে বলেন, উভয় দেশের ব্যবসায়ীরা ছুটির বিষয়ে নোটিশ পাঠিয়েছেন। আমদানি রফতানি বন্ধ থাকবে। সরকারি ছুটির দিন ব্যতীত সব দিন বন্দরে কার্যলয় খোলা থাকবে।

   

চট্টগ্রামে মাদক মামলায় যুবকের ৬ বছর কারাদণ্ড



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম নগরীর খুলশীর থানার একটি মাদক মামলায় মো. শুক্কর আলী প্রকাশ ইউসুফ (২৮) নামের এক যুবককে ৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) চট্টগ্রামের চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঁঞার আদালত এই রায় দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি নগরীর খুলশী থানার কুসুমবাগ আবাসিক এলাকার আল সিরাজ টাওয়ার থেকে মো. শুক্কর আলী প্রকাশ ইউসুফকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-৭ । এ সময় শুক্কর আলীর বাসার ফ্লোরের বিছানার নিচ থেকে ৪ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় র‌্যাব-৭ এর তৎকালীন এসসিপিও মো. হারুন অর রশীদ বাদী হয়ে খুলশী থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ৯ মার্চ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করলে আদালত একই বছরের ১৯ জুলাই অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী ওমর ফুয়াদ বলেন, সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে ইয়াবা মামলায় আসামি মো. শুক্কর আলী প্রকাশ ইউসুফের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৬ বছর সশ্রম কারাদণ্ড, ৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। রায়ের সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন, পরে সাজা পরোয়ানা মূলে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

;

কেএনএফ'র আরও ২ সদস্য কারাগারে



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, বান্দরবান
কেএনএফ'র আরও ২ সদস্য কারাগারে

কেএনএফ'র আরও ২ সদস্য কারাগারে

  • Font increase
  • Font Decrease

বান্দরবানে রুমা ও থানচিতে ব্যাংক ডাকাতি, মসজিদে হামলা, টাকা-অস্ত্র লুটের ঘটনায় কেএনএফ সন্দেহে যৌথ বাহিনীর অভিযানে আটক আরও ২ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে বান্দরবান চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মদ নাজমুল হোসাইনের আদেশের প্রেক্ষিতে কারাগারে পাঠানো হয় তাদের।

আসামিরা হলেন, বান্দরবান সদরের ৪নং সুয়ালক ইউপির ৬নং ওয়ার্ড ফারুক পাড়া এলাকার লাল টুয়ান বমের ছেলে টাইসন বম (২৩) ও সানকিম বমের ছেলে ভান খলিয়ান বম (৩৭)।

আদালতের জিআরও বিশ্বজিত সিংহ জানান, থানচিতে ব্যংক ডাকাতির ঘটনায় দায়ের করা মামলায় দুই জন আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। শুনানি শেষে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ পর্যন্ত মোট ৬৪ কেএনএফ সদস্য ও একজন চাঁদের গাড়ীর চালকসহ মোট ৬৫ জনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাদের মধ্যে ২০ জন নারী রয়েছেন।

বান্দরবানের রুমা ও থানচিতে প্রকাশ্যে ব্যাংক লুটের পর বিশেষ ক্ষমতা আইন ১৯৭৪ ও সন্ত্রাস বিরোধী আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় এ পর্যন্ত ৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

;

সিরাজগঞ্জে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালন



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালন

সিরাজগঞ্জে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালন

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরাজগঞ্জে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের পটভূমি ও তাৎপর্যের উপর ভিত্তি করে “মুজিবনগর দিবস" এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) জেলা প্রশাসন আয়োজনে সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের শহিদ এ.কে. শামসুদ্দিন সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মাদ মাহবুবুর রহমান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন-সিরাজগঞ্জ-২ (সিরাজগঞ্জ সদর ও কামারখন্দ) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ড. জান্নাত আরা হেনরী তালুকদার৷

এ সময় তিনি বলেন, বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে সরকারের অগ্রগণ্য অবদান রয়েছে। মুক্তিযুদ্ধকালে প্রশাসনিক কাঠামো গড়ে তোলা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত সৃষ্টিতে বহিঃবিশ্বে যোগাযোগ স্থাপন ও যুদ্ধ পরিচালনার ক্ষেত্রে "মুজিব নগর সরকার" গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রত্যক্ষ নেতৃত্বেই বাঙালির স্বাধীনতার সংগ্রাম শুরু হয়। আর এরই ধারাবাহিকতায় গঠিত হয় মুজিবনগর সরকার ১৯৭১ সালের ১৭ মার্চ এই দিনেই শপথ গ্রহণ করেন।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশনা অনুযায়ী ও বঙ্গবন্ধুর পক্ষে তারা মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা করেন। আমাদের নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে হবে এবং তাদেরকে প্রকৃত ইতিহাস জানাতে হবে। বাঙালি জাতির প্রকৃত ইতিহাস জানলে আজকের শিশুরা দেশ প্রেমিক হয়ে উঠবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া, সিরাজগঞ্জ স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক (উপসচিব) মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) গণপতি রায়, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট কে. এম. হোসেন আলী হাসান, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. আব্দুস সামাদ তালুকদার, সিরাজগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রির লিমিটেডের প্রেসিডেন্ট মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবু ইউসুফ সূর্য, মুক্তিযোদ্ধা ইসহাক আলী, মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল মতিন মুক্তা, মুক্তিযোদ্ধা ফজলার রহমান ফজলু, মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম শফি, মুক্তিযোদ্ধা সোহরাব আলী প্রমুখ।

এসময়ে অনুষ্ঠানে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, মুক্তিযোদ্ধাগণ, আওয়ামী লীগ ও তার বিভিন্ন অঙ্গসংগঠন, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, সুধীজন, গুণীজন এবং প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

;

মকস বিলে ধান কাটা নিয়ে সংশয়, ফসল রক্ষায় খালে বাঁধ



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গাজীপুর
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

হঠাৎ তুরাগ নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে চলতি মৌসুমে বোরো ধান কাটা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বৃহত্তম মকস বিলে। আধাপাকা ও পাকা ধান রক্ষায় দিশেহারা হয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা খালে বাধ দিয়েছেন। তবে বৃষ্টি ও বিভিন্ন স্থান থেকে শিল্প কারখানার অপরিশোধিত পানি জমে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান স্থানীয় বহু কৃষক।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) সরেজমিনে দেখা যায়, জেলার কালিয়াকৈর উপজেলার মৌচাক ও মধ্যপাড়া ইউনিয়নে অবস্থিত বৃহত্তম মকস বিলে কয়েক হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। ইতিমধ্যে ধান কাটা শুরু হয়েছে। পুরো বিলে পাকা আধা পাকা ধানের ব্যাপক ফলনে কৃষকের মুখে খুশির হাসি থাকলেও তা যেন বিষাদে রুপ নিয়েছে। হঠাৎ করে তুরাগ নদীতে জোয়ারের পানি বৃদ্ধির ফলে ফসলে ভরা বিলে পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে।

বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নজরে আসলে খালে বাধ দিয়ে পানি প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে। তবে মকস বিলের বিভিন্ন অংশ দিয়ে শিল্প কারখানার অপরিশোধিত পানি জমাটসহ ভারি বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে ব্যাপাক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।

কৃষক সোহরাব মিয়া বার্তা২৪.কমকে বলেন, সারা বছরের কষ্টের ফসল যদি পানিতে ডুবে যায় তাহলে অনেক কৃষকের স্বপ্ন নষ্ট হয়ে যাবে। অনেক পরিবারের বছরের খাবারের ধান গোলায় উঠবে না।

মোহাম্মদ আলী নামে এক কৃষক বলেন, কতো খরচ করে, কষ্ট করে ধান চাষ করছি। এখন যদি ধান কেটে না আনতে পারি তাহলে সব আশা ভরসা শেষ।

এ ব্যাপারে মৌচাক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব লোকমান হোসেন বলেন, মকস বিলে প্রচুর ধান হয়। শত শত কৃষক পরিবাব এই বিলে চাষাবাদ করেন। তাদের বোরো ধান রক্ষায় এর মধ্যে খালে বাধ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ধান রক্ষায় নানা পদক্ষেপ নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

;