গ্যাস পাইপের পিলার ভেঙে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, লালমনিরহাট
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সেচ পাম্পের পুরনো গ্যাস পাইপের পিলার ভেঙে আল আমিন (১৫) নামে এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় সারপুকুর ইউনিয়নের রইসবাগ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মৃত স্কুল ছাত্র আল আমিন একই এলাকার আব্দুল কাদের জিলানীর ছেলে এবং স্থানীয় রইসবাগ হরিদাস উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার রইসবাগ এলাকায় জমিতে সেচ দিতে বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ একটি সেচ পাম্প গড়ে তুলে। যার দেখাশোনা করতেন স্থানীয় রজনি সরকারের ছেলে পুষ্প চন্দ্র। সেই সেচের আওতায় স্থানীয়দের মত বোরো চাষাবাদ করেছেন আল আমিনের বাবা আব্দুল কাদের জিলানী।

মঙ্গলবার দুপুরে নিজেদের বোরো ক্ষেতে কাজ শেষে বরেন্দ্রের ওই সেচ পাম্পের পাশে পানি পান করতে যায় আল আমিন। এ সময় ওই পাম্পের পুরনো একটি গ্যাস পাইপের পিলার ভেঙে তার শরীরে পড়লে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা পিলারে চাপা তার মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় মৃতের বাবা আব্দুল কাদের জিলানী আদিতমারী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

আব্দুল কাদের জিলানী বলেন, তাদের পাম্পের পিলার দীর্ঘ দিন ধরে ভাঙ্গা ছিলো। তারা জেনেও তা সংস্কার করেনি। তাদের ভুলে আমি আমার একমাত্র ছেলেকে হারালাম। আমি এর বিচার চাই।

আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ উন নবী বার্তা২৪.কমকে বলেন, বরেন্দ্রের সেচ পাম্পের পুরনো গ্যাস পাইপ ভেঙে পড়ে আল আমিন নামে এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

   

মারামারি-চাঁদাবাজি: চট্টগ্রাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম ব্যুরো
মারামারি-চাঁদাবাজি: চট্টগ্রাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত

মারামারি-চাঁদাবাজি: চট্টগ্রাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত

  • Font increase
  • Font Decrease

চাঁদাবাজির অভিযোগ তুলে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহ’ ঘোষণা ও আধিপত্য নিয়ে মারামারির পর চট্টগ্রাম কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে।

শনিবার (১৮) রাতে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু ও সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীরের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে কমিটি বিলুপ্তের বিষয়টি জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ‘চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, সাংগঠনিক অনিয়ম এবং বিশৃঙ্খলার কারণে বিগত ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সালে মাহমুদুল করিমকে সভাপতি এবং সুভাষ মল্লিক সবুজকে সাধারণ সম্পাদক করে ঘোষিত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, চট্টগ্রাম কলেজ শাখা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হল।’

বেশ কিছুদিন ধরে চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে অস্থিরতা চলছিল। এক পক্ষের তোপের মুখে পড়ে কয়েক মাস আগেই ক্যাম্পাস থেকে বিতাড়িত হন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিম। তার এক সময়ের অনুসারীরা শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি মনিরুল ইসলামের নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে নতুন করে সংঘবদ্ধ হয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছিলেন। তবে মনিরের সঙ্গে মিলে রাজনীতি করতে অস্বীকৃতি জানান সাধারণ সম্পাদক সুভাষ মল্লিক সবুজ। এই নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকবার মারামারির পর মনিরের অনুসারীরা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দুজনকেই ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন। এই সময়ে ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিভিন্ন কুর্কীতির ভিডিও ফাঁস হয়। বিশেষ করে চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় এক তরুণকে স্ত্রীর সামনে মারধর, কলেজের প্রধান সহকারীকে থাপ্পড় দেওয়ার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক সমালোচনা হয়। এমন উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যেই কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্তের ঘোষণা আসল।

কমিটি বিলুপ্ত করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর। তিনি বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘চট্টগ্রাম কলেজে সাম্প্রতিককালে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া এই কমিটির মেয়াদও ছিল না। তাদের এমন কর্মকাণ্ডের কারণে সংগঠনের ইমেজ নষ্ট হচ্ছিল। সবকিছু বিবেচনা করে কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এখন নতুন কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হবে।’

;

কিরগিজস্তানে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ঘরে থাকার পরামর্শ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কিরগিজস্তানে বিদেশি শিক্ষার্থীদের হোস্টেলে হামলার ঘটনায় দেশটিতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

শনিবার (১৮ মে) রাতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এ পরামর্শ দেওয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, উজবেকিস্তানে বাংলাদেশের দূতাবাস কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের সঙ্গে একযোগে কাজ করে। সেখান থেকে বিশকেকের সহিংসতার ঘটনায় বর্তমানে কিরগিস্তানে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গেও দূতাবাস যোগাযোগ করছে। কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের প্রাসঙ্গিক কর্তৃপক্ষের প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, পরিস্থিতি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

শিক্ষার্থীদের পরামর্শ দিয়ে বলা হয়, শিক্ষার্থীদের এই মুহূর্তের জন্য বাড়ির ভেতরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে এবং এ বিষয়ে যেকোনো সমস্যায় ২৪ ঘণ্টা উজবেকিস্তানে বাংলাদেশ দূতাবাসের মিনিস্টার মো. নাজমুল আলমের সঙ্গে (+998930009780) যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হলো।

জানা গেছে, গত ১৩ মে একদল মিশরীয় শিক্ষার্থীর সঙ্গে কিরগিজ শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। তবে কী নিয়ে তাদের মধ্যে এই বিরোধ বেঁধেছিল তা নিশ্চিত নয়। তবে ওই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার রাতে কিরগিজ রাজধানীতে বেশকিছু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেল ও বেসরকারি আবাসনে হামলা চালায় স্থানীয়রা। এসব হোস্টেল ও ভবনে মূলত বিদেশি শিক্ষার্থীরা বসবাস করেন।

;

গাইবান্ধায় পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গাইবান্ধা
গাইবান্ধায় পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

গাইবান্ধায় পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

  • Font increase
  • Font Decrease

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পুকুরে পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৮ মে) বিকেলে উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের বলরাম গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ছয় বছর বয়সী শিশু আব্দুল্লাহ লাবিব আল নাহিদ ওই গ্রামের মৃত ওসমান গনির ছেলে।

মৃত্যুর বিষয়টি রাত ৯টার দিকে মোবাইল ফোনে বার্তা২৪.কমকে নিশ্চিত করেছেন সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুব আলম।

এসময় পরিবারের বরাতে তিনি জানান, আজ শনিবার বিকেলের দিকে শিশু নাহিদকে না পেয়ে খুঁজতে থাকে পরিবারের লোকজন। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে ওই এলাকার এক প্রতিবেশী শিশু নাহিদকে পুকুরের পানিতে ভাসতে দেখে এবং চিৎকার করতে থাকেন।

পরে স্বজনরা শিশু নাহিদকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

;

বগুড়ার কোল্ড স্টোরেজে লক্ষাধিক ডিম মজুদ, দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, বগুড়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

অবৈধভাবে এক লাখেরও বেশি ডিম মজুদ রাখার দায়ে বগুড়ার সাথী হিমাগার ইউনিট-২ নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে সদর উপজেলা প্রশাসন। সেইসঙ্গে ডিমগুলো দুই দিনের মধ্যে বিক্রির নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

শনিবার (১৮ মে) বিকেল ৪টায় বগুড়া সদর উপজেলার নুনগোলা ইউনিয়নের ঘোরাধাপ এলাকার সাথী হিমাগার ইউনিট-২ এ অভিযান পরিচালনা করেন বগুড়া সদর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) রাকিবুল হাসান।

এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন মাঠ ও বাজার পরিদর্শক মোঃ আবু তাহেরসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

এদিকে বেলা ১১টায় বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার ফাতেমা সাইদুর হিমাগারে অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে ৩০ হাজার ডিম মজুদ রাখার দায়ে ডিম ব্যবসায়ী হাসেন আলীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শাজাহানপুর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) জান্নাতুল নাইম এই অভিযান পরিচালনা করে।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তর বগুড়ার মাঠ ও বাজার পরিদর্শক মোঃ আবু তাহের বলেন, দুইটি কোল্ড স্টোরেজে যারা ডিম মজুদ করে রেখে ছিলো তারা প্রত্যেকেই অতি মুনাফার লোভে এটা করেছিলো। মজুদের কারণে ডিমের কৃত্রিম সংকট তৈরি হয়েছে। আমাদের এরকম অভিযান প্রতিদিন চলবে।

বগুড়া সদর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) রাকিবুল হাসান বলেন, গোপন সংবাদে আমরা প্রতিষ্ঠানটিতে অভিযান পরিচালনা করি। সেখানে অবৈধ মজুদ ১ লাখ ৮ হাজার ৬১০ পিস ডিম পাওয়া যায়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে প্রতিষ্ঠানটিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া কয়েকজন ডিম ব্যবসায়ীকে ডেকে সাথে সাথে ৪০ হাজার ডিম বিক্রি করা হয়েছে। বাকী ডিমগুলো আজ এবং আগামীকালের মধ্যে বিক্রির নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

;